শনিবার   ৩০ মে ২০২০

ব্রেকিং:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ খালেদার অনুপস্থিতিতেই কারাগারে বিচার চলবে রব ও মান্নার বিয়ে যুক্তফ্রন্টে, পরকীয়া ঐক্যফ্রন্টে: মাহী এটা জোট নয়, ঘোট : তথ্যমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় পেলেন সিনহা আবারও সরকার গঠনে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পদ্মা সেতু প্রকল্পের নামফলক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী
২১৪

শিশুদের যেভাবে ভালোবাসতেন রাসুল (সা.)

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

আজকের শিশুরাই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। আর তাই ইসলাম শিশুকে স্নেহ-মমতা ও আদর-যত্ন দিয়ে প্রকৃত মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার তাগিদ দিয়েছে। বস্তুত ইসলাম শুধু কিছু আচার-সংস্কৃতিতে সীমাবদ্ধ নয়। বরং জীবনের প্রতিটি বিষয়ের বয়ান রয়েছে ইসলামে। সমাজের ধনী, দরিদ্র ও ছোট-বড় সকল শ্রেণীর মানুষের অধিকার এবং কর্তব্যের কথা রয়েছে ইসলামে।

শিশুর প্রতি আচরণ সম্পর্কে মহানবী (সা.) বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি শিশুকে স্নেহ করে না এবং বড়দের সম্মান দেখায় না সে আমাদের দলভুক্ত নয়।’ (তিরমিজি, হাদিস নং: ১৯২১)

আবু হুরায়রা (রা.) বর্ণনা করেন, ‘একবার রাসুল (সা.) নিজ নাতি হাসান (রা.)-কে চুমু খেলেন। সে সময় তার কাছে আকরা বিন হারেস উপস্থিত ছিলেন। তিনি বললেন, ‘আমি দশ সন্তানের জনক। কিন্তু আমি কখনও তাদের আদর করে চুমু খাইনি। তখন মহানবী (সা.) তার দিকে তাকিয়ে বললেন, ‘যে দয়া করে না, তার প্রতিও দয়া করা হয় না’। (বুখারি, হাদিস নং: ৫৬৫১)

ভালোবাসা ও স্নেহ শুধু নিজের বাচ্চাদের প্রতি সীমাবদ্ধ রাখা নয়, বরং ইসলামের দৃষ্টিতে সব শিশুর প্রতি স্নেহ ও ভালোবাসা প্রকাশ আবশ্যক। বিশেষ করে মা-বাবার মমতাহারা শিশুদের স্নেহের বন্ধনে আবদ্ধ করা চাই। তাদের প্রতি সাহায্য-সহায়তার হাত বাড়ানো জরুরি। মহানবী (সা.) বলেন, ‘আমি ও এতিমের প্রতিপালনকারী জান্নাতে এভাবে থাকব।’ একথা বলে তিনি তার তর্জনী ও মধ্যমা আঙ্গুলের মধ্যে সামান্য ফাঁক রাখেন। (বুখারি, হাদিস নং: ৪৯৯৮)

মহানবী (সা.) যখন মদিনার রাষ্ট্রপ্রধান ছিলেন, তখনও তিনি শিশুদের খোঁজখবর নিতেন। মাঝে-মধ্যে তাদের সঙ্গে আনন্দ-রসিকতা করতেন। ঘোড়া সেজে অনেক সময় নাতি হাসান ও হোসাইনকে পিঠে নিয়ে মজা করতেন।

আনাস (রা.) বলেন, রাসুল (সা.) আমাদের বাড়িতে আসতেন। আমার ছোট ভাইয়ের (তার উপনাম ছিল আবু উমায়ের) একটি পাখি ছিল। সে তার পাখিটি নিয়ে খেলা করতো। একদিন পাখিটি মারা গেল। এরপর একদিন রাসুল (সা.) আমাদের বাড়ি এসে দেখলেন, আবু উমায়েরের মন খারাপ। মহানবী (সা.) জিজ্ঞেস করলেন, আবু উমায়ের মন খারাপ কেন? সবাই বললো, তার পাখিটা মারা গেছে। তখন মহানবী (সা.) বললেন, ‘হে আবু উমায়ের! কী করেছে তোমার নুগায়ের?’ (আবু দাউদ, হাদিস নং: ৪৯৭১)

বিশ্বনবী হয়েও তিনি শত ব্যস্ততার মাঝে শিশুদের খোঁজখবর নিতেন। এটি তার অনুপম ও সুমহান চরিত্রের দ্যুতিময় দৃষ্টান্ত। শিশুর প্রতি মহানবী (সা.)-এর ভালোবাসার কারণে শিশুরাও মহানবী (সা.)-কে গভীরভাবে ভালোবাসতেন। আবদুল্লাহ বিন জাফর (রা.) বলেন, মহানবী (সা.) যখন কোনো সফর শেষে বাড়িতে ফিরতেন, তখন বাচ্চারা তার আগমনের পথে গিয়ে অভ্যর্থনা জানাত। একবার তিনি তার সফর থেকে এসে আমাকে তার বাহনের সামনে বসালেন। অতঃপর নাতি হাসান, হোসেন (রা.)-কে বাহনের পেছনে বসালেন। তারপর আমাদের নিয়ে তিনি মদিনায় প্রবেশ করলেন। (মুসলিম, হাদিস নং: ৬৪২১)

মক্কা বিজয়ের পর যখন মহানবী (সা.) মক্কা শহরে আগমন করেন, তখন কিছু ছোট বাচ্চা তার কাছে আসলে তিনি তাদের আদর করেন। আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা.) বলেন, বিজয়ীবেশে মহানবী (সা.) যখন মক্কায় প্রবেশ করেন, তখন আবদুল মুত্তালিব বংশের ছোট ছোট ছেলেরা তার কাছে আসে। তিনি তাদের একজনকে নিজ বাহনের সামনে বসালেন এবং অপরজনকে পেছনে বসালেন। (বুখারি, হাদিস নং: ১৭০৪)

শিশুদের সঙ্গে রাসুল (সা.)-এর সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক ও গভীর ভালোবাসা ছিল। অথচ আমাদের অনেকে শিশুদের অপহরণ ও পাশবিক নির্যাতন করে নিজেদের কলঙ্কিত করছি। ক্ষেত্র বিশেষে পাষণ্ডতা ও রূঢ়তা প্রকাশ করছি।

আবু দারদা (রা.) থেকে বর্ণিত, একবার এক ব্যক্তি মহানবী (সা.)-এর কাছে হাজির হয়ে বললেন, আমার হৃদয় খুব কঠিন। তিনি বললেন, তুমি কি তোমার অন্তর কোমল করতে চাও? তিনি বললেন, হ্যাঁ। তখন রাসুল (স.) বলেন, তাহলে এতিম বাচ্চাদের আদর করো, স্নেহ করো। তাদের মাথায় হাত বুলিয়ে দাও, তাদের খাবার দাও। তবেই তোমার অন্তর কোমল হবে।’

নির্দয় ব্যক্তি সবচেয়ে বড় হতভাগা। আল্লাহ তার প্রতি ক্রোধান্বিত হন। তার প্রতি রহমত বর্ষণ করেন না। আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত হাদিসে মহানবী (সা.) বলেন, ‘কেবল হতভাগ্য ব্যক্তির হৃদয় থেকেই দয়া তুলে নেওয়া হয়।’ (তিরমিজি, হাদিস নং: ১৯২৩)

আরও পড়ুন
ইসলাম বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • স্থায়ী হলেন হাইকোর্টের অতিরিক্ত ১৮ বিচারপতি

  • ত্রাণের তালিকায় যুক্ত হচ্ছে আম, লিচুসহ বিভিন্ন মৌসুমি ফল

  • করোনা প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে বাসায় যেসব স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে

  • ফেসবুক লাইভে এসএসসির ফল জানাবেন শিক্ষামন্ত্রী

  • জয়পুরহাটে করোনা প্রতিরোধে ছাত্রলীগ নেতার জীবাণুনাশক টানেল

  • সংঘাতপূর্ণ দেশে শান্তি রক্ষায় ‘বাংলাদেশ পুলিশ’

  • ‘সোমবার থেকে চলবে বাস, চালক-যাত্রীদের মানতে হবে স্বাস্থ্যবিধি’ 

  • করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রচেষ্টায় ৬ দেশের একাত্মতা

  • ‘শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে পুনরায় বিশ্ব আসনে সমাদৃত করেছেন’

  • ‘বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করে ছুটি না বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে’

  • প্রধানমন্ত্রীকে ফোন করে জাতিসংঘ মহাসচিবের শুভেচ্ছা

  • দুর্যোগ মোকাবিলা সরকারের উদ্যোগ ইতিবাচক

  • ‘শান্তিরক্ষা মিশনে সাড়া দিতে সরকারের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে’

  • করোনা জয়ে গ্রামীণ অর্থনীতি

  • কুড়িগ্রামের সীমান্তবর্তী এলাকায় বিজিবির ত্রাণ বিতরণ

  • জীবিকার প্রয়োজনে সীমিত পরিসরে সচল হচ্ছে সব

  • দুর্যোগ মোকাবিলা সরকারের উদ্যোগ ইতিবাচক

  • পাইকগাছায় ভুট্টার বাম্পার ফলন

  • প্রথমবারের মতো শান্তিরক্ষীদের বহন করল বাংলাদেশ বিমান

  • আম্ফানে ক্ষয়ক্ষতি: প্রধানমন্ত্রীকে প্রিন্স চার্লসের চিঠি

  • শান্তিরক্ষীদের অবদান দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে: প্রধানমন্ত্রী

  • ৫ লাখেরও বেশি পরিবারকে ডিএনসিসির ত্রাণ বিতরণ

  • ছয় দিনে ১০ হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত, মৃত্যু শতাধিক

  • ৫ লাখেরও বেশি পরিবারকে ত্রাণ দিয়েছে ডিএনসিসি

  • রোববার থেকে শেয়ারবাজারে লেনদেন চালু 

  • গণপরিবহন চালু সরকারের ইতিবাচক সিদ্ধান্ত: সেতুমন্ত্রী

  • ‘প্রধানমন্ত্রী ইতিহাসের বৃহত্তম ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনা করছেন’

  • বেড়িবাঁধ মেরামতে ১০০ কোটি টাকার প্রকল্প নেওয়া হচ্ছে: প্রতিমন্ত্রী

  • কোন কোন অবস্থায় ভুলেও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করা যাবে না?

  • বাড়িতে বসে কোভিড-১৯ চিকিৎসায় যে ছয়টি বিষয় মনে রাখবেন

  • প্রধানমন্ত্রী আমার জন্য হাসপাতালে কেবিন বুকড দিয়েছেন: জাফরুল্লাহ

  • বঙ্গবন্ধুর জুলিও কুরি শান্তি পুরস্কার প্রাপ্তির ৪৭তম বার্ষিকী আজ

  • রপ্তানি আয়ে চামড়াকে ছাড়িয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে পাট খাত

  • ঘরোয়া পদ্ধতিতে করোনা দমনে ড. বিজন শীলের ৬ পরামর্শ

  • যুক্তরাষ্ট্রে পিপিই রপ্তানি শুরু করলো বাংলাদেশ

  • নিজের করোনা পজিটিভ রিপোর্টে নিজেই স্বাক্ষর করেন ডা. শাকিল!

  • ২৫ মে, কাজী নজরুল ইসলামের ১২১ তম জন্মদিন

  • প্রধানমন্ত্রী কাল জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন

  • সহজে ব্যবহারযোগ্য ভেন্টিলেটর উদ্ভাবন করল মেরিন একাডেমি

  • ২১ দিনে রেকর্ড ১১২ কোটি ১০ লাখ ডলার পাঠিয়েছে প্রবাসীরা

  • করোনাকালীন সংকটেও কৃষির সাফল্য

  • করোনা শনাক্তে দেশেই তৈরি হলো ‘ভিটিএম কিট’

  • অফিস-কারখানায় ১৩ দফা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশ

  • বেকারদের আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টিতে ৭ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প

  • ‘আমরা এক সঙ্গে করোনাকালীন খারাপ পরিস্থিতি পার করতে পারবো’

  • শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের সময়সীমা বাড়ল

  • করোনার চিকিৎসায় এসকেএফের রেমডেসিভির সরবরাহ শুরু

  • আরো ১০৬ পুলিশ সদস্য সুস্থ

  • চলতি মাসেই দৃশ্যমান হবে পদ্মাসেতুর সাড়ে ৪ কিলোমিটার

  • সীমিত পরিসরে গণপরিবহন চলার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর সম্মতি

  • তিন বিষয়ে সর্বোচ্চ গুরুত্বের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  • নগদ সহায়তা পাবে ৪৮ লাখ প্রান্তিক উদ্যোক্তা

  • জনগণ ঐক্যবদ্ধ থাকলে মহামারি উতরানো কোনো কঠিন কাজ নয়

  • রপ্তানি আয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে পাট খাত

  • এসএসসির ফল প্রকাশ হবে ৩১ মে

  • কৃষক ও ক্রেতার প্ল্যাটফর্ম ‘ফুড ফর ন্যাশনের’ যাত্রা শুরু

  • বিশ্বমানের পিপিই উৎপাদনকারী দেশের তালিকায় বাংলাদেশ

  • করোনা সচেতনতায় ভুয়া স্বাস্থ্য পরামর্শ এড়িয়ে চলার টিপস

  • মালদ্বীপ থেকে ফিরলেন ১২০০ বাংলাদেশি 

  • First Copies of Gilead Virus Drug to Start Selling in Bangladesh