মঙ্গলবার   ১০ ডিসেম্বর ২০১৯

ব্রেকিং:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ খালেদার অনুপস্থিতিতেই কারাগারে বিচার চলবে রব ও মান্নার বিয়ে যুক্তফ্রন্টে, পরকীয়া ঐক্যফ্রন্টে: মাহী এটা জোট নয়, ঘোট : তথ্যমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় পেলেন সিনহা আবারও সরকার গঠনে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পদ্মা সেতু প্রকল্পের নামফলক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী
২৩১

বিচিত্র সব অভিজ্ঞতা

মারিয়া সালাম

প্রকাশিত: ১৭ মে ২০১৯  

ভ্রমণ মানেই বিচিত্র সব অভিজ্ঞতা। আর বাঙালী হলে কথাই নাই, সবকিছুতেই মজার উপাদান খুঁজে পাই আমরা। সাধারণ লোকালবাসে উঠলেও এত ঘটনা ঘটে যায়, জ্যাম, গরম এসব আমাদের গায়েই লাগে না। বিমান ভ্রমণও কিন্তু সেরকমই মজার।

ঢাকা থেকে রওনা দিব দোহার উদ্দেশ্যে, দাঁড়িয়ে আছি নয় নম্বর গেটের সামনে, গেট খোলেনি তখনও। লোকজন একদম নেই। একেবারে সামনে একজন বোরখা পরিহিতা ভদ্রমহিলা, সম্ভবত কাতারে গৃহকর্মীর কাজ করেন। তার পেছনে এক বিদেশী ভদ্রলোক দাঁড়িয়েছে বাঁকা করে, যেন সে এসব লাইনের তোয়াক্কা করে না। আমি গিয়ে মনে হল যেহেতু সেই ভদ্রমহিলাটি একদম গেটের সামনে ঠিক জায়গায় দাঁড়িয়েছে, আমারও তার পেছনেই দাঁড়ানো উচিত। কিছুক্ষণ পরে আসলেন একজন সুদানী ভদ্রমহিলা, উনিও আমার পেছনেই দাঁড়ালেন।

এরপর আসলেন সাদাচুলওয়ালা এক বৃদ্ধ ভদ্রলোক, দামী পোশাক, একদম পরিপাটি। শুদ্ধ ইংরেজিতে সেই বিদেশী ভদ্রলোকের সাথে হাই হ্যালো নানারকম আলাপ জুড়ে দিলেন, দাঁড়িয়ে গেলেন তার পেছনেই। এরপরে যেই আসল, সেই ঐ বিদেশীর পিছে দাঁড়িয়ে গেল। গেট খোলা হোল, দ্বায়িত্বরত লোকজন বলল, তাদের লাইন বাঁকা, সঠিক লাইনে দাঁড়াতে হবে তাদের। বলা মাত্রই আমাকে ঠেলেঠুলে তিনজন লোক আমার সামনে গিয়ে দাঁড়িয়ে পড়লো, আর ঐ চুলপাকা কাকু দাঁড়ালেন আমার পিছে। বারবার মাথা ঘুরিয়ে দেখতে থাকলেন, তার টার্গেট কোথায় দাঁড়িয়েছে, সে দাঁড়িয়েছে বেশ পিছে। এতে কাকু বিশেষ বিরক্ত হয়ে উঠলেন বলে মনে হলো, খুব রেগে রেগে ইংরেজিতে বলতে থাকলেন, এখানে কেউ নিয়ম মানে না, সামনের মহিলাগুলা ঠিক নিয়মে দাঁড়ালে তাকে এত পিছে দাঁড়াতে হতো না, ইত্যাদি।

যাই হোক সবাই হুড়মুড়িয়ে প্লেনে উঠলাম। প্রায় আধাঘন্টাব্যাপী সবার ব্যাগপত্র জায়গামতো রাখার প্রতিযোগিতা শুরু হল। আমার পাশে বসেছে এক ছোকড়ামতো লোক, খুব গম্ভীর। আমি হাসতেই মুখ ফিরিয়ে নিল। আমি বললাম, আপনি কোথায় যাচ্ছেন, তার উত্তর ইতালি। আমি বললাম, বাহ সুন্দর জায়গা। সে বলল, আপনি? আমি বললাম, সুইডেন, সে বলল, প্রথমবার? আমি এমন একটা হাসি দিলাম, তারমানে হ্যা বা না যেকোন কিছুই হতে পারে। তাকে বললাম, নাম কি? সে উদাস ভঙ্গিতে হেডফোন কানে দিয়ে মুভি দেখা শুরু করল। এই পাঁচ ঘন্টায় আমাদের আর কথা হলো না।

খাবার পরে আমার এক সিট সামনের আংকেল একটা পাতলা প্লাস্টিকের কাভারের সুঁচালো দিক দিয়ে ক্রমাগত দাঁত খোঁচাতে লাগলেন। মাঝে মাঝে আবার পুরো কব্জি মুখের মধ্যে ঢুকিয়ে কি যেন বের করার চেষ্টা করতে থাকলেন। আমার কেমন গা গুলিয়ে যেতে লাগল, আমি চোখ বন্ধ করে বসে থাকলাম। ঘুমটা গাঢ় হতেই, একটা হৈচৈ শুরু হল, উঠে চোখ কচলে দেখি, একেবারে সামনের সিটে এক বাংলাদেশী আর আরেক আফ্রিকান মায়ের মধ্যে তুমুল ঝগড়া। বিষয়বস্তু বোঝা গেল না, খালি দুইজন দুইজনকে "ইউ স্টুপিড, ইউ স্টুপিড" করতে থাকল। এভাবেই দোহাতে নামলাম।

আমার এক কলিগ বলেছিলেন, দোহাতে ইন্ডিয়ান ইমিগ্রেশন অফিসাররা বাংলাদেশীদের সাথে বাজে ব্যবহার করে, আমি যেন মাথা গরম না করি। আমাকে জেরা করছে এক আফ্রিকান অফিসার, বেশ গম্ভীর।

সো তুমি সুইডেন যাচ্ছ?

হ্যা
কেন যাচ্ছ?
একটা কনফারেন্সে
ওখানে, মানে কনফারেন্সে কি হবে?
আমি না গেলে কিভাবে জানবো কি হবে?
সে সরু চোখে আমার দিকে তাকিয়ে বলল, যেতে পার।
পরের ফ্লাইটে আমার সাথে উঠলেন এক সুইডিশ দাদু। বেশ মজার। খুব সুন্দর করে হেসে বললেন, তুমি কোথা থেকে এসেছ?

বাংলাদেশ
আই সি, ইস্ট পাকিস্থান।

আমার মাথা খুব গরম হয়ে গেল। আমি বললাম, আপডেট ইয়োরসেলফ। প্রায় ৫০ বছর হতে চলছে, আমরা স্বাধীন দেশ।

আসলে আমি ৭০ সালের আগে করাচীতে চাকরি করতাম, তাই বলছি, তুমি কিছু মনে করো না, এমনিতে আমি তোমার অনুভূতিতে আঘাত করতে চাইনি। আমি তোমাদের ইচ্ছাকে সম্মান করি।

এরপরে উনি নানা আলাপ জুড়ে দিলেন। অনেক ভালো ভালো কথা, বেশ ভালো লাগছিল, কিন্তু কখন ঘুমিয়ে গেছি বুঝতে পারি নি। চোখখুলে দেখি, উনি একটু মনমড়া হয়ে বসে আছে, বাজে ভোর পাঁচটা। আমি হাসিহাসি মুখে বললাম, শুভ সকাল। তার তেমন রেসপন্স নাই, আমি ঘুমিয়ে যাওয়ায় বেশ রেগেছেন।

কিছুক্ষণ পরেই আবার বিপুল উৎসাহে শুরু করলেন, তরুণদের মধ্যে প্রাণশক্তির দারুণ অভাব। তারা ভার্চুয়াল জগতের মায়ায় চলে গেছে, সে এই আশি বছরেও প্রতিদিন সার্ফিং করে, মানুষকে জানতে চায়, কিন্তু, তরুণরা বিমুখী, ইত্যাদি ইত্যাদি। আমি সব হজম করে গেলাম। পরে জেদ ধরলেন, আমাকে উনার বাড়িতে যেতে হবে, সেটা শহরের বাইরে সুন্দর একটা জায়গা। তার স্ত্রী সেখানে খুব সুন্দর বাগান করেছে, আমাকে সেসব দেখাতে চায়। আমি ব্যস্ততার কথা বলে আপাতত রক্ষা পেলাম। বিমান সুইডেনে পৌঁছাতেই উনি ভিড়ে মিশে গেলেন।

গতদুইদিন খুব ব্যস্ততার মধ্যে গেল, আজ সকালে একটু রিলাক্স মুডে বের হলাম, শুক্রবার বলে কথা। সকালের খাবার খাচ্ছি এক রেস্টুরেন্টে। হঠাৎ শুনি, রাধে...রাধে!

খাবারের প্লেট থেকে মুখ তুলতেই দেখি সামনের টেবিলে দুই মাঝবয়সী লোক, আমাকে দেখে রাধে রাধে বলে চিৎকার করছে, আর আকাশের দিকে হাত তুলে মন্দিরের ঘন্টা বাজানোর ভান করে হাসছে। আমাকে ইন্ডিয়ান ভেবে বুলিং করছে বুঝলাম। জানিনা, হিজাব বা বোরকা পরলে কি করত এরা। যাই হোক, আমি তাদের সামনে গিয়ে নামাস্তে বলে লম্বা একটা প্রনাম ঠুকে বের হয়ে আসলাম।

লেখক: গণমাধ্যম কর্মী

মতামত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • নাটোর আ. লীগে সভাপতি আনু, জহুরুল সম্পাদক

  • বড়াইগ্রামে ঋণের কিস্তি পরিশোধের চাপে গৃহবধূর আত্মহত্যা

  • খুলনায় আ’লীগের সম্মেলন আজ

  • গাভি ও বাছুরের লোভে খামারিকে হত্যা

  • ফতুল্লায় তরুণীকে গণধর্ষণ, আটক ৫

  • জিয়ার জন্ম পাকিস্তানে, বেঁচে থাকলে ফাঁসি হতো: শেখ সেলিম

  • এবার দৃষ্টি বাঙালি চার কন্যার দিকে

  • বিভিন্ন পেশার মানুষ নেবে জাপান: পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

  • ভারতে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাশ

  • কঙ্গোতে হাজারো মানুষ বেঁচে আছে শুধু বাংলাদেশি সেনাদের ভরসায়!

  • গুনাহমুক্ত জীবন লাভের বিশেষ আমল

  • যে কারণে হিন্দুরা দেখাশোনা করে এ মসজিদ

  • হিজরি সনের জানা অজানা ইতিহাস

  • অমুসলিম ভাইদের দাওয়াত দেয়ার গুরুত্ব

  • অবৈধ চাঁদা আদায়কারীদের পরিণতি

  • পুরুষের টাখনুর নিচে কাপড় পরার অপকারিতা

  • চোগলখুরি: শক্রতার আগুন জ্বালাতে সাহায্য করে

  • উপকারী ‘জ্বীন’

  • কাবার খতিব ফিলিস্তিন সংকট নিয়ে খুতবায় যা বললেন

  • স্বর্ণজয়ী ক্রিকেট দলকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

  • ফেসবুকের মাধ্যমে মায়ের কোল ফিরে পেল আরিশা

  • সন্তানের দ্বীনি জ্ঞান অর্জনে বাবা-মা’র দায়িত্ব

  • ১০ ডিসেম্বর ১৯৭১: মুক্তিবাহিনীর প্রবল প্রতিরোধ গড়ে তুলে

  • রাসূল (সা.) এর চিকিৎসা

  • বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিনের ৪৮তম শাহাদাতবার্ষিকী আজ

  • ‘গিবত’ একটি ব্যাধি

  • নামাজের মাধ্যমে যে দশ শিক্ষা দেয়া হয়েছে

  • যে ৩ আমলে মৃত্যুর সঙ্গে সঙ্গে জান্নাত

  • আবুল কাসেম সন্দ্বীপের মৃত্যুবার্ষিকী আজ

  • সূরা বাকারা: ১১৮-১৪৩ নম্বর আয়াত নাজিলের প্রেক্ষাপট ও ঘটনা

  • দাবা নিয়ে বেনজীর আহমেদের অনেক স্বপ্ন

  • ইতিহাসে ৬ ডিসেম্বর: বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দিয়েছিল ভারত

  • সালমান-ক্যাটরিনা এখন ঢাকায়

  • ফিফোটেকে স্টার্টআপ আইডিয়া উপস্থাপন করলেন তরুণ উদ্যোক্তারা

  • প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা পাচ্ছেন ১০০ কোটি টাকার ভবন

  • প্রেমিকাকেই বিয়ে করছেন দেব!

  • দেশ নারী শিক্ষায় এগিয়ে যাচ্ছে: স্পিকার

  • ভারতের স্বীকৃতি ত্বরান্বিত করে বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামকে

  • বাংলাদেশকে প্রথম স্বর্ণ এনে দিলেন দীপু চাকমা

  • ‘তথ্যপ্রযুক্তিতে প্রতিবন্ধীদেরও কর্মসংস্থান হবে’ 

  • সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের আজ জন্মদিন

  • ১০ টাকায় স্যানিটারি ন্যাপকিন পাবেন ছাত্রীরা

  • বাংলাদেশী ছাড়া কাউকে ঢুকতে দেবো না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • চালের দাম বাড়বে না: খাদ্যমন্ত্রী

  • প্রতিটি উপজেলায় মডেল মসজিদ নির্মাণ করছে সরকার: রেজাউল করিম

  • বাংলাদেশ এখন চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের পথে: শ্রম প্রতিমন্ত্রী

  • ‘ফরিদপুর-৪ আসনের ৯২ ভাগ মানুষ বিদ্যুত সুবিধা পাচ্ছে’

  • ভিপি নুরের ফোনালাপ ফাঁস: বহিষ্কারের দাবি ঢাবি অধ্যাপকের

  • নড়াইল হবে দেশের মধ্যে প্রথম মাদকমুক্ত জেলা: মাশরাফি

  • রাজধানীতে ‘কৃষকের বাজার’ উদ্বোধন

  • অটিস্টিক শিশুরা সমাজের বোঝা নয়: শিক্ষামন্ত্রী

  • তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ৩০ লাখ ডলার বিনিয়োগ

  • ১০ বছরে মানুষের ক্রয়ক্ষমতা বেড়েছে আড়াই গুণেরও বেশি: তথ্যমন্ত্রী

  • ডিএসসিসির ১৯ সড়ক উদ্বোধন 

  • খুন করে মৃতদেহের সঙ্গে যৌনাচারই নেশা!

  • এ মাসেই চালু হচ্ছে ই-পাসপোর্ট, উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

  • দুর্নীতিবাজদের ছাড় দেওয়া হবে না: পরিকল্পনামন্ত্রী

  • রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৪৮

  • কৃষকদের দোরগোড়ায় বিনামূল্যে সার-বীজ পৌঁছে দিচ্ছে সরকার 

  • ইংল্যান্ডের মুদ্রায় বাংলাদেশি বিজ্ঞানীর ছবি, নতুন বছরেই বাজারে