মঙ্গলবার   ১৮ জুন ২০২৪

সর্বশেষ:
জাইকার উপদেষ্টা কমিটির সঙ্গে স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর বৈঠক ‘অজান্তে মোবাইল ব্যালেন্স কেটে নিলে কঠোর ব্যবস্থা’ আওয়ামী লীগের যৌথ সভা শুক্রবার বিএনপির নির্বাচন বর্জনের রাজনীতি আত্মহননমূলক : পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকা পৌঁছেছেন ভারতের পররাষ্ট্র সচিব গণমাধ্যমের তথ্য প্রাপ্তির অধিকার নিশ্চিত করা হবে: প্রতিমন্ত্রী নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি ছিল সন্তোষজনক : ওবায়দুল কাদের রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে যুক্তরাজ্যের সহায়তা চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী
৩৬১

ভারতীয় আরো ২০ ইঞ্জিন পাচ্ছে বাংলাদেশ রেলওয়ে

প্রকাশিত: ২৩ মে ২০২৩  

বাংলাদেশ রেলওয়েকে অনুদান হিসেবে আরো ২০টি লোকোমোটিভ (ইঞ্জিন) দিচ্ছে ভারত।  আজ বিকালে বাংলাদেশ রেলওয়ের কাছে ব্রড গেজ ইঞ্জিনগুলো হস্তান্তর করবে ভারত।  রেলওয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বিকাল ৪টায় লোকোমোটিভ হস্তান্তর অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি দুই দেশের রেলমন্ত্রী যোগ দেবেন।  একই সঙ্গে বাংলাদেশের দর্শনা এবং ভারতের গেদে অংশে হস্তান্তর অনুষ্ঠান ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশ ও ভারতের দুই রেলমন্ত্রীর মধ্যে গত বছরের ১ জুলাই অনুষ্ঠিত সভায় বাংলাদেশ রেলওয়েকে ২০টি ব্রড গেজ লোকোমোটিভ অনুদান হিসেবে দেয়ার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।  একই বছরের ২৯ থেকে ৩১ আগস্ট ভারতের নয়াদিল্লির রেলভবনে অনুষ্ঠিত ইন্টার গভর্নমেন্ট রেলওয়ে মিটিংয়ে (আইজিআরএম) বাংলাদেশ রেলওয়েকে ২০টি ব্রড গেজ লোকোমোটিভ অনুদান হিসেবে দেয়ার বিষয়ে সরকার দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

এর আগে ২০২০ সালেও ভারত থেকে ১০টি ব্রড গেজ লোকোমোটিভ অনুদান হিসেবে পেয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।  আগেরবার পাওয়া লোকোমোটিভগুলো পশ্চিমাঞ্চলের রুটে চলাচল করছে।

বাংলাদেশ রেলওয়ের তথ্য বলছে, বর্তমানে সংস্থাটির বহরে থাকা মোট ইঞ্জিনের সংখ্যা ৩০৭।  এর মধ্যে ১৯৭টি ইঞ্জিন মিটার গেজ, যার সিংহভাগই চলাচল করছে রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলে।  অন্যদিকে পশ্চিমাঞ্চলে চলাচল করছে ১১০টি ব্রড গেজ ইঞ্জিন।  বর্তমানে প্রায় ৪০০ ট্রেন পরিচালনা করছে রেলওয়ে।  এসব ট্রেনের বিপরীতে সচল ইঞ্জিনের সংখ্যা মাত্র ২৭১।  স্বভাবতই ইঞ্জিনস্বল্পতায় ভুগছে সংস্থাটি, যার কারণে ব্যাহত হচ্ছে স্বাভাবিক পরিচালনা কার্যক্রম।

অন্যদিকে বহরে থাকা ইঞ্জিনগুলোর মধ্যে সিংহভাগেরই শেষ হয়েছে অর্থনৈতিক আয়ুষ্কাল।  রেল ইঞ্জিনের অর্থনৈতিক আয়ুষ্কাল ২০ বছর নির্ধারিত থাকলেও অধিকাংশ ইঞ্জিনের বয়স পেরিয়ে গেছে ৪০ বছর।  পুরনো এসব ইঞ্জিনে কাঙ্ক্ষিত গতিতে চলতে পারছে না সিংহভাগ ট্রেন, কমেছে ইঞ্জিনের কর্মঘণ্টা।

রেলওয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, পুরনো ইঞ্জিনগুলো ঘন ঘন মেরামতের জন্য কারখানায় নিতে হচ্ছে।  বাংলাদেশ রেলওয়ের প্রকৌশল (লোকোমোটিভ) শাখার তথ্য বলছে, মেরামতের জন্য ইঞ্জিন কারখানায় নেয়া স্বাভাবিক কার্যক্রমেরই অংশ।  তবে এর একটা নির্ধারিত মাত্রা রয়েছে।  রেলওয়ের নির্ধারিত মানদণ্ড অনুযায়ী, প্রতিদিন মোট ইঞ্জিনের ৮০ শতাংশ ব্যবহারের জন্য রাখতে হবে।  বাকি ২০ শতাংশ থাকবে সার্ভিসিংয়ে।  বর্তমানে মেরামত ও ব্যবহার উপযোগী ইঞ্জিনের অনুপাত নির্ধারিত মানদণ্ডের চেয়ে বেশি থাকছে।  এমন পরিপ্রেক্ষিতে ভারতীয় ব্রড গেজ ইঞ্জিনগুলো রেলের পরিচালন ব্যবস্থায় গতি আনবে বলে মনে করছেন সংস্থাটির কর্মকর্তারা। 

রেলওয়েতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অনুদান হিসেবে বাংলাদেশকে ২০টি ডিজেলচালিত ব্রড গেজ ইঞ্জিন গত বছরের ডিসেম্বরেই বুঝে নেয়ার অনুরোধ জানায় ভারত। কিন্তু প্রক্রিয়াগত কিছু জটিলতায় এতদিন সেগুলো দেশে আসেনি।  অবশেষে আজ আনুষ্ঠানিকভাবে ২০টি লোকোমোটিভ বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর করছে ভারত।

ভারত যে ২০টি ইঞ্জিন অনুদান হিসেবে দিচ্ছে, এর আগে সেগুলো ভারতে গিয়ে দেখে এসেছেন রেলওয়ের কর্মকর্তারা।  রেলপথ মন্ত্রণালয় থেকে সাত সদস্যের একটি পরিদর্শক দলকে গত বছরের ৩০ নভেম্বর অনুদানের লোকোমোটিভগুলো দেখতে ভারতে পাঠিয়েছিল বাংলাদেশ রেলওয়ে।  পরিদর্শক দলটি সেসব দেখে গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর রেলপথ মন্ত্রণালয়ে একটি প্রতিবেদন জমা দিয়েছিল।  তাদের সেই প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, তারা ভারতে ৩৪টি লোকোমোটিভ দেখে এসেছেন।  তার মধ্য থেকে কারিগরি বিষয়গুলো মূল্যায়ন করে ২০টি লোকোমোটিভ অনুদান হিসেবে নেয়ার জন্য নির্বাচন করে এসেছেন।

রেলের একজন কর্মকর্তা জানান, ভারত বাংলাদেশকে যে ২০টি ইঞ্জিন দিচ্ছে, সেগুলো ২০১৭-১৮ সালের দিকে তৈরি করা।  ইঞ্জিনগুলো নির্বাচনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের রেলপথ, স্টেশন, সিগন্যাল ব্যবস্থাসহ সামগ্রিক রেল নেটওয়ার্কের সঙ্গে সংগতিপূর্ণ হবে কিনা তা বিবেচনায় নেয়া হয়েছে।

ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সম্পাদনের পর ব্রড গেজ ইঞ্জিনগুলোর সুনির্দিষ্ট বৈশিষ্ট্যের বিস্তারিত (স্পেসিফিকেশন) যাচাই, আমদানি ছাড়পত্র গ্রহণ, কাস্টমস ডিউটি, ভ্যাট ও ট্যাক্স প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে দেশে আনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন রেলওয়ের কর্মকর্তারা।

আরও পড়ুন
জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি: প্রধানমন্ত্রী

  • দুর্নীতি করে, কাউকে ঠকিয়ে সফল হওয়া যায় না

  • দুই সিটিতে কুরবানির বর্জ্য অপসারণে প্রস্তুত ১৯ হাজার কর্মী

  • চামড়া কেনায় মিলছে ২৭০ কোটি টাকা ঋণ

  • ঈদকে কেন্দ্র করে বাড়ল রিজার্ভ

  • দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী

  • আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি : প্রধানমন্ত্রী

  • গাজায় যুদ্ধবিরতি হচ্ছে না, তবে আশা আছে: বাইডেন

  • অন্যদিকে তাকিয়ে অদ্ভুতভাবে হাসছেন বাইডেন

  • ৬ জানুয়ারি দাঙ্গার পর প্রথম বারের মত ক্যাপিটল হিলে ট্রাম্প

  • সুইজারল্যান্ডে সরাসরি যাবে বিমান

  • সুইজারল্যান্ডে সরাসরি যাবে বিমান

  • জনপ্রিয় হচ্ছে ঘরে বসে কোরবানি

  • জনপ্রিয় হচ্ছে ঘরে বসে কোরবানি

  • ডিসেম্বরেই ট্রেন চলবে বঙ্গবন্ধু রেলসেতুতে

  • ভূমি জটিলতা দূর করতে সরকার কাজ করে যাচ্ছে : ডেপুটি স্পিকার

  • গ্লোবাল কোয়ালিশন ফর সোশ্যাল জাস্টিসে বাংলাদেশের যোগদান

  • প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে সম্পর্ক নতুন গতি পাবে

  • প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে সম্পর্ক নতুন গতি পাবে

  • গ্লোবাল কোয়ালিশন ফর সোশ্যাল জাস্টিসে বাংলাদেশের যোগদান

  • ভূমি জটিলতা দূর করতে সরকার কাজ করে যাচ্ছে : ডেপুটি স্পিকার

  • ‘বাংলাদেশের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখত বেশি করে গাছ লাগাতে হবে’

  • ঢেলে সাজানো হচ্ছে রাজস্ব ব্যবস্থাপনা

  • সুইজারল্যান্ডে সরাসরি যাবে বিমান

  • জনপ্রিয় হচ্ছে ঘরে বসে কোরবানি

  • ডিসেম্বরেই ট্রেন চলবে বঙ্গবন্ধু রেলসেতুতে

  • ট্রেনের ৫০০ টিকিটসহ ১২ কালোবাজারি আটক

  • কলাপাড়ায় ডোবা থেকে জীবিত ডলফিন উদ্ধার

  • নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ শিকার, ৩ হাজার কেজি মাছ জব্দ

  • ২৪ ঘণ্টায় ৩ কো‌টি ছা‌ড়িয়েছে বঙ্গবন্ধু সেতুর টোল আদায়

  • শেখ হাসিনাসহ অতিথিদের মঞ্চে ডেকে নিলেন মোদি

  • দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী

  • নেত্রকোণায় ৩০ ঘণ্টার শ্বাসরুদ্ধকর অভিযান, ৬ বোমা নিষ্ক্রিয়

  • ১১ জুন: গণতন্ত্রের মুক্তি ও বাংলাদেশের নব দিগন্তের সূচনা

  • শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রপতির সঙ্গে শেখ হাসিনার সাক্ষাৎ

  • ঢাকা বোর্ডে ফেল থেকে পাস ১২৭

  • ভূমিহীন সাড়ে ১৮ হাজার পরিবারকে ঘর হস্তান্তর করলেন প্রধানমন্ত্রী

  • ডেডবল নাকি ৪, যা বলছে ক্রিকেট আইন

  • ‘‌তদন্ত শেষ হোক, অনেকেই গ্রেপ্তার হতে পারেন’

  • দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী

  • রাস্তার উপরে থাকা ২৫টি দোকান ও ৬টি বহুতল ভবন ভেঙে দিয়েছে ডিএনসিসি

  • সৌদি পৌঁছেছেন ৭৬ হাজার ৩২৫ হজযাত্রী

  • যাদের ঘর করে দিয়েছি তাদের জীবন বদলে গেছে: প্রধানমন্ত্রী

  • সৌদি পৌঁছেছেন ৭৯ হাজার ৫৫৯ হজযাত্রী, মারা গেছেন ১৫ জন 

  • স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য সিঙ্গাপুর গেলেন ওবায়দুল কাদের

  • শিক্ষা প্রশাসনের সক্ষমতা বৃদ্ধিতে কাজ করবে ইউএনডিপি

  • সেই আম্পায়ারকে ধুয়ে দিলেন ধারাভাষ্যকার সাইমন ডুল

  • টিকিট কালোবাজারি আর থাকবে না : র‌্যাব

  • কলাপাড়ায় ডোবা থেকে জীবিত ডলফিন উদ্ধার

  • মরিশাসে বাংলা‌দে‌শ হাইক‌মিশনা‌রের পরিচয়পত্র পেশ

  • ‘বাংলাদেশের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখত বেশি করে গাছ লাগাতে হবে’

  • যাত্রীবাহী ক্যারেজ সংগ্রহের পরিকল্পনা রয়েছে : রেলমন্ত্রী

  • বৃহস্পতিবার পর্যন্ত আবহাওয়া যেমন থাকবে

  • সেনাপ্রধানের সঙ্গে রুয়ান্ডার চিফ অব ডিফেন্স স্টাফের সাক্ষাৎ

  • ডিসেম্বরেই ট্রেন চলবে বঙ্গবন্ধু রেলসেতুতে

  • পাঁচ ধাপে উপজেলায় ভোট পড়েছে ৩৬.৫৬ শতাংশ : সিইসি

  • বীর মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পেয়েছেন ৫০৪ জন বীরাঙ্গনা

  • জনগণকে এনআইডি সেবা দিতে যেন দেরি না হয় : সিইসি

  • ঢেলে সাজানো হচ্ছে রাজস্ব ব্যবস্থাপনা

  • বুধবার থেকে চলবে ঈদ স্পেশাল ট্রেন