সোমবার   ১৪ জুন ২০২১

সর্বশেষ:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে ইসি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ: নূরুল হুদা বারবার আসতে পারব না, যত খুশি সাজা দিন: খালেদা জিয়া ‘আকাশবীণার’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী ত্রিভুবনে আবারও বিমান দুর্ঘটনা ট্রেন-বাসের সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ২৫ ভুয়া ছবি দিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে মিয়ানমার: প্রধানমন্ত্রী
৬৮৫

‘শেখ মুজিব আজও অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবার প্রতীক’

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ৮ মার্চ ২০২০  

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ডয়চে ভেলের কাছে দেয়া সাক্ষাতকারে এ কথা বলেছেন জার্মানির হাইডেলবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের দক্ষিণ এশিয়া ইন্সটিটিউটের প্রধান ড. হান্স হার্ডার। তার সাক্ষাতকার –

ডয়চে ভেলে: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষে রয়েছি আমরা। বাংলাদেশ সরকার দেশে ও অন্যান্য দূতাবাসে তা উদযাপনে নানা আয়োজন করেছে। আপনার অনুভূতি কেমন?

ড. হান্স হার্ডার: বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ নিয়ে যে এতো হইচই হচ্ছে সব জায়গায়, সেটা খুবই স্বাভাবিক। কারণ বাংলাদেশ স্বাধীন রাষ্ট্র হবার পেছনে বঙ্গবন্ধুর বিরাট বড় ভূমিকা ছিলো বলে আমি মনে করি। এমনকি এটা বলা যেতেই পারে যে, শেখ মুজিবের মতো সম্ভ্রান্ত, জোরালো ও সাহসী জননায়ক না থাকলে বাংলাদেশ সেসময় স্বাধীন হতে পারতো কি না, তা সন্দেহের বিষয়।

ডয়চে ভেলে: এবছর যেহেতু তাঁর জন্মশতবর্ষ, সেই উপলক্ষে বাংলাদেশে সরকারিভাবে নানা আয়োজন করা হয়েছে। এরমধ্যে অন্যতম আকর্ষণ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আপনি বিষয়টা কীভাবে দেখছেন?

ড. হান্স হার্ডার: এটা নিয়ে আমার মনে হয় আলোচনার অবশ্যই দরকার আছে। গভীরে যেতে হবে তার জন্য। এই ঘটনা নিয়ে আমি সহজ-সরল কোনও বক্তব্য দিতে পারবো না। আপাতত এই বিষয়ে কথা না বলাই উচিত।

ডয়চে ভেলে: জার্মানিতে কি বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উদযাপন হওয়া উচিত, হলে কীভাবে?

ড. হান্স হার্ডার: হওয়া উচিত। কিন্তু হবে কি না, তা আমার জানা নেই। আমরা এখানে (হাইডেলবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে) কিছু করছি না এখন পর্যন্ত। কিন্তু একদম কিছু করবো না, তা এই মুহূর্তে জানি না। জার্মানিতে অনেক রাজনৈতিক পক্ষ আছেন। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সদস্যরা আছেন। তাঁরা নিশ্চয়ই কিছু না কিছু করবেন। কিন্তু আমার বিস্তারিত জানা নেই সে বিষয়ে। কিন্তু জার্মানি ছাড়াও, বিশ্বের সব জায়গাতেই বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করা উচিত। কারণ আমি মনে করি তিনি একজন প্রতীক। শেখ মুজিব আজও অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবার প্রতীক। আমি প্রায়ই ওনার বিখ্যাত সব বক্তৃতার লাইন মনে করি। যেমন ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম’। রমনাতে ৭ মার্চের এই ভাষণ শুনলে আজও আমাদের গায়ে কাঁটা দেয়। তাই আমি মনে করি শেখ মুজিবকে সাহসের প্রতিমূর্তি হিসাবে দেখা উচিত।

ডয়চে ভেলে: একজন গবেষকের দৃষ্টিভঙ্গী থেকে আপনার কি মনে হয় বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কাজ করার এখনও আরও অনেক জায়গা আছে?

ড. হান্স হার্ডার: জায়গা নিশ্চয়ই আছে, কিন্তু সমালোচনারও জায়গা আছে। এইসব সমালোচনার জায়গা হয়তো এখন জন্মশতবার্ষিকীকে ঘিরে নাও করা যেতে পারে। এখানে সেটা মানানসই হবে না। কিন্তু বঙ্গবন্ধুকে দেখার অনেক ধরনের দৃষ্টিভঙ্গী থাকতে পারে। অনেক পরিপ্রেক্ষিত থাকতে পারে। এই দৃষ্টিভঙ্গীগুলির গভীরে গেলে বঙ্গবন্ধুকে শুধুই সাহসী রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হিসাবে দেখতে পাবো তা তো নয়। তখন অন্যান্য দিকগুলিও দেখবো। এই দুই দৃষ্টিভঙ্গীর মধ্যে যে ব্যবধান রাখা দরকার, তা এখনকার পরিস্থিতিতে আমি দেখছি না।

ডয়চে ভেলে: আপনার কাছে আজকের সময়ে বঙ্গবন্ধু গুরুত্বপূর্ণ কেন?

ড. হান্স হার্ডার: এই সাহসী ব্যক্তিত্বকে মনে রাখা অবশ্যই উচিত। কারণ এই শেখ মুজিব সব ধরনের দলীয় রাজনীতির ঊর্ধ্বে। সব দলের রাজনীতির, রাজনৈতিক লবির হস্তক্ষেপের বাইরে। কোনও বিশেষ দলের নেতা হিসাবে নয়, আমরা যেনো ওনাকে দেখি একজন অসম সাহসী ব্যক্তিত্ব হিসাবে। এভাবেই যেনো ওনার স্মৃতিচারণ করা হয়।

ডয়চে ভেলে: আপনি বাংলাদেশে গেলে সেখানে বঙ্গবন্ধুকে কোথায় খুঁজে পান?

ড. হান্স হার্ডার: আজকাল আমরা বাংলাদেশে শেখ মুজিবকে সর্বত্রই পাই। দেয়ালে দেয়ালে, রাস্তায় রাস্তায় তাঁকে দেখতে পাই। ওনার কথা না ভেবে থাকাই যায় না, কারণ এতো প্রচার হচ্ছে ওনার নামে, এই প্রচারগুলো সব যে ঠিক তা নয়, কিন্তু সেটা অন্য আলোচনা। এখন সেটায় আমি যাচ্ছি না।

ডয়চে ভেলে: পাঠকদের জন্য বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আপনার কোনও বিশেষ বার্তা আছে কি?

ড. হান্স হার্ডার: এ আনন্দ উপলক্ষে সবাইকে আমি আমার আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়ে শেষ করতে চাই।

আরও পড়ুন
সাক্ষাৎকার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • সংক্রমণ বাড়লে স্থানীয়ভাবে লকডাউন দেয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  • চট্টগ্রাম মহানগরীতে ওয়াসার নীরব বিপ্লব

  • জীবনযাত্রার ব্যয় কমিয়ে সঞ্চয়ে ঝুঁকছে মানুষ

  • শিল্পকলা পদক পাচ্ছেন ১৮ গুণীজন

  • রিজার্ভের অর্থে প্রথম প্রকল্প চুক্তি পায়রা বন্দর ড্রেজিংয়ে

  • প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ
    পায়রা বন্দরের ব্যয় বাঁচবে ৬ হাজার কোটি টাকা

  • আকাশের তারা দেখার অভিনব ঘড়ি আবিষ্কার রাজমিস্ত্রির

  • চার দিনে ১০৭ টন বর্জ্য অপসারণ করেছে ডিএসসিসি

  • আগামী সপ্তাহ থেকে দেওয়া হবে ফাইজার-সিনোফার্মের টিকা

  • ৩০ জুন পর্যন্ত ভারতীয় সীমান্ত বন্ধ

  • ৯০১ কোটি টাকার বঙ্গবন্ধু যুবঋণ বিতরণ

  • সে রাতে কী ঘটেছিল, জানালেন পরীমনি

  • কোপা আমেরিকা
    আর্জেন্টিনা মেসির ওপর বেশি নির্ভরশীল নয়?

  • বিপিও খাতে বাংলাদেশ এখন বিশ্বে সপ্তম

  • প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে আইসিসির মাসসেরা মুশফিক

  • আওয়ামী লীগ থেকে বিতর্কিতদের বাদ দিতে নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  • করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত দুটোই বেড়েছে

  • পদ হারালেন নেতানিয়াহু
    ইসরায়েলের নতুন প্রধানমন্ত্রী নাফতালি

  • নেইমারের গোলে আরো ব্যবধান বাড়ালো ব্রাজিল

  • নরমালে সন্তান প্রসব করলেই নবজাতক-মা পাবেন উপহার

  • অস্ট্রেলিয়ায় হচ্ছে বাংলাদেশের আইকনিক চ্যান্সেরি ভবন

  • বরিশালের কলেজছাত্র উদ্ভাবিত ‘স্মার্ট হাইওয়ে’ বাস্তবায়ন হবে জাপানে

  • আবারও ‘বিশ্বসেরা’ বাংলাদেশের পুঁজিবাজার

  • বসল রেলপথের গার্ডার, যুক্ত হলো দুই পার

  • ১০ মিনিটে ক্যান্সার শনাক্ত, হার্ভার্ডে নিয়োগ পেল শাবি শিক্ষার্থী

  • লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে এগিয়ে শাহজালালের তৃতীয় টার্মিনালের নির্মাণকাজ

  • কিভাবে বুঝবেন আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম?

  • বিনিয়োগ আকর্ষণকে দেখা হচ্ছে বড় চ্যালেঞ্জ

  • সিরিয়ার হাসপাতালে হামলা, শিশুসহ নিহত ১৮

  • কোপার উদ্বোধনী ম্যাচে লড়বে ব্রাজিল ও ভেনেজুয়েলা

  • ঐতিহাসিক ৬ দফা দিবস আজ

  • উত্তরাঞ্চলে বিনামূল্যে করোনা পরীক্ষার পরিকল্পনা

  • দেশের যেকোনো স্থানে ৫০০ টাকায় মিলবে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট

  • অক্সফোর্ডের টিকা নিয়ে বাংলাদেশের দুশ্চিন্তার অবসান

  • জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছে বাংলাদেশ

  • করোনাকালেও উড়াল রেলপথ নির্মাণে উড়ন্ত গতি

  • সারা দেশে শুরু টিসিবির পণ্য বিক্রি

  • ৫০ মডেল মসজিদ উদ্বোধন বৃহস্পতিবার

  • ‘কৃষকের জানালা’ অনুসরণে মিলছে সফলতা

  • সারাদেশে ৫০০ টাকায় মাসব্যাপী ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট

  • স্বপ্নের লেবুখালী সেতু: মাত্র ৫ ঘণ্টায় কুয়াকাটা

  • নারী উদ্যোক্তার সংখ্যা বাড়বে, কারণ...

  • তরুণ বিজ্ঞানীর অটো ড্রেন ক্লিনার বাঁচাবে সময়-টাকা

  • দেশে হ্যান্ডসেট উৎপাদন-সংযোজনে আরও ২ বছর ভ্যাট অব্যাহতি  

  • সরকারি কর্মকর্তাদের আবাসন সুবিধা বৃদ্ধি

  • দৃষ্টিনন্দন এই মসজিদগুলোতে থাকছে যেসব সুবিধা 

  • বঙ্গবন্ধু সবসময় বলতেন ছয় দফা মানেই এক দফা, স্বাধীনতা

  • চাঁদপুরে ডিজিটাল সেবায় ভাতার আওতায় ১ লাখ ৮৯ হাজার মানুষ

  • অর্ধশত মডেল মসজিদ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

  • বাংলাদেশের উন্নয়ন অভিযাত্রার প্রশংসায় ডব্লিউএফপি প্রধান

  • চট্টগ্রাম বন্দরে আমদানির রেকর্ড

  • আগামী জুনে আসছে পাটের পলিথিন

  • ২১শের মধ্যেই জামালপুরে হাইটেক পার্ক, ৬৪ জেলায় ৫৫০টি ডিসেপ সেন্টার

  • আর্থিক খাতে শৃঙ্খলা ফেরাতে আসছে ১৫ আইন

  • বিশ্বসেরার তালিকায় দেশের ৪টি বিশ্ববিদ্যালয়

  • Hasina – a true statesman

  • আগামী বছরেই চালু হবে স্বপ্নের বিআরটি

  • ইউটিউব দেখে সুস্বাদু আঙুর চাষ, প্রথমবারেই সাফল্য

  • মিটারের আওতায় আসবে গ্যাসের ৪২ লাখ গ্রাহক

  • ইউএসজিবিসি’র স্বীকৃতি পেল দেশের ১৪৩ কারখানা