বৃহস্পতিবার   ২৪ অক্টোবর ২০১৯

ব্রেকিং:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ খালেদার অনুপস্থিতিতেই কারাগারে বিচার চলবে রব ও মান্নার বিয়ে যুক্তফ্রন্টে, পরকীয়া ঐক্যফ্রন্টে: মাহী এটা জোট নয়, ঘোট : তথ্যমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় পেলেন সিনহা আবারও সরকার গঠনে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পদ্মা সেতু প্রকল্পের নামফলক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী
১০৫

‘ভাসানচরে রোহিঙ্গা স্থানান্তর সমর্থন করো, নইলে দেশ ছাড়ো’

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারের ওপর পর্যাপ্ত আন্তর্জাতিক চাপ প্রয়োগ না হওয়ায় হতাশা প্রকাশ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম ডয়চে ভেলের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তরে বাংলাদেশের যে পরিকল্পনা, তাতে জাতিসংঘের সংস্থাগুলো সমর্থন দিক, নইতো (সংস্থাগুলো) দেশ ছেড়ে চলে যাক।’

এর আগে, দ্বিতীয়বারের মতো রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের উদ্যোগ ব্যর্থ হওয়ার পর গত ২২ আগস্ট রাতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছিলেন, ‘এবার রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে পাঠাতে কঠোর হবে সরকার। আর কক্সবাজারের শিবিরগুলোতে চলমান এনজিও (দেশি-বিদেশি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান) প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে যারা প্রত্যাবাসনবিরোধী প্রচারণা চালাচ্ছে তাদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

তিনি আরও বলেছিলেন, ‘আর্ন্তজাতিক সংস্থাগুলো রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে পাঠাতে বিরোধীতার পেছনের কারণ হচ্ছে, ভাসানচরে পাঁচ তারকার মতো কোনো অভিজাত হোটেল নাই। ওখানে তাদের (আর্ন্তজাতিক সংস্থাগুলোর কর্মী) থাকতে কষ্ট হবে, এখানকার (কক্সবাজার) মতো আরামে থাকতে পারবে না।’

এদিকে, ডয়চে ভেলেকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘আমার মনে হয় রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে পাঠানোর এখনই সময়। তবে ওই দ্বীপে সব রোহিঙ্গাকে পাঠানো সম্ভব নয়। আমরা মাত্র ১ লাখ রোহিঙ্গাকে সেখানে পাঠাতে পারি। তাদের জোর করে পাঠাতে চাই না। আমরা আশা করেছিলাম, তারা স্বেচ্ছায় সেখানে যাবে।’

‘দ্বীপে শরণার্থীরা অর্থনৈতিক কার্যক্রম চালাতে পারবে। কিন্তু কক্সবাজারে কাজ করা ত্রাণ সংস্থাগুলো ভাসানচরে যেতে চায় না। কক্সবাজারে তারা পাঁচ তারকা হোটেলে থাকতে পারেন, তাই তারা অন্য জায়গায় যেতে চান না।’

এ ছাড়া তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক বেসরকারি সংস্থার মধ্যে যারা রোহিঙ্গা ইস্যুকে রাজনীতিকরণ করতে চাইছে আমরা তাদের খুঁজে বের করার চেষ্টা করছি৷’

জাতিসংঘের সংস্থাগুলো আপনাদের পরিকল্পনা সমর্থন না করলেও আপনারা রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে পাঠাবেন? এমন প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘হ্যাঁ, সম্ভবত। আমরা অনেক লিফলেট, সিডি ও ভিডিও জব্দ করেছি, যেগুলোতে রোহিঙ্গাদের নির্দিষ্ট কিছু দাবি না মানলে মিয়ানমারে ফিরে না যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ কিছু দাবি মানতে রাজি হয়েছে, যেমন নিরাপত্তা দেওয়া ও চলাফেরার অনুমতি। তবে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দেওয়া, হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের শাস্তি দেওয়া, রোহিঙ্গাদের এথনিক গোষ্ঠী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া এবং রোহিঙ্গাদের তাদের নিজেদের ঘরবাড়িতে ফেরার অনুমতি দেওয়ার মতো দাবি মানা হয়নি।’

জাতিসংঘের সমর্থন ছাড়া কি বাংলাদেশ ১ লাখ রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে সরাতে পারবে? জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা তা করতে পারবো। জাতিসংঘকে এই পরিকল্পনা মেনে নিতে হবে, নয়তো তারা রোহিঙ্গাদের তাদের সঙ্গে নিয়ে যেতে পারে। এই মানুষদের অনেকেই এরই মধ্যে অপরাধমূলক কার্যক্রমে জড়িয়ে পড়েছে। ওই এলাকায় রোহিঙ্গাদের সংখ্যা স্থানীয়দের প্রায় দ্বিগুণ। স্থানীয়রা নিয়মিত অপরাধমূলক কার্যক্রমের অভিযোগ করছে। আমরা তা হতে দিতে পারি না। সে কারণে আমরা তাদের ভাসানচরে যেতে বাধ্য করতে পারি।’
 
তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশ ধনী রাষ্ট্র নয়। আমরা বিশ্বের সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ রাষ্ট্র। এরপরও আমরা রোহিঙ্গাদের জন্য অনেক কিছু করেছি। এখন অন্যদের এগিয়ে আসতে হবে কারণ এটা শুধু আমাদের সমস্যা নয়। এটা একটা আন্তর্জাতিক ইস্যু। আমরা যদি তাদের নিরাপত্তা না দিতাম, তাহলে তারা গণহত্যার শিকার হতে পারতো।’

জাতিসংঘের বিরোধিতা করার সামর্থ্য কি বাংলাদেশের আছে? এমন প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘জাতিসংঘ আমাদের বেশি সাহায্য করছে না। তারা মিয়ানমারের রাখাইনে অনুকূল পরিবেশ তৈরি করতে পারছে না। জাতিসংঘের এই সংস্থাগুলো কেন মিয়ানমারে কাজ করছে না? তাদের মিয়ানমারে যাওয়া উচিত, বিশেষ করে রাখাইনে। সেখানে এমন পরিবেশ তৈরি করা উচিত, যা রোহিঙ্গারা ফিরতে সহায়তা করতে পারে। জাতিসংঘের কাছ থেকে আমরা যে কাজ প্রত্যাশা করি, তা জাতিসংঘ করছে না।’

জাতিসংঘের সংস্থাগুলো যদি আপনাদের পরিকল্পনা সমর্থন না করে তাহলে কি আপনারা তাদের তাড়িয়ে দেবেন? পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘যদি প্রয়োজন হয়, আমরা তাই করবো। ভাসানচর নিরাপদ। আমরা সেখানে সুন্দর বাড়ি ও বাঁধ নির্মাণ করেছি। আমরা যদি বাংলাদেশিদের সেখানে যেতে বলি তাহলে তারা নিশ্চয় যাবে।’

রোহিঙ্গারা যদি ভাসানচরে যায় তাহলে কি তারা ইচ্ছামতো চলাফেরা করতে পারবে, নাকি তাদের ওই দ্বীপেই থাকতে হবে? জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমার মনে হয় তারা ইচ্ছামতো ঘোরাফেরা করবে।’

আরও পড়ুন
সাক্ষাৎকার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • ‘বিশ্ব পোলিও দিবস’ আজ

  • জামালপুর থেকে অনলাইন ক্যাসিনোর ৫ সদস্য আটক

  • পাকিস্তান সফরে যশোরের মেয়ে নারী ক্রিকেট দলের মেঘলা

  • ম্যাজিস্ট্রেটের ওপর জেলেদের হামলা, পুলিশসহ ১২ জন আহত

  • ইতিহাসের অপেক্ষায় মৌসুমী

  • মিষ্টি দোকান থেকে বেরিয়ে এলো লক্ষ লক্ষ তেলাপোকা!

  • মৌসুমী জয়ী হলে পদত্যাগ করবেন সবাই

  • রণবীর-আলিয়ার বিয়ে ২২ জানুয়ারি

  • বাগাতিপাড়ায় পিকআপের তাণ্ডবে আহত ১০

  • নভেম্বরে শুরু হচ্ছে ঢাকা ফোকফেস্ট

  • সাভারে সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজি, আটক ২

  • ভয়ঙ্কর ধর্ষণের শিকার চলচ্চিত্র পরিচালক

  • মা হলেন নায়িকা রুমানা

  • এবার ফোকফেস্ট মাতাবেন ২ শতাধিক শিল্পী

  • ডিভোর্স লেটার পাননি বলে জানালেন অভিনেতা সিদ্দিক

  • বিসিসিআইর সিংহাসনে সৌরভ গাঙ্গুলি

  • জয়ে ফিরেছে ভারতের মোহনবাগান

  • দুর্দান্ত জয়ে ধারাবাহিক চট্টগ্রাম আবাহনী

  • প্রধানমন্ত্রীর উপপ্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকনের আজ জন্মদিন

  • জাতিসংঘ দিবস আজ

  • অবশেষে কার্যকর হচ্ছে সড়ক পরিবহন আইন

  • আপত্তিকর অবস্থায় আটক সেই পুলিশ কর্মকর্তা প্রত্যাহার

  • আপাতত আমরা খুশি, বললেন সাকিব

  • নুসরাত হত্যার রায় আজ

  • অতিরিক্ত সচিব হলেন ১৫৬ কর্মকর্তা

  • প্রথম ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ হলেন শিলা

  • সাকিবদের সব দাবি মেনে নিয়েছে বিসিবি

  • কক্সবাজারের ডিসির বিরুদ্ধে দুপুরে মামলা, বিকালে খারিজ

  • দ. আফ্রিকায় ডাকাতের দেয়া আগুনে শিবচরের যুবকের মৃত্যু

  • জাতিসংঘ দফতরের সামনে গায়ে আগুন

  • আজ ‘কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস’ ও ১৩টি সেতু উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

  • মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় দেশসেরা রংপুরের রাগীব নূর

  • অনলাইনে সরকারি সেবা দিতে ‘একপে’, ‘একসেবা’ ও ‘একশপ’-এর যাত্রা শুরু

  • ২০১৯ সালে বিশ্বে তৃতীয় সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধি বাংলাদেশে: আইএমএফ

  • বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ১৫৭ পরিবার পেল অর্থ সহায়তা ও বীজ

  • এক মিনিটেই ‘নগদ’ হিসাব

  • ২৮৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম নিরসন প্রকল্প গ্রহণ 

  • পর্যটন শিল্প বিকাশে অবদান রাখবে পটিয়া বাইপাস সড়ক

  • ভুলতা উড়ালসড়কের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

  • প্রকাশ পেল ‌‌‘আহাদ ফাহিম’ এর গান ‘আমি মিথ্যে বলিনি’ এর ভিডিও

  • দ্রুত এগুচ্ছে ৬ লেনের মাতামুহুরী সেতুর নির্মাণকাজ

  • দেশকে শীর্ষ পঞ্চাশে নেওয়ার লক্ষ্য জয়ের

  • ‘সাড়ে ২২ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে’

  • ‘সবচেয়ে সুবিধাজনক অবস্থায় বাংলাদেশের অর্থনীতি’

  • আগামী প্রজন্মকে পরিচ্ছন্ন হয়ে ওঠার আহ্বান স্থানীয় সরকারমন্ত্রীর

  • নতুন ঘর পাবেন ১৫ হাজার মুক্তিযোদ্ধাঃ  মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

  • নদীর ভাঙন রোধে কাজ করছে সরকার: পানি সম্পদ উপমন্ত্রী

  • ২০১৮-১৯ অর্থবছরে সরকারের যত অর্জন

  • ‘চরের মানুষ পাকা রাস্তা,পড়ালেখার জন্য স্কুল-মাদ্রাসা পেয়েছে’

  • ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন স্বপ্ন নয় বাস্তবঃ জয়

  • মুসলিমবান্ধব পর্যটন বিকাশে বাংলাদেশ আদর্শ: পর্যটন প্রতিমন্ত্রী

  • যানজট নিরসনে ঢাকায় আরও ২টি মেট্রোরেলের প্রকল্প অনুমোদন

  • রাজধানীর কারওয়ান বাজারে ১৬৫ ভাসমান স্থাপনা উচ্ছেদ

  • যুবলীগ চেয়ারম্যানকে অব্যাহতি, চয়ন আহ্বায়ক ও হারুন সদস্য সচিব

  • ‘‌আমাকে কবর থেকে বের করো, এখানে ভীষণ অন্ধকার’‌

  • মুন্সিগঞ্জের ১৩ সেতুর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

  • ক্যাসিনো সংশ্নিষ্টতা পেলেই আইনি ব্যবস্থা: তথ্যমন্ত্রী

  • এক বাঘিনীর জন্য দুই বাঘের তুমুল লড়াই

  • বরিশালে ৪শ কেজি অবৈধ পলিথিনসহ আটক ২

  • এমপিওভুক্তি: অগ্রাধিকার পাবে প্রত্যন্ত অঞ্চল: শিক্ষামন্ত্রী