মঙ্গলবার   ২৪ নভেম্বর ২০২০

সর্বশেষ:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে ইসি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ: নূরুল হুদা বারবার আসতে পারব না, যত খুশি সাজা দিন: খালেদা জিয়া ‘আকাশবীণার’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী ত্রিভুবনে আবারও বিমান দুর্ঘটনা ট্রেন-বাসের সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ২৫ ভুয়া ছবি দিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে মিয়ানমার: প্রধানমন্ত্রী
৩০৭

নকিয়া বাংলাদেশে কারখানা স্থাপন করতে আগ্রহী

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৫ অক্টোবর ২০২০  

দেশে বর্তমানে ৯টি মোবাইল কারখানায় মোট চাহিদার ৮২ শতাংশ মোবাইল তৈরি হচ্ছে।  এরমধ্যে রয়েছে— স্যামসাং, সিম্ফনি, ওয়ালটন, ভিভো, অপো, রিয়েলমি, টেকনো, আইটেল, ইনফিনিক্স ফাইভস্টার ইত্যাদি ব্র্যান্ডের ফোন।  অবশিষ্ট ১৮ শতাংশ মোবাইল আমদানি করতে হয়। আমদানি করা ব্র্যান্ডগুলোর মধ্যে রয়েছে— শাওমি, হুয়াওয়ে, নকিয়া, অনর, আইফোনসহ আরও অনেক ব্র্যান্ড।

এসব ব্র্যান্ডের মধ্যে নকিয়া বাংলাদেশে কারখানা স্থাপন করতে আগ্রহী বলে জানা গেছে।  আর হুয়াওয়ের স্মার্টফোন অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার-বিষয়ক নিষেধাজ্ঞায় পড়ে বাজার হারিয়েছে।  এরইমধ্যে হুমকি হয়ে এসেছে কোনও মার্কিন প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়েকে আগামীতে চিপসেট সরবরাহ করবে না, এমন ঘোষণা।  ফলে কোণঠাসা অবস্থায় হুয়াওয়ে মোবাইল ফোন।  বাংলাদেশে মোবাইলটির মার্কেট শেয়ার এক শতাংশেরও নিচে নেমে গেছে বলে জানা গেছ। অবশিষ্ট ব্র্যান্ডগুলো আমদানিনির্ভর হয়েই থাকতে চায় বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়।

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘দেশের মোট মোবাইল ফোনের চাহিদার ৮২ শতাংশ স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত হচ্ছে। আমরা আশা করছি, এ সংখ্যা এক সময় শতভাগ হবে।’  তিনি বলেন, ‘আমরা আমদানি নির্ভর থেকে রফতানিমুখী দেশে রূপান্তরিত হয়েছি।  দেশের মোবাইল এখন বিদেশেও রফতানি হচ্ছে।’

মোবাইল ব্র্যান্ড শাওমির এ দেশে কারখানা তৈরির আপাতত কোনও পরিকল্পনা নেই বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে।  বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, শাওমির বর্তমান যা মার্কেট, তা কারখানা তৈরি করলেও খুব একটা বাড়বে না। কারণ হিসেবে তারা বলেন, এমনিতেই শাওমি দেশের মোবাইল মার্কেটের একটা বড় অংশ দখল করে আছে।  আমদানি করেই শাওমি বাজার দাপাচ্ছে।

শাওমি বাংলাদেশের জেনারেল ম্যানেজার জিয়া উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘বাংলাদেশে স্থানীয় এবং আন্তর্জাতিক বিভিন্ন স্মার্টফোন ব্র্যান্ড রয়েছে এবং মার্কেট শেয়ার সব ব্র্যান্ডের মধ্যে বিভক্ত। বাজারে আমাদের পণ্যের ক্রমবর্ধমান চাহিদা রয়েছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘শাওমি ফ্যানদের জন্যই আমরা বাংলাদেশে কাজ করছি এবং তাদের সমর্থনে আরও এগিয়ে যাবো বলে আশা করছি।’

তিনি জানান, গ্রে মার্কেটের (অনুমোদহীনভাবে দেশে মোবাইলের প্রবেশ) অস্তিত্ব ব্যবসার ওপর সরাসরি প্রভাব ফেলছে এবং মার্কেটে একটি প্রতিষ্ঠানের অবস্থান কী হবে, তার ওপরও গ্রে মার্কেটের প্রভাব বিশাল।  অন্য অনেক প্রতিষ্ঠানের মতো গ্রে মার্কেটের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে শাওমি।  তিনি বলেন, ‘আমরা বিক্রি শুরু করার আগেই গ্রে মার্কেটে আমাদের পণ্য বিক্রি শুরু হয়ে যায়।  এ অবস্থা এখনও চলছে।’  তিনি আরও বলেন, ‘স্মার্টফোনে সফলতা এবং অন্য বেশ কয়েকটি ক্যাটাগরির পণ্যের মাধ্যমে নিজেদের শক্তিশালী ও শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই আমরা।’

জানা গেছে, নকিয়া এ দেশে মোবাইল তৈরির কারখানা স্থাপন করতে চায়। এ কারণে এ বছর নকিয়া স্মার্টফোন আমদানি বন্ধ রেখেছে।  গত জানুয়ারি মাস থেকে নকিয়ার কোনও স্মার্টফোন আমদানি হয়নি। কারখানা স্থাপনের পরিকল্পনা নিয়ে সরকারের সঙ্গে নেগোসিয়েশন চলছে নকিয়ার।  তাই ফ্যাক্টরি সেটআপের জন্য কৌশলগত অবস্থানে রয়েছে নকিয়া।  নকিয়া সূত্র জানায়, কারখানা চালু করে দেশেই স্মার্টফোন তৈরি করতে চায় নকিয়া।

স্মার্টফোন আমদানি না করলেও নকিয়ার ফিচার ফোনের আগমন কিন্তু থেমে নেই।   নকিয়ার দাবি, দেশের বাজারে ফিচার ফোনে এখন শীর্ষ তিন নম্বর অবস্থানে আছে নকিয়া।  এইচএমডি গ্লোবাল বর্তমানে নকিয়ার মোবাইল নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবে হ্যান্ডসেট তৈরি করছে। প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশেও হ্যান্ডসেট তৈরির জন্য আলোচনা চালাচ্ছে।  এখন প্রতিষ্ঠানটির অপেক্ষা— কোন ক্যাটাগরির কারখানা স্থাপনের অনুমোদন পায় প্রতিষ্ঠানটি।

হুয়াওয়ে বিশ্বের ১৯০টির মতো বাংলাদেশে ব্যবসা পরিচালনা করলেও চীনের বাইরে কোনও দেশে তাদের কোনও ডিভাইস বা যন্ত্রাংশ তৈরির কারখানা নেই। ফলে বাংলাদেশও তাদের পরিকল্পনার বাইরে।  এ দেশে তাদের কোনও মোবাইল কারখানা গড়ে ওঠার কোনও সম্ভাবনা দেখছেন না সংশ্লিষ্টরা।  বিষয়টি নিয়ে হুয়াওয়ে বাংলাদেশের কর্মকর্তাদের মধ্যে অভ্যন্তরীণভাবেও আলোচনা হয়েছে, বিশ্লেষণও হয়েছে, কিন্তু বিষয়টি ওই পর্যন্তই।  ফলে আমদানিনির্ভর ব্র্যান্ড হয়েই থাকতে হচ্ছে হুয়াওয়েকে।

যুক্তরাষ্ট্রে হুয়াওয়ে পণ্যের প্রবেশাধিকার নিষিদ্ধ হওয়ার পর এবং হুয়াওয়ে ডিভাইসে গুগলের অ্যান্ড্রয়েড সেবা ভবিষ্যতে থাকবে না, এমন ঘোষণার পরে সারাবিশ্বে হুয়াওয়ে ডিভাইসের বিশেষ করে মোবাইল ফোনের বাজার পড়তে থাকে।  বাংলাদেশও ব্যতিক্রম নয়, দেশে বাজার হারিয়েছে হুয়াওয়ে ডিভাইস।  যদিও বিষয়টি জানাতে চাননি হুয়াওয়ের  কর্মকর্তারা। হুয়াওয়ের এক কর্মকর্তা  বলেন,  হুয়াওয়ে মোবাইলের বিক্রি বেড়েছে না কমেছে, তা আমরা বলতে পারছি না।  অফিসিয়ালি আমাদের কোনও কমেন্ট নেই।  তারা হুয়াওয়ের বর্তমান মার্কেট শেয়ারও বলতে চাননি।

এ বিষয়ে দেশের মোবাইল ফোন আমদানিকারকদের সংগঠন বিএমপিআইএ বলছে,  হুয়াওয়ে গ্লোবালি সমস্যার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে।  প্রতিষ্ঠানটি এখনও অ্যান্ড্রয়েড থেকে ছাড়পত্র পায়নি।  যুক্তরাষ্ট্রের কোনও প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়েকে কোনও চিপসেট সরবরাহ করবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে।  ফলে এসব নিয়েই জটিলতার মধ্যে রয়েছে হুয়াওয়ে।  ভারত ও ইউরোপের বাজারেও ঢুকতে পারছে না।  তার ওপর হুয়াওয়ে মোবাইলের নিজস্ব কোনও প্রোডাক্ট নেই। বাংলাদেশেও নিজস্ব কোনও প্ল্যাটফর্ম নেই।  এসব কারণে হুয়াওয়ে  স্মার্টফোনের বিক্রি পড়ে গেছে।  এই সময়ে হুয়াওয়ে দেশে মোবাইল কারখানা করবে কিনা বা করার পকিল্পনা করবে কিনা, তা একেবারেই অনিশ্চিত।

সংগঠনটির যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ মেসবাহ উদ্দিন বলেন, ‘চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) দেশে মোবাইল বিক্রি হয়েছে ২৬ থেকে ২৭ লাখ।  এর মধ্যে ৮২ শতাংশ মোবাইল দেশেই তৈরি হয়েছে।  অবশিষ্ট মোবাইল আমদানি করা হয়েছে।’  

তিনি বলেন, ‘যে ১৮ শতাংশ মোবাইল আমদানি করা হয়েছে, তার মধ্যে ৮-৯ শতাংশ মার্কেট শেয়ার শাওমির।  অবশিষ্ট মোবাইল সব ব্র্যান্ড মিলিয়ে।  এরমধ্যে রয়েছে হুয়াওয়ে, নকিয়া, আইফোন, অনরসহ আরও ছোটখাটো ব্র্যান্ড।’  

তিনি জানান, দেশে হুয়াওয়ের বাজারের অবস্থা খুবই খারাপ।  এক শতাংশেরও কম (০ দশমিক ৬৭ শতাংশ) তাদের মার্কেট শেয়ার।  তিনি উল্লেখ করেন, করোনার সময়ে যেখানে দেশে মাসে গড়ে ৯ লাখের মতো ফোন বিক্রি হয়েছে, সেখানে হুয়াওয়ে মোবাইলের বিক্রির পরিমাণ ৪-৫ হাজার।  বিক্রির তালিকায় এগিয়ে রয়েছে হুয়াওয়ের পুরনো মডেলগুলো, যেগুলোতে এখনও অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারের অনুমতি আছে।

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • সিঙ্গাপুরের চেয়েও শক্তিশালী বাংলাদেশের অর্থনীতি 

  • ঢাকাকে আধুনিক করতে বিশেষ পরিকল্পনা

  • ‘বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরে ১৫ লাখ কর্মসংস্থান হবে’

  • বিমানের বহরে যুক্ত হচ্ছে ‘ধ্রুবতারা’, নাম দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

  • বেকার যুবকদের মডেল কুষ্টিয়ার হাফিজুল

  • হেলথ আইডি কার্ড স্বাস্থ্যসেবায় আরেক মাইলফলক : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • ট্রেনে সংযোজন হচ্ছে বায়ো-টয়লেট, বাঁচবে অর্থ-পরিবেশ

  • জন্মের পরই ইউনিক আইডি পাবে শিশু 

  • সরকারি মেডিকেল কলেজে ২৮২টি আসন বাড়ছে

  • পাঁচ দশকে ১০৫ ধানের জাত উদ্ভাবন করেছে ব্রি

  • পদ্মা সেতুর পৌনে ৬ কিলোমিটার দৃশ্যমান

  • ফায়ার সার্ভিসের সক্ষমতা বাড়াতে সব উপজেলায় ফায়ার স্টেশন

  • আন্তর্জাতিক পুরস্কার পেল আইসিটি বিভাগের আইডিয়া প্রকল্প

  • এক মাসে মোবাইল সংযোগ বাড়লো সাড়ে ৯ লাখ

  • সেতু নির্মাণে দুঃখ ঘুচলো মাইনীমুখ বাসিন্দাদের

  • আমনে রঙিন কৃষকের মাঠ

  • বদলে যাচ্ছে বুড়িগঙ্গা ও তুরাগ, নির্মাণ হচ্ছে ডিজিটাল ওয়াকওয়ে

  • কালিগঙ্গা নদীর উপরে সেতু নির্মাণ কাজ এগিয়ে চলেছে

  • রাজধানীবাসীর চাহিদা মেটাচ্ছে যশলদিয়া পানি শোধনাগার

  • চমেকে ১০০ শয্যার পূর্ণাঙ্গ ক্যান্সার চিকিৎসা সেন্টার হচ্ছে 

  • মেট্রোরেল প্রকল্পের প্রথম অংশের কাজ এখন দৃশ্যমান

  • রোহিঙ্গা সংকট সমাধানের লক্ষ্যে জাতিসংঘে রেজুলেশান পাস

  • এক বছরে ই-কমার্স লেনদেন বেড়েছে ১০৮ শতাংশ

  • বিশ্বসেরা বিজ্ঞানীদের তালিকায় জাবি অধ্যাপক ইব্রাহিম খলিল 

  • গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়নে সরকারের বৃহৎ পরিকল্পনা 

  • ‘শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে বাচ্চাদের মৃত্যুর ঝুঁকিতে ফেলা যাবে না’

  • ‘করোনার সময়েও আমরা চেষ্টা করেছি অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে’

  • ‘দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় আমরা সদা-প্রস্তুত ও দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ’

  • জানুয়ারির মধ্যেই কাজ শুরু

  • সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে সশস্ত্র বাহিনীর কর্মদক্ষতা: প্রধানমন্ত্রী

  • দৃশ্যমান হলো পদ্মা সেতুর পৌনে ৬ কিলোমিটার

  • ডিসেম্বরের মধ্যে বসবে পদ্মা সেতুর বাকি ৪ স্প্যান

  • ভ্যাকসিনে সুখবর বাংলাদেশে, প্রতি ডোজ ৩৯৯ টাকা 

  • ১৬ ডিসেম্বর চিলাহাটি-হলদিবাড়ি লাইনে রেল চলাচল শুরু: রেল মন্ত্রী

  • বুড়িগঙ্গা-তুরাগ তীরে নির্মাণ হচ্ছে ডিজিটাল ওয়াকওয়ে

  • ৮টি এলএনজি ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মিত হচ্ছে

  • ১০ মডেল গ্রামের মানুষ পাবে শহরের সব সুবিধা

  • জুড়ীতে ৪ কোটি টাকায় নির্মাণ হচ্ছে বৃন্দারঘাট ব্রিজ

  • দুই শতাধিক নতুন জাতের ধানের উদ্ভাবক স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত নূর

  • নেপালের বিপক্ষে সিরিজ জয় বাংলাদেশের

  • ভ্যাকসিনের জন্য ১০০০ কোটি টাকা বুকিং দিয়েছে বাংলাদেশ

  • গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়নে সরকারের বৃহৎ পরিকল্পনা 

  • হাঁস পালন করে স্বাবলম্বী দোহারের রেনু বেগম

  • এশিয়ার ‘আউটস্ট্যান্ডিং লিডার’ পুরস্কার পেলেন আজিজ খান

  • মেট্রোরেল প্রকল্পের প্রথম অংশের কাজ এখন দৃশ্যমান

  • চুয়াডাঙ্গায় ১৩ কোটি টাকা ব্যয়ে নিরাপদ পানির পাম্প চালু  

  • বিশ্বের সেরা ২০ নারী ক্রিকেটারের একজন মুর্শিদা

  • কটন কাগজে আসছে নতুন ১০ টাকার নোট

  • কুমির চাষে সম্ভাবনা দেখছে বাংলাদেশ

  • আটটি এলএনজি ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র হচ্ছে

  • অ্যান্টিবায়োটিকের যথেচ্ছ ব্যবহারের ঝুঁকি মারাত্মক : প্রধানমন্ত্রী

  • সাকিবকে হত্যার হুমকিদাতা গ্রেপ্তার

  • এক বছরে ই-কমার্স লেনদেন বেড়েছে ১০৮ শতাংশ

  • সুফিয়া কামালের আদর্শ বাঙালি নারীর প্রেরণার উৎস : প্রধানমন্ত্রী

  • রাত আটটার মধ্যে দোকান-পাট বন্ধের আহ্বান

  • প্রত্যেক উপজেলায় ফায়ার স্টেশন হচ্ছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • এশিয়ার সেরা ১০ ফুটবলারের তালিকায় বাংলাদেশের সাদ

  • নাটোরে মাস্ক না পরায় ৪০ জন আটক

  • আমরা যে ধর্মেরই হই না কেন সবাই বাঙালি: জয়

  • ‘দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় আমরা সদা-প্রস্তুত ও দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ’