বৃহস্পতিবার   ০৯ এপ্রিল ২০২০

ব্রেকিং:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ খালেদার অনুপস্থিতিতেই কারাগারে বিচার চলবে রব ও মান্নার বিয়ে যুক্তফ্রন্টে, পরকীয়া ঐক্যফ্রন্টে: মাহী এটা জোট নয়, ঘোট : তথ্যমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় পেলেন সিনহা আবারও সরকার গঠনে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পদ্মা সেতু প্রকল্পের নামফলক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী
২৪৮

বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবে সিঙ্গাপুর থেকেও শক্তিশালী: প্রধানমন্ত্রী

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বর্তমানে বাংলাদেশ সিঙ্গাপুরের চেয়েও অর্থনৈতিকভাবে শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনা ও সমাপনী ভাষণে তিনি একথা বলেন।     

শেখ হাসিনা বলেন, “আজকে শুধু দক্ষিণ এশিয়ায় না, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার যেগুলো দেশ তার থেকে আমরা অনেক এগিয়ে আছি। কাজেই সিঙ্গাপুর যে আমরা বানাব দেশকে, অবশ্যই আমরা সিঙ্গাপুর থেকেও কিন্তু এখন অর্থনৈতিকভাবে অনেক শক্তিশালী আছি। অন্তত এইটুকু দাবি করতে পারি।

সিঙ্গাপুরের কম আয়তন ও স্বল্প জনসংখ্যার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, “সেখানে খুব ডিসিপ্লিন।” 

অপরদিকে বাংলাদেশের জনসংখ্যার তুলনায় ভূখণ্ড কম থাকার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, “এখানে এই উন্নয়ন করাটা এটা যে কত কঠিন কাজ! আর সিঙ্গাপুরে কিন্তু ও রকম বিরোধী দল বা ওই রকম কিছু নাই। একটা পত্রিকা সরকার দ্বারা চলে। ওই সরকারের নিয়ন্ত্রণেই সমস্ত পত্রিকাগুলো। ওই একটা কোম্পানির পত্রিকা চলবে।

“কাজেই সেখানকার রাজনৈতিক পরিবেশ, অর্থনৈতিক পরিবেশ যেভাবে তাদের উন্নয়ন করাটা অনেক সহজ।”

পক্ষান্তরে বাংলাদেশে অগ্নিসন্ত্রাস, খুন-খারাবি, অত্যাচার-নির্যাতন মোকাবেলা করতে হয় বলে উল্লেখ করেন তিনি। 

বিএনপি-জামায়াত জোট রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় থাকাকালে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ওপর যে অত্যাচার-নির্যাতন হয়েছিল সে বিষয়ে শেখ হাসিনা বলেন, “বিএনপি ক্ষমতায় থাকতে আমাদের হাজার হাজার নেতা-কর্মীকে হত্যা করেছে, চোখ তুলে নিয়েছে, হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়েছে, খুন করেছে, কি না করেছে?

“যখনই যারা ক্ষমতায় এসেছে তারা আওয়ামী লীগের ওপর অত্যাচার-নির্যাতন করেছে। এমনকি জেনারেল এরশাদ ক্ষমতায় থাকতেও আমাদের ওপর কম অত্যাচার হয়নি। আমাদের বহু নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে, নির্যাতন করেছে।”

শোষিত বঞ্চিত মানুষের অধিকার আদায়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আজীবন সংগ্রামের কথা তুলে ধরে তাকে সপরিবারে নির্মমভাবে হত্যা করার কথাও উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী। 

জাতির পিতাকে হত্যার পর খুনিদের বিচার থেকে দায়মুক্তি দেওয়ার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, “এই খুনিদের সবাইতো উৎসাহিত করেছে। খালেদা জিয়া কর্নেল রশিদকে ভোট চুরি করে ১৫ ফেব্রুয়ারির নির্বাচনে এই পার্লামেন্টে বিরোধী দলের নেতার আসনে বসায়। জেনারেল এরশাদ খুনি ফারুককে পার্টি করতে দেয়। ফ্রিডম পার্টি করে এবং রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার করবার সুযোগ করে দিয়েছিল।”

সব শোক দুঃখ বেদনা ভুলে জাতির পিতার ‘ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ’ গড়ে তুলতে কাজ করে যাওয়ার সংকল্পের কথা বলেন শেখ হাসিনা।


তিনি বলেন, “কী যন্ত্রণা নিয়ে আমি আছি, সেটা আমি বুঝি। তারপরও সব ব্যথা, সব কষ্ট সহ্য করে একটা জিনিসই শুধু চিন্তা করেছি যে, আমার বাবা এই দেশটা স্বাধীন করেছেন যে মানুষের জন্য, সেই সাধারণ মানুষের জীবনটা যেন সুন্দর হয়। সেই জন্য নিজের জীবনের শোক, ব্যথা সব কিছু বুকে চেপে রেখে আমি দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছি।” 
কর্মসংস্থানের জন্য নতুন নতুন ক্ষেত্র তৈরি করা হচ্ছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমরা সব ক্ষেত্রগুলো বেসরকারি খাতে উন্মুক্ত করে দিয়েছি, যা ব্যাপকভাবে কর্মসংস্থান সৃষ্টি করছে।”


 
যে অর্থ খরচ করে দেশের মানুষ বিদেশে যায় তার অর্ধেক অর্থ খরচ করে দেশে ব্যবসা-বাণিজ্য করার সুযোগ রয়েছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, “৬-৭ লাখ টাকা খরচ করে যদি বিদেশে যায় আমি বলব, বিদেশে না গিয়ে ওর অর্ধেক টাকায় তারা দেশে ব্যবসা-বাণিজ্য করতে পারে। সেই সুযোগটা রয়েছে। বাংলাদেশ এখন তারা নিজেরাই উদ্যোক্তা হতে পারে। এত টাকা খরচ করে তারা বিদেশে যাবে। সেখানে চাকরির গ্যারান্টি নেই।” 

এভাবে বিদেশে যাওয়ার কোনো যৌক্তিকতা নেই বলে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী। 

চীনের বিকল্পের সন্ধান 

চীন থেকে যে সব কাঁচামাল বাংলাদেশে আসত, সেগুলো অন্য দেশ থেকে আনতে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, “চায়না থেকে যে সমস্ত কাঁচামাল আমাদের দেশে আসত সেগুলোর ব্যাপারে আমরা যথেষ্ট সতর্ক। আমরা তার বিকল্প পথ নিচ্ছি। অন্য কোনো জায়গা থেকে যত দামই হোক ওষুধ শিল্পের কাঁচামাল থেকে শুরু করে অন্যান্য যে কোনো জিনিস অন্যান্য যে দেশে পাওয়া যায় সেগুলো আমরা সঙ্গে সঙ্গে আনার ব্যবস্থা নিচ্ছি। 

“কাজেই এখানে আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ আছে বলে আমি মনে করি না।”

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বাংলাদেশের তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়ার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “ভাইরাসটা যেভাবে চায়নায় দেখা গেল আমরা তাৎক্ষণিকভাবে আমাদের দেশে যথাযথ পদক্ষেপ নিয়েছি। 

“কেউ বিদেশ থেকে আসলে বিশেষ করে চীন বা যে সমস্ত দেশে এই ভাইরাসটা দেখা দিয়েছে যখনই ওই দেশ থেকে কেউ আসে আগে যেখানে আসলে অন অ্যারাইভাল ভিসা দেওয়া হত, সেটা কিন্তু আমরা দিচ্ছি না।

“আমাদের এয়ারপোর্ট বা অন্যান্য সব জায়গায় কেউ আসলে সাথে সাথে তার পরীক্ষা করা হচ্ছে। সেভাবে আমরা নিশ্চিত হচ্ছি যে, এই ধরনের ভাইরাস নিয়ে কেউ এদেশে ডুকছে কি না। কারও যদি এতটুকু সন্দেহ হয় সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে পাঠানো এবং তাকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা। তাকে কোয়ারেন্টাইনে রেখে তারপর আমরা ছাড়ছি। যাতে এটা বিস্তার লাভ করতে না পারে বাংলাদেশে। তার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা আমরা নিয়েছি।”

ধর্ষণের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানের কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, “একটা সমস্যা আমরা এখন দেখছি কতগুলো মানুষ নামের পশু। পশুরও অধম বলব। অত্যন্ত জঘন্য কাজ এই ধর্ষকরা করে যাচ্ছে। তাদেরও তো মা, বোন আছে। তাদেরও তো মেয়ে আছে। তারা এটা কেন বুঝতে পারে না আমি জানি না। মানুষ এত জঘন্য চরিত্রের কি করে হতে পারে? 

“এর বিরুদ্ধে আমরা যথাযথ ব্যবস্থা নিচ্ছি যেমন সন্ত্রাস, মাদকের বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি। আমরা এখন সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক, ধর্ষক প্রত্যেকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স আমরা ঘোষণা দিচ্ছি। এর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা আমরা নিচ্ছি এবং ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “এই জাতীয় ঘটনা যখন যারা ঘটাচ্ছে তারা যেন আমাদের সহযোগিতা করেন এদেরকে ধরিয়ে দিতে। এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা আমরা আইনগতভাবেই নেব। সেই দিক থেকে আমরা যথেষ্ট সচেতন আছি।”

রোজার মাসে মানুষের কিছু কিছু জিনিসের প্রতি আগ্রহ বেড়ে যাওয়ার কথা তুলে ধরে এখনই সেগুলোর প্রয়োজনীয় মজুদ করার উদ্যোগের কথা জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

ষষ্ঠ অধিবেশনের সমাপ্তি

শেষ হল একাদশ জাতীয় সংসদের ষষ্ঠ অধিবেশন, যা চলতি বছরের প্রথম অধিবেশন ছিল।

গত ৯ জানুয়ারি শুরু হয় এই অধিবেশন। অধিবেশন শুরুর দিন নিয়ম অনুযায়ী সংসদে ভাষণ দেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। পরে এই ভাষণের জন্য ধন্যবাদ জানাতে একটি প্রস্তাব তোলেন প্রধান হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী।

২৮ কার্যদিবসের পুরো অধিবেশনজুড়ে ওই প্রস্তাবের ওপর আলোচনা করেন সংসদ সদস্যরা। রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর ২২৭ জন সংসদ সদস্য ৫৪ ঘণ্টা ২৪ মিনিট আলোচনা করেন।

মঙ্গলবার রাতে সমাপনী নিয়ে রাষ্ট্রপতির আদেশ পড়ে শোনানোর মধ্য দিয়ে অধিবেশনের সমাপ্তি টানেন স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী।

এর আগে রাষ্ট্রপতিকে ধন্যবাদ জানানোর প্রস্তাবটি সর্বসম্মতিক্রমে গ্রহণ করা হয়।
চলতি অধিবেশন চলাকালে তিনজন সদস্য মারা যান। তারা হলেন- বাগেরহাটের মোজাম্মেল হোসেন, বগুড়ার আব্দুল মান্নান এবং যশোরের ইসমাত আরা সাদেক।

সংসদ সচিবালয়ের তথ্য অনুযায়ী, এই অধিবেশনে মোট ৭টি বিল পাস হয়। এছাড়া ৭১ বিধিতে পাওয়া ২৩৫টি নেটিশের মধ্যে ১২টি নোটিশ গ্রহণ করা হয়। যার মধ্যে আলোচনা হয়েছে ৮টি। ৭১ (ক) বিধিতে ৬০টি নোটিশ আলোচিত হয়েছে।

অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর উত্তর দেওয়ার জন্য প্রশ্ন জমা পড়ে ১২৪টি। এর মধ্যে ৫৫টি প্রশ্নের জবাব দেন সংসদ নেতা। এছাড়া অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীদের জন্য দুই হাজার ৯০২টি প্রশ্ন জমা পড়ে, মন্ত্রীরা উত্তর দেন ২ হাজার ৩৭৬টি।

আরও পড়ুন
জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • সার্কভুক্ত দেশের বাণিজ্য ক্ষতি পোষাতে ৫ সুপারিশ

  • বঙ্গবন্ধু হত্যার দায় স্বীকার করে প্রাণভিক্ষা চেয়েছেন মাজেদ

  • রাজধানীর মোতাহার বস্তি লকডাউন

  • একাকী ইবাদতের মাধ্যমে শবে বরাত পালন করুন: আল্লামা শফী

  • সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত হচ্ছেন জাবেদ পাটোয়ারী?

  • লকডাউন তুলে নেয়ায় মুখরিত উহান

  • অগ্রণী ব্যাংকের কর্মকর্তা করোনায় আক্রান্ত

  • হজ নিবন্ধনের সময় বাড়লো ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত

  • সৌদি রাজ পরিবারের ১৫০ সদস্য করোনা আক্রান্ত!

  • প্রথমবারের মতো নামাজ সম্প্রচার করবে বিবিসি রেডিও

  • ‘শবেবরাত সকলের জন্য ক্ষমা, বরকত, সমৃদ্ধি ও কল্যাণ বয়ে আনুক’

  • গোলাবারুদের চেয়ে ভালোবাসার শক্তি অনেক বেশি: মাশরাফি

  • বগুড়ায় শুরু হচ্ছে করোনা পরীক্ষা

  • বাংলাদেশকে চিকিৎসক-ভেন্টিলেটর সহায়তার আশ্বাস চীনের

  • শ্রীমঙ্গলে করোনাভাইরাস: র‌্যাবের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

  • এবার রাজধানীতে মসজিদের ইমাম করোনায় আক্রান্ত

  • ঢাবি’র আপ্যায়ন ব্যয়ের টাকা প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান

  • পবিত্র শবে বরাতে কবরস্থান ও মাজারে জনসমাগম না করার আহ্বান

  • নমুনা সংগ্রহ ও রোগী পরিবহনে ৩টি বাহন প্রস্তুত রাখার নির্দেশ

  • জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের হওয়ায় ২৯ জনের জরিমানা

  • এপিবিএন সদস্য করোনা পজিটিভ, ৪৩৪ সদস্য কোয়ারেন্টাইনে

  • ‘মাজেদ বাংলাদেশের স্বাধীনতাকে ধ্বংস করার চেষ্টা করেছিল’

  • জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচিতে যোগ দিন

  • যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় একদিনেই ২ হাজার মৃত্যু

  • করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮৩ হাজার ছাড়ালো

  • আইজিপি হলেন বেনজীর আহমেদ, র‌্যাব মহাপরিচালক মামুন

  • ‘যতদিন প্রয়োজন ততদিন ত্রাণ সামগ্রী দেয়া হবে’

  • ‘একটি মানুষও না খেয়ে থাকবে না’

  • ‘সরকারের কাছে পর্যাপ্ত খাদ্য মজুদ রয়েছে’

  • ‘করোনা প্রমাণ করলো গোলাবারুদের চেয়ে ভালোবাসার শক্তি বেশি’

  • চীন-জাপানে ‘সাফল্য’ পাওয়া করোনার ওষুধ তৈরি করল বাংলাদেশ

  • যাত্রাবাড়ীর সেই নারীর বাসায় খাবার পৌঁছে দিলেন ওসি

  • ‘গোপনীয়তা বজায় রেখে অসহায় মধ্যবিত্তদের খাদ্যসামগ্রী দিবে সরকার’

  • মশার গান আর শুনতে চাই না: মেয়রকে প্রধানমন্ত্রী

  • ৩০ লাখ পরিবারকে ৬৮০ কোটি টাকা নগদ দেবে সরকার: তথ্যমন্ত্রী

  • বাংলাদেশে করোনার আচরণ নিয়ে গবেষকদের বিভিন্ন মত 

  • ‘খাদ্যসামগ্রী নিতে না আসা নাগরিকদের জন্য হটলাইন চালু’

  • সকল অফিসে এক মাসের ছুটি সংক্রান্ত প্রচারটি গুজব

  • মধ্যবিত্ত পরিবারগুলোকে গোপনে ত্রাণ দিবে সিএমপি

  • মানবতার পাশে দাঁড়িয়ে যেসব ছবি ভাইরাল হয়েছে

  • বিনা পারিশ্রমিকে ৫০ হাজার পিপিই তৈরি করেছেন পোশাককর্মীরা

  • বিশ্বে প্রতি মিনিটে করোনাতে আক্রান্ত ৫০, মৃত্যু ৪

  • সকল যানবাহন পর্যায়ক্রমে চালু হবে

  • ‘ঢাকা মেডিকেলে বিনা পয়সায় করোনা পরীক্ষা করা যাবে’

  • ফরিদগঞ্জে রাতের আঁধারে ঘরে ঘরে ত্রাণ পৌঁছে দিচ্ছে তরুণরা

  • করোনা সংক্রান্ত ভুল তথ্য ঠেকাতে ভাইবার ও ডব্লিউএইচও কাজ করছে

  • করোনা সংক্রমণে নতুন পাঁচ উপসর্গ

  • পোশাক শিল্পের পাশে দাঁড়াচ্ছে বিশ্বের নামিদামি ক্রেতা ব্র্যান্ড

  • ৫ এপ্রিল থেকে বস্তিবাসী পাবেন ১০ টাকা কেজিতে চাল

  • প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে দুই দিনের বেতন দেয়ার ঘোষণা ঢাবি শিক্ষকদের

  • এবার সরাসরি ঢাকা-কক্সবাজার রেললাইন করবে সরকার

  • কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে সেনাবাহিনী

  • শ্রম মন্ত্রণালয়ের সফলতা, ইউরোপীয় ইউনিয়নে জিএসপি বহাল

  • ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি শুরু রোববার

  • কর্মহীনদের ঘরে খাবার পৌঁছে দিবে সরকার

  • পোশাক খাতে সুখবর আসছে

  • এক নজরে প্রধানমন্ত্রীর প্রণোদনা প্যাকেজ

  • ৭২ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার প্রণোদনা ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

  • দেশের ২ লাখ মুক্তিযোদ্ধা পাচ্ছেন নববর্ষ ভাতা

  • রোববার থেকে চালু হচ্ছে পোশাক কারখানা