সোমবার   ৩০ জানুয়ারি ২০২৩

সর্বশেষ:
রোকেয়া পদক পাচ্ছেন ৫ নারী আবারও শ্বাসরুদ্ধকর জয়, ৭ বছর পর ভারতের বিপক্ষে সিরিজ বাংলাদেশের একশ’ প্রভাবশালী নারীর তালিকায় বাংলাদেশের ছোঁয়া দেশের দ্বিতীয় ডিজিটাল পল্লি হবে শরীয়তপুরের ডামুড্যায় প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব হলেন তোফাজ্জল হোসেন মিয়া
৩১২৫

আধুনিকতার ছোঁয়ায় বদলে গেছে পতেঙ্গা সৈকত

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৭ আগস্ট ২০২০  

পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত, চট্টগ্রামবাসীর বিনোদনের অন্যতম প্রধান স্থান। একদিকে সমুদ্রের আছড়ে পড়া বিস্তীর্ণ জলরাশি, অন্যদিকে কৃত্রিম উপায়ে তৈরি করা মনোমুগ্ধকর সৌন্দর্য। দুইয়ে মিলে যেন এক নৈসর্গিক পরিবেশ। স্থানীয়রা তো বটেই, দূর-দূরান্ত থেকে পর্যটকদের ভিড়ে নিয়মিতই মুখরিত থাকে পতেঙ্গা।

এরইমধ্যে পুরোনো জরাজীর্ণ চেহারা থেকে মুক্তি পেয়েছে এই সৈকত। আউটার রিং রোড প্রকল্পের আওতায় পাল্টেছে সাগরপাড়ের চিত্র। নান্দনিক ফুল বাগান, পর্যটকদের জন্য সুসজ্জিত বসার স্থান, সাগরপাড়ের বিস্তৃত ওয়াকওয়ে সৌন্দর্যে যোগ করেছে এক নতুন মাত্রা। চলছে আন্তর্জাতিক মানের পর্যটনকেন্দ্র গড়ার কার্যক্রম।

দিনের বেলায় যেমন দর্শনার্থীদের মনে মধুর দাগ কাটতে সক্ষম এই সৈকত, তেমনই রয়েছে এর রাতের সৌন্দর্য। সমুদ্র পাড়ের মৃয়মান আলো আর সমুদ্র থেকে উঠে আসা শীতল বাতাস, যে কারো প্রাণ জুড়াতে সক্ষম।

দেশে করোনাভাইরাসের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই এ পর্যটন এলকায় জনসমাগম নিষিদ্ধ করে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন। তাই এখন সেখানে বিরাজ করছে শুনসান নীরবতা। কিন্তু বর্তমানে করোনার প্রভাব একটু কমায় সৈকতে মানুষের আনাগোনা আবারো বেড়েছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, সৈকতে দর্শানার্থীদের উপচে পড়া ভিড়। সরকারি ছুটির দিনগুলোতে ভিড় থাকে বেশি। পরিবার-পরিজন, বন্ধু ও প্রিয় মানুষকে নিয়ে দর্শনার্থীরা চষে বেড়াচ্ছেন আধুনিক পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত। কেউ হাঁটছেন, কেউ বিশ্রাম নিচ্ছেন, কেউবা বাগানে ফোটা ফুলের ঘ্রাণে মুগ্ধ হয়ে উপভোগ করছেন সমুদ্রের বিশালতা।

পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে পর্যটকদের হাঁটার জন্য নির্মাণ করা হয়েছে সাড়ে পাঁচ কিলোমিটার ওয়াকওয়ে। তীরজুড়ে করা হয়েছে ফুলের বাগান। দর্শনার্থীদের জন্য বসানো হয়েছে ছোট ছোট বিশ্রাম চেয়ার এবং রঙ-বেরঙের পাথর। চলছে শিশুদের জন্য রাইড নির্মাণের কাজ। সব মিলিয়ে আধুনিকতা ও নান্দনিকতার ছোঁয়ায় নতুন রূপে সাজছে পতেঙ্গা সৈকত।

বিশ্বমানের পর্যটনকেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে সৈকতজুড়ে করা হয়েছে শত কোটি টাকার উন্নয়ন।

সিডিএ চেয়ারম্যান জহিরুল আলম বলেন, দীর্ঘদিন ধরে পতেঙ্গা সমুদ্রসৈকত ব্যবহার করে আসছি আমরা। কিন্তু বিনোদনের পর্যাপ্ত উপাদান ছিল না। বর্তমানে সেই শূন্যতা পূরণ হয়েছে। আমাদের লক্ষ্য, আধুনিক সব সুযোগ-সুবিধাসহ পতেঙ্গাকে একটি বিশ্বমানের পর্যটনকেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলা। সেই অনুযায়ী কাজ চলছে। আগামী ছয় মাসের মধ্যে চট্টগ্রামের এবং বাইরের মানুষ পতেঙ্গাকে আধুনিক সুযোগ-সুবিধাসংবলিত পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে দেখবে।

সিডিএ চেয়ারম্যান আরো বলেন, সাড়ে পাঁচ কিলোমিটার ওয়াকওয়েতে একসঙ্গে ৫০ হাজার মানুষ হাঁটতে পারবে। এলাকাটিকে দুটি জোনে ভাগ করা হয়েছে। জোন ওয়ান ও জোন টু। জোন ওয়ান হচ্ছে সমুদ্র সৈকত। জোন টু হচ্ছে পাঁচ কিলোমিটার শেষে রিং রোড। সেখান থেকে আসা-যাওয়া করার জন্য ক্যাবল কারের ব্যবস্থা থাকবে। এছাড়া পর্যায়ক্রমে ফাইভ স্টার হোটেল, কনভেনশন হল, শপিং মলসহ সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা থাকবে।

সিডিএর প্রধান প্রকৌশলী ও প্রকল্প পরিচালক কাজী হাসান বিন শামস বলেন, আমরা খুব দ্রুত কাজ করছি। এরইমধ্যে জোন ওয়ান জনসাধারণের জন্য বিনোদনের উপযোগী করে তুলেছি। জোন ওয়ানের মধ্যে ৩০ ফিটের সাড়ে পাঁচ কিলোমিটার ওয়াকওয়ে রয়েছে। এ জোনে একটি বিশাল প্লাজা থাকবে। ৭০০ গাড়ি রাখার জন্য পার্কিংয়ের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। গাড়ি পার্কিংয়ের রাস্তাটি হবে টানেল এবং বিচ রোডের মাঝামাঝি। এখন বিচের প্রধান সড়ক যেটি আছে, সেটিকে ৮০ ফিট প্রশস্ত করা হচ্ছে। এ রোড দিয়ে মূলত সব গাড়ি প্রবেশ করবে এবং বের হবে। বিচ রক্ষণাবেক্ষণের জন্য টিকেটের ব্যবস্থা করা হবে।

তিনি আরো বলেন, বিচ এলাকায় ছোট ও বড়দের জন্য বিভিন্ন রাইড থাকবে। শিশুদের জন্য কিছু সিম্পল রাইড থাকবে। এছাড়া ওয়াকওয়ের উপরে ক্যাবল কার থাকবে। এ প্রজেক্টের জন্য বর্তমানে ২০ কোটি টাকা বরাদ্দ আছে। জোন ওয়ানের কাজ শেষ করতে আরো প্রায় ২০ কোটি টাকা খরচ হবে।

আরও পড়ুন
দেশের খবর বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • টুঙ্গিপাড়ার চাষাবাদের আওতায় আসছে ৪ বিলের ৫০০ হেক্টর জমি 

  • কুমিল্লায় বোরো ধান চাষে ব্যস্ত কৃষকেরা

  • মুকুলে ভরে গেছে মেহেরপুরের আমবাগান

  • শিশুদের জন্য নিরাপদ পরিবেশ গড়ে তোলার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

  • এইচএসসির ফল প্রকাশ ৮ ফেব্রুয়ারি

  • ‘যতদিন বেঁচে থাকবো প্রযুক্তির উৎকর্ষের লড়াই নিয়েই বাঁচবো’

  • চট্টগ্রামে গড়ে তোলা হচ্ছে ৫টি অর্থনৈতিক জোন

  • সুনামগঞ্জে ক্ষতিগ্রস্থ সড়কের মেরামত ও পুনর্বাসন কাজ শুরু

  • ডাক ও টেলিযোগাযোগ পদক পেলো ১৮ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান

  • অঙ্গদানকারী সারাহ ইসলামের মৃত্যু নেই: বিএসএমএমইউ উপাচার্য

  • বাংলাদেশের বড় উন্নয়ন সহযোগী জাপান: বাণিজ্যমন্ত্রী

  • ‘নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা সব দলের দায়িত্ব ও কর্তব্য’

  • এক পা নিয়েই সফল কৃষক শফিউল

  • বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় কবি : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

  • পূর্বাচলের ৪টি সেক্টরে পানির সংযোগ দিচ্ছে রাজউক

  • কল করলেই শোনা যাবে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ

  • যুক্তরাষ্ট্র-চীন-ভারতের সঙ্গে ভারসাম্যপূর্ণ সম্পর্ক রক্ষার বার্তা

  • যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশের অর্থনীতির ভিত রচনা করেছেন মতিউল ইসলাম

  • রাজশাহীতে ১০ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছি

  • দায়িত্ব নিলেন বিজিবির নতুন মহাপরিচালক নাজমুল হাসান

  • ১ থেকে ৭ মার্চ, মোবাইলে কল করলেই শোনা যাবে ৭ই মার্চের ভাষণ

  • ১৪ বছরে রাজশাহীর উন্নয়ন, প্রত্যাশার চেয়ে প্রাপ্তিই বেশি

  • বাংলাদেশ নিয়ে আগ্রহ বাড়ছে ডেনমার্কের

  • খাগড়াছড়ির সব ক্ষেত্রেই উন্নয়নের চিত্র

  • প্রথম পাতাল রেলের কাজ উদ্বোধন ২ ফেব্রুয়ারি, থাকবেন প্রধানমন্ত্রী

  • “আওয়ামী লীগ দেশ ছেড়ে পালায় না” : রাজশাহীতে প্রধানমন্ত্রী

  • বাংলাদেশিসহ সাড়ে ৮২ হাজার শ্রমিক নেবে ইতালি

  • রাজশাহীর সভামঞ্চে শেখ হাসিনা

  • বাংলাদেশ থেকে আরও বেশি পোশাক নেওয়ার প্রতিশ্রুতি

  • সেন্টমার্টিন দ্বীপে নৌবাহিনীর চিকিৎসাসেবা ও পরিচ্ছন্নতা অভিযান

  • বাংলাদেশে প্রথম হুন্দাই গাড়ি তৈরির কারখানা উদ্বোধন

  • পূর্বাচল পানি সরবরাহ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন শেখ হাসিনা

  • ২৬ জানুয়ারি পতাল রেলের যুগে প্রবেশ করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ

  • ৬৩ দেশের ৯১১০ বিদেশি মেহমান অংশ নেয় ইজতেমায়

  • পূর্বাচল পানি সরবরাহ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন শেখ হাসিনা

  • মিঠামইনে হচ্ছে উড়াল সড়ক, আনন্দে ভাসছে হাওরবাসী

  • ২০২৬ সালে চালু হবে মাতারবাড়ী গভীর সমুদ্র বন্দর

  • পাতালরেলের যুগে বাংলাদেশ

  • ঢাকার নবাবগঞ্জে হচ্ছে অর্থনৈতিক অঞ্চল, ব্যয় ১৯১৫ কোটি

  • জিআই পণ্যে শক্তিশালী হচ্ছে দেশ

  • শিক্ষার্থীদের দ্রুত ভিসা দেওয়ার পরিকল্পনা যুক্তরাষ্ট্রের

  • রোহিঙ্গা ইস্যুতে সহযোগিতা মিলছে না : পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

  • ইউরোপের বাজারে পোশাক রপ্তানি বেড়েছে ৪২ শতাংশ

  • টিসিবির জন্য ২৭৪ কোটি টাকার তেল-ডাল কিনছে সরকার

  • আমি নাকি মরে গেছি নিউজ হয়েছে! কি পরিমাণ গুজব : ওবায়দুল কাদের

  • ‘প্রশিক্ষণের জন্য নাবিকদের আর যেতে হবে না বিদেশ’

  • যশোরের ফুল দেশের গণ্ডি পেরিয়ে যাচ্ছে বিদেশে

  • কিশোর-কিশোরীদের স্বাস্থ্যসেবায় অ্যাপ

  • জুনে নতুন আলোয় আলোকিত হতে যাচ্ছে উত্তরাঞ্চল

  • জুনে নতুন আলোয় আলোকিত হতে যাচ্ছে উত্তরাঞ্চল

  • রেমিট্যান্সের পালে হাওয়া

  • মার্চ থেকে সরকারি হাসপাতালেই চেম্বার করতে পারবেন চিকিৎসকরা

  • নাটোরে শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব সরকারি মহিলা কলেজের রজতজয়ন্তী 

  • ডিসেম্বরে আসছে মাতারবাড়ির বিদ্যুৎ

  • ‘প্রতিটি বিভাগেই বিশেষায়িত শিশু হাসপাতাল নির্মাণ হবে’

  • ২৫ জানুয়ারি থেকে মেট্রোরেলের নতুন সময়সূচি

  • লটারির মাধ্যমে মিলছে গোল্ডেন মোবাইল নম্বর

  • ক্যাশলেস সোসাইটির যুগে বাংলাদেশ

  • চলতি বছরই রেল যাবে কক্সবাজার

  • উচ্চ মধ্যম আয়ের দেশে পৌঁছতে পাশে থাকবে বিশ্বব্যাংক