শনিবার   ৩০ মে ২০২০

ব্রেকিং:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ খালেদার অনুপস্থিতিতেই কারাগারে বিচার চলবে রব ও মান্নার বিয়ে যুক্তফ্রন্টে, পরকীয়া ঐক্যফ্রন্টে: মাহী এটা জোট নয়, ঘোট : তথ্যমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় পেলেন সিনহা আবারও সরকার গঠনে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পদ্মা সেতু প্রকল্পের নামফলক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী
১৭৬

মার্কিন আইটি খাতে বাংলাদেশি প্রতিনিধিত্ব

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ৫ অক্টোবর ২০১৯  

আমেরিকার ডিপার্টমেন্ট অব হোমল্যান্ড সিকিউরিটির (ডিএইচএস) প্রকল্পে একজন তথ্যপ্রযুক্তি (আইটি) বিশেষজ্ঞ হিসেবে কাজ করেছেন। শুধু নিজে কাজ করেই ক্ষান্ত হননি। সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রকল্পে বাংলাদেশের ৩০-৪০ জন আইটি বিশেষজ্ঞদের কাজ করার সুযোগ করে দিয়েছেন সহকারী হিসেবে নিযুক্ত করে। বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় আইটি প্রতিষ্ঠান কেপিজিমিনির সঙ্গে কাজ করেছেন যেমন, তেমনি কাজ করছেন বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে। তথ্যপ্রযুক্তির শিক্ষাকে ছড়িয়ে দিতে কাজ করছেন বহুমাত্রিকভাবে। তিনি শেখ গালিব রহমান। একজন গর্বিত বাংলাদেশি, যার জীবনের লক্ষ্যই দেশের জন্য কিছু করা।

নিজের মেধা দিয়ে দেশ ও দশের উন্নয়নে নিজেকে বিলিয়ে দিতে চান শেখ গালিব রহমান। ডিএইচএসের সাবেক এ কর্মকর্তা ও আইটি উদ্যোক্তা কাজ করেছেন বিখ্যাত আইটি প্রতিষ্ঠান কেপজিমিনির সঙ্গে। এই সূত্রেই তিনি কাজ করেন মার্কিন ফেডারেল সরকারের প্রকল্পে। সে অভিজ্ঞতা তাঁকে অনেকটাই এগিয়ে দেয়। শুধু নিজে কাজ করেই সন্তুষ্ট হননি তিনি। আমেরিকার সরকারি প্রকল্পে নিজের টিম মেম্বার হিসেবে ৩৫ থেকে ৪০ জন বাংলাদেশিকে নিয়োগ দিয়ে দেশের প্রতি মমত্ব দেখিয়েছেন গালিব।

২০০৬ সালে গালিব রহমান উচ্চশিক্ষার লক্ষ্যে আসেন আমেরিকায়। এখানে এসে কম্পিউটার সায়েন্সে সিটি কলেজ থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। ২০১৭ সালে কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রোগ্রাম উদ্যোক্তা হিসেবে ডিপ্লোমা করেন। বরিশাল শহরে বেড়ে ওঠা জনতা ব্যাংক কর্মকর্তা এস এম সিদ্দিকুর রহমানের বড় ছেলে গালিব। 

শিক্ষক মা মাহিনুর ইয়াসমিনের উৎসাহে আইটি ক্ষেত্রে দক্ষতা অর্জনের পথে হাঁটেন তিনি। আমেরিকার ওহাইওতে থাকাকালে অধ্যয়নের পাশাপাশি কিউ এনালিস্ট হিসেবে আইবিএমে প্রথম চাকরি শুরু করেন। এরপর আইটি কর্মকর্তা হিসেবে চাকরি নেন চেজ ব্যাংক, ক্যাপিটাল ওয়ান ও ডিজনি ওয়ার্ল্ডে।

সরকারি কাজের সঙ্গে যুক্ত হওয়া প্রসঙ্গে গালিব রহমান বলেন, ‘আমি যখন চেজ ব্যাংকে আইটি কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করছি, তখন খ্যাতিমান আইটি উদ্যোক্তা কেপজিমিনি থেকে আমার কাছে একটি ই-মেইল আসে ডিএইচএসের অধীনস্থ ইমিগ্রেশন সার্ভিসের (ইউএন্ডডিএনটুএন্ড) প্রকল্পে কাজ করার জন্য। তখন আমি তাদের ডাকে সাড়া দিই। কাজটি কীভাবে করতে হবে, তার একটি নমুনা হোমল্যান্ড সিকিউরিটি কর্মকর্তাদের কাছে আমি ও আমার টিম উপস্থাপন করি। 

১০৪টি কোম্পানি এ কাজ পাওয়ার জন্য প্রকল্প প্রস্তাব উপস্থাপন করেছিল। অবশেষে হোমল্যান্ড সিকিউরিটি কাজটি কেপজিমিনিকে দেয়। কেপজিমিনি কাজটি সম্পন্ন করার জন্য প্রকল্প ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব আমার ওপর ন্যস্ত করে। আমরা সফলভাবে কাজটি সম্পন্ন করি। কাজ করতে গিয়ে ফেডারেল সরকারের কাজের ধরন ও সংস্কৃতি সম্পর্কে ব্যাপক অভিজ্ঞতা অর্জন করি।’

এই অভিজ্ঞতাই তাঁকে অনেকটা এগিয়ে দেয়। ২০১৭ সালে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ডিজিটাল সার্ভিস (ইউএসডিএস) প্রকল্পে আইটি কনসালটিং ডাইরেক্টর হিসেবে যোগ দেন গালিব। ওয়াশিংটন ডিসিতে রিজার্ভ ব্যাংক অব রিচমন্ডে আইটি কনসালটিং ডাইরেক্টর হিসেবে কাজ করেন।

গালিব রহমান বলেন, ‘পৃথিবীতে খ্যাতিমান ১০টি আইটি উদ্যোক্তা কোম্পানি রয়েছে। এ সব প্রতিষ্ঠান পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ের আইটির কাজ করে। সারা পৃথিবীতে প্রতি বছর ৩ লাখ ৭০ হাজার ডলার ব্যয় হয় আইটি খাতে। এর ৬২ শতাংশই হয় আমেরিকায়। বাকিটা করে বাকি বিশ্ব।’

আইটি খাতে বাংলাদেশের অবস্থান সম্পর্কে গালিব রহমান বলেন, ‘আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত আইটি খাত থেকে আয় করে বছরে ১৭৪ বিলিয়ন ডলার। ভারত ১৯৯৫ সালে আইটি ডেভেলপমেন্টের কাজ শুরু করেছিল। মাত্র ২০ বছরে তারা এতখানি এগিয়ে গেছে। অথচ বাংলাদেশ এ ক্ষেত্রে এখনো অনেকটা পিছিয়ে। আমরা যদি খ্যাতিমান আইটি উদ্যোক্তাদের আমাদের দেশে আমন্ত্রণ জানাতে পারি, তাহলে আমাদের দেশের দক্ষ ও অভিজ্ঞ আইটি বিশেষজ্ঞদের কাজে লাগতে পারব। প্রশিক্ষণের মাধ্যমে নতুন আইটি বিশেষজ্ঞ তৈরি করা যাবে। এই কাজটি কেউ করছে না। 

পৃথিবীজুড়ে খ্যাতিমান আইটি কোম্পানিগুলোর কয়েক মিলিয়ন সহায়তাকারী রয়েছে। তার মধ্যে ভারতে রয়েছে কয়েক লাখ। আমাদের দেশেও তা সম্ভব। এসব আইটি প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে অফিস করলে বাংলাদেশের কয়েক লাখ আইটি খাতের লোক চাকরি পাবেন। আইটি খাতে বিনিয়োগ ও খ্যাতিমান আইটি পরামর্শক কোম্পানি এক্সেন্টার কর্তৃক বিনিময় কর্মসূচি চালু করতে পারলে বাংলাদেশের কয়েক লাখ লোকের কর্মসংস্থান হবে।’

ছয় বছর আগে গালিব রহমান ট্রান্সফোটেক নামে একটি আইটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র খোলেন। তথ্যপ্রযুক্তি নিয়ে ছয়টি বিষয়ে এই প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে আইটি প্রশিক্ষণ দেওয়ার সুবিধার কথা উল্লেখ করেন তিনি, যাতে করে শিক্ষার্থীরা যুগোপযোগী আইটি বিশেষজ্ঞ হতে পারে। দেশের একাধিক আইসিটি কর্মকর্তার সঙ্গে এরই মধ্যে বৈঠক করেছেন তিনি। ২০ অক্টোবর এমনই আরেকটি বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। মূল লক্ষ্য দেশের আইটি খাতে নিজের অর্জিত জ্ঞান ও অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগানো। বর্তমানে গালিব রহমান আইটি এক্সচেঞ্জার টপ লিডারদের সঙ্গে কাজ করছেন। ভারতের ব্যাঙ্গালোরে তাঁর অধীনে তিন শতাধিক তথ্যপ্রযুক্তির লোক কাজ করছেন।

এ ছাড়া লিড মাই ওয়ার্ল্ডের (এলএমডব্লিও) মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে শিক্ষা সহায়তা নিয়ে কাজ করছেন গালিব রহমান। পৃথিবীর বেশ কয়েকটি দেশের বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে ইতিমধ্যে সহায়তা চুক্তি সম্পন্ন হয়েছে। জর্জিয়ার স্টেট ইউনিভার্সিটি ভেলডুস্টার, চীনের সিসিওয়ান ইনস্টিটিউট অব ইন্ডাস্ট্রিয়াল টেকনোলোজিসহ (এসআইআইটি) বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে এ বিনিময় কর্মসূচি বিদ্যমান। বাংলাদেশ থেকে জর্জিয়ার স্টেট ইউনিভার্সিটি ভেলডুস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০০ শিক্ষার্থী নেওয়ার অনুমোদন পেয়েছেন বলেও জানালেন তিনি। 

এসআইআইটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট ও ভাইস প্রেসিডেন্টকে সম্প্রতি বাংলাদেশে নিয়ে গেছেন। বাংলাদেশে তথ্যপ্রযুক্তি নিয়ে একটি ক্যাম্পাস ও যৌথ উচ্চশিক্ষা কর্মসূচি চালুর চেষ্টা করছেন তিনি। এ চেষ্টা সফল হলে বাংলাদেশের তরুণদের সামনে নিঃসন্দেহে খুলে যাবে সম্ভাবনার দুয়ার। স্বপ্নবান তরুণ গালিবের লক্ষ্যও তা-ই। ‘দেশের উন্নয়নে কাজ করতে পারা এবং মানুষের উপকার করতে পারাটাকেই সর্বশ্রেষ্ঠ কাজ’ বলে মনে করেন স্বপ্নচারী গালিব রহমান।

আরও পড়ুন
বিজ্ঞান - প্রযুক্তি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • স্থায়ী হলেন হাইকোর্টের অতিরিক্ত ১৮ বিচারপতি

  • ত্রাণের তালিকায় যুক্ত হচ্ছে আম, লিচুসহ বিভিন্ন মৌসুমি ফল

  • করোনা প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে বাসায় যেসব স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে

  • ফেসবুক লাইভে এসএসসির ফল জানাবেন শিক্ষামন্ত্রী

  • জয়পুরহাটে করোনা প্রতিরোধে ছাত্রলীগ নেতার জীবাণুনাশক টানেল

  • সংঘাতপূর্ণ দেশে শান্তি রক্ষায় ‘বাংলাদেশ পুলিশ’

  • ‘সোমবার থেকে চলবে বাস, চালক-যাত্রীদের মানতে হবে স্বাস্থ্যবিধি’ 

  • করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রচেষ্টায় ৬ দেশের একাত্মতা

  • ‘শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে পুনরায় বিশ্ব আসনে সমাদৃত করেছেন’

  • ‘বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করে ছুটি না বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে’

  • প্রধানমন্ত্রীকে ফোন করে জাতিসংঘ মহাসচিবের শুভেচ্ছা

  • দুর্যোগ মোকাবিলা সরকারের উদ্যোগ ইতিবাচক

  • ‘শান্তিরক্ষা মিশনে সাড়া দিতে সরকারের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে’

  • করোনা জয়ে গ্রামীণ অর্থনীতি

  • কুড়িগ্রামের সীমান্তবর্তী এলাকায় বিজিবির ত্রাণ বিতরণ

  • জীবিকার প্রয়োজনে সীমিত পরিসরে সচল হচ্ছে সব

  • দুর্যোগ মোকাবিলা সরকারের উদ্যোগ ইতিবাচক

  • পাইকগাছায় ভুট্টার বাম্পার ফলন

  • প্রথমবারের মতো শান্তিরক্ষীদের বহন করল বাংলাদেশ বিমান

  • আম্ফানে ক্ষয়ক্ষতি: প্রধানমন্ত্রীকে প্রিন্স চার্লসের চিঠি

  • শান্তিরক্ষীদের অবদান দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে: প্রধানমন্ত্রী

  • ৫ লাখেরও বেশি পরিবারকে ডিএনসিসির ত্রাণ বিতরণ

  • ছয় দিনে ১০ হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত, মৃত্যু শতাধিক

  • ৫ লাখেরও বেশি পরিবারকে ত্রাণ দিয়েছে ডিএনসিসি

  • রোববার থেকে শেয়ারবাজারে লেনদেন চালু 

  • গণপরিবহন চালু সরকারের ইতিবাচক সিদ্ধান্ত: সেতুমন্ত্রী

  • ‘প্রধানমন্ত্রী ইতিহাসের বৃহত্তম ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনা করছেন’

  • বেড়িবাঁধ মেরামতে ১০০ কোটি টাকার প্রকল্প নেওয়া হচ্ছে: প্রতিমন্ত্রী

  • কোন কোন অবস্থায় ভুলেও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করা যাবে না?

  • বাড়িতে বসে কোভিড-১৯ চিকিৎসায় যে ছয়টি বিষয় মনে রাখবেন

  • প্রধানমন্ত্রী আমার জন্য হাসপাতালে কেবিন বুকড দিয়েছেন: জাফরুল্লাহ

  • বঙ্গবন্ধুর জুলিও কুরি শান্তি পুরস্কার প্রাপ্তির ৪৭তম বার্ষিকী আজ

  • রপ্তানি আয়ে চামড়াকে ছাড়িয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে পাট খাত

  • ঘরোয়া পদ্ধতিতে করোনা দমনে ড. বিজন শীলের ৬ পরামর্শ

  • যুক্তরাষ্ট্রে পিপিই রপ্তানি শুরু করলো বাংলাদেশ

  • নিজের করোনা পজিটিভ রিপোর্টে নিজেই স্বাক্ষর করেন ডা. শাকিল!

  • ২৫ মে, কাজী নজরুল ইসলামের ১২১ তম জন্মদিন

  • প্রধানমন্ত্রী কাল জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন

  • সহজে ব্যবহারযোগ্য ভেন্টিলেটর উদ্ভাবন করল মেরিন একাডেমি

  • ২১ দিনে রেকর্ড ১১২ কোটি ১০ লাখ ডলার পাঠিয়েছে প্রবাসীরা

  • করোনাকালীন সংকটেও কৃষির সাফল্য

  • করোনা শনাক্তে দেশেই তৈরি হলো ‘ভিটিএম কিট’

  • অফিস-কারখানায় ১৩ দফা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশ

  • বেকারদের আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টিতে ৭ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প

  • ‘আমরা এক সঙ্গে করোনাকালীন খারাপ পরিস্থিতি পার করতে পারবো’

  • শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের সময়সীমা বাড়ল

  • করোনার চিকিৎসায় এসকেএফের রেমডেসিভির সরবরাহ শুরু

  • আরো ১০৬ পুলিশ সদস্য সুস্থ

  • চলতি মাসেই দৃশ্যমান হবে পদ্মাসেতুর সাড়ে ৪ কিলোমিটার

  • সীমিত পরিসরে গণপরিবহন চলার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর সম্মতি

  • তিন বিষয়ে সর্বোচ্চ গুরুত্বের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  • নগদ সহায়তা পাবে ৪৮ লাখ প্রান্তিক উদ্যোক্তা

  • জনগণ ঐক্যবদ্ধ থাকলে মহামারি উতরানো কোনো কঠিন কাজ নয়

  • রপ্তানি আয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে পাট খাত

  • এসএসসির ফল প্রকাশ হবে ৩১ মে

  • কৃষক ও ক্রেতার প্ল্যাটফর্ম ‘ফুড ফর ন্যাশনের’ যাত্রা শুরু

  • বিশ্বমানের পিপিই উৎপাদনকারী দেশের তালিকায় বাংলাদেশ

  • করোনা সচেতনতায় ভুয়া স্বাস্থ্য পরামর্শ এড়িয়ে চলার টিপস

  • মালদ্বীপ থেকে ফিরলেন ১২০০ বাংলাদেশি 

  • First Copies of Gilead Virus Drug to Start Selling in Bangladesh