বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯

ব্রেকিং:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ খালেদার অনুপস্থিতিতেই কারাগারে বিচার চলবে রব ও মান্নার বিয়ে যুক্তফ্রন্টে, পরকীয়া ঐক্যফ্রন্টে: মাহী এটা জোট নয়, ঘোট : তথ্যমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় পেলেন সিনহা আবারও সরকার গঠনে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পদ্মা সেতু প্রকল্পের নামফলক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী
২৮১

শিশুর উচ্চতা কমবেশি কেন হয়

অধ্যাপক ডা. এমএ জলিল আনসারী

প্রকাশিত: ১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  

কোনো শিশু বড় হয়ে কতটা লম্বা হবে তা জন্মের পরপরই সঠিকভাবে বলে দেয়া না গেলেও মা-বাবার উচ্চতা মেপে চিকিৎসকরা একটা আন্দাজ করতে পারেন। ষোল-সতেরো বছর পর্যন্ত কারও লম্বা হওয়ার সময়। এরপর পঁচিশ পর্যন্ত সর্বোচ্চ ২/১ সেন্টিমিটার উচ্চতা বাড়তে পারে; এরপর আর নয়।

সাবালক হওয়ার পর লম্বা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না বললেই চলে। কোনো শিশু জন্মের সময় ২০ ইঞ্চি লম্বা হলে প্রাপ্ত বয়সে যদি ৬ ফুট (৭২ ইঞ্চি) উচ্চতা হতে হয় তবে তাকে ১৪ বছরে আরও ৫০ ইঞ্চি লম্বা হতে হবে। গড়ে প্রতি বছর ৪ ইঞ্চি করে। বাস্তবে সবসময় একই হারে উচ্চতা বৃদ্ধি পায় না।

জন্মের পরপর কয়েক বছর ও সাবালক হওয়ার সময় দ্রুত উচ্চতা বৃদ্ধি পায়। অভিজ্ঞ মা-বাবারা অনেকেই তা জানেন। মানুষের উচ্চতা কমবেশি হওয়ার কারণ সাধারণত বংশগত।

অনেক রোগ বিশেষ করে হরমোনজনিত রোগে কারও কারও উচ্চতা অস্বাভাবিকরকম কম বা বেশি হয়। পৃথিবীতে জানামতে সবচেয়ে খর্বাকৃতি মানুষের উচ্চতা মাত্র ২১ ইঞ্চি এবং সবচেয়ে লম্বা মানুষের ১০৭ ইঞ্চি প্রায় পাঁচগুণ তফাৎ! আশ্চর্যজনক বটে। কেন এমন হয় তা নিয়ে গবেষণা হয়েছে।

জানা যায়, মস্তিষ্কের অভ্যন্তরে পিটুইটারি নামক হরমোন নিঃসরণকারী গ্রন্থি থেকে গ্রোথ হরমোন নামক এক প্রকার হরমোন কমবেশি হওয়ার কারণেই কেউ অস্বাভাবিকরকম খাটো বা লম্বা হয়ে থাকে। এই হরমোন কেন কমবেশি হয় তা চিকিৎসকরাই নির্ণয় করতে পারেন। গ্রোথ হরমোন ছাড়াও আরও কিছু কারণে শৈশবাবস্থায় কারও উচ্চতা বিঘ্নিত হতে পারে।

এর মধ্যে সুষম খাদ্যের অভাব, থাইরয়েড হরমোনের অভাব, কিডনির রোগ, ভিটামিন ডির অভাব, পরিপাকতন্ত্র ও ফুসফুসের দীর্ঘমেয়াদি অসুখ ইত্যাদি। চিকিৎসকরা এসব নির্ণয় করে চিকিৎসা প্রদান করলে সাধারণত প্রাপ্ত বয়সে স্বাভাবিক উচ্চতা লাভ করা যায়। তবে কম উচ্চতা নিয়ে কেউ ১৪-১৫ বছর পার হলে চিকিৎসা করেও উচ্চতা আর বাড়ানো সম্ভব হয় না।

স্বাস্থ্যগত দিক থেকে যে রোগের জন্য কেউ অস্বাভাবিক খাটো বা লম্বা হয়ে থাকে তার গুরুত্বই বেশি। সামাজিক ক্ষেত্রে অতি লম্বা বা অতি খাটো হওয়া নানাবিধ কারণে বিব্রতকর হওয়ায় উচ্চতার জন্য অনেকেই চিকিৎসকের শরণাপন্ন হয়ে থাকেন।

চিকিৎসাবিজ্ঞানের আলোকে দেখা যায়, দেহের উচ্চতা বাড়ার প্রধান অঙ্গ হাতপায়ের লম্বা অস্থিগুলোর প্রান্তের কাছাকাছি অবস্থিত গ্রোথ প্লেট নামক অপেক্ষাকৃত নরম কার্টিলেজগঠিত অংশ হতেই উচ্চতা বৃদ্ধি পায়। অস্থির এই গ্রোথ প্লেট নামক অংশেই গ্রোথ হরমোনের ক্রিয়ার ফলে অস্থি বৃদ্ধি পায় এবং সঙ্গে সঙ্গে দেহের উচ্চতা বাড়তে থাকে।

মস্তিষ্কে অবস্থিত ক্ষুদ্রাকার পিটুইটারি গ্রন্থির হরমোন যাকে গ্রোথ হরমোন বলা হয় ইহাই মূলত আইজিএফ নামক অপর একটি হরমোনের মাধ্যমে উচ্চতা বৃদ্ধির কাজটি করে থাকে। উচ্চতা বৃদ্ধির এই প্রক্রিয়া ১৪-১৫ বছর বয়সে সাবালক হওয়ার পর আর থাকে না কারণ তখন অস্থির গ্রোথ প্লেট অস্থির সঙ্গে মিলিয়ে যায়।

উচ্চতার সঙ্গে অন্যান্য হরমোনের যোগসূত্র থাকলেও গ্রোথ হরমোনের প্রভাবই সবচেয়ে বেশি। গ্রোথ হরমোন বাইরে থেকে ওষুধের আকারে প্রয়োগ করে উচ্চতা বৃদ্ধি করা যায়, তবে এখানে শর্ত হল যত কম বয়সে প্রয়োগ করা যায় ততই ফল ভালো হয়ে থাকে। দশ বছরের পরে এর প্রয়োগে সুফল পাওয়ার সম্ভাবনা কম।

এ ব্যাপারে অজ্ঞতার কারণে বেশি বয়সে অনেকেই লম্বা হওয়ার জন্য চিকিৎসা করাতে চান যা প্রায় অসম্ভব। বেশি বয়সে কেবলমাত্র শল্যচিকিৎসার (সার্জারি) মাধ্যমেই কিছুটা লম্বা হওয়া সম্ভব।

কোনো শিশুর রক্তে গ্রোথ হরমোন কম থাকলে শিশুটি তার সমবয়স্ক স্বাভাবিক বাচ্চার তুলনায় অনেক কম উচ্চতাপ্রাপ্ত হয়। মা-বাবারা অনেক সময় তা খেয়াল করেন না বা বুঝতে দেরি করেন। শিশুর বৃদ্ধি স্বাভাবিক হচ্ছে কিনা তা গুরুত্বসহকারে লক্ষ্য করা উচিত।

অন্তত প্রতি তিন মাস পরপর শিশুর উচ্চতা মেপে লিখে রাখা প্রয়োজন। কোনো শিশু বিশেষজ্ঞের তত্ত্বাবধানে শিশুর দৈহিক ও মানসিক বৃদ্ধি স্বাভাবিক কিনা তা পরীক্ষা করে নিলে সবচেয়ে ভালো হয়। অতীতে গ্রোথ হরমোন ল্যাবরেটরিতে তৈরি করা যেত না এর মূল্যও অনেক বেশি ছিল তাই এর ব্যবহারও ছিল সীমিত।

আজকাল গ্রোথ হরমোন বাণিজ্যিক ভিত্তিতে তৈরি হয়, মানও ভালো এবং সব দেশেই পাওয়া যায় অথচ সচেতনতার অভাবে এর সুফল থেকে অনেকেই বঞ্চিত হচ্ছেন বলে ধারণা করা যায়। আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে এখনও এর দাম কিছুটা বেশি মনে হতে পারে।

তবে সঠিক সময়ে অর্থাৎ আগেভাগেই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শানুযায়ী ব্যবহার করা গেলে উচ্চতা নিয়ে ভবিষ্যতে সমস্যা হতে পারে এরূপ অনেক শিশুই পরিণত বয়সে এ সমস্যাকে এড়াতে পারেন। গ্রোথ হরমোন দিয়ে চিকিৎসায় আর্থিক ব্যায় বেশি হওয়া ছাড়াও কিছু শারীরিক সমস্যা কদাচিৎ লক্ষ্য করা যায় তাই চিকিৎসাকালীন কোনো হরমোন বিশেষজ্ঞের তত্ত্বাবধানে থাকা বাঞ্ছনীয়।

লেখক : বিভাগীয় প্রধান, হরমোন ও ডায়াবেটিস বিভাগ, ঢাকা মেডিকেল কলেজ

স্বাস্থ্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • সশস্ত্র বাহিনী দিবসে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

  • চেকপোস্টে ডাকাতের হামলায় ৩ পুলিশ আহত

  • জার্মানির সাবেক প্রেসিডেন্টের ছেলেকে হত্যা

  • পাকিস্তানে টমেটোর কেজি ৪০০ টাকা!

  • নুসরাতের জন্মদিনে ছোট ভাইয়ের আবেগঘন স্ট্যাটাস ভাইরাল

  • পেছাতে পারে মিথিলা-সৃজিতের বিয়ে

  • ঐশ্বরিয়ার জন্য এখনও কষ্ট পান সালমান!

  • ঢাকায় পাকিস্তানের কাছে ভারতের হার 

  • প্রকাশ হলো অভিনেত্রী মম’র গোপন বিয়ের খবর

  • উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে কুচক্রী মহল অপপ্রচার চালাচ্ছে: পলক

  • খুলনায় ঘের ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

  • সিলেটে চাঁদাবাজির অভিযোগে  নিপু আটক

  • বান্ধবীর সঙ্গে বাজি ধরে দিঘিতে ডুবে যাওয়া হৃদয়ের মরদেহ উদ্ধার

  • সিলেটে যুবককে ঝুলিয়ে ইউপি সদস্যের নির্যাতন!

  • আফগানিস্তানে দুই মার্কিন সেনা নিহত

  • ‘কুকুর হয়ে জন্ম নিয়ে সৈনিক হিসেবে অবসর’

  • মুক্তি পেল শাহরুখকন্যার প্রথম সিনেমা

  • মুসলিম ছাড়া অন্য সব ধর্মের মানুষকে ভারতে রাখার ঘোষণা অমিত শাহর

  • জ্যাক মাকে পিছনে ফেলে এশিয়ার সবচেয়ে ধনী মুকেশ আম্বানি

  • কলকাতার আকাশে টাকার বৃষ্টি! (ভিডিও)

  • সিরিয়ায় বিমানহামলা ইসরাইলের ভুল সিদ্ধান্ত: রাশিয়া

  • সিরিয়ায় ইসরাইলের বিমানহামলা

  • রাশিয়া থেকে যুদ্ধবিমান কিনছে মিসর, যুক্তরাষ্ট্রের হুমকি

  • নিরপত্তা ইস্যুতে পাক সেনাপ্রধানের সঙ্গে রুহানির বৈঠক

  • কংগ্রেস বিধায়ককে রাস্তায় ফেলে পিটুনি, উত্তাল বিধানসভা

  • ‘ইরানে ১০৬ বিক্ষোভকারীকে হত্যা, হেলিকপ্টার থেকে গুলি’

  • তুরস্ক ন্যাটোর মূল অংশীদার: জার্মানি

  • দৃশ্যমান হলো পদ্মা সেতুর ২৪০০ মিটার

  • স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কথায় সন্তুষ্ট হয়ে সড়কের ধর্মঘট প্রত্যাহার

  • ১০ দিন ধর্মঘটেও চালের বাজারে প্রভাব পড়বে না, বললেন খাদ্যমন্ত্রী

  • আমির খানের মেয়ের খোলামেলা ছবি নিয়ে তোলপাড় মিডিয়া

  • প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের ২ হাজার টাকা ভাতা দেবে সরকার

  • অবশেষে ভেঙে গেল এলডিপি!

  • শোভন-রাব্বানীর সম্পদের অনুসন্ধান শুরু করছে দুদক

  • বিদিশা-এরিককে অবরুদ্ধ করে রাখার অভিযোগ

  • সিটিং সার্ভিস লেখা কিছু গাড়ি আসলে চিটিং সার্ভিস, বললেন কাদের

  • উপজেলা পর্যায়ে প্রার্থী হতে পারবেন না এমপিরা

  • স্বামীর জন্মদিনে আইসিইউতে অভিনেত্রী নুসরাত

  • বিএনপির বড় বড় নেতা বেশিরভাগই হচ্ছে দলছুট, বললেন তথ্যমন্ত্রী

  • ২২ ফেব্রুয়ারি বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন সৃজিত-মিথিলা

  • ‘ছাত্রলীগ থেকে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতৃত্ব আসছে’

  • লবণের দাম বাড়ালে ব্যবস্থা, জানালেন বাণিজ্যমন্ত্রী

  • আলোচনায় সাবিলা নূরের হানিমুনের ছবি ও ভিডিও

  • মজলুম জননেতা মওলানা ভাসানীর ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

  • বেশি জরিমানা দিলে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরে আসবে, বললেন ওবায়দুল কাদের

  • স্বেচ্ছাসেবক লীগের জাতীয় সম্মেলন আজ

  • শাকিব খানকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করেছে রাজউক

  • পাকিস্তানি অভিনেত্রীর নগ্ন ছবি প্রকাশ

  • বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন জয়া আহসান

  • সরকারি হাসপাতালে ২৪ ঘন্টা ডেলিভারি সুবিধা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • দেশে জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাস নির্মূল হয়েছে, বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • ‘স্পেশাল পার্সন’কে জন্মদিনে চমক দিলেন ক্যাটরিনা

  • আজ সাত বিদ্যুৎকেন্দ্র উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

  • চিংড়ি মাছে জেলি মেশানোর দায়ে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

  • অভিনন্দন-শুভেচ্ছায় সিক্ত গুলতেকিন

  • রুনা লায়লার সুরে উপমহাদেশের চার লিজেন্ডের গান

  • প্রাথমিক থেকে উচ্চ ডিগ্রি নেয়া পর্যন্ত আমরা উপবৃত্তির ব্যবস্থা

  • স্বাস্থ্য সুরক্ষায় স্থানীয় তহবিল সংগ্রহের উদ্যোগ প্রশংসনীয়

  • কালুরঘাট সেতুর কাজ আগামী বছরের মধ্যেই শুরু: কাদের

  • ঐশ্বরিয়ার এক জ্যাকেট তৈরি করতে লাগল ২ বছর