রোববার   ১৪ আগস্ট ২০২২

সর্বশেষ:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে ইসি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ: নূরুল হুদা বারবার আসতে পারব না, যত খুশি সাজা দিন: খালেদা জিয়া ‘আকাশবীণার’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী ত্রিভুবনে আবারও বিমান দুর্ঘটনা ট্রেন-বাসের সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ২৫ ভুয়া ছবি দিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে মিয়ানমার: প্রধানমন্ত্রী
৩৭৯

মুক্ত জলাশয়ে স্বরূপে ফিরছে কাকিলা

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২ সেপ্টেম্বর ২০২১  

একসময় স্বাদুপানির মুক্ত জলাশয় অর্থাৎ নদী-নালা, হাওর-বাঁওড় ও খাল-বিলে পাওয়া যেত কাকিলা মাছ। কিন্তু নানা প্রতিবন্ধকতা এবং প্রজনন সমস্যায় হারিয়ে যেতে বসেছিল পুষ্টিসমৃদ্ধ মাছটি।

আবারও মুক্ত জলাশয়ে এ প্রজাতির দেখা মিলবে। এমন আশার বাণীই শোনালেন দেশের মৎস্যবিজ্ঞানীরা। বদ্ধ পরিবেশে কাকিলার অভ্যস্তকরণ ও কৃত্রিম প্রজনন কলাকৌশল উদ্ভাবনে সফলতা পেয়েছেন যশোরে অবস্থিত বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বিএফআরআই) স্বাদুপানি উপকেন্দ্রের বিজ্ঞানীরা।

মৎস্যবিজ্ঞানীরা বলছেন, একসময় অভ্যন্তরীণ জলাশয়ে মাছটি অধিক পরিমাণে পাওয়া যেত। কিন্তু জলবায়ুর প্রভাব, প্রাকৃতিক বিপর্যয় এবং মানুষের তৈরি নানা কারণে বাসস্থান ও প্রজননক্ষেত্র ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় এ মাছের প্রাচুর্য ব্যাপক হারে কমে গেছে।

বিএফআরআই’র কোর গবেষণা কার্যক্রমের আওতায় তিন বছর নিবিড় চেষ্টার পর কৃত্রিম প্রজনন কলাকৌশল উদ্ভাবনের সফলতা পেয়েছেন মৎস্যবিজ্ঞানীরা। ফলে আবারও পানিতে ঢেউ তুলবে কাকিলা, রক্ষা পাবে বিলুপ্তির হাত থেকে।

বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বিএফআরআই) স্বাদুপানি উপকেন্দ্র, যশোরের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. রবিউল আউয়াল হোসেন, ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো. শরীফুল ইসলাম এবং বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা শিশির কুমার দে কাকিলা মাছ নিয়ে গবেষণাটি পরিচালনা করেছেন। 

তারা জানান, কাকিলা বা কাখলে একটি বিলুপ্তপ্রায় মাছ। এর দেহ সরু, ঠোঁট লম্বাটে এবং ধারালো দাঁতযুক্ত। বাংলাদেশে যে জাতটি পাওয়া যায় সেটি মিঠা পানির জাত। মাছটি বাংলাদেশের অধিকাংশ অঞ্চলে কাইকল্যা, কাইক্কা নামেই বেশি পরিচিত। 

এর বৈজ্ঞানিক নাম Xenentodon cancila। মাছটিকে ইংরেজিতে Freshwater garfish বলে। এটি Belonidae পরিবারের অন্তর্গত। বাংলাদেশ ছাড়াও শ্রীলঙ্কা, ভারত, পাকিস্তান, মায়ানমার, মালয়েশিয়া ও থাইল্যান্ডে এ মাছ পাওয়া যায়। তবে রং ও আকারে কিছুটা ভিন্নতা রয়েছে।

গবেষকদলের প্রধান ও প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. রবিউল আউয়াল হোসেন জানান, কাকিলার দেহ লম্বা এবং সামান্য চাপা এবং প্রায় সিলিন্ডার আকৃতির। এগুলো লম্বায় ২৫ থেকে ৩০ সেন্টিমিটার পর্যন্ত হয়। পরিণত পুরুষ মাছের মাথার শীর্ষে লাল চূড়া দেখতে পাওয়া যায়, যা থেকে সহজেই স্ত্রী ও পুরুষ মাছ আলাদা করা যায়।

তিনি বলেন, পুরুষ মাছের দেহ স্ত্রী মাছের তুলনায় অধীত সরু এবং আকারে একটু ছোট হয়। এটি শিকারি মাছ। এরা মূলত ছোট মাছ খেয়ে থাকে। প্রাকৃতিকভাবে প্রবহমান জলাশয়ে বিশেষ করে নদীতে এবং বর্ষাকালে প্লাবিত অঞ্চলে এরা প্রজনন করে। 

তিনি আরও বলেন, পরিণত মাছেরা ভাসমান জলজ উদ্ভিদ নেই এমন স্থানে বসবাস করলেও জলজ উদ্ভিদের পাতার নিচে ও ভাসমান শেকড়ে এদের স্ত্রীরা ডিম ছাড়ে। কাকিলা মাছের কৃত্রিম প্রজনন বাংলাদেশ প্রথম এবং বিশ্বের কোথাও এ মাছের কৃত্রিম প্রজননের কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

গবেষক দলের সদস্য ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো. শরীফুল ইসলাম বলেন, রাজবাড়ি জেলা সংলগ্ন কুষ্টিয়ার পদ্মা নদী থেকে কাকিলা ব্রুড (মা-বাবা) মাছ সংগ্রহ করে বিশেষ পদ্ধতিতে অক্সিজেন সরবরাহ নিশ্চিত করে এনে যশোরের স্বাদুপানি উপকেন্দ্রের পুকুরে ছাড়া হয়। পরে হ্যাচারিতে উৎপাদিত কার্পজাতীয় মাছের জীবিত পোনা এবং নানা জলাশয় থেকে সংগৃহীত জীবিত ছোট মাছ খাইয়ে পুকুরের আবদ্ধ পরিবেশে মাছকে অভ্যস্ত করা হয়।

এ গবেষক জানান, চলতি বছরের মে মাস থেকে বৈজ্ঞানিক প্রটোকল অনুসরণ করে কৃত্রিম প্রজননের উদ্দেশ্যে উপকেন্দ্রের হ্যাচারিতে নির্দিষ্ট সংখ্যক মা-বাবা মাছকে বিভিন্ন ডোজে হরমোন ইনজেকশন দেওয়া হয়। এভাবে কয়েকবার বিভিন্ন ডোজের ট্রায়াল দেওয়া হলেও মাছের প্রজননে সফলতা আসেনি। অবশেষে ২৫ আগস্ট প্রজননকৃত মাছের ডিম থেকে পোনা বের হয় এবং কাকিলা মাছের কৃত্রিম প্রজননে সফলতা আসে।

সংশ্লিষ্ট বিজ্ঞানীরা জানান, কাকিলা মাছের প্রজননের জন্য পিজি (Pituitary Gland) হরমোন ব্যবহার করা হয়। গত ১৮ আগস্ট পুকুর থেকে মাছ ধরে চার জোড়া মা-বাবা নির্বাচন করে হ্যাচারির চৌবাচ্চায় নির্দিষ্ট সময় ঝর্ণাধারা দিয়ে মা-বাবা মাছকে একটা নির্দিষ্ট মাত্রায় হরমোন ইনজেক্ট করা হয়। পরে মা-বাবা মাছকে একত্রে একটি চৌবাচ্চায় রেখে ঝর্ণাধারা দিয়ে সেখানে কচুরিপানা রাখা হয়। প্রায় ৪৮ ঘণ্টা পর মা মাছ ডিম ছাড়ে। ডিমের ভেতরে পোনার বিভিন্ন দশা ও উন্নয়ন অণুবীক্ষণ যন্ত্র দিয়ে নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করা হয়। ডিম ছাড়ার প্রায় ৯০ থেকে ১০০ ঘণ্টার মধ্যে নিষিক্ত ডিম থেকে বাচ্চা বের হয়।

গবেষকদলের সদস্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা শিশির কুমার দে বলেন, কাকিলা মাছের প্রজননের ট্রায়ালের সময় চৌবাচ্চারে পানির গড় তাপমাত্রা ছিল ২৮ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, দ্রবীভূত অক্সিজেনের পরিমাণ ছিল ৪ দশমিক ৫ মিলিগ্রাম/লিটার এবং পিএইচ ছিল ৭ দশমিক ৬।

গবেষক দলের প্রধান ড. মো. রবিউল আউয়াল হোসেন ও মো. শরীফুল ইসলাম জানান, প্রতি ১০০ গ্রাম খাবার উপযোগী কাকিলা মাছে ১৭ দশমিক ১ শতাংশ প্রোটিন, লিপিড ২ দশমিক ২৩ শতাংশ, ফসফরাস ২ দশমিক ১৪ শতাংশ এবং দশমিক ৯৪ শতাংশ ক্যালসিয়াম রয়েছে যা অন্যান্য ছোটমাছের তুলনায় অনেক বেশি।

বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ জানান, দেশের বিলুপ্তপ্রায় ৬৪টি মাছের মধ্যে ৩০টির কৃত্রিম প্রজননে ইতোমধ্যে বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট সফলতা লাভ করেছে। সফলতার ধারাবাহিকতায় ৩১তম মাছ হিসেবে কাকিলা মাছ যুক্ত হলো।

তিনি বলেন, পর্যায়ক্রমে সব বিপন্ন প্রজাতির মাছকে কৃত্রিম প্রজননের আওতায় আনা হবে, যাতে দেশের প্রতিটি মানুষের খাবার প্লেটে দেশীয় মাছ থাকে। এজন্য ইনস্টিটিউটের পক্ষ থেকে বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন
জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • শিডিউল লোডশেডিংয়ে দিনে সাশ্রয় হচ্ছে দেড় হাজার মেগাওয়াট

  • বরগুনায় কৃষক সমাবেশ ও মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত

  • ঠাকুরগাঁওয়ে ফ্রি সেচ সুবিধায় খুশি কৃষকরা

  • শিক্ষা জাদুঘর চালু হচ্ছে কুমিল্লার অর্ধশতবর্ষী স্কুল ভবনে 

  • আফগানিস্তানকে হারিয়েছে বাংলাদেশ হ্যান্ডবল দল

  • বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প পরিদর্শনে এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী

  • সামেক হাসপাতাল প্রতিষ্ঠায় দূর্ভোগ কমেছে মানুষের

  • চাঁদপুরে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্নারের উদ্বোধন

  • বগুড়ায় সার ব্যবসায়ীদের সঙ্গে জেলা প্রশাসকের মতবিনিময় 

  • পদ্মায় জেলের জালে ধরা পড়ল ১৮ কেজির পাঙ্গাস

  • দেশে শিশু মৃত্যুহার কমাবে ‘স্ক্যানু’ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  •  শোক দিবস উপলক্ষে বগুড়া জেলা পুলিশের নানা আয়োজন

  • রঘুনাথপুরে বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান

  • শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি দুদিন করার চিন্তা: শিক্ষামন্ত্রী

  • নাক-কান-গলার ক্যানসার কেন হয়, কী করবেন?

  • যুক্তরাষ্ট্রে অপরাজিত সিনেমার প্রিমিয়ার

  • কোরআনের বর্ণনায় ১০ গুণে আদর্শ মুসলমান

  • গুগলে সফটওয়্যার আপডেট জটিলতা

  • আজ তারেক মাসুদের ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী

  • সাকিবের ভাগ্যে আজ কী ঘটবে?

  • সংকট কাটাতে আন্তরিকভাবে চেষ্টা করছেন প্রধানমন্ত্রী

  • ফেনীতে বঙ্গবন্ধু ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘর

  • রোববার ঢাকায় আসছেন জাতিসংঘের মানবাধিকার প্রধান

  • প্রতিরক্ষা সহযোগিতায় একমত ঢাকা-দিল্লি

  • ব্যাংকের শাখায় শাখায় বেচাকেনা হবে নগদ ডলার

  • ‘মিলেনিয়াম লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন স্থপতি মেরিনা

  • সাইবার থ্রেট-ক্ষতিকর অ্যাপস বন্ধে পদক্ষেপ

  • কৃষি খাতে বাংলাদেশি কর্মী নেবে দক্ষিণ কোরিয়া

  • রূপপুর বিদ্যুৎকেন্দ্র : আগামী বছরের অক্টোবরে ‘নিউক্লিয়ার ফুয়েল লো

  • সংসদ অধিবেশন ২৮ আগস্ট শুরু

  • অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত, বেড়েছে রেমিট্যান্স ও রফতানি

  • জাপান থেকে প্রথমবার গাড়ি নিয়ে বাণিজ্যিক জাহাজ এলো মোংলায়

  • জাপান থেকে সরাসরি গাড়ির জাহাজ মোংলা বন্দরে

  • চলুন জেনে নেই টাকার মানে বিভিন্ন দেশের জ্বালানি তেলের মূল্য

  • সেপ্টেম্বরে চালু হচ্ছে ৮ম বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতু

  • ওল চাষে বিঘাপ্রতি মুনাফা লাখ টাকা

  • পদ্মা সেতুতে বসানো হলো অত্যাধুনিক ক্যামেরা

  • যুক্তরাষ্ট্রে পোশাক রপ্তানি বেড়েছে পৌনে ২শ’ কোটি ডলারের

  • বঙ্গমাতা: স্বাধীনতা ও সকল সোনালী অর্জনের নেপথ্য প্রেরণাদাত্রী

  • জ্বালানি তেলের এই দাম বাড়ানো সরকারের সাহসী সিদ্ধান্ত: অর্থনীতিবিদ

  • আগস্টের শুরুতে রেমিট্যান্সে ৫৬ শতাংশ প্রবৃদ্ধি

  • ফেনীতে বঙ্গবন্ধু ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘর

  • ৭ দিনে ৫ হাজার কোটি টাকা রেমিট্যান্স আসছে দেশে

  • মোংলা বন্দরে ভারতের প্রথম ট্রায়াল জাহাজ

  • বঙ্গবন্ধু রেল সেতুতে সুপার গতিতে চলবে ৬৮ ট্রেন

  • জননী সাহসিকা বঙ্গমাতা

  • প্রধানমন্ত্রীকে `রাখি বন্ধন` উৎসবের উপহার পাঠাল ভারত

  • প্রতিরক্ষা সহযোগিতায় একমত ঢাকা-দিল্লি

  • সৌরবিদ্যুতে সচল দুই হাজার কোটি টাকার কারখানা

  • সেপ্টেম্বর থেকে অর্ধেকে নেমে আসবে লোডশেডিং

  • ৩ বছরে ৫ লাখ কর্মী নেবে মালয়েশিয়া, মূল বেতন ৩৭ হাজার

  • ১১ আগস্ট থেকে শিশুদের করোনার টিকাদান শুরু

  • স্বপ্নের ঘর পেয়ে দুর্গম পাহাড়েও আনন্দের বন্যা

  • বঙ্গমাতা ছিলেন বাঙালি মায়ের চিরন্তন প্রতিচ্ছবি: রাষ্ট্রপতি

  • এনআইডি আইনের খসড়া; থাকছে না ‘ভোটার তালিকা’

  • বরগুনায় কৃষক সমাবেশ ও মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত

  • রোজেলা চা চাষে ৫ হাজার টাকায় ১৪ লাখ আয়

  • ‘আন্তর্জাতিক বাজারে কমলে, বাংলাদেশেও দাম কমবে’

  • ক্ষমতার জৌলুস বঙ্গমাতাকে আকৃষ্ট করতে পারেনি: প্রধানমন্ত্রী

  • ভারত থেকে আমদানির পর মরিচের দাম কমে ১৬০ টাকা