রোববার   ০১ আগস্ট ২০২১

সর্বশেষ:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে ইসি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ: নূরুল হুদা বারবার আসতে পারব না, যত খুশি সাজা দিন: খালেদা জিয়া ‘আকাশবীণার’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী ত্রিভুবনে আবারও বিমান দুর্ঘটনা ট্রেন-বাসের সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ২৫ ভুয়া ছবি দিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে মিয়ানমার: প্রধানমন্ত্রী
৪২

মানুষের ব্যক্তিত্ব মূল্যায়নের মাপকাঠি

ডেস্ক রিপোর্ট:

প্রকাশিত: ১৫ জুলাই ২০২১  

বংশ-গোত্র, সাদা-কালো, ধনী-গরিব, দেশ বা অঞ্চল—এসব কোনোটির ভিত্তিতেই ইসলাম ব্যক্তিকে পরিমাপ করে না। তাহলে ইসলামে শ্রেষ্ঠত্বের মাপকাঠি কী? সেটা হলো তার কর্ম, বিশ্বাস ও চরিত্র। কেননা এ ছাড়া পূর্বোক্তগুলো হচ্ছে মানব জাতির সৃষ্টিগত গুণাবলি। সৃষ্টিগত গুণাবলির মাধ্যমে পরিচয় নির্ধারণ করা হলেও এগুলোর মাধ্যমে মানুষের শ্রেষ্ঠত্ব মাপা বোকামি। কেননা সৃষ্টিগত গুণাবলি কোনো মানুষের হাতের কামাই নয়; বরং তা শুধু মহান সৃষ্টিকর্তা আল্লাহর হাতে। অতএব এমন সব গুণ, যেগুলো অর্জনের ক্ষমতা মানুষের নেই, সেগুলোর কোনোটির মাধ্যমে কোনো মানুষের শ্রেষ্ঠত্বও প্রমাণিত হতে পারে না। তদ্রূপ এ জাতীয় গুণাবলিতে কোনো দোষারোপ বা নিন্দা করাও যায় না। তাই ইসলাম মানুষকে মাপার নির্দেশ দেয় তার শেষ্ঠ কর্ম ও সুউচ্চ চরিত্রের মাধ্যমে। মহান আল্লাহ বলেন, ‘হে মানবমণ্ডলী, নিশ্চয়ই আমি তোমাদের একজন নারী ও একজন পুরুষ থেকে সৃষ্টি করেছি এবং বিভিন্ন জাতি ও গোত্রে বিভক্ত করেছি, যাতে তোমরা একে অন্যকে চিনতে পারো। নিশ্চয়ই আল্লাহর কাছে সে-ই সর্বাধিক সম্মানিত, যে সর্বাধিক খোদাভীরু।’ (সুরা হুজুরাত, আয়াত : ১৩)

 

বংশে নয়, কর্মেই মানুষের ব্যক্তিত্ব  নির্ণিত হয়

আবু হুরায়রা (রা.) সূত্রে বর্ণিত। তিনি বলেন, হে আল্লাহর রাসুল, মানুষের মধ্যে সবচেয়ে সম্মানিত ব্যক্তি কে? তিনি বলেন, তাদের মধ্যে যে সবচেয়ে বেশি মুত্তাকি। (সহিহ বুখারি, হাদিস : ৩৩৫৩)

ইবনে ওমর (রা.) থেকে বর্ণিত, মক্কা বিজয়ের দিন রাসুলুল্লাহ (সা.) উপস্থিত সাহাবিদের উদ্দেশে ভাষণ দেন এবং বলেন, হে জনমণ্ডলী! তোমাদের থেকে আল্লাহ তাআলা জাহেলি যুগের দম্ভ-অহংকার এবং পূর্বপুরুষদের নিয়ে গৌরব ও আভিজাত্যবোধ বাতিল করেছেন। এখন মানুষ দুই অংশে বিভক্ত—একদল মানুষ নেককার-পরহেজগার। তারা আল্লাহ তাআলার কাছে প্রিয় ও সম্মানিত এবং অন্য দল পাপিষ্ঠ, দুর্ভাগা। তারা আল্লাহ তাআলার কাছে নিকৃষ্ট, নিচু ও ঘৃণিত। সব মানুষ আদম (আ.)-এর সন্তান। আর আল্লাহ তাআলা আদমকে মাটি দিয়ে সৃষ্টি করেছেন...। (তিরমিজি, হাদিস : ৩২৭০) অন্য বর্ণনায় এসেছে, ‘জেনে রেখো! জাহেলি যুগের গৌরব ও আভিজাত্যবোধের দাবিদার সব কিছু এবং রক্ত ও সম্পত্তি সম্পর্কিত যাবতীয় অন্যায়-অভিযোগ আজ আমার দুই পদতলে নিপিষ্ট। (সুনানে আবি দাউদ, হাদিস : ৪৫৪৭)

রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘কৃষ্ণাঙ্গের ওপর শেতাঙ্গের কোনো শ্রেষ্ঠত্ব নেই। কোনো অনারবের ওপর কোনো আরবের এবং কোনো আরবের ওপর কোনো অনারবের শ্রেষ্ঠত্ব নেই। একজন শ্বেতাঙ্গ একজন কৃষ্ণাঙ্গের তুলনায় এবং একজন কৃষ্ণাঙ্গ একজন শ্বেতাঙ্গের তুলনায় ঊচ্চতর নয়। পার্থক্য নির্ণিত হয় শুধু মানুষের চরিত্র ও কর্মের মাধ্যমে।’ (মুসনাদে আহমাদ, হাদিস : ২৩৪৮৯)

 

শুধু বংশমর্যাদা কাউকে অগ্রসর  করতে পারে না

পিতৃপুরুষের ভালো-মন্দ অর্জন তাদের জন্যই। উত্তরসূরিদের সেগুলোর ভালো নিয়ে গর্ব করে করে কালাতিপাত করার সুযোগ ইসলামে নেই। এ বিষয়ে মহান আল্লাহ বলেন, ‘তারা এমন এক দল, যারা বিগত হয়েছে। তারা যা অর্জন করেছে তা তাদের জন্য, আর তোমরা যা অর্জন করেছ তা তোমাদের জন্য। আর তারা যা করত সে সম্পর্কে তোমাদের জিজ্ঞেস করা হবে না।’ (সুরা বাকারা, আয়াত : ১৩৪)

হাদিস শরিফে এসেছে, রাসুলুল্লাহ (সা.) ইরশাদ করেন, ‘যার কর্ম তাকে পেছনে ফেলে রেখেছে তার বংশমর্যাদা তাকে অগ্রসর করতে পারে না।’ (সহিহ মুসলিম, হাদিস : ২৬৯৯)

উকবা ইবনে আমের (রা.) সূত্রে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ (সা.) ইরশাদ করেন, ‘নিশ্চয়ই তোমাদের বংশপরিচয় কাউকে গালি বা লজ্জা দেওয়ার বিষয় নয়। কেননা তোমরা সবাই আদমের সন্তান। সবাই একই মাপের পেয়ালার মতো সমপরিমাণ। একে অন্যের ওপর তোমাদের কোনো প্রাধান্য নেই—দ্বিন পালন ও নেক আমলে অগ্রসরতা ছাড়া। মানুষের ত্রুটি ও লজ্জার বিষয় হলো দুর্ব্যবহার, অশ্লীলতা, কৃপণতা, কাপুরষতা ইত্যাদি।’ (মুসনাদে আহমাদ, হাদিস : ১৭৩১৩)

 

মনীষীদের চোখে বংশগৌরব

সাহাবি আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ (রা.) হেঁটে যাচ্ছিলেন। এ অবস্থায় দুজন লোক বংশমর্যাদা নিয়ে অহংকার করছিল। তখন তিনি বলেন, আল্লাহর শপথ! আমার আকাঙ্ক্ষা এটিই যে আল্লাহ তাআলা নিজ রহমতে আমাকে জাহান্নাম থেকে মুক্তি দেবেন, আর এ অবস্থায় যদি আমি কোনো গাধার পায়খানার পাশে দাঁড়িয়ে থাকি এবং আমার কোনো বংশগৌরব না-ও থাকে, তবু এতে আমার কোনো আফসোস নেই। (জামে ইবনে ওয়াহাব, হাদিস : ৪৩)

অন্য বর্ণনায় তিনি বলেন, আমার আকাঙ্ক্ষা এটিই যে আল্লাহ তাআলা আমার একটি গুনাহ ক্ষমা করে দেবেন, আর আমার কোনো বংশগৌরব যদি না-ও থাকে। (জামে ইবনে ওয়াহাব, হাদিস : হাদিস ২৮)

ওমর ইবনে খাত্তাব (রা.) একবার বলেন, আমার চাওয়া এমন যে আমার বাবা (দূর হাবশা দেশ থেকে আগত গোলাম সাহাবি) বেলালের বাবার মতো হোক, আমার মা বেলালের মায়ের মতো হোক এবং আমি বেলালের মতো হবো, আর এভাবেই আমার জীবন শেষ হবে। (জামে ইবনে ওয়াহাব, হাদিস : ১৮)

আল্লাহ তাআলা আমাদের বংশগৌরবে লিপ্ত না রেখে নিজ নিজ কর্মের মাধ্যমে অগ্রসর হওয়ার তাওফিক দান করুন! আমিন!

ইসলাম বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • অশ্রুঝরা আগস্ট, বয়ে যায় নয়নে নয়নে

  • আগস্টের প্রথম প্রহরে ছাত্রলীগের মোমবাতি প্রজ্জালন

  • সব ক্লাবের চাইতে পার্লামেন্ট মেম্বার্স ক্লাব অনন্য : স্পিকার

  • গাউসিয়া কমিটিকে অ্যাম্বুলেন্স উপহার আ. লীগের ত্রাণ উপ-কমিটির

  • টিকা নিবন্ধনকারীর সংখ্যা দেড় কোটি ছুঁই ছুঁই

  • রংপুরের ৬৯ সাংবাদিক পেলেন প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহায়তা

  • আজ সকালে বাংলাদেশ, বিকেলে অনুশীলন অস্ট্রেলিয়ার

  • লোকজ সংস্কৃতির বিকাশে এগিয়ে আসতে হবে

  • প্রথম ম্যাচে অনিশ্চিত সাকিব সৌম্য মোস্তাফিজ!

  • কাতারের ইতিহাসে প্রথম অলিম্পিক সোনা

  • রায়পুরে দাফনের ২৩ দিন পর বৃদ্ধের লাশ উত্তোলন

  • আগস্টের অশ্রু, বয়ে যায় নয়নে নয়নে

  • পটুয়াখালী মেডিকেলে আইসিইউর ৫ মনিটর দিলেন আ.লীগ নেতা

  • ফেনীতে খাল পরিষ্কার করল ছাত্রলীগ

  • এইচএসসির ফরম পূরণ শুরু ১২ আগস্ট, কমেছে ফি

  • অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ সিরিজ: মিরপুরে চলাচল থাকবে সীমিত

  • করোনা রোগীদের জন্য ফ্রি অ্যাম্বুলেন্স ও অক্সিজেন সার্ভিস

  • রাজশাহীতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চুরি, মালামালসহ গ্রেফতার ৪

  • অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান সেতুমন্ত্রীর

  • বাবা-মায়ের কবরের পাশে শায়িত হলেন আলী আশরাফ

  • অক্সিজেন সিলিন্ডার উপহার দিলেন আইনমন্ত্রী

  • যাত্রীবাহী মাইক্রো ভেবে ডিবির গাড়িতে ডাকাতি করতে গিয়ে গ্রেফতার

  • কর্মস্থলে ফিরতে বরিশাল মহাসড়কে জনস্রোত

  • পটুয়াখালী মেডিকেলে আইসিইউর ৫ মনিটর দিলেন আ.লীগ নেতা সুলতান

  • দেশে এক দামে ইন্টারনেট, ব্রডব্যান্ড গ্রাহক কোটি ছাড়ালো

  • বরিশালের নারীদের তৈরি পণ্য রপ্তানি হয় ২১ দেশে

  • রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের রিয়্যাক্টর ভবনের ডোম স্থাপন

  • বাংলাদেশে ভ্যাকসিন ফাইন্ডার চালু করছে ফেসবুক

  • জাপান থেকে এলো আরও প্রায় ৮ লাখ ডোজ টিকা

  • এনআইডি ও জন্ম নিবন্ধন ছাড়াও মিলবে ভ্যাকসিন

  • ২৫শ টাকার নগদ সহায়তা পেয়েছেন ১৭ লাখ ২৪ হাজার মানুষ

  • পশুর নাড়ি-ভুঁড়ি রফতানি করে বছরে আয় ৩২০ কোটি টাকা

  • সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে আধুনিকতার ছোঁয়া

  • কঙ্গোয় বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীদের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত

  • প্রতিবন্ধকতা জয় করে এগিয়ে চলছে কর্ণফুলী টানেলের নির্মাণকাজ

  • কুড়িগ্রামে ধানের মুড়ি ফসল কৃষিতে নতুন বিপ্লব

  • করোনাযুদ্ধে ১৯৫ দেশের মধ্যে সেরা ২০-এ বাংলাদেশ

  • ডিএনসিসি কোভিড হাসপাতালে যোগ হচ্ছে আরও ৫০০ বেড

  • বিদ্যুৎ উৎপাদন বেড়েছে ১৩৭৯৩ মেগাওয়াট

  • তেল চুরি করতে গিয়ে পদ্মাসেতুর পিলারে ফেরির ধাক্কা

  • মেরিন ড্রাইভ খুলে দেবে সম্ভাবনার নতুন দিগন্ত

  • তিন দুম্বায় বাজিমাত সোহেলের

  • লটকন বিক্রি করে ৩০ লাখ টাকার বাড়ি করলেন তোতা মিয়া

  • মেট্রোরেলের আরো দুই সেট ট্রেন এখন দেশে

  • বিদেশে পড়তে যাওয়া সব শিক্ষার্থী টিকা পাবেন: পররাষ্ট্র সচিব

  • প্রতি মাসে ১ কোটি টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • ৭ আগস্ট থেকে গ্রামে গ্রামে করোনা টিকা

  • দেশে নির্মাণ হচ্ছে দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম আধুনিক খাদ্য সংরক্ষণাগার

  • কলেবর বাড়ছে বিজিবির, নিয়োগ পাচ্ছে ১৫ হাজার সদস্য

  • ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য পৌনে ৫ কোটি টাকা, সাড়ে ৯ হাজার টন চাল

  • মোবাইল থেকেই আয়কর রিটার্ন দাখিল করা যাবে

  • ১৯ দিনে রেমিট্যান্স এলো ১৩ হাজার কোটি টাকা

  • যুক্তরাষ্ট্রে স্যাট পরীক্ষায় বাংলাদেশি অপূর্বর রেকর্ড

  • বর্ণিল ফুলে সুশোভিত ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক

  • মৌখিক পরীক্ষা ছাড়াই নেয়া হচ্ছে ৮ হাজার চিকিৎসক-নার্স

  • ৩১ জুলাই চালু হচ্ছে বিএসএমএমইউ ফিল্ড হাসপাতাল

  • কাপ্তাই জলবিদ্যুৎ কেন্দ্রে বেড়েছে উৎপাদন, সচল ৪ ইউনিট

  • ‘করোনা টিকা নেওয়ার বয়সসীমা ১৮ হচ্ছে’

  • বারোমাসি সিডলেস ও এলাচি লেবু চাষ করে স্বাবলম্বী

  • প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে যুক্তরাষ্ট্র থেকে ২৫০টি ভেন্টিলেটর সংগ্রহ