শুক্রবার   ২৯ মে ২০২০

ব্রেকিং:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ খালেদার অনুপস্থিতিতেই কারাগারে বিচার চলবে রব ও মান্নার বিয়ে যুক্তফ্রন্টে, পরকীয়া ঐক্যফ্রন্টে: মাহী এটা জোট নয়, ঘোট : তথ্যমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় পেলেন সিনহা আবারও সরকার গঠনে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পদ্মা সেতু প্রকল্পের নামফলক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী
২৫০

বীর উত্তম খালেদ মোশারফের জন্মদিন আজ

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ১ নভেম্বর ২০১৯  

১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে ২ নং সেক্টরের সেক্টর কমান্ডার এবং ‘কে-ফোর্স’-এর সর্বাধিনায়ক, বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ খালেদ মোশারফ (১৯৩৭-১৯৭৫) বীর উত্তম। একজন বাঙালি মুক্তিযোদ্ধা ও সামরিক বাহিনীর অফিসার ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধে খালেদকে বীরত্বের জন্য বীর উত্তম পদক দেওয়া হয়।

সেক্টর কমান্ডার খালেদ মোশারফ বীর উত্তম একটি নাম একটি বিস্ময়। দারুণ যোদ্ধা ছিলেন একহাতে সিগারেট টানতেন অন্যহাতে মেশিনগান চালাতেন। ভয় ডর বলতে কিছুই ছিলনা তার। তার নিশানা কখনোই ফসকাতো না।

খালেদ মোশাররফ জামালপুর জেলার ইসলামপুর থানার মোশাররফগঞ্জ গ্রামে ১৯৩৭ সালের ১লা নভেম্বর জন্মগ্রহণ করেন

তিনি কক্সবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৫৩ সালে মেট্রিক পাশ করেন এবং ১৯৫৫ সালে ঢাকা কলেজ থেকে ইন্টারমেডিয়েট পাশ করেন। অতঃপর তিনি পাকিস্তানের কাকুল মিলিটারি একাডেমীতে যোগ দেন।

১৯৫৭ সালে সেনাবাহিনীতে কমিশন লাভের পর, প্রায় আট বছর (১৯৫৭-১৯৬৫) তিনি বিভিন্ন সেনা প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে প্রশিক্ষণ লাভ করেন। ১৯৬৫ সালের পাক-ভারত যুদ্ধের সময় খালেদ মোশাররফ চতুর্থ বেঙ্গল রেজিমেন্টের অ্যাডজুডেন্ট হিসেবে নিয়োগ লাভ করেন। যুদ্ধের পর তিনি কাকুল মিলিটারি একাডেমীতে প্রশিক্ষক হিসেবে যোগ দেন। সেখান থেকে গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করার পর তিনি মেজর হিসেবে পদন্নোতি লাভ করেন। ১৯৬৮ সালে তিনি কোয়েটা স্টাফ কলেজ থেকে পিএসসি. ডিগ্রি লাভ করেন এবং তাকে ব্রিগেড মেজর হিসেবে খারিয়াতে ৫৭ ব্রিগেডে নিয়োগ দেওয়া হয়। তার যখন জার্মানি ও যুক্তরাজ্যে সেনা-প্রশিক্ষণে যাওয়ার কথা, তখন ১৯৭০ সালের মার্চে তাকে ঢাকা বদলি করা হয়।

২৪ মার্চ ১৯৭১ সালে খালেদ মোশাররফকে কুমিল্লাতে চতুর্থ বেঙ্গল রেজিমেন্টের দায়িত্ব প্রদান করা হয়। ২৬ মার্চ মৌলভীবাজারের শমসেরনগরে তিনি ৪র্থ ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের দুই কোম্পানি সৈনিক নিয়ে অবস্থান করছিলেন। ঢাকায় পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর গণহত্যার খবর পেয়ে তিনি বিদ্রোহ করেন এবং সেই রাতে তাঁর বাহিনী নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হন। পরদিন ২৭ মার্চ সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌঁছালে তাঁর বাহিনী এবং সেখানে আগে থেকে অবস্থানরত মেজর শাফায়াত জামিলের বাহিনী সম্মিলিত হয়। ইতোমধ্যেই তাঁর বেতার নির্দেশ পেয়ে শাফায়াত জামিলের নেতৃত্বে বাঙালি সৈনিকরা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অবস্থানরত পাঞ্জাবী সৈনিকদের আটক করেন। খালেদ চতুর্থ বেঙ্গল রেজিমেন্টের কমান্ডিং অফিসারের দায়িত্ব নেন। পরিস্থিতি বিবেচনা করে তিনি তার বাহিনীর অফিস ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে তেলিপাড়া চা বাগানে সরিয়ে নেন।

গেরিলা যোদ্ধা শফি ইমাম রুমী সেক্টর-২ এ খালেদ মোশাররফের অধীনে মেলাঘরে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন এবং গেরিলা যুদ্ধে অংশ নেন। জুন মাসের শেষের দিকে দুই নম্বর সেক্টর কমান্ডার মেজর খালেদ মোশাররফের একটি চিঠি নিয়ে শাহাদাত চৌধুরী ও হাবিবুল আলম আসেন শরীফ ইমামের বাড়িতে। পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর চলাচল ব্যাহত করার উদ্দেশ্যে খালেদ মোশাররফ তাঁর কাছে বাংলাদেশের ব্রিজ ও কালভার্টের ব্যাপারে তথ্য চেয়ে পাঠান। শরীফ ইমাম ব্রিজের ঠিক কোন কোন পয়েন্টে এক্সপ্লসিভ বেঁধে ওড়ালে ব্রিজ ভাঙবে অথচ কম ক্ষতি হবে অর্থাৎ দেশ স্বাধীন হওয়ার পর সহজে মেরামত করা যাবে, সেভাবে বিস্তারিত তথ্য দিতেন মুক্তিযোদ্ধাদের।

পাকিস্তান সেনাবাহিনীকে সফল প্রতিরোধ করতে করতে মধ্য এপ্রিলে তিনি পাকিস্তান সেনাবাহিনীর অবিরাম বিমান আক্রমণের শিকার হন, ফলে তিনি ত্রিপুরা রাজ্যে অবস্থান নেন। মুজিবনগর সরকার তাকে ২ নং সেক্টরের দায়িত্ব দেয়। যুদ্ধের সময় খালেদ মোশাররফ লেফটেনেন্ট কর্নেলের পদে উন্নীত হন। ২৩ অক্টোবর খালেদ মোশাররফ মাথায় গুলি লেগে মারাত্বক আহত হন এবং লক্ষ্ণৌ মিলিটারি হাসপাতালে দীর্ঘ চিকিৎসা লাভের পর সুস্থ হন।

১৯৭৫ সালের নভেম্বর ৩ তারিখে তিনি সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করেন। এর মাত্র ৩ দিন পরে ৭ নভেম্বর তিনি এক পাল্টা অভ্যুত্থানে নিহত হন।

আরও পড়ুন
জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • ছয় দিনে ১০ হাজার বেশি রোগী শনাক্ত, মৃত্যু শতাধিক

  • ৫ লাখেরও বেশি পরিবারকে ত্রাণ দিয়েছে ডিএনসিসি

  • রোববার থেকে শেয়ারবাজারে লেনদেন চালু 

  • গণপরিবহন চালু সরকারের ইতিবাচক সিদ্ধান্ত: সেতুমন্ত্রী

  • ‘প্রধানমন্ত্রী ইতিহাসের বৃহত্তম ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনা করছেন’

  • বেড়িবাঁধ মেরামতে ১০০ কোটি টাকার প্রকল্প নেওয়া হচ্ছে: প্রতিমন্ত্রী

  • কোন অবস্থায় ভুলেও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করা যাবে না?

  • বাড়িতে বসে কোভিড-১৯ চিকিৎসায় যে ছয়টি বিষয় মনে রাখবেন

  • জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে গেলেন বিমান বাহিনীর ১২৫ সদস্য

  • রেলওয়ে হাসপাতালে সুরক্ষা সামগ্রী দিলো যুক্তরাষ্ট্র

  • যতদিন না করোনা সংকট কাটবে, আমি পাশে থাকবো: প্রধানমন্ত্রী

  • ভুল শুধরে দিলেন প্রধানমন্ত্রী

  • শক্ত হাতে সামাল দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

  • প্রশাসনে শুরু হয়েছে শেখ হাসিনার শুদ্ধি অভিযান

  • সাত হাজার পরিবার পাচ্ছে বেজা`র উপহার

  • ‘ইভেরা টুয়েলভ’ সেবনে ১১ পুলিশ সদস্যের পাঁচদিনেই করোনা নেগেটিভ!

  • ‘ডাকযোগে’ আম লিচু পৌঁছে যাবে বিভিন্ন বাজারে

  • প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা ঘরে বসেই পরীক্ষা দেবে, চিন্তা সরকারের 

  • আফ্রিকায় শ্রমবাজারের নতুন সম্ভাবনা দেখছে বাংলাদেশ

  • বাসায় টেলিমেডিসিন সেবা নিচ্ছেন করোনা রোগীরা: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

  • করোনা ও অন্য রোগীদের আলাদা চিকিৎসা দেয়ার নির্দেশ

  • স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফ্লাইট চালুর প্রস্তুতি

  • সংক্রমণ ঝুঁকিমুক্ত বিশেষ চিকিৎসা বুথ তৈরি, চাহিদাও প্রচুর

  • আরও ২ হাজার চিকিৎসক নেওয়ার পরিকল্পনা

  • দুর্গম খাসিয়া পুঞ্জিতে প্রধানমন্ত্রীর উপহার নিয়ে ইউএনও

  • অফিস-কারখানায় ১৩ দফা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশ

  • ৩১ মে থেকে সীমিত পরিসরে চলবে বাস, ট্রেন, লঞ্চ

  • রাজধানীর চারপাশে হচ্ছে ৬ স্যাটেলাইট সিটি

  • স্বাস্থ্যবিধি মেনেই চলছে রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজ

  • ৬ কোটি মানুষের কাছে পৌঁছেছে সরকারি ত্রাণ

  • স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কাছে করোনার ওষুধ হস্তান্তর, মিলবে বিনামূল্যে

  • প্রধানমন্ত্রী আমার জন্য হাসপাতালে কেবিন বুকড দিয়েছেন: জাফরুল্লাহ

  • বঙ্গবন্ধুর জুলিও কুরি শান্তি পুরস্কার প্রাপ্তির ৪৭তম বার্ষিকী আজ

  • রপ্তানি আয়ে চামড়াকে ছাড়িয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে পাট খাত

  • ঘরোয়া পদ্ধতিতে করোনা দমনে ড. বিজন শীলের ৬ পরামর্শ

  • যুক্তরাষ্ট্রে পিপিই রপ্তানি শুরু করলো বাংলাদেশ

  • ২৫ মে, কাজী নজরুল ইসলামের ১২১ তম জন্মদিন

  • সহজে ব্যবহারযোগ্য ভেন্টিলেটর উদ্ভাবন করল মেরিন একাডেমি

  • ২১ দিনে রেকর্ড ১১২ কোটি ১০ লাখ ডলার পাঠিয়েছে প্রবাসীরা

  • প্রধানমন্ত্রী কাল জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন

  • বেকারদের আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টিতে ৭ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প

  • করোনার চিকিৎসায় এসকেএফের রেমডেসিভির সরবরাহ শুরু

  • আরো ১০৬ পুলিশ সদস্য সুস্থ

  • করোনাকালীন সংকটেও কৃষির সাফল্য

  • ‘আমরা এক সঙ্গে করোনাকালীন খারাপ পরিস্থিতি পার করতে পারবো’

  • শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের সময়সীমা বাড়ল

  • করোনা শনাক্তে দেশেই তৈরি হলো ‘ভিটিএম কিট’

  • চলতি মাসেই দৃশ্যমান হবে পদ্মাসেতুর সাড়ে ৪ কিলোমিটার

  • তিন বিষয়ে সর্বোচ্চ গুরুত্বের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  • পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ২৫ কোটি টাকা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

  • ‘প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার’ পৌঁছে দিচ্ছে ‘নগদ’

  • জনগণ ঐক্যবদ্ধ থাকলে মহামারি উতরানো কোনো কঠিন কাজ নয়

  • প্রধানমন্ত্রীর টাকা পেয়ে রং মিস্ত্রি রেনুর মুখে বিশ্বজয়ের হাসি!

  • সামাজিক দূরত্ব মেনে লাইনে দাঁড়িয়ে বাজার করলেন শিক্ষামন্ত্রী

  • রপ্তানি আয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে পাট খাত

  • চট্টগ্রামে ইমাম-মুয়াজ্জিন-পুরোহিত পেলেন পুলিশের উপহার

  • সীমিত পরিসরে গণপরিবহন চলার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর সম্মতি

  • করোনা সচেতনতায় ভুয়া স্বাস্থ্য পরামর্শ এড়িয়ে চলার টিপস

  • বিশ্বমানের পিপিই উৎপাদনকারী দেশের তালিকায় বাংলাদেশ

  • গুগলের ডাক পেলেন বাংলাদেশের অনিক