বৃহস্পতিবার   ০৯ জুলাই ২০২০

ব্রেকিং:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ খালেদার অনুপস্থিতিতেই কারাগারে বিচার চলবে রব ও মান্নার বিয়ে যুক্তফ্রন্টে, পরকীয়া ঐক্যফ্রন্টে: মাহী এটা জোট নয়, ঘোট : তথ্যমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় পেলেন সিনহা আবারও সরকার গঠনে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পদ্মা সেতু প্রকল্পের নামফলক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী
১৭

রাজধানীর ৪০ স্থানে বিনামূল্যে ডেঙ্গু পরীক্ষা শুরু করেছে ডিএনসিসি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৪ জুন ২০২০  

করোনা সংক্রমণের এই পরিস্থিতিতে রাজধানীতে অসংখ্য লোক জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছেন। জ্বর দেখা দিলেই নাগরিকরা করোনায় আক্রান্ত বলে ধারণা পোষণ করছেন। এ থেকে পরিত্রাণের জন্য ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত কিনা তা শনাক্ত করতে মোট ৪০টি স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও মাতৃসদন কেন্দ্রে তা পরীক্ষা করার ব্যবস্থা করেছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)। পরীক্ষাগুলো হচ্ছে এন এস ১, জিইএস এলজি এম, এলজিজি। শুক্রবার ছাড়া প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত এসব নগর মাতৃসদন ও নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে বিনামূল্যে ডেঙ্গু পরীক্ষা করা যাবে। তবে ডেঙ্গু পরীক্ষার জন্য অবশ্যই ডাক্তারের প্রেসক্রিপশন দেখাতে হবে।

বর্তমানে রোগের লক্ষণ না বুঝেই অনেক লোক গায়ে জ্বর এলেই করোনা মনে করে ঘরে বসেই করেনাার প্রকোপের মতো সাধারণ চিকিৎসা গ্রহণ করছেন। ফলে এসব রোগী কোন প্রকার চিকিৎসা ছাড়াই ধীরে ধীরে অসুস্থ হচ্ছেন। কেউ কেউ সময়মতো চিকিৎসা গ্রহণ না করায় মৃত্যুমুখেও পতিত হচ্ছেন। অথচ হাসপাতালে যাওয়ার পর পরীক্ষা করে দেখা যাচ্ছে এসব রোগী করোনায় আক্রান্ত নন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত। তাই এ থেকে পরিত্রাণের জন্য অনুমান নির্ভর চিকিৎসা না করে দ্রæত চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়ার কথা বলছেন চিকিৎসকরা।

নগরীর যে কোন নাগরিক শরীরে ডেঙ্গু জ্বর রয়েছে কি না তা জানতে এসব কেন্দ্রে গেলে বিনামূল্যে ডেঙ্গু পরীক্ষা করাতে পারবেন। এছাড়া পরীক্ষার ফলাফল সঙ্গে সঙ্গেই পেয়ে যাবেন। গায়ে জ্বর আসা মাত্রই করোনায় আক্রান্ত এমন অমূলক ধারণা দূর করতেই এ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানা গেছে। এদিকে সম্পূর্ণ অনুমান নির্ভর করে মনের সন্দেহে এসব নাগরিক করোনায় আক্রান্ত ভাবছেন। ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীও কোন প্রকার চিকিৎসা গ্রহণ ছাড়াই ভয়ে দিন পার করছেন। অপরদিকে কিছু কিছু ক্ষেত্রে রোগীরা করোনাভাইরাসের পাশাপাশি ডেঙ্গু জ্বরেও আক্রান্ত হচ্ছেন। করোনার এ ক্রান্তিলগ্নে শরীরে জ্বর আসা মাত্রই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এমন ধারনা বাদ দিতে হবে।

ডিএনসিসির স্বাস্থ্য শাখা সূত্রে জানা গেছে, সুনির্দিষ্ট লক্ষণ ছাড়া কোন রোগ কে ডিএনসিসির নির্ধারিত স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ডেঙ্গু জ্বরের পরীক্ষা করা হবে না। তাছাড়া বেশ কিছু রোগীর লক্ষণ দেখে করোনায় আক্রান্ত নাকি ডেঙ্গুতে আক্রান্ত তা বোঝা কঠিন হয়ে পড়ে। তবে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্তদের শরীরে যেসব লক্ষণ দেখা দেয় তা নির্দিষ্ট থাকায় এসব লক্ষণ দেখা দিলেই কেবল এসব কেন্দ্রে গিয়ে পরীক্ষা করা যাবে। অন্যথায় জ্বরে আক্রান্ত যে কোন রোগীকে নিশ্চিত না হয়ে পরীক্ষা না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডিএনসিসি কর্তৃপক্ষ। এসব কেন্দ্রে আসা রোগীদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষেই কেবল স্বাস্থ্যকর্মীরা ডেঙ্গু জ্বরের পরীক্ষা করছেন। জানা গেছে, ডেঙ্গু জ্বর পরীক্ষার জন্য ডিএনসিসি কর্তৃপক্ষ প্রতিটি কেন্দ্রে পর্যাপ্ত পরিমাণ কিট রেখেছে। এছাড়া পূর্বে ডিএনসিসির সীমানায় ২৭টি কেন্দ্রে ডেঙ্গু পরীক্ষার ব্যবস্থা থাকলেও নাগরিকদের কথা বিবেচনায় তা বাড়িয়ে ৪০টি করা হয়েছে। এছাড়া বেসরকারী স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্ট এনজিওদের সঙ্গে কথা বলে ডেঙ্গু পরীক্ষার কেন্দ্র আরও বাড়ানোর পরিকল্পনা নিয়েছে সংস্থাটি। করোনার ন্যায় ডেঙ্গু জ্বর যাতে চলতি বছরে মহামারী আকার ধারণ না করে সেজন্য নাগরিক স্বাস্থ্য সুরক্ষায় অধিক পরিমাণে ডেঙ্গু পরীক্ষার উদ্যোগ গ্রহণ করা হচ্ছে।

যেসব স্থানে ডেঙ্গুর জ্বর পরীক্ষা করা যাবে \ সূর্যের হাসি ক্লিনিক, বাড়ি নং ১, রোড ৯, বøক-ডি, সেকশন-১২, মিরপুর, বাড্ডা এমসিএইচএফপি সেন্টার, সেকশন-১০, মিরপুর, সূর্যের হাসি ক্লিনিক, রোড ১, বøক-এ, সেকশন-১৩ (হারম্যান মেইনার স্কুল এ্যান্ড কলেজ সংলগ্ন), মিরপুর,সূর্যের হাসি ক্লিনিক, হোল্ডিং নং গ-১০৭৬, ঈদগাহ জামে মসজিদ রোড, শাহজাদপুর, সূর্যের হাসি নেটওয়ার্ক, হাউস নং ৪৫, রোড নং ২, বøক-এ, আফতাবনগর সূর্যের হাসি ক্লিনিক, ৪৬৬/১ শাহিনবাগ, (পশ্চিম নাখাল পাড়া), গোলারটেক, দারুস সালাম থানা মাঠ, মিরপুর-১; ২৬/এ, আহম্মেদনগর, পাইকপাড়া, মিরপুর-১; ২৭৭/১, মধ্য পীরেরবাগ, মিরপুর, ৬৭৪/১, পশ্চিম শেওড়াপাড়া, মিরপুর; ১৩৬, তেজকুনিপাড়া, ফার্মগেট, তেজগাঁও, ৫২/এ, পশ্চিম রাজাবাজার, শেরে বাংলানগর, বাড়ি নং ৩২৪, রোড নং ৩, বায়তুল আমান হাউজিং সোসাইটি, আদাবর।

নগর মাতৃসদন, বাড়ি-১১, রোড-১১, সেক্টর-৬, উত্তরা, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-১, বাড়ি-৯২, রোড-১২, সেক্টর-১০, উত্তরা মডেল টাউন, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-২, কবরস্থানের উত্তর পূর্ব পাশে, রোড-১০/এফ, সেক্টর-৪, উত্তরা মডেল টাউন, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-৩, ২৩৫/২৩৬, দারোগা বাড়ি, মধুপুর চৌরাস্তা ফায়দাবাদ, উত্তরা মডেল টাউন, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-৪, ১৫০ আশকোনা মেডিক্যাল রোড, এয়ারপোর্ট, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-৫, ১৩৪/৪ কাজী বাড়ি রোড, কুড়িল চৌরাস্তা, কুড়িল, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-৬, বাড়ি ৩২৫ আনিচবাগ, কলেজ রোড, চেয়ারম্যান বাড়ি, ঢাকা। নগর মাতৃসদন, জে-২, বর্ধিত পল্লবী, ভোলা বস্তির উল্টো দিকে, মিরপুর সাড়ে ১১, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-১, বাড়ি-৯, বøক-ই, রোড-৬, আরামবাগ (আ/এ), সেকশন-৭, মিরপুর, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-২, জে-২, বর্ধিত পল্লবী, ভোলা বস্তির উল্টো দিকে, মিরপুর সাড়ে ১১। নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-৩, বাড়ি-৬, বøক-এফ, রোড-৩, সেকশন-২, মিরপুর, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-৪, বøক-এফ, রোড-৬, সেকশন-১, মিরপুর, এছাড়া নগর মাতৃসদন, নয়াটোলা পার্কের সামনে, গ্রিনওয়ে রোড, নয়াটোলা, মগবাজার। নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-২, ৫৯৯ বড় মগবাজার, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-৩, ৫৯৪ মধুবাগ, মগবাজার, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-৪, মহাখালী গ/১৬/এ, আমতলা, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-৫, ১৭১ উত্তর বাড্ডা, নগর মাতৃসদন, ৪/বি/বি, দ্বিতীয় কলোনি, মাজার রোড, মিরপুর-১, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-১, নেকি বাড়ির টেক, ২য় কলোনি, হরিরামপুর, মিরপুর-১, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-২, বাড়ি-২৭, রোড-১১, কল্যাণপুর, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-৩, ১৯২/১ মধ্য পাইকপাড়া, মিরপুর-১, ঢাকা। নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-৪, ৫৯১ উত্তর কাফরুল, চেয়ারম্যান বাড়ি, ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-৫, ৩৮৬ মুন্সি বাড়ি রোড, উত্তর ইব্রাহিমপুর, নগর মাতৃসদন, ৩/৫ খ, বাঁশবাড়ি, মোহাম্মদপুর, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-৩, ৬৫/ভি, নুরজাহান রোড, মোহাম্মদপুর, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-৬, পাল সমিতি, রায়েরবাজার, নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-৭, ৬৪ পশ্চিম আগারগাঁও।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মমিনুল হক মামুন বলেন, এডিস মশার কামড়ে আক্রান্ত নাগরিকদের ডেঙ্গু হয়েছে কি না তা শনাক্ত করতে নগরীর মোট ৪০টি স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে পরীক্ষার উদ্যোগ নিয়েছি। আমরা অধিক পরিমাণ লোকের সেবা তাদের দ্বোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে ও রোগীর সেবা প্রদান করতে এমন উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। এর বাইরে নতুন আরও বেশকিছু স্থানে ডেঙ্গু পরীক্ষা কেন্দ্র স্থাপনের পরিকল্পনা নিয়েছি। আমরা চাই কোন ব্যক্তি ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হলে যেন এই পরীক্ষাটি করে নিশ্চিত হতে পারেন তিনি ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত কি না? আর সঙ্গে সঙ্গেই এ পরীক্ষার ফলাফল জানা যাবে। এজন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ কিট দেয়া হয়েছে কেন্দ্রগুলোতে তবে শুক্রবার ছাড়া প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত এসব নগর মাতৃসদন ও নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে পরীক্ষার জন্য রোগীকে অবশ্যই ডাক্তারের প্রেসক্রিপশন নিয়ে আসতে হবে। এছাড়া বর্ষার এ মৌসুমে এডিস মশার বিস্তার ও ডেঙ্গুর প্রকোপ রোধে একে পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আনতে আমরা মশক বিরোধী ডোর টু ডোর ভিত্তিক চিরুনি অভিযান সম্পন্ন করেছি। বর্তমানে চলতি সপ্তাহজুড়ে আমাদের সীমানায় অবস্থিত প্রায় ২ শতাধিক হাসপাতালে অভিযান পরিচালনা করছি। তবে নাগরিকদের ডেঙ্গুরোধে আমাদের অধিক সচেতন হতে হবে। এজন্য তিনি সবার সহযোগিতা কামনা করেন।

আরও পড়ুন
জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • আমন বীজে নগদ ভর্তুকি ও বিনামূল্যে সেচ সুবিধা দিচ্ছে সরকার

  • প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ প্রত্যাশার বাইরে ছিল: রোমান

  • বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিকরাই মাঠে গিয়ে কাজ করে: প্রধানমন্ত্রী 

  • শিগগিরই কলেজে ভর্তি শুরু হবে: সংসদে শিক্ষামন্ত্রী

  • বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি : ময়ূর-২ এর মালিক গ্রেফতার

  • বদলে যাবে রাজধানী ও আশপাশ এলাকার যোগাযোগব্যবস্থা

  • ৯ বছরে সর্বোচ্চ সোনার দাম

  • আইসোলেশনে থাকলে যে সাতটি কাজ করবেন

  • চট্টগ্রামে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বসবে পশুর হাট

  • মাছে ক্ষতিকর রাসায়নিক মেশালে সাত বছরের কারাদণ্ড

  • বাংলাদেশিদের জন্য ভিসা আবেদন কেন্দ্র খুলছে যুক্তরাজ্য

  • রোহিঙ্গা সমস্যার স্থায়ী সমাধানে দ্রুত প্রত্যাবাসনের পক্ষে ভারত

  • ঢাকায় দরিদ্রদের জন্য ৭ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

  • করোনায় সঠিক কৌশল অনুসরণ করায় দুর্যোগ নিয়ন্ত্রণে: প্রধানমন্ত্রী

  • সরকার সব শ্রেণির মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে: পরিবেশমন্ত্রী

  • ঈদ ৩১ জুলাই হলেও বর্ধিত বোনাস

  • কম্প্রেসর দিয়ে তুরস্কে ওয়ালটন পণ্যের রপ্তানি শুরু

  • ‘মাইক্রোসফট রিসার্চ ডেসার্টেশন গ্রান্ট’ পেলেন দুই বাংলাদেশি 

  • এবার দেশেই তৈরি প্রাইভেটকার!

  • অবশেষে খুলে দেয়া হচ্ছে হাফিজিয়া মাদরাসা

  • ‘পাকিস্তানে বঙ্গবন্ধুর কারাবাসের তথ্য সংগ্রহের চেষ্টা চলছে’

  • করোনায় প্রবাসীদের ১১ কোটি টাকার ত্রাণ বিতরণ করেছি : প্রধানমন্ত্রী

  • মানবপাচারের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে সরকার: প্রধানমন্ত্রী

  • ‘সরকারের ডিজিটাল কর্মসূচি বাংলাদেশকে বদলে দিয়েছে’

  • বাবা বলতেন যখন আমি থাকব না তখন পড়িস: শেখ হাসিনা

  • ‘করোনায় মারা যাওয়া প্রবাসীর পরিবারকে ৩ লাখ টাকা অনুদান’

  • রেলওয়েতে একমাসে রাজস্ব আদায়ে রেকর্ড

  • মৌসুমের শুরুতেই জেলেদের জালে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ

  • উপবৃত্তির ৪৩৯ কোটি টাকা পাচ্ছে শিক্ষার্থীরা

  • মাইক্রোসফটের পুরস্কার পেলেন বাংলাদেশি দুই গবেষক

  • নারীর ক্ষমতায়ন রেকর্ডে বাংলাদেশ

  • ব্রিটেনে বর্ষসেরা চিকিৎসক নির্বাচিত বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ফারজানা

  • সরকারি উদ্যোগে মাছ চাষ, প্রত্যেক চাষী পাবেন ৩৫ হাজার টাকা

  • ১ আগস্ট ঈদ হলে বেশি বোনাস

  • ঢাকার কাছেই অর্থনৈতিক অঞ্চল, কারখানা যাবে নবাবগঞ্জ

  • মাস্ক পিপিই রপ্তানিতে নতুন সম্ভাবনায় বাংলাদেশ 

  • পাটকল শ্রমিকদের শতভাগ পাওনা পরিশোধের সিদ্ধান্ত 

  • বাংলাদেশের ছয় তরুণ ডায়না অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত

  • প্রাকৃতিক দুর্যোগে মানবিক সহায়তা হিসেবে ১০,৯০০ টন চাল বরাদ্দ

  • পুরোদমে চলছে সব মেগা প্রকল্পের কাজ

  • রাজধানীর কাছেই হচ্ছে বড় অর্থনৈতিক অঞ্চল

  • করোনাকালে অর্থনীতির চাকা সচল রাখছে আইসিটি খাত

  • নারী উন্নয়ন ও ক্ষমতায়নে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন শেখ হাসিনা

  • প্রথমবারের মত বৈধভাবে দেশে স্বর্ণ আমদানি, কমবে দাম

  • পাটের বহুমুখী ব্যবহারে বিশেষ নজর দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

  • বড় নিয়োগ আসছে প্রাথমিকে

  • আলু চাষে পাকিস্তান ভারত চীনকে টপকাল বাংলাদেশ

  • দেশে করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কারের ঘোষণা 

  • ঢাকার চারপাশের নদী দখলমুক্তে শিগগিরই অভিযান

  • ৯৯৯৯ জন গর্ভবতী মাকে স্বাস্থ্যসেবা সেনাবাহিনীর

  • করোনা সংকটেও রপ্তানি বেড়েছে ১৬ পণ্যে

  • প্রধানমন্ত্রীর রূপকল্প বাস্তবায়নে পাশে জয়

  • ভরা মৌসুমের শুরুতেই জেলেদের জালে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ

  • বাংলাদেশে করোনার প্রকোপ কমে আসছে: জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়

  • কমলো জমি ও ফ্ল্যাট নিবন্ধন ফি 

  • বাংলাদেশে করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কারের দাবি

  • সেলাই মেশিন চালিয়ে ছেলেকে দেশসেরা বিসিএস ক্যাডার বানালেন মা

  • ভাঙ্গা হতে পায়রা বন্দর পর্যন্ত হচ্ছে রেলপথ

  • জমির রেজিস্ট্রেশন ফি কমল

  • রেমিট্যান্স ও রিজার্ভে রেকর্ড