Banglar Unnoyon :: বাংলারউন্নয়ন.নেট

৪১ হলে চলবে পাঠান: চলচ্চিত্র শিল্পের ৫২ বছরে নতুন সমীকরণ

বিনোদন ডেস্ক

বাংলারউন্নয়ন.নেট কম

প্রকাশিত : ০৭:৩৫ পিএম, ১০ মে ২০২৩ বুধবার

হলিউডের ছবি বাংলাদেশে মুক্তির পেলেও ভারতীয় হিন্দি ছবি মুক্তিতে ছিল আপত্তি। তাই দেশ স্বাধীন হওয়ার পর গত ৫২ বছরে বাংলাদেশে মাত্র তিনটি হিন্দি ছবি মুক্তি পেয়েছে। সেগুলো ছিল সালমান খানের ‘ওয়ান্টেড’, শাহরুখ খানের ‘মাই ন্যাম ইজ খান’ ও আমির খানের ‘থ্রি ইডিয়টস’। এই তিনটি ছবিও নানা বাধা-বিপত্তি ও  মামলা-মুকাদ্দমার মুখেই মুক্তি দিতে হয়েছে। 

৫২ বছরের এই ইতিহাসে নতুন সমীকরণ নিয়ে দেশের হলে মুক্তি পাচ্ছে হিন্দি ছবি ‘পাঠান’। সরকারের পূর্ণাঙ্গ নিয়মনীতি মেনেই বাংলাদেশে আসছেন শাহরুখ। বর্তমানে বাংলাদেশের সিনেমা সম্পর্কিত ১৯টি সংগঠন বছরে ১০টি করে বলিউড সিনেমা বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে প্রদর্শনের ব্যাপারে একমত হয়েছে। সাফটা চুক্তির আওতায় গত ১১ এপ্রিল পাঁচটি শর্ত মেনে দুই বছরের জন্য ১৮টি হিন্দি সিনেমা আমদানির অনুমতি দিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। তারই প্রেক্ষিতেই প্রথম হিন্দি সিনেমা হিসাবে বাংলাদেশে মিুক্তি পাচ্ছে ‘পাঠান’।

এর আগে দেশের হলে হিন্দি ছবি প্রদর্শনের বিরুদ্ধে তীব্র আন্দোলন সৃষ্টি হয়। সে সময় দাবি ছিল, হিন্দি ছবি দেশের হলে প্রদর্শন করা হলে দেশের সিনেমা ইন্ডাষ্ট্রি ধ্বংস হয়ে যাবে। দেশের বড় বড় পরিচালক ও শীর্ষ তারকারা সে আন্দোলনের নেতৃত্বে ছিলেন। ফলে বন্ধ থাকে হিন্দি ছবি আমদানি। পরে ভারত-বাংলাদেশ যৌথ প্রযোজনা ছবি নির্মাণ শুরু হলেও তার বিরুদ্ধেও দাঁড়িয়ে যায় একটি দল। ফলে কঠিন নিয়মের মারপ্যাচে বন্ধ হয়ে যায় যৌথ প্রযোজনার ছবি নির্মাণও। 

এই পরিপ্রেক্ষিতে বেশ ক’ বছর ধরে দেশের ছবি দিয়ে চাহিদা পূরণ করতে না পারায় সিনেমা হল মালিকদের দীর্ঘদিনের চাওয়া ছিল এদেশের হিন্দি ছবি আসুক। ‘পাঠান’র মুক্তির মাধ্যমে সেই চাওয়াই পূরণ হচ্ছে যেনো। দর্শকদের হলমুখী করতে ইতোমধ্যে মাল্টিপ্লেক্সের পাশাপাশি সিঙ্গেল স্ক্রিনগুলোতেও ‘পাঠান’ মুক্তি পাচ্ছে। 

দেশের হলে সিনেমাটি আমদানি করছেন নির্মাতা অনন্য মামুন।  মঙ্গলবার সমকালকে মামুন জানালেন, আগামী ১২ মে  সিনেপ্লেক্সসহ বাংলাদেশের ৪১টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে পাঠান। ইতোধ্যে সিনেপ্লেক্সগুলোতে অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। সেখানে দর্শকদের সাড়ায় আমি অভিভুত। মুক্তির এতোদিন পর বাংলাদেশের দর্শকদের মাঝে পাঠান এতোটা সাড়া ফেলবে ভাবনায় ছিল না।

মামুন আরও বলেন, নিজস্ব সার্ভারের আওতায় ‘পাঠান’ মুক্তি দেওয়া হচ্ছে। ই-টিকেটিং ও বক্স অফিস। এতে সহজেই বোঝা যাবে ‘পাঠান’ কত টাকা আয় করবে। ছবি চালানোর জন্য হল মালিকদের থেকে অনেক চাপ পাচ্ছি। কিন্তু সার্ভার সংখ্যা কম বিধায়  ৪১টি হলের বাইরে দিতে পারছি না।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের মত বাংলাদেশে শাহরুখ খানকে নিয়ে উন্মাদনা কম নয়। কোটি কোটি ভক্ত দেশজুড়েই ছড়িয়ে আছে শাহরু খানের। সেই ভক্তরা এবার নিজ দেশের সিনেমা হলে বসেই প্রিয় নায়কের ছবি দেখার সুযোগ পাচ্ছেন। 

গত ২৫শে জানুয়ারি ভারতসহ বিশ্বের একাধিক দেশে মুক্তি পেয়েছিল 'পাঠান'। এসেছে ওটিটিতেও। সিনেমাটির আন্তর্জাতিক ডিস্ট্রিবিউশনের সহ-সভাপতি নেলসন ডি'সুজাও ভাতীয় গণমাধ্যমে বাংলাদেশে মুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করে  আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে বলেন, "আমরা দীর্ঘদিন ধরে শুনে এসেছি, বাংলাদেশে শাহরুখ খানের অগণিত অনুরাগী রয়েছে। বাংলাদেশে মুক্তির জন্য যশরাজ ফিল্মসের এই স্পাই ইউনিভার্স সিনেমাটি একদম যথাযথ। এ সিনেমা ভারতীয় সংস্কৃতি ও সিনেমার যোগ্য প্রতিনিধিত্ব করবে।

সিদ্ধার্থ আনন্দ পরিচালিত সিনেমাটি দিয়ে ৪ বছর পর বড় পর্দায় ফিরেছেন শাহরুখ খান। এতে আরও অভিনয় করেছেন দীপিকা পাড়ুকোন ও জন আব্রাহাম। ক্যামিও হিসেবে আছেন সালমান খান।