মঙ্গলবার   ০২ মার্চ ২০২১

সর্বশেষ:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে ইসি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ: নূরুল হুদা বারবার আসতে পারব না, যত খুশি সাজা দিন: খালেদা জিয়া ‘আকাশবীণার’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী ত্রিভুবনে আবারও বিমান দুর্ঘটনা ট্রেন-বাসের সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ২৫ ভুয়া ছবি দিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে মিয়ানমার: প্রধানমন্ত্রী
১০২

স্কুল যাচ্ছে বাড়ি বাড়ি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

ছোট্ট সিনথিয়ার জন্য আজকের সকালটা অন্যরকম। দীর্ঘদিন স্কুলের বারান্দায় ছোটাছুটি নেই, কারণ অদৃশ্য শত্রু করোনাভাইরাস সেই সুযোগ আপাতত কেড়ে নিয়েছে। কিন্তু আজ হঠাৎই বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস ধরা দিল সিনথিয়ার কাছে। ঘুমের আড়মোড়া ভেঙেই ছোট্ট মেয়েটি যেন ফিরে পেল তার স্কুল! বাড়িতে প্রিয় শিক্ষককে দেখে তার আনন্দ আর ধরে না। ম্যামকে জড়িয়ে ধরে, আদর করে। এতে আপ্লুত হয়ে পড়েন শিক্ষকও। তারপর মেয়েটিকে নিয়ে পড়াতে বসেন।

শিশু সুমাইয়া জাহান সিনথিয়া গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার গাড়ারণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী। এই স্কুলের শিক্ষিকা রুনা আক্তার গত সোমবার সিনথিয়াকে পড়াতে তাদের বাড়িতে গেলে হৃদয়ছোঁয়া এমন ঘটনা ঘটে। পরে ঘণ্টাখানেক পড়িয়ে তিনি চলে যান। শুধু সিনথিয়া নয়, গাজীপুরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়ূয়া এ রকম হাজার হাজার শিক্ষার্থীকে বাড়ি বাড়ি গিয়ে পাঠদান করছেন শত শত শিক্ষক। বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ার পর গত বছরের মার্চ মাস থেকে বন্ধ রয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। নানা মাধ্যমে পাঠদান চালু রাখার চেষ্টা অব্যাহত থাকলেও গ্রামাঞ্চলের বেশিরভাগ শিক্ষার্থীর মধ্যেই অনাগ্রহী ভাব দেখা গেছে। অনেকে মাসের পর মাস বই নিয়েই বসেনি। মোবাইলে গেমস আর সঙ্গীদের সঙ্গে খেলাধুলা, হৈ-হুল্লোড় করে সময় পার করছে।

নতুন বছরের শুরুতে ছাত্রছাত্রীদের হাতে নতুন বই তুলে দেওয়ার পর থেকে শ্রীপুরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুদের পাঠ গ্রহণের প্রতি আগ্রহী করে তুলতে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে উপজেলা শিক্ষা অফিস। শিক্ষার্থীরা স্কুলে আসতে না পারলে কী হবে, শিক্ষকরাই বাড়ি বাড়ি গিয়ে পড়িয়ে আসছেন। শিক্ষার্থীদের অনুভূতি যেন তাদের কাছে শিক্ষক নয়, স্কুলই চলে আসছে।

মুলাইদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক লুৎফর রহমান ফরহাদ বলেন, প্রতিদিন সকালে শিক্ষকরা স্কুলে এসে স্টাফ মিটিং শেষ করে বেরিয়ে যান শিক্ষার্থীর বাড়িতে। একজন শিক্ষক কমপক্ষে দু'জন শিক্ষার্থীর বাড়ি গিয়ে পাঠ দিচ্ছেন। কেউ কেউ ৮-১০ জনের বাড়িতেও যাচ্ছেন। সপ্তাহে অন্তত দু'দিন করে একজন শিক্ষক এক শিক্ষার্থীর বাড়ি গিয়ে পড়িয়ে আসছেন। বিদ্যালয়গুলোর প্রধান শিক্ষক ব্লক আকারে ভাগ করে দিয়েছেন। একেক ব্লকে ৫০ জন শিক্ষার্থী। ওই ৫০ জনকে

বাড়িতে গিয়ে পড়িয়ে আসছেন একজন শিক্ষক। উপজেলার ১৬৮টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১ হাজার ১৭ জন শিক্ষক এভাবে পাঠ দিচ্ছেন বলে জানায় প্রাথমিক শিক্ষা অফিস। চলতি বছরের প্রথম দিক থেকে এ কার্যক্রম জোরালোভাবে শুরু হয়েছে। সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টার মধ্যে চলছে এ কার্যক্রম। তবে ব্যতিক্রমও রয়েছে। কোনো কোনো শিক্ষক সন্ধ্যার পরও যাচ্ছেন শিক্ষার্থীর বাড়ি।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মুহাম্মদ কামরুল হাসান বলেন, বেশিরভাগ ছাত্রছাত্রীই পাঠবিমুখ হয়ে পড়েছিল। শিক্ষকরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে পাঠদান শুরু করায় আবার তাদের মধ্যে একটা আগ্রহ তৈরি হয়েছে। প্রিয় শিক্ষককে কাছে পেয়ে তারা বেশ খুশি। অভিভাবকরাও এ উদ্যোগকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন। অভিভাবক স্বপ্না আক্তার বলেন, আরও আগে এ উদ্যোগ নিলে ভালো হতো।

ধনুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মেজবাহ উদ্দিন বলেন, সহকারী শিক্ষকরা ছাত্রছাত্রীদের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন। প্রধান শিক্ষক সেটা মনিটর করছেন।

গাড়ারণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাজেদা পারভীন বলেন, প্রতিদিন এসে আগের দিনের কার্যক্রম সম্পর্কে শিক্ষকরা প্রধান শিক্ষককে অবহিত করছেন। লোহাগাছ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহজাহান বলেন, শিক্ষকরাও বেশ আগ্রহ নিয়ে ছাত্রছাত্রীর বাড়ি গিয়ে পড়িয়ে আসছেন।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আরও বলেন, সংশ্নিষ্ট বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মৌখিক নির্দেশ পাওয়ার পরই উপজেলায় এ কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। ১৬৮টি স্কুলে ৪০ হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থী রয়েছে। স্কুল খোলার আগ পর্যন্ত এভাবে পাঠদান চলবে।

জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোফাজ্জল হোসেন বলেন, শুধু শ্রীপুরে নয়, জেলার প্রায় সব প্রাথমিক বিদ্যালয়েই এ কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। কোনো কোনো বিদ্যালয় আরও আগেই শুরু করেছে। করোনার কারণে খানিকটা কমে যাওয়া পাঠাভ্যাস আবার ফিরিয়ে আনতে এ কার্যক্রম ভূমিকা রাখবে।

আরও পড়ুন
শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • ফেব্রুয়ারিতেও রেমিট্যান্স রেকর্ড 

  • পোশাক খাতে ভিয়েতনামকে পেছনে ফেললো বাংলাদেশ

  • বায়োটেক প্লাজমা প্রযুক্তির যুগে প্রবেশ করল বাংলাদেশ: আইসিটি প্রতি

  • ঢাকার যানজট মুক্তির স্বপ্ন ৬ মেট্রোরেলে

  • বীমা খাত উন্নয়নে ৬৩২ কোটি টাকার প্রকল্পের কাজ চলমান

  • টিকা প্রদানে শিক্ষকদের তালিকা চেয়েছে মন্ত্রণালয় 

  • দক্ষ নাবিক তৈরিতে তিন জেলায় হচ্ছে মেরিটাইম ইনস্টিটিউট

  • শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের উপবৃত্তি পাচ্ছে দেড় লাখ শিক্ষার্থী 

  • মেট্রো রেল প্রকল্পে গড় অগ্রগতি ৫৬.৯৪%

  • মুজিববর্ষে জিটুপির আওতায় আসছে ৯০ লাখ ভাতাভোগী

  • সীতাকুণ্ডে শিম চাষে ১৫০ কোটি টাকা আয়, কৃষকের মুখে হাসি 

  • বিদেশে রপ্তানি হচ্ছে নারীদের তৈরি বাহারি টুপি

  • স্কুল-কলেজের ক্লাস শুরু হচ্ছে আগামী ৩০ মার্চ: শিক্ষামন্ত্রী

  • প্রেস ক্লাবে চরম ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে পুলিশ : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • দেশে স্বাস্থ্য বিমা আরো ব্যাপকভাবে চালু করা উচিত: প্রধানমন্ত্রী

  • এলো স্বাধীনতার মাস

  • দৃশ্যমান হলো মেট্রোরেলের পৌনে ১২ কিলোমিটার

  • দেশে আরও ৩ কোটি ডোজ টিকা আসছে

  • আগামী বছরের জুনে যানজট থেকে ‘মুক্তি’!

  • ২০২১ সালেই চালু হবে ‘ফাইভ জি’: মোস্তাফা জব্বার

  • জাটকা সংরক্ষণে কাল থেকে ৬ জেলায় মাছ ধরা নিষিদ্ধ

  • উত্তরা-আগারগাঁও মেট্রোরেল দৃশ্যমান

  • সুনাম ছড়াচ্ছে আড়িয়াল বিলের করলা

  • সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী
    মুজিববর্ষে অনন্য মাইলফলকে দেশ

  • আধুনিক বিশ্বের মতো উন্নত বিদ্যুৎ ব্যবস্থায় যাচ্ছে দেশ

  • আগাম আনারসে কৃষকের হাসি

  • চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের জন্য বাংলাদেশের প্রস্তুতি সম্পন্ন

  • জিএসপি প্লাস সুবিধা আদায়ে প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে

  • ইচ্ছেকৃত ঋণখেলাপিদের গাড়ি ও বাড়ি ক্রয়ে নিষেধাজ্ঞা আসছে

  • ১৭ দিনে দেশে টিকা নিয়েছেন প্রায় ৩০ লাখ মানুষ

  • ৪০ হাজার যুবককে ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ দেবে সরকার

  • নারী পুলিশকে আরও স্মার্ট করেছে স্কুটি

  • মসলিনের সোনালি যুগে ফিরছে বাংলাদেশ

  • বাংলাদেশ থেকে ১২ হাজার কর্মী নেবে সিঙ্গাপুর, রোমানিয়া

  • উত্তরা-আগারগাঁও মেট্রোরেল দৃশ্যমান

  • বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে অনেক এগিয়েছে চট্টগ্রাম বন্দর

  • ২০২১ সালেই দেশে আসবে হাইড্রোজেনচালিত কার

  • ঢাকা–জলপাইগুড়ি যাত্রীবাহী ট্রেন চালু ২৬ মার্চ

  • উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের চূড়ান্ত সুপারিশ পেল বাংলাদেশ

  • রাত-দিন চলছে কাজ, মেট্রোরেলের লাইন বসেছে ৭ কিলোমিটার

  • প্রতিযোগিতায় ভালো অবস্থানে পোশাক খাত

  • বিমান বাহিনীর একটা গৌরবময় ইতিহাস রয়েছে: প্রধানমন্ত্রী 

  • তাঁতশিল্পকে আরো উন্নত এবং সমৃদ্ধশালী করতে কাজ করছে সরকার

  • ‘তথ্যের স্বচ্ছতা-নিরাপত্তা নিশ্চিতে ব্লকচেইন ব্যবহার করছে সরকার’

  • হাসপাতাল পেয়ে খুশি ৪০ গ্রামের লক্ষাধিক মানুষ

  • ১৩ হাজার একর ভূমিতে অর্থনৈতিক অঞ্চল

  • ৫৭ লাখ কৃষক পেলেন ৩৭২ কোটি টাকার প্রণোদনা

  • রিজার্ভ ৪৪ বিলিয়ন ডলার ছাড়াল

  • আলোকিত হবে দ্বীপকন্যা ‘চর কুকরি-মুকরি’

  • চট্টগ্রামে উদ্বোধনের অপেক্ষায় শেখ হাসিনা পানি শোধনাগার

  • উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ: শনিবার সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী

  • ১৩ দিনে করোনার টিকা নিলেন ২৩ লাখ মানুষ

  • দিনরাত কাজ করে পদ্মা সেতু চালুর চিন্তা

  • মানসম্মত তেল পাওয়ার লক্ষ্যে করা হচ্ছে সূর্যমুখী চাষ 

  • বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা শান্তিপ্রিয় : প্রধানমন্ত্রী

  • শখের ‘গ্লাডিওলাস’ ফুল চাষে সাফল্য

  • বাংলাদেশ থেকে ইন্টারনেট নিতে চায় ভুটান

  • মেয়েদের শিক্ষা ও জীবনমান উন্নয়নের প্রশংসায় এডিবি

  • বাংলাদেশ-ভারত স্বরাষ্ট্র সচিব পর্যায়ের বৈঠক আজ 

  • খুলনায় এই প্রথম বাণিজ্যিকভাবে ক্যাপসিকাম চাষ