বুধবার   ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

সর্বশেষ:
আরও ১০৮ শহীদ বুদ্ধিজীবীর তালিকা প্রকাশ সরকারি চাকরিতে লাখ লাখ পদ খালি, নিয়োগের উদ্যোগ বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার বৈঠক : সুবিধা পেতে সর্বোচ্চ জোর এলাকার উন্নয়নে প্রত্যেক সংসদ সদস্যরা পাবেন ২০ কোটি টাকা শিগগির চালু হবে বিরল স্থলবন্দর ১২ সিটির বর্জ্য রিসাইকেলের উদ্যোগ বিশ্ব নেতাদের নজর কেড়েছে শেখ হাসিনার ৬ প্রস্তাব
৬৭

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র: সক্ষমতার নতুন স্মারক

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  

বাংলাদেশের সক্ষমতার নতুন স্মারক হয়ে দাঁড়িয়েছে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র। বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে মেগাস্ট্রাকচারটি। চলতি বছরের শেষ নাগাদ চালু হতে যাচ্ছে এ বিদ্যুৎকেন্দ্রের ১ হাজার ২০০ মেগাওয়াট উৎপাদনক্ষমতার প্রথম ইউনিট। ২০২৫ সালের মধ্যেই চালু হবে দ্বিতীয় ইউনিট। অর্থাৎ, নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই আনুষ্ঠানিকভাবে পুরোপুরি চালু হবে ২ হাজার ৪০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষম রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, স্বল্প সময়ে জটিল এ প্রকল্প বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে নতুন মাইলফলক অর্জন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

চলছে পুঙ্খানুপুঙ্খ পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও জ্বালানি লোডিংয়ের প্রস্তুতি
নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই বাংলাদেশকে প্রকল্পটি বুঝিয়ে দিতে পূর্ণ নিশ্চয়তা দিয়েছে রাশিয়াও। ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বরে শুরু হয় পারমাণবিক জ্বালানি ইউরেনিয়াম নিয়ে আসার প্রক্রিয়া। রাশিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত পরমাণু সংস্থা রোসাটমের তত্ত্বাবধানে ৭টি ধাপে ১৬৮টি ইউরেনিয়ামের অ্যাসেম্বলি পৌঁছেছে রূপপুরের প্রকল্প এলাকায়। এখন চলছে পুঙ্খানুপুঙ্খ পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও জ্বালানি লোডিংয়ের প্রস্তুতি।

রোসাটমের ডিজি অ্যালেক্সি লিখাচেভ বলেন, বাংলাদেশের অন্যতম বৃহৎ মেগাপ্রকল্পটি এখন সফলতার দ্বারপ্রান্তে। প্রকল্প এলাকায় পারমাণবিক জ্বালানি পৌঁছানোর অর্থই হলো বড় আকারে স্টার্ট-আপ কর্মসূচির জন্য চূড়ান্ত প্রস্তুতির সময় হয়ে গেছে। কমিশনিংয়ের আগে সুক্ষ্ম যন্ত্রপাতিগুলোর ওপর অন্তত দেড় হাজার পরীক্ষা চালানো হবে। এখন পর্যন্ত সব চ্যালেঞ্জ সফলভাবে উতরানো গেছে।

বাংলাদেশ হবে অনেক দেশের জন্য অনুসরণীয়
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান বলেন, এ ধরনের প্রযুক্তি নিয়ে বিদ্যুৎ তৈরি করা বেশ কঠিন কাজ। আমরা পরমাণু বিদ্যুতের যুগে প্রবেশ করেছি। ফুয়েল চলে আসা মানে এটা আমরা অর্জন করেছি। ২০২৪ সালেই প্রথম ইউনিট চালু হবে। আর ২০২৫ সালের মধ্যেই চালু হবে পুরো কেন্দ্র।

পরমাণু বিশেষজ্ঞদের মতে, এত অল্প সময়ের মধ্যে পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে নতুন রেকর্ড করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। এর মাধ্যমে সক্ষমতার নতুন ধাপে পা রাখছে দেশ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নিউক্লিয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. শফিকুল ইসলামের মতে, বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল দেশ এত হাইটেক প্রযুক্তি চালানোর সক্ষমতা অর্জন করছে। এটা বিশ্বমণ্ডলে আলোচনা হবে। অনেক দেশ আমাদের অনুসরণ করবে। এটা হবে আমাদের মতো দেশের জন্য নতুন মাইলফলক।

উদ্যোগ নেয়া হয় স্বাধীনতার পরই
১৯৭১ সালে বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর ১৯৭২ সালে বাংলাদেশ সরকার ২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের একটি পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের উদ্যোগ নেয়। ১৯৭৭-১৯৮৬ সালে মেসার্স সোফরাটম কর্তৃক একটি সম্ভাব্যতা অধ্যয়ন চালানো হয় ও এর মাধ্যমে রূপপুরে পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প বাস্তবায়ন যৌক্তিক বলে সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়। পরে একনেক কর্তৃক পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র ১২৫ মেগাওয়াটের একটি কেন্দ্র নির্মাণের প্রকল্প অনুমোদন করা হয়। ১৯৮৭ সালে জার্মানি ও সুইজারল্যান্ডের দুইটি কোম্পানি কর্তৃক দ্বিতীয়বার সম্ভাব্যতা অধ্যয়ন করা হয়। এ অধ্যয়নে ৩০০-৫০০ মেগাওয়াট পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের সুপারিশ করা হয়।

২০০৯ সালে ‘রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনে অপরিহার্য কার্যাবলী সম্পাদন’ শীর্ষক প্রকল্পের মাধ্যমে পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের জন্য প্রাথমিক কার্যাবলী ও পারমাণবিক অবকাঠামো উন্নয়ন কার্যক্রম শুরু হয়। ঐ বছরের ১৩ মে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশন এবং রাশিয়ার রোসাটোম স্টেট অ্যাটমিক অ্যানার্জি কর্পোরেশনের (রোসাটোম) মধ্যে ‘পারমাণবিক শক্তির শান্তিপূর্ণ ব্যবহার’ বিষয়ক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়।

২০১০ সালের ২১ মে এ বিষয়ে ফ্রেমওয়ার্ক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ২০১১ সালের ৯-১৫ নভেম্বর বাংলাদেশের পারমাণবিক অবকাঠামোর সার্বিক অবস্থা মূল্যায়ন করা হয়। ২০১২ সালের ১৯ জুন ‘বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি নিয়ন্ত্রণ আইন- ২০১২’ পাস হয়। ২০১৩ সালে প্রধানমন্ত্রীর রাশিয়া ফেডারেশন সফরে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের প্রাক-প্রারম্ভিক পর্যায়ের কার্যাদি সম্পাদনের জন্য রাষ্ট্রীয় রফতানি ঋণ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ২০১৫ সালে পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র আইন জারি ও নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্ল্যান্ট কোম্পানি বাংলাদেশ লিমিটেড গঠন করা হয়।

লাইসেন্স প্রাপ্তি ও রিঅ্যাক্টর প্রেসার ভেসেল স্থাপন
২০১৬ সালের ২১ জুন রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের স্থান লাইসেন্স দেয় বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ। ২০১৭ সালের ৪ নভেম্বর বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের নকশা ও নির্মাণ লাইসেন্স দেয়। ঐ বছরের ৩০ নভেম্বর রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রথম ইউনিটের প্রথম কংক্রিট ঢালাই কাজের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর ২০২১ সালের ১০ অক্টোবর এবং ২০২২ সালের ১৮ অক্টোবর এ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রথম ও দ্বিতীয় ইউনিটের পারমাণবিক চুল্লিপাত্র বা রিঅ্যাক্টর প্রেসার ভেসেল স্থাপনের কাজ উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।

২০২৩ সালের ৫ অক্টোবর রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য প্রথম পরমাণু জ্বালানি (ইউরেনিয়াম) গ্রহণ করে বাংলাদেশ। এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি ইউরেনিয়ামের চালান রূপপুর প্রকল্প এলাকায় পৌঁছেছে।

‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ গড়ার গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ
পরমাণু শক্তি দূষণমুক্ত, সাশ্রয়ী ও নিরাপদ উপায়ে বিদ্যুৎ উৎপাদনের অন্যতম প্রধান উৎস। বিশ্বের অল্পসংখ্যক দেশ উচ্চ প্রযুক্তির পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন ও পরিচালনায় সক্ষমতা অর্জন করেছে। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের প্রথম ইউনিট গ্রাজুয়েশনের মাধ্যমে বাংলাদেশ এরই মধ্যে পারমাণবিক বিদ্যুতের যুগে প্রবেশ করেছে।

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র দেশের ক্রমবর্ধমান বিদ্যুৎ চাহিদা, জীবাশ্ম জ্বালানির ওপর নির্ভরতা এবং জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব নিরসনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। জ্বালানি নিরাপত্তা, স্থায়িত্ব ও প্রযুক্তির অগ্রযাত্রায় এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক। এই উন্নয়ন অগ্রযাত্রা বাংলাদেশকে একটি অনন্য উচ্চতায় আসীন করেছে। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প বর্তমান সরকারের ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ গড়ার গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ। অচিরেই বাংলাদেশের জনগণ এ প্রকল্পের সুফল ভোগ করবে।

আরও পড়ুন
বাংলার উন্নয়ন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • বাংলাদেশ ও ঘানা ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়াতে সম্মত

  • প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

  • গৌরবের অমর একুশে আজ

  • যৌন নিপীড়নের ঘটনায় জাবি সহকারী অধ্যাপক বরখাস্ত

  • দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকারের প্রশংসনীয় উদ্যোগ

  • স্বল্পমূল্যে টিসিবির পণ্য ও টিআর কার্ডে খাদ্য সহায়তা করছে সরকার

  • মুর্শিদাবাদ-রাজশাহী নৌপথের নবযাত্রা

  • মুর্শিদাবাদ-রাজশাহী নৌপথের নবযাত্রা

  • বিসিবির নতুন দায়িত্ব পেয়ে যা বললেন হাবিবুল বাশার

  • অভিনেতা ঋতুরাজ সিং মারা গেছেন

  • উপজেলা নির্বাচন বিধিমালা ও আচরণবিধিতে আসছে পরিবর্তন

  • দুই শিশুর মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধানে আইইডিসিআর

  • শূন্য পদে দ্রুত নিয়োগে জনপ্রশাসনের তাগিদ

  • ২১ গুণীজনকে একুশে পদক দিলেন প্রধানমন্ত্রী

  • হুথি আক্রমণে সুয়েজ খালের আয় কমেছে ৫০ শতাংশ: মিশর

  • মানুষের মল দিয়ে জ্বালানি তৈরি কেনিয়ায়

  • নাভালনির সঙ্গে নিজের যে মিল দেখতে পান ট্রাম্প

  • গাজা ইস্যুতে ইউটার্ন, যুদ্ধবিরতি চায় যুক্তরাষ্ট্র

  • ২১ আমাদের শিখিয়েছে মাথানত না করা: প্রধানমন্ত্রী

  • প্রাথমিকের দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষার ফল হতে পারে আজ

  • দাম কমলো সয়াবিন তেলের

  • তিউনিসিয়া উপকূলে নৌযানে অগ্নিকাণ্ড, ৮ বাংলাদেশির মৃত্যু

  • বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন ঘানার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

  • কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে কোনো হুমকি নেই : র‍্যাব ডিজি

  • দেশের বাজারে কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম

  • ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস থেকে বঙ্গবন্ধুকে মুছে ফেলার চেষ্টা হয়েছিল

  • ভাষা আন্দোলন ও আমাদের বঙ্গবন্ধু

  • খালেদা জিয়ার সঙ্গে ঘণ্টাব্যাপী ফখরুলের বৈঠক

  • তামিমকে হারালেন সাকিব

  • ‘মিয়ানমার সংকটে বাংলাদেশ-ভারতের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হতে পারে’

  • সংরক্ষিত নারী আসনে আ.লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা

  • পিক আওয়ারে ৮ মিনিট পর পর মিলবে মেট্রোরেল

  • ফাগুন হাওয়ায় রঙিন ভালোবাসা

  • হাইওয়ে পুলিশ সদস্যের থাকবে ‘বডি ওর্ন ক্যামেরা’

  • গঙ্গা নিয়ে আলোচনা শুরু করল বাংলাদেশ ও ভারত

  • সংখ্যা নয় দক্ষ ও অভিজ্ঞ ডাক্তার চাই : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • চার ভাবনায় বাড়ছে মন্ত্রিসভার আকার

  • দেশের মানুষ এখন গণতন্ত্র উপভোগ করছে: প্রধানমন্ত্রী

  • দেড় হাজার রোহিঙ্গা যাচ্ছেন ভাসানচর 

  • বাণিজ্যিকভাবে জ্বালানি তেল উত্তোলনের পথে বাংলাদেশ

  • এআই বিষয়ক আইন করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার: আইনমন্ত্রী

  • নতুন রুটের সন্ধানে বিমান

  • বাগেরহাটে তৈরি ৪০ হাজার ‘কাঠের সাইকেল’ যাচ্ছে ইউরোপে

  • ডলারে আমানত রাখলেই করমুক্তি সুবিধা

  • ‘পাচারের অর্থ উদ্ধারে ১০ দেশের সাথে আইনগত চুক্তির উদ্যোগ’

  • নতুন ব্যক্তি প্রতিষ্ঠানকে কর নেটওয়ার্কে আনার উদ্যোগ

  • স্কোয়াশ চাষে লাভবান কৃষক

  • চট্টগ্রাম বন্দরে রপ্তানিমুখী কনটেইনারের জন্য বসলো স্ক্যানার

  • পাইপলাইনের ঋণ দ্রুত ছাড়িয়ে আনার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  • ধানমন্ডি লেকে নজরুল সরোবর করা হবে : তাপস

  • জিআই হিসেবে অনুমোদন পেল আরো ৩ পণ্য

  • ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস থেকে বঙ্গবন্ধুকে মুছে ফেলার চেষ্টা হয়েছিল

  • সাকিবকে বাদ দিয়ে শান্তকে অধিনায়ক, মুখ খুললেন পাপন

  • গ্রামীণের ৭ প্রতিষ্ঠানের নিয়ন্ত্রণ নেওয়া হয়েছে আইন মেনেই

  • বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রীর সাথে জাপানের রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

  • গাজায় যা হচ্ছে তা গণহত্যা : প্রধানমন্ত্রী

  • কুয়াকাটায় বিমানবন্দর নির্মাণে তোড়জোড়

  • দেশে সবুজ পোশাক কারখানা বেড়ে ২০৭

  • বিবিএসের তথ্য বলছে স্বস্তি ফিরছে খাদ্যপণ্যে

  • মুদ্রা বিনিময়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন পদ্ধতি চালু