শনিবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২২

সর্বশেষ:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে ইসি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ: নূরুল হুদা বারবার আসতে পারব না, যত খুশি সাজা দিন: খালেদা জিয়া ‘আকাশবীণার’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী ত্রিভুবনে আবারও বিমান দুর্ঘটনা ট্রেন-বাসের সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ২৫ ভুয়া ছবি দিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে মিয়ানমার: প্রধানমন্ত্রী
১৮৫

রংপুরে ফুলকপির ফলনে খুশি কৃষক

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২২ নভেম্বর ২০২২  

‌‘আল্লায় দেচে কপির ভালোয় আবাদ হইছে। প্রত্যেক বছর শীতের সময় ফুলকপির আবাদ করি। কোনো লোকসান নাই। খরচপাতির তুলনায় ভালোয় লাভ হয়। গত বছর কপি থাকি হাজার দশেক টাকা আসছে। এবার সারের দাম বাড়াতে খরচ একনা বেশি পড়ছে। তারপরও ফলন দেখি মনে হওচে ভালো লাভ হইবে।’ চলতি মৌসুমে বিভিন্ন জাতের সবজির পাশাপাশি ফুলকপির আবাদ করে ফলন ভালো হওয়াতে খুশি নুরুল মিয়া। ফুলকপির ক্ষেত পরিচর্যা করার সময় লাভের আশায় উচ্ছ্বসিত কণ্ঠে নিজের অনুভূতির কথা জানান এই কৃষক।

নুরুল মিয়া রংপুরের পীরগঞ্জের চৈত্রকোল ইউনিয়নের ঝাড়বিশলা গ্রামের বাসিন্দা। চলতি মৌসুমে এই ইউনিয়নের মতো অন্য ইউনিয়নগুলোতে ফুলকপির ভালো ফলন হয়েছে। অল্প খরচে লাভ বেশি হওয়ায় ফুলকপি চাষ করে হাসি ফুটেছে কৃষকের মুখে। 

কৃষকরা বলছেন, অনুকূল আবহাওয়া ও সময়মতো বীজ বপনের পাশাপাশি সুষম সার ব্যবহারের কারণে পীরগঞ্জের কয়েকটি ইউনিয়নে এবার ফুলকপির ফলন ভালো হয়েছে। এতে লাভের আশায় মুখিয়ে আছেন তারা। এলাকার উৎপাদিত ফুলকপি চাহিদা মিটিয়ে সরবরাহ হচ্ছে দেশের বিভিন্ন জেলায়। এ অঞ্চলের চাষিরা তাদের উৎপাদিত এই সবজি এখন বাজারজাত করতে ব্যস্ত সময় পার করছেন। শীত মৌসুমে এই সবজির চাহিদা বেশি হওয়াতে বাজার দরও ভালো পাচ্ছেন তারা।

চৈত্রকোল ইউনিয়নের ঝাড়বিশলা গ্রামের আরেক কৃষক আমির হামজা বলেন, সবাইতো এখন লাভের আশায় চাষাবাদ করে। সেই দিন থেকে ফুলকপিতে কোনো লোকসানের ঝুঁকি নেই। শুধু শীতকালেই নয়, এখন এই সবজি সারা বছরও উৎপাদন করা যায়। তবে আমাদের এলাকায় শীতের সময়ে বেশি আবাদ হয়ে থাকে। এ বছর প্রায় ১২ হাজার টাকা ব্যয়ে ২৫ শতাংশ জমিতে চমক জাতের হাইব্রিড ফুলকপি আবাদ করেছেন।

উপজেলার চাপাবাড়ী গ্রাম, শাল্টি পশ্চিমপাড়া, বড় আলমপুর ইউনিয়নের কৈগাড়ী গ্রাম, পাঁচগাছি ইউনিয়নের জাহাঙ্গীরাবাদসহ বেশ কিছু এলাকা ঘুরে কৃষকদের সঙ্গে কথা হলে তারা বলছেন, শীতকালীন সবজি ফুলকপি আবাদ করে ভালো লাভ হওয়ায় এখানকার কৃষকরা এই সবজি চাষে ক্রমেই আগ্রহী হয়ে উঠছে। তবে এ বছর সারের দাম বৃদ্ধিতে কৃষকদের বাড়তি খরচ হলেও আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ফুলকপির ফলন ভালো হয়েছে।

কৃষকরা জানান, পীরগঞ্জের স্থানীয় হাটবাজার ছাড়াও পার্শ্ববর্তী মিঠাপুকুর এবং গাইবান্ধার বিভিন্ন হাটে ফুলকপির পাইকারদের কাছে তারা এই সবজি বিক্রি করেন। চাষবাদ ও বাজারজাতে কষ্ট হলেও ভালো ফলন আর আশানুরূপ দাম পাওয়ায় তারা অনেকটাই চিন্তামুক্ত। এ অঞ্চলের চাহিদা মিটিয়ে ঢাকাতেও পাঠানো হচ্ছে এই সবজি। অনেক এলাকাতে কাঁচামাল ব্যবসায়ীরা সরাসরি ক্ষেত থেকে পিচ হিসেবে ফুলকপি কিনে থাকেন। তবে সব মিলিয়ে ফুলকপি চাষে অন্যান্য ফসলের খরচের তুলনায় লাভ বেশি হয় বলে দাবি তাদের।

পাঁচগাছি ইউনিয়নের জাহাঙ্গীরাবাদ গ্রামের কৃষক বুলু মিয়া বলেন, সার ও কীটনাশকের দাম একটু বেশি হওয়ায় কপি চাষে বর্তমানে এক একর জমিতে খরচ হবে প্রায় ১ লাখ টাকা। তারপরও বর্তমান যে বাজার রয়েছে, এ রকম থাকলে লাভ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

উপজেলার বড় আলমপুর ইউনিয়নের কৈগাড়ী গ্রামের সবজি চাষি শরিফুল ইসলাম বলেন, এবার আগাম জাতের ফুলকপির আবাদ করেছি। সার ও সেচে খরচ বেশি পড়েছে। বিশেষ করে কীটনাশকের দাম বেশি হওয়ায় ধকল গেছে। তবে এই সবজির ফলন ভালো হওয়াতে কোনো আপসোস নেই। এখন ফুলকপি বাজারজাত করতে ব্যস্ত সময় পার করছি। বাজার ভালো হওয়ায় সারের খরচ কিছুটা পুষিয়ে নেওয়া সম্ভব হচ্ছে।

এদিকে রংপুরের পাইকারি বাজারগুলোতে ফুলকপি প্রতি মণ ১০০০-১১৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এতে প্রতি পাঁচ কেজি কেনা পড়ছে ২৫-২৮ টাকা। আর খুচরা বাজারে এক কেজি ফুলকপি বিক্রি হচ্ছে ৩৫-৪০ টাকা দরে।

পীরগঞ্জ উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানিয়েছে, চলতি মৌসুমে নানা প্রতিকূল আবহাওয়ার মাঝেও প্রায় ৪ হাজার হেক্টর জমিতে রকমারি শীতকালীন সবজির আবাদ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৫০০ হেক্টর জমিতে ফুলকপি ও বাঁধাকপির চাষ করেছেন কৃষকরা।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সাদেকুজ্জামান সরকার বলেন, এ অঞ্চলের ফুলকপি চাষিরা অত্যন্ত শ্রমজীবী। ফসল উৎপাদনে তাদের মধ্যে অলসতা নেই। যে কারণে তারা ফসলের চাষ করে সুফল পাচ্ছে। এছাড়া উপজেলা কৃষি বিভাগের লোকজন চাষিদের পাশে থেকে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে প্রতিটি ফসল চাষের জন্য কৃষকদের সঙ্গে মাঠ পর্যায়ে পরামর্শ দিয়ে চলেছে।

দেশের খবর বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যা বলেন তাই করেন: মির্জা আজম

  • নাটোরে ৭ দিনের বইমেলা শুরু

  • কুমিল্লায় ৮ দেশের গবেষকদের নিয়ে আন্তর্জাতিক কনফারেন্স

  • অসহায়দের নিরাপদ আশ্রয় শেখ হাসিনা: পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

  • নাটোর চিনিকলে আখ মাড়াই শুরু

  • বগুড়ায় কমেছে সবজির দাম, খুশি ক্রেতারা

  • ঝালকাঠিতে সুবিধা পাচ্ছেন ১৯ হাজার প্রতিবন্ধী

  • নিরাপদ সামুদ্রিক শিল্প উদ্যোগে আইএমও-এর সহযোগিতা চায় বাংলাদেশ

  • নওগাঁর রঙিন মাছ চাষে সফল মৎস্যচাষী সাইদুর

  • খাদ্য সঙ্কট মেটাতে বাড়ছে হাইব্রিড জাতের আবাদ

  • তৈরি হচ্ছে কক্সবাজার রেল, ট্রেন চলবে আগামী বছর

  • আগামী অক্টোবরে পূর্ণতা পাচ্ছে কক্সবাজার আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর

  • টাঙ্গাইলে সুগন্ধি জাতের ধান চাষে ভালো ফলন

  • জনপ্রিয় হচ্ছে টাঙ্গাইলের শাল চাদর

  • জনপ্রিয় হচ্ছে এটিএম বুথের পানি

  • নতুন জীবন পাচ্ছে মেরুদন্ড জোড়ালাগা দুই শিশু

  • কুমিল্লার দৃষ্টিনন্দন প্রাচীন স্থাপনা দারোগা বাড়ি মসজিদ

  • ঠাকুরগাঁওয়ে ধুম পড়েছে শীতের পিঠা বিক্রির 

  • পার্বত্য শান্তি চুক্তির ২৫ বছর পূর্তিতে আওয়ামী লীগের আলোচনা

  • অতিথি পাখির কলকাকলিতে মুখরিত অরুনিমা রিসোর্ট 

  • ভার্মি কম্পোস্ট সার উৎপাদনে নাঈমের সাফল্য

  • ‘বীর নিবাস’ পাচ্ছে সাতক্ষীরার ২৯২ বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবার

  • গোপালগঞ্জে শীতবস্ত্র পেলেন আনসার ভিডিপি সদস্যরা

  • নাটোরে সপ্তাহব্যাপী বইমেলা শুরু

  • বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শেখ সেলিমের শ্রদ্ধা নিবেদন

  • ‘চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগের জনসভা পলোগ্রাউন্ড মাঠ ছাড়িয়ে যাবে’

  • বিলম্বিত বিচার ব্যবস্থা দেশ থেকে দুর করতে হবে : পরিকল্পনামন্ত্রী

  • নওগাঁয় সাড়ে ৫ হাজার হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ-রসুন চাষের লক্ষ্য

  • জঙ্গিদের মাঠে নামিয়েছে বিএনপি : ওবায়দুল কাদের

  • সকল সম্প্রদায়কে ঐক্যবদ্ধভাবে দেশ গড়ার আহ্বান 

  • বাংলাদেশের রিকশা যাচ্ছে ইউরোপে: বিজিএমইএ

  • দেশের প্রথম পাতাল রেল নির্মাণ শুরু জানুয়ারিতে

  • চট্টগ্রাম-সেন্টমার্টিন রুটে চালু হচ্ছে বে ওয়ান ক্রুজ

  • মুরাদনগরের সিদল যাচ্ছে বিদেশে

  • ১ থেকে ৭ ডিসেম্বর বুস্টার ডোজ ক্যাম্পেইন

  • যুক্তরাষ্ট্রে ডেনিম রপ্তানিতে ৪২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি

  • তারের জঞ্জাল মুক্ত হতে যাচ্ছে রাজধানী

  • ২০২২ সালের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় পাশের হার

  • বিদেশি কূটনৈতিকদের বিষয়ে কঠোর হচ্ছে সরকার

  • ওয়ান সিটি টু টাউনের পথে বন্দরনগরী

  • সুড়ঙ্গ পথে আড়াই মিনিটে আনোয়ারা থেকে পতেঙ্গা

  • মেট্রোরেলের ডিপো নির্মাণে ভূমি উন্নয়ন চুক্তি সই

  • সহজে ব্যাংক ঋণ পাবেন এসএমই উদ্যোক্তারা

  • ৩ কাস্টম হাউজের জন্য ৬টি কনটেইনার স্ক্যানার সিস্টেম কিনছে এনবিআর

  • ঢাকা থেকে কক্সবাজারের দূরত্ব কমবে ৪০ কিমি

  • পূর্বাচলে বাণিজ্য মেলা ১ জানুয়ারি থেকে

  • রেমিট্যান্স পাঠানো সহজ করল কেন্দ্রীয় ব্যাংক

  • আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সভা রোববার

  • যুক্তরাজ্যের ভিসা আবেদন ফি দিতে হবে অনলাইনে

  • চার মাসে ৯০৯০১.৯৯ কোটি টাকা রাজস্ব আদায় এনবিআরের

  • শুরু হলো গৌরবময় বিজয়ের মাস

  • মাথাপিছু আয় বৃদ্ধিতে দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশ অন্যতম

  • বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা ভাতা বেড়ে দ্বিগুণ

  • ঘরে বসেই পাওয়া যাবে ভূমি সেবা

  • ইউরোপে পোশাক রপ্তানি প্রবৃদ্ধির শীর্ষে বাংলাদেশ

  • বাস থেকে ৬৩৭ ভরি স্বর্ণ উদ্ধার, ভারতীয় নাগরিকসহ গ্রেপ্তার ১২

  • বঙ্গবন্ধুর ভাষণের পর স্বাধীনতা ঘোষণার প্রয়োজন ছিল না

  • ২০৪০ সালে ট্রিলিয়ন ডলার অর্থনীতির দেশ হবে বাংলাদেশ: সমীক্ষা

  • আশুগঞ্জে নতুন বিদ্যুৎকেন্দ্র চালু, গ্রিডে যোগ হলো ৪০০ মেগাওয়াট

  • ডিএমপির ৫ কর্মকর্তাকে বদলি