শনিবার   ১৫ আগস্ট ২০২০

ব্রেকিং:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ খালেদার অনুপস্থিতিতেই কারাগারে বিচার চলবে রব ও মান্নার বিয়ে যুক্তফ্রন্টে, পরকীয়া ঐক্যফ্রন্টে: মাহী এটা জোট নয়, ঘোট : তথ্যমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় পেলেন সিনহা আবারও সরকার গঠনে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পদ্মা সেতু প্রকল্পের নামফলক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী
১৮৭

দেশের মাটিতে সৌদির খেজুর, ধরেছে ফল

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ১৯ জুলাই ২০২০  

দীর্ঘ ১৭ বছর প্রবাসে থাকাকালীন দেশের বাড়িতে বাবার সহায়তায় বেশ কয়েকবার সৌদি আরবের খেজুরের গাছ লাগিয়েছিলেন বরিশালের আল-মামুন হাওলাদার। তবে তখন তেমন কোনো আশার আলো দেখতে পাননি। এরপর প্রবাস জীবন শেষে বাড়ি ফিরে নিজেই চেষ্টা শুরু করেন সৌদির বিশেষ জাতের খেজুরচাষ।

আল-মামুন বরিশালের উজিরপুর উপজেলার বামরাইল ইউনিয়নের পূর্ব ধামসর গ্রামের বাসিন্দা। আল-মামুনের প্রচেষ্টায় প্রায় সাড়ে চার বছরের মাথায় সৌদির বিশেষ জাতের খেজুর গাছে এবার ফল ধরেছে। তার জমিতে লাগানো বিভিন্ন জাতের খেজুর গাছের মধ্যে এবারে মদিনার আম্বার জাতের খেজুরগাছে ঝুলছে ফলন। সেই খবর পেরে স্থানীয়দের পাশাপাশি দূর-দূরান্ত থেকে মানুষ ও কৃষিসহ জেলা-উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা প্রায়ই ভিড় করছেন তার বাড়িতে।  

উৎসুক মানুষ ওই বাড়িতে গিয়ে গাছটিতে ধরা কাঁচা খেজুরগুলো দেখে বিমোহিত হচ্ছেন। পরিপক্ক হওয়ার পরে খেজুর খাওয়ানোর যেমন বায়না ধরেছেন, তেমনি আবার অনেকে আল মামুনের কাছ থেকে খেজুরের গাছ নিতে আগ্রহও প্রকাশ করেছেন।

আল মামুনের ভাগিনা শাওন সরদার জানান, দীর্ঘ ১৭ বছর পরে দেশে এসেছেন তার মামা। পরে তিনি ব্যবসার পাশাপাশি দেড় একর জমিতে আবাদ ও পুকুরে মাছচাষে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। একইসঙ্গে আম্বার, আজুয়া, সুক্কারি ও মরিয়ম জাতের খেজুর গাছ লাগানোর শুরু করেন। এসব গাছ লাগিয়ে প্রায় সাড়ে চার বছর পর এবারে সর্বপ্রথম মে মাসে আম্বার জাতের খেজুর গাছটিতে ফলন ধরতে শুরু করেছে। গাছে সাতটি ছড়ায় খেজুর ধরেছে। যা এই সাড়ে চার বছরের সাধনার সফলতা হিসেবেই দেখছে সবাই। আর এখন খেজুরগুলোতে কিছুটা পরিপক্ক হওয়ার রং ধরেছে। অল্প সময়ের মধ্যে খেজুরগুলো খাওয়ার উপযোগী হবে বলে তিনি আশাবাদী।

আল মামুন বলেন, সৌদি আরব থেকে এসে কৃষি ব্যবস্থপনার মধ্য দিয়ে নিজেকে সাবলম্বী রাখি। তাতে বেশ সফলতাও পেয়েছি। আমার ক্ষেতের ৪০ হাজার টাকার শুধু ঢেঁড়সই বিক্রি করেছি। এখন পুকুরে মাছ, ক্ষেতে শসাসহ বিভিন্ন ফসল রয়েছে।

ওই চাষি বলেন, বাড়ির সামনের একটি অংশ, যেখানে প্রায় দেড়শ আজুয়া এবং অর্ধশতাধিক আম্বার জাতের খেজুরগাছ ও চারা রয়েছে। এরমধ্যেই এবারে একটি গাছে থোকায় থোকায় মদিনার আম্বার জাতের খেজুর ঝুলছে। এককথায় আমার শ্রমের বিনিময়ে সফলতা এলো। আশা করছি আগামীতের আরও বেশি গাছে খেজুর ধরবে।

তিনি বলেন, বিভিন্ন সময়ে শুনেছি যে, সৌদির খেজুরগাছ বালুতে না লাগালে টিকে না। কিন্তু, আমি মাটির সঙ্গে শুধু গোবর ব্যবহার করেছি। আর গোবর দিয়ে মাটিতে লাগানো এসব খেজুর গাছের অনেকগুলোরই ড্যাম বের হয়েছে। যেখান থেকে হওয়া গাছে এর থেকেও অল্প সময়ে ফল ধরবে।  

মামুন আরও বলেন, সৌদি আরবের মদিনা শহরের বিশেষ জাতের এই খেজুরের দাম প্রতিকেজি ১৫শ থেকে তিন হাজার টাকা এবং প্রতিটি চারাগাছ দুই থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে।

এদিকে সূত্র বলছে, এর আগে ময়মনসিংহের ভালুকায় একচাষি সৌদির খেজুরচাষ করে সফল হয়েছেন। বৃহত্তর দক্ষিণাঞ্চলে এই প্রথম আল-মামুন হাওলাদার সৌদির খেজুরচাষ করে সফলতার মুখ দেখছেন। যদিও বরিশাল হর্টিকালচার সেন্টারে গেলো কয়েকবছর ধরে সৌদির বিভিন্ন জাতের খেজুর উৎপাদনের চেষ্টা করলেও এখনও সাফল্যের মুখ দেখতে পারেনি।

আল-মামুন হাওলাদার বলেন, অত্যন্ত সুস্বাদু ফলটিকে দেশের মানুষের কাছে সহজলভ্য করাটাই হচ্ছে আমার মূল উদ্দেশ্য।  

তবে সরকারি সহায়তারও প্রয়োজন জানিয়ে তিনি বলেন, আধুনিক ও একজন সফল কৃষক হওয়ার স্বপ্ন রয়েছে। কিছু স্বল্পতার কারণে পিছিয়ে রয়েছি। যেমন এ মুহূর্তে একটি ট্রাক্টর ও সেচ মেশিনের প্রয়োজন। স্থানীয় কৃষিবিভাগকে বলেছি, তারাও আশ্বস্ত করেছেন তবে যত দ্রুত পাবো ততোই আমি সামনে এগোতে পারবো।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. জাকির তালুকদার বলেন, এসব খেজুরের উৎপাদন বাড়ানো সম্ভব হলে, আমদানি কমে যাবে এবং আমাদের দেশের কৃষি আরও সমৃদ্ধি ও সাফল্যের পথে এগোবে।

বাংলার উন্নয়ন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • দিল্লিতে আমাদের নামও পরিবর্তন করতে হয়েছিল : শেখ রেহানা 

  • ‘বঙ্গবন্ধু হত্যার কুশীলবদের মুখোশ উন্মোচনে কমিশন গঠন প্রয়োজন’ 

  • ‘বঙ্গবন্ধুর পলাতক ৫ খুনিকে ফিরিয়ে আনার প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে’

  • ‘সোনার বাংলা’ প্রতিষ্ঠায় বঙ্গবন্ধুর শিক্ষাভাবনা

  • বঙ্গবন্ধুর সমান উচ্চতার নেতা বিশ্বে বিরল

  • তোমরাই আমার সব থেকে আপন : এতিমদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী

  • আজ জাতীয় শোক দিবস

  • ‘ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক কখনোই দুর্বল হওয়ার নয়’

  • বাংলাদেশিদের জন্য ভারতীয় ভিসা চালু হচ্ছে শিগগিরই

  • স্বাস্থ্যের অতিরিক্ত মহাপরিচালক হলেন ডা. সেব্রিনা ফ্লোরা

  • বিএএফ জুনিয়র কমান্ড ও স্টাফ কোর্সের সনদপত্র বিতরণী অনুষ্ঠিত

  • পদ্মাসেতুর আরো তিন স্প্যান বসছে মাওয়ায়

  • ঢাকা-কুয়ালালামপুর রুটে বিমানের ফ্লাইট শুরু ১৮ আগস্ট

  • ‘প্রস্তুতি ছিলো বলেই করোনা নিয়ন্ত্রণে সক্ষম হয়েছে সরকার’

  • ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্যেই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়’

  • যেকোনো দুর্যোগে জনগণের পাশে আছি: পলক

  • যেখানে-সেখানে ইন্ডাস্ট্রি নয়: অর্থমন্ত্রী

  • সবাই একত্রিত হয়ে সমবায়কে এগিয়ে নিতে হবে

  • বাংলাদেশে ভারতের নতুন হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী

  • অন্যের টিকেটে রেল ভ্রমণ করলে তিন মাসের জেল-জরিমানা

  • আট বিভাগে হচ্ছে বিশেষায়িত হাসপাতাল: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • যাত্রীদের জন্য ‘রেল পানি’ আনছে রেলওয়ে

  • চলতি বছরেই আসছে গ্লোবের করোনা ভ্যাকসিন

  • ঢাকার যানজট কমাতে তৈরি হচ্ছে ১০ ইউটার্ন ও ২২ ইউলুপ

  • অপব্যবহার রোধে আসছে কঠোর সিদ্ধান্ত

  • করোনার টিকা সবাই যেন পায়: রাষ্ট্রপতি

  • প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শিতায় শক্ত ভিতে অর্থনীতি

  • মুজিববর্ষে সব উপজেলায় বঙ্গবন্ধু কর্নার

  • বাংলাদেশের কোথাও আর নদীভাঙন থাকবে না: উপমন্ত্রী শামীম

  • চাহিদার তুলনায় পানির উৎপাদন বৃদ্ধি, ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ঢাকা ওয়াসা

  • বাস্তবায়নের পথে ব-দ্বীপ স্বপ্ন

  • তৈরি পোশাক রপ্তানিতে ২য় অবস্থান ধরে রেখেছে বাংলাদেশ

  • দুর্গম ৩১ দ্বীপে উচ্চগতির ইন্টারনেট দিচ্ছে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট 

  • ২৫৪ টাকায় করোনার ডোজ পাবে বাংলাদেশ

  • ফোরলেন হচ্ছে যশোর-ঝিনাইদহ সড়ক, উপকৃত হবে ২ কোটি মানুষ

  • রেলে চড়ে পণ্য যাবে নেপালে

  • পুঁজিবাজারে গতি ফিরেছে, ঘুরে দাঁড়াচ্ছে দেশের অর্থনীতি

  • উত্তরের কৃষকদের স্বপ্ন দেখাচ্ছে ‘সোনালি আঁশ’

  • অন্যের টিকিট নিয়ে ট্রেন ভ্রমণ করলেই কারাদণ্ড

  • দেড় লাখ কৃষককে সোয়া ১০ কোটি টাকা প্রণোদনা দিবে সরকার 

  • প্রথমবার ২ কোটি টন উৎপাদন ছাড়ালো বোরো

  • দীর্ঘস্থায়ী বন্যা মোকাবিলায় প্রস্তুতির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  • ‘একজন দক্ষ সামরিক কর্মকর্তা ছিলেন মেজর (অব.) সিনহা’

  • করোনাকালেও আমদানি বাণিজ্যে রেকর্ড

  • স্বাস্থ্যখাতের দুর্নীতি দূর করতে সরকার কঠোর: হানিফ

  • বিদ্যুৎ ব্যবস্থা উন্নয়নে সরকারের দেড় হাজার কোটি টাকার প্রকল্প

  • পুরোদমে চলছে শাহজালালের তৃতীয় টার্মিনালের নির্মাণ কাজ

  • ক্রয় আদেশ ফিরছে, পোশাক খাতে স্বস্তি

  • বাগেরহাটে শসার বাম্পার ফলন, দামও ভালো

  • শেখ হাসিনার দেওয়া পাকাঘর পেলো আত্রাইয়ের ১৮ গৃহহীন পরিবার 

  • রেমিট্যান্স পাঠানোয় শীর্ষে সৌদি প্রবাসীরা

  • সুন্দরবনে মধু ও মোমের উৎপাদন বেড়েছে

  • বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটিতে কর্মসংস্থান হচ্ছে দুই হাজার মানুষের

  • লেবাননে খাদ্য ও মেডিকেল সামগ্রীসহ মেডিকেল টিম পাঠাচ্ছে বাংলাদেশ

  • করোনা ভ্যাকসিন: বাংলাদেশসহ ৯২ দেশের জন্য সুসংবাদ

  • ইলিশে সরগরম মাছের আড়তগুলো

  • বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনে যাচ্ছে সরকার

  • তার যাবে মাটির নিচে, আসছে ২০ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প

  • তিস্তা নদীর দুই পাড় ঘিরে স্থায়ী উন্নয়নের মহাপরিকল্পনা

  • পটুয়াখালীতে সাবমেরিন ক্যাবলে ত্রুটি, ইন্টারনেটে ধীরগতি