রোববার   ০১ আগস্ট ২০২১

সর্বশেষ:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে ইসি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ: নূরুল হুদা বারবার আসতে পারব না, যত খুশি সাজা দিন: খালেদা জিয়া ‘আকাশবীণার’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী ত্রিভুবনে আবারও বিমান দুর্ঘটনা ট্রেন-বাসের সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ২৫ ভুয়া ছবি দিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে মিয়ানমার: প্রধানমন্ত্রী
৬৭

সুন্দরবনের বাঘ সংরক্ষণে সরকারের টাইগার অ্যাকশন প্ল্যান

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২০ জুলাই ২০২১  

সুন্দরবনের বাঘ সংরক্ষণের জন্য টাইগার অ্যাকশন প্ল্যান নামে পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় এরইমধ্যে টাইগার অ্যাকশন প্ল্যান অনুমোদন করেছে।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছে, টাইগার অ্যাকশন প্ল্যান বাস্তবায়ন করতে আগামী ১০ বছর একটানা কার্যক্রম চালিয়ে যাবে সরকার।

২০২২ সালে রাশিয়ায় বাঘ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। ওই সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ ১৩টি দেশের রাষ্ট্রপ্রধান এবং সরকারপ্রধানরা উপস্থিত থাকবেন। এর আগেই বাংলাদেশ বাঘ জরিপ, সহ বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ চলমান আইন সংশোধন করে কঠিন ধারা সংযোজন করা হচ্ছে। আইনটি সংশোধন করার জন্য বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ অঞ্চল ঢাকা অফিস থেকে একটি প্রস্তাব সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় পাঠানোর উদ্যোগ নিয়েছে।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, টাইগার অ্যাকশন প্ল্যান বাঘের বংশবিস্তার সংরক্ষণ, বাঘের খাদ্য হরিণ, শূকর বৃদ্ধি, সুন্দরবনে বাঘের আবাসস্থল উন্নত করা এবং বয়স্ক বাঘের গলায় রেডিও জিপিএস স্থাপন, প্রাণীর মাধ্যমে মানবদেহে ভাইরাস ছড়ায় কিনা তা পরীক্ষা করতে বাঘ , হরিণ ও শূকরের রক্ত মল পরীক্ষা করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলেছে, সুন্দরবনে বাঘের বর্তমান আবাসস্থল ২৩ ভাগ। এটিকে বাড়িয়ে ৫২ ভাগ করা হচ্ছে। বাঘের বংশ বিস্তারের জন্য নেওয়া হচ্ছে বৈজ্ঞানিক অনেক পদক্ষেপ। জেলে সেজে ফাঁদ পেতে হরিণ ও বাঘ শিকার যারা করে তাদের তালিকা করে সচেতন করা হবে। পাশাপাশি শিকার বন্ধ করতে কঠিন অ্যাকশনে যেতে গঠন করা হয়েছে এলিট ফোর্স।

সূত্রটি জানায় ২০১৫ ও ১৮ সালে সুন্দরবনের বাঘ জরিপ করা হয়। জরিপ অনুযায়ী বাঘের সংখ্যা বর্তমানে ১১৪টি। এই সংখ্যা বেড়ে কত হয়েছে তা দেখার জন্য চলতি বছর শীত মৌসুমে বাঘের জরিপ কাজ শুরু হবে।

সূত্র জানায়, বাঘের শক্তিশালী প্রজন্ম বৃদ্ধির চিন্তা-ভাবনা করা হচ্ছে। অনেক সময় দেখা যায় বাঘেদের একই উত্তরসূরীদের মধ্যে প্রজনন সম্পর্ক তৈরি হয়। এটি বন্ধ করার কৌশল নেওয়া হচ্ছে। একই উত্তরসূরীদের মধ্যে প্রজনন সম্পর্ক তৈরি হওয়ায় তাতে অসুস্থ-বিকলাঙ্গ বাচ্চা জন্মের আশঙ্কা থাকে। এই বিষয়টিও সরকার বিবেচনায় রেখেছে।

অ্যাকশন প্ল্যান সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় একজন কর্মকর্তা জানান, বয়স্ক বাঘগুলো একপর্যায়ে হরিণ শিকার করতে পারে না। এরা তখন লোকালয়ে ঢুকে পড়ে হরিণ-ছাগল শিকার এবং মানুষকে আক্রমণ করে। জনগণ ওই বয়স্ক বাঘকে বিভিন্নভাবে আটকে মেরে ফেলে। বয়স্ক বাঘগুলো লোকালয় ঢুকতে গেলে যেন সংকেত পাওয়া যায় সে জন্য বাঘের গলায় রেডিও জিপিএস বেঁধে দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এতে বাঘ যখন লোকালয়ে ঢুকবে বা ঢুকতে যাবে তখন আগাম সংকেত পাওয়া যাবে। এতে স্থানীয় জনসাধারণ সচেতন হবে।

সুন্দরবন পশ্চিমের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) ড. আবু নাসের মোহসিন হোসেন সারাবাংলাকে বলেন, ‘৫/৬ দিন পর কোনো বাঘ একটি হরিণ শিকার করে। একটি বাঘ বছরে ৫২ থেকে ৬০ টি হরিণ খাদ্যের জন্য শিকার করে। ১০০টি বাঘ বছরে ৬ থেকে ৭ হাজার হরিণ খাদ্যের জন্য শিকার করে থাকে। বাঘের খাদ্য ঠিক রাখতে হবে। আর তা না হলে বড় ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। সে জন্য সুন্দরবনের ভেতরে চারণভূমিতে হরিণের খাদ্য ঘাস কেওরাসহ নানা ধরনের গাছের চারা রোপণ করা হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘হরিণ এবং বাঘ শিকার বন্ধে বর্তমানে বন প্রহরী ছাড়াও একটি এলিট ফোর্স গঠন করা হয়েছে। তারা রীতিমতো সুন্দরবনের ভেতরে টহল অব্যাহত রেখেছে।’

তিনি আরও জানান, বাঘের আক্রমণে কোনো মানুষ মারা গেলে তার পরিবারকে আগে দেওয়া হতো এক লাখ টাকা। এই টাকা বাড়িয়ে ৩ লাখ টাকা করা হয়েছে।’

এই বন কর্মকর্তা বলেন,‘মানুষকে সচেতন করা হচ্ছে যেন বাঘ নিধন না করে। এখন সচেনতা অনেকটা বেড়েছে। কোনো বাঘ লোকালয়ে ঢুকে পড়লে জনগণ সম্মিলিতভাবে বাঘটিকে তাড়িয়ে আবার জঙ্গলে পাঠিয়ে দেয়। এতে করে মনে হয় বাঘ এবং মানুষের মধ্যে বন্ধুত্বের সৃষ্টি হয়েছে।’

ড. আবু নাসের মোহসিন হোসেন বলেন, ‘বাঘের ওপর যেসব হুমকি আছে তা বন্ধ করতে হবে। আগামী দশ বছরের জন্য  সুন্দরবনে বাঘ ও হরিণ শিকার বন্ধের জন্য নেওয়া হয়েছে কঠিন পদক্ষেপ। সুন্দরবন সংরক্ষণের জন্য সুরক্ষা প্রকল্প এবং বাঘ হরিণ শিকার বন্ধে টাইগার অ্যাকশন প্ল্যান পদক্ষেপ বাস্তবায়ন পড়তে সরকার বদ্ধপরিকর।’

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • আগস্টের প্রথম প্রহরে ছাত্রলীগের মোমবাতি প্রজ্জালন

  • সব ক্লাবের চাইতে পার্লামেন্ট মেম্বার্স ক্লাব অনন্য : স্পিকার

  • গাউসিয়া কমিটিকে অ্যাম্বুলেন্স উপহার আ. লীগের ত্রাণ উপ-কমিটির

  • টিকা নিবন্ধনকারীর সংখ্যা দেড় কোটি ছুঁই ছুঁই

  • রংপুরের ৬৯ সাংবাদিক পেলেন প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহায়তা

  • আজ সকালে বাংলাদেশ, বিকেলে অনুশীলন অস্ট্রেলিয়ার

  • লোকজ সংস্কৃতির বিকাশে এগিয়ে আসতে হবে

  • প্রথম ম্যাচে অনিশ্চিত সাকিব সৌম্য মোস্তাফিজ!

  • কাতারের ইতিহাসে প্রথম অলিম্পিক সোনা

  • রায়পুরে দাফনের ২৩ দিন পর বৃদ্ধের লাশ উত্তোলন

  • আগস্টের অশ্রু, বয়ে যায় নয়নে নয়নে

  • পটুয়াখালী মেডিকেলে আইসিইউর ৫ মনিটর দিলেন আ.লীগ নেতা

  • ফেনীতে খাল পরিষ্কার করল ছাত্রলীগ

  • এইচএসসির ফরম পূরণ শুরু ১২ আগস্ট, কমেছে ফি

  • অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ সিরিজ: মিরপুরে চলাচল থাকবে সীমিত

  • করোনা রোগীদের জন্য ফ্রি অ্যাম্বুলেন্স ও অক্সিজেন সার্ভিস

  • রাজশাহীতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চুরি, মালামালসহ গ্রেফতার ৪

  • অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান সেতুমন্ত্রীর

  • বাবা-মায়ের কবরের পাশে শায়িত হলেন আলী আশরাফ

  • অক্সিজেন সিলিন্ডার উপহার দিলেন আইনমন্ত্রী

  • যাত্রীবাহী মাইক্রো ভেবে ডিবির গাড়িতে ডাকাতি করতে গিয়ে গ্রেফতার

  • কর্মস্থলে ফিরতে বরিশাল মহাসড়কে জনস্রোত

  • পটুয়াখালী মেডিকেলে আইসিইউর ৫ মনিটর দিলেন আ.লীগ নেতা সুলতান

  • দেশে এক দামে ইন্টারনেট, ব্রডব্যান্ড গ্রাহক কোটি ছাড়ালো

  • বরিশালের নারীদের তৈরি পণ্য রপ্তানি হয় ২১ দেশে

  • রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের রিয়্যাক্টর ভবনের ডোম স্থাপন

  • বাংলাদেশে ভ্যাকসিন ফাইন্ডার চালু করছে ফেসবুক

  • জাপান থেকে এলো আরও প্রায় ৮ লাখ ডোজ টিকা

  • এনআইডি ও জন্ম নিবন্ধন ছাড়াও মিলবে ভ্যাকসিন

  • স্কিপিং রোপে বিশ্ব রেকর্ড করলেন ঠাকুরগাঁওয়ের রাসেল

  • ২৫শ টাকার নগদ সহায়তা পেয়েছেন ১৭ লাখ ২৪ হাজার মানুষ

  • পশুর নাড়ি-ভুঁড়ি রফতানি করে বছরে আয় ৩২০ কোটি টাকা

  • সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে আধুনিকতার ছোঁয়া

  • কঙ্গোয় বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীদের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত

  • প্রতিবন্ধকতা জয় করে এগিয়ে চলছে কর্ণফুলী টানেলের নির্মাণকাজ

  • গণসংগীত শিল্পী ফকির আলমগীর আর নেই

  • করোনাযুদ্ধে ১৯৫ দেশের মধ্যে সেরা ২০-এ বাংলাদেশ

  • কুড়িগ্রামে ধানের মুড়ি ফসল কৃষিতে নতুন বিপ্লব

  • ডিএনসিসি কোভিড হাসপাতালে যোগ হচ্ছে আরও ৫০০ বেড

  • বিদ্যুৎ উৎপাদন বেড়েছে ১৩৭৯৩ মেগাওয়াট

  • মেরিন ড্রাইভ খুলে দেবে সম্ভাবনার নতুন দিগন্ত

  • তেল চুরি করতে গিয়ে পদ্মাসেতুর পিলারে ফেরির ধাক্কা

  • তিন দুম্বায় বাজিমাত সোহেলের

  • মেট্রোরেলের আরো দুই সেট ট্রেন এখন দেশে

  • বিদেশে পড়তে যাওয়া সব শিক্ষার্থী টিকা পাবেন: পররাষ্ট্র সচিব

  • লটকন বিক্রি করে ৩০ লাখ টাকার বাড়ি করলেন তোতা মিয়া

  • প্রতি মাসে ১ কোটি টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য পৌনে ৫ কোটি টাকা, সাড়ে ৯ হাজার টন চাল

  • কলেবর বাড়ছে বিজিবির, নিয়োগ পাচ্ছে ১৫ হাজার সদস্য

  • ১৯ দিনে রেমিট্যান্স এলো ১৩ হাজার কোটি টাকা

  • যুক্তরাষ্ট্রে স্যাট পরীক্ষায় বাংলাদেশি অপূর্বর রেকর্ড

  • মৌখিক পরীক্ষা ছাড়াই নেয়া হচ্ছে ৮ হাজার চিকিৎসক-নার্স

  • বর্ণিল ফুলে সুশোভিত ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক

  • ৩১ জুলাই চালু হচ্ছে বিএসএমএমইউ ফিল্ড হাসপাতাল

  • ৭ আগস্ট থেকে গ্রামে গ্রামে করোনা টিকা

  • ‘করোনা টিকা নেওয়ার বয়সসীমা ১৮ হচ্ছে’

  • দেশে নির্মাণ হচ্ছে দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম আধুনিক খাদ্য সংরক্ষণাগার

  • কাপ্তাই জলবিদ্যুৎ কেন্দ্রে বেড়েছে উৎপাদন, সচল ৪ ইউনিট

  • মোবাইল থেকেই আয়কর রিটার্ন দাখিল করা যাবে

  • বারোমাসি সিডলেস ও এলাচি লেবু চাষ করে স্বাবলম্বী