শুক্রবার   ০৫ জুন ২০২০

ব্রেকিং:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ খালেদার অনুপস্থিতিতেই কারাগারে বিচার চলবে রব ও মান্নার বিয়ে যুক্তফ্রন্টে, পরকীয়া ঐক্যফ্রন্টে: মাহী এটা জোট নয়, ঘোট : তথ্যমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় পেলেন সিনহা আবারও সরকার গঠনে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পদ্মা সেতু প্রকল্পের নামফলক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী
৩৫

স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের অঙ্গীকারের পথেই হাঁটছেন শেখ হাসিনা

আছাদুজ্জামান

প্রকাশিত: ১৭ মে ২০২০  

জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠকন্যা ও আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আগামীকাল রবিবার (১৭ মে)। ১৯৮১ সালের এই দিনে দীর্ঘ নির্বাসন থেকে দেশে ফেরেন তিনি। দেশে ফেরার পর থেকে শেখ হাসিনা টানা ৩৯ বছর ধরে আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব দিয়ে চলেছেন। এই দীর্ঘ সময়ে দলীয় প্রধানের দায়িত্বে থেকে নেতৃত্ব দিতে গিয়ে কারাবরণ, জীবননাশের হুমকি, জীবন নাশসহ অনেক বন্ধুর পথ পাড়ি দিতে হয়েছে শেখ হাসিনাকে। অনেক চড়াই-উৎড়াই পেরিয়ে তিনি আওয়ামী লীগকে আজকের অবস্থানে এনে দাঁড় করিয়েছেন।

শেখ হাসিনার সফল নেতৃত্বের ফলেই আওয়ামী লীগ চারবার রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় এসেছে। আওয়ামী লীগের এই শাসন আমলেই দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের নতুন মাত্রা সূচিত হয়েছে। বাংলাদেশ উন্নীত হয়েছে উন্নয়নশীল দেশে। আাগামী ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্য আয়ের দেশে উন্নীত করার ঘোষণা দিয়েছেন শেখ হাসিনা। ইতোমধ্যেই বাংলাদেশ নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছে। পাশাপাশি শেখ হাসিনার হাত ধরেই বাংলাদেশে তথ্য- প্রযুক্তির ব্যাপক প্রসার ঘটেছে এবং উন্নত তথ্য-প্রযুক্তির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। সম্প্রতি মহাকাশে কৃত্রিম উপগ্রহ বঙ্গবন্ধ-১ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বেরই সফলতা।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঘাতকরা সপরিবারে হত্যা করে। বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা দেশের বাইরে থাকার কারণে প্রাণে বেঁচে যান। কিন্তু শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা তখন দেশে ফিরতে পারেননি। দীর্ঘ নির্বাসিত জীবন কাটিয়ে ১৯৮১ সালের ১৭ মে ভারত থেকে দেশে ফেরেন শেখ হাসিনা।

এদিকে বঙ্গবন্ধু হত্যার পর বিপর্যস্থ হয়ে পড়ে আওয়ামী লীগ। জেল-জুলুম, অত্যাচার, নির্যাতন, নিপীড়নের শিকার হন দলের সকল নেতা-কর্মীরা। আওয়ামী লীগের অভ্যান্তরীণ কোন্দলও প্রকট আকার ধারণ করে। দ্বিধা বিভক্ত হয়ে পড়ে দল। এ পেক্ষাপটে নির্বাসিত জীবনে ভারতে অবস্থানকালে ১৯৮১ সালের ফেব্রুয়ারিতে শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পান। সেই থেকে তিনি আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হয়ে আসছেন এবং দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

শেখ হাসিনা সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর ১৯৮১ সালের ১৭ মে তিনি দেশে ফিরে আওয়ামী লীগের হাল ধরেন। শুরু হয় আরেক সংগ্রামী জীবন। দীর্ঘ আন্দোলন- সংগ্রাম এবং নানামুখী ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করে আওয়ামী লীগকে আজকের অবস্থানে দাঁড় করিয়েছেন শেখ হাসিনা। দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম অব্যাহত রাখার পাশাপাশি দল ও সরকারের নেতৃত্বে থেকে বাংলাদেশের জন্য বড় বড় অর্জনও বয়ে এনেছেন তিনি।

আজকের ডিজিটাল বাংলাদেশ তার নেতৃত্বেই এগিয়ে যাচ্ছে। এই ডিজিটাল বাংলাদেশের ধারণা তিনিই দিয়েছেন। মানুষের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে তার গৃহীত বিভিন্ন কর্মসূচি জাতীয় আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসিত হচ্ছে। শুধু বাংলাদেশই নয় বৈশ্বিক নানা সংকট নিয়ে কথা বলা এবং মতামত দেওয়ার মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক পরিসরেও শেখ হাসিনার পরিধি বাড়ছে। দেশের মাটিতে ফিরে এলে ঢাকায় লাখো জনতা তাকে স্বাগত জানায়। এ সময় শেরে বাংলা নগরে আয়োজিত সমাবেশে লাখো জনতার সংবর্ধনার জবাবে শেখ হাসিনা সেদিন বলেছিলেন,সব হারিয়ে আমি আপনাদের মাঝে এসেছি; বঙ্গবন্ধুর নির্দেশিত পথে তার আদর্শ বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে জাতির জনকের হত্যার প্রতিশোধ গ্রহণে আমি জীবন উৎসর্গ করতে চাই।

পিতা-মাতা, ভাই রাসেল সকলকে হারিয়ে আমি আপনাদের কাছে এসেছি, আমি আপনাদের মাঝেই তাদেরকে ফিরে পেতে চাই। আপনাদের নিয়েই আমি বঙ্গবন্ধুর নির্দেশিত পথে তার আদর্শ বাস্তবায়ন করে বাংলার দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফুটাতে চাই, বাঙালি জাতির আর্থ-সামাজিক তথা সার্বিক মুক্তি ছিনিয়ে আনতে চাই।

সেদিনের ঘোষণা থেকেই শুরু হয় আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার পথ চলা। তার নেতৃত্বে দ্বিধা বিভক্ত আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ হয়ে বাংলাদেশের মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার আদায়ে সামরিক স্বৈরশাসকের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নামে। সেই সংগ্রাম সফলতার মুখ দেখে ৯৬ সালে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার গঠন।

তার নেতৃত্বে চতুর্থবারের মতো আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় রয়েছে। তিনি চতুর্থবারের মতে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) তিনবার বিরোধী দলের নেতাও নির্বাচিত হয়েছিলেন। দেশে চলমান করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় যে দূরদর্শি ভুমিকা রেখে চলেছেন তার ভূ’য়সী প্রসংশা কুড়িয়েছেন বিশ্বনেতৃত্বের কাছ থেকে। চলমান করোনা পরিস্থিতিতে বিপর্যয়ের মুখে পড়তে যাওয়া দেশের অর্থনীতির ধারাবাহিকতা রক্ষায় পরিকল্পনা ঘোষণা করেছেন শেখ হাসিনা। এমনকি তার ঘোষিত আর্থিক প্রনোদনা উন্নত বাংলাদেশের যাত্রায় সহায়ক হবে ।

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ২০৪১ সালে উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে উঠবে। শেখ হাসিনার ৩৯ চল্লিশ বছরের এইযাত্রা স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের দিনের অঙ্গিকারকেই আমাদের স্মরণ করিয়ে দেয়।

লেখক: আছাদুজ্জামান, ভোরের কাগজ ও প্রচার সম্পাদক, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে)।

মতামত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • চলচ্চিত্র কর্মীদের ৩ কোটি টাকা অনুদান দিচ্ছে তথ্য মন্ত্রণালয়

  • জাতিসংঘ পুরস্কার পেল ভূমি মন্ত্রণালয়

  • ৩ হাজার মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট নিয়োগে অনুমোদন দিলেন প্রধানমন্ত্রী

  • করোনা চিকিৎসায় যে ৬টি বিষয় মনে রাখতে হবে

  • করোনা মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে ২৪ প্রতিষ্ঠানের অনুদান

  • ‘চেষ্টা করে যাচ্ছি দেশের মানুষকে সুরক্ষিত করতে’

  • আইনমন্ত্রীর করোনা নিয়ে গুজব ছড়ানোয় গ্রেফতার ১

  • আইনমন্ত্রীর করোনা আক্রান্তের খবর সত্য নয়, তিনি সুস্থ আছেন

  • জাতিসংঘ পদক পেলেন বাংলাদেশের তিন ক্রীড়াবিদ

  • প্লাজমা দেওয়ার আগে যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখতে হবে

  • রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে যে খাবারগুলো বর্জন করতে হবে

  • করোনার চিকিৎসায় হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইনের অনুমতি দিল ডব্লিউএইচও

  • করোনার ভ্যাকসিনগুলোর সফলতা আশাব্যঞ্জক

  • ‘করোনা পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশের সম্ভাবনা অনেক বেশি’

  • করোনা বিস্তার রোধে ‘করোনা ট্রেসার বিডি’ অ্যাপ চালু 

  • রাজধানীতে আম সরবরাহে আজ থেকে বিশেষ ট্রেন

  • সরকারি কর্মকর্তাদের চিকিৎসা দেবে বিশেষ হাসপাতাল

  • সিলেটে করোনাকালে বিনা পয়সায় চা খাওয়ান এক নারী উদ্যোক্তা

  • ভূমিমন্ত্রীর নির্দেশে আইসোলেশন সেন্টার হচ্ছে আনোয়ারায়

  • ৩ হাজার মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট নিয়োগে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন

  • প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে আইডিএলসির ২ কোটি ৪০ লাখ টাকা অনুদান

  • করোনা সঙ্কটে আঙ্গিনায় সবজি চাষ: পারিবারিক কৃষিতে জোর

  • নৌপথে স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে সতর্ক করলেন নৌ প্রতিমন্ত্রী

  • ওয়াসা কর্মীদের খোঁজ নিতে পানি শোধনাগারে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

  • প্রতিবন্ধীদের মাঝে যুবলীগের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

  • বিশ্ব পরিবেশ দিবস আজ

  • বাড়িতে অফিস করার সুযোগ পেলেন কেন্দ্রীয় ব্যাংক কর্মীরা

  • বাজেট অধিবেশনের ৭২ ঘণ্টা আগে থেকে সংসদ এলাকায় ১৪৪ ধারা 

  • পরিবহন খাতে চাঁদাবাজি বন্ধে ঐক্যমত

  • পদোন্নতি পেলেন ১০৯ চিকিৎসক, প্রজ্ঞাপন জারি

  • ইভারম্যাকটিন, ডক্সিসাইক্লিন ব্যবহারে করোনা মুক্তির হার বেড়েছে

  • প্রত্যেক জেলা হাসপাতালে আইসিইউ নিশ্চিতের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  • আম্ফান-কাল বৈশাখীর ক্ষতিতেও পূরণ হবে বোরোর লক্ষ্যমাত্রা

  • প্রধানমন্ত্রীকে ফোন করে জাতিসংঘ মহাসচিবের শুভেচ্ছা

  • মসলা মিশ্রিত হালকা গরম পানিতে উপকৃত হচ্ছেন করোনা রোগীরা

  • জুন মাসেই প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা পাবে জামা-জুতা কেনার টাকা

  • বিএনপি’র চিন্তাধারা একপেশে: তথ্যমন্ত্রী

  • চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে দুর্যোগ সহনীয় ঘর পেল ১৬ পরিবার

  • স্পটে কাউকে পাওয়া না গেলে ধরে নেবেন তার চাকরি নেই: তাপস

  • যেকোনো সঙ্কটে আত্মবিশ্বাসটাই সবচেয়ে বড়: প্রধানমন্ত্রী

  • বঙ্গবন্ধুর ছবিযুক্ত ডাকটিকিট অবমুক্ত করল জাতিসংঘ

  • শান্তিরক্ষীদের অবদান দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে: প্রধানমন্ত্রী

  • সোনালী ই-সেবা: ২ মিনিটেই খোলা যাবে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট

  • বিশ্ব পরিবেশ দিবস আজ

  • করোনায় বন্ধ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে টিউশন ফি আদায় করলে কঠোর ব্যবস্থা

  • দৃশ্যমান হলো পদ্মাসেতুর সাড়ে ৪ কি.মি.

  • চীন থেকে করোনা মেডিকেল টিম আসছে ৮ জুন

  • প্রথমবারের মতো শান্তিরক্ষীদের বহন করল বাংলাদেশ বিমান

  • ৪ জুন ১৯৫৭:প্রথম বাঙালি হিসাবে চা বোর্ডের চেয়ারম্যান হন বঙ্গবন্ধু

  • গ্রামাঞ্চলেও চালু হচ্ছে এটিএম ও পয়েন্ট অব সেলস মেশিন

  • এবার স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদ্রাসা জাতীয়করণের উদ্যোগ

  • বাইরে চলাচলে মাস্ক না পরলে অনুযায়ী ব্যবস্থা

  • অর্ধেক যাত্রী নিয়ে আগের ভাড়ায়ই চলবে ট্রেন

  • ২০২১ সালের মধ্যে দেশের ৯০ শতাংশ সেবা অনলাইনে দেওয়া হবে

  • করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রচেষ্টায় ৬ দেশের একাত্মতা

  • এবারো কোটি টাকা লিচু বিক্রির আশা

  • রেলওয়ে হাসপাতালে সুরক্ষা সামগ্রী দিলো যুক্তরাষ্ট্র

  • ‘প্রধানমন্ত্রী ইতিহাসের বৃহত্তম ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনা করছেন’

  • করোনা সঙ্কটেও মে মাসে দেশে এসেছে দেড় বিলিয়ন ডলার রেমিটেন্স

  • বাংলাদেশে ৬৪১৭ কোটি বিনিয়োগ করবে এডিবি