সোমবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২০

ব্রেকিং:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ খালেদার অনুপস্থিতিতেই কারাগারে বিচার চলবে রব ও মান্নার বিয়ে যুক্তফ্রন্টে, পরকীয়া ঐক্যফ্রন্টে: মাহী এটা জোট নয়, ঘোট : তথ্যমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় পেলেন সিনহা আবারও সরকার গঠনে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পদ্মা সেতু প্রকল্পের নামফলক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী
১৬৮

চ্যালেঞ্জ বাড়ছেই রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে!

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের দু’বছর গড়িয়েছে। এ দু’বছরে একজন রোহিঙ্গাকেও প্রত্যাবাসন করা সম্ভব হয়নি। আলোচনা হয়েছে দ্বি-পাক্ষিক, বহু-পাক্ষিক পরিসরে। রোহিঙ্গা ইস্যুর অন্যতম অনুঘটক ভারত-চীনকেও পাশে পেতে চেয়েছে বাংলাদেশ। ফলাফল বাংলাদেশের অনুকূলে আসেনি।

রাষ্ট্রহীন মানুষগুলোকে নিয়ে বিপদ বাড়ছেই বাংলাদেশের। প্রথমদিকে অনুকম্পা দেখালেও এখন বিরক্তির দৃষ্টিতে দেখছেন সরকারের নীতিনির্ধারকরাও। রোহিঙ্গাদের কর্মকাণ্ড জোরালোভাবে মনিটরিং করা হচ্ছে। মোবাইল সেবাও বন্ধ। তবে এর বিপরীতেও অনেকে অবস্থান নিয়ে বলছেন, তাদের আশ্রয় দেয়ার মধ্য দিয়েই এক মানবিক বাংলাদেশ, মানবিক বাঙালি দেখতে পেল বিশ্ব।

আর সব আলোচনা-সমালোচনার কেন্দ্রে রয়েছে ‘রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন’-এর বিষয়টি। কবে ফেরত যাবে রোহিঙ্গারা? আদৌ কি ফেরত যাবে? অথবা এ সংকটের ভবিষ্যৎ-বা কী? এমন প্রশ্ন নিয়েই মতামত জানতে চাওয়া হয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক তানজিম উদ্দিন খান এবং দক্ষিণ এশিয়ার রাজনৈতিক ইতিহাস বিশ্লেষক আলতাফ পারেভেজের কাছে।

বিশ্লেষক আলতাফ পারভেজ বলেন, ‘রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন আপাতত হবে না। এটি আমি আগেও বলেছি। রোহিঙ্গারা রাজি থাকলেও প্রত্যাবাসন আপাতত সম্ভব না। কারণ পুরো আরাকান রাজ্যজুড়েই যুদ্ধাবস্থা চলছে। বিশেষ করে রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এলাকাগুলো আরাকান আর্মির সঙ্গে মিয়ানমার আর্মির যুদ্ধ চলছে। রোহিঙ্গা আলোচনায় এটি অবশ্যই গুরুত্ব দিতে হবে।’

রোহিঙ্গা আর ভারত প্রসঙ্গে টেনে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ আসলে ভারতের সঙ্গে কোনো দ্বন্দ্বে জড়াতে চায় না। বাংলাদেশ একটি ক্ষুদ্র শক্তি। রোহিঙ্গা ইস্যুতে হাবুডুবু খাচ্ছে। রোহিঙ্গা ইস্যুতে ভারত এবং চীনের সমর্থন দরকার। এ কারণেও হয়তো বাংলাদেশ সরকার কাশ্মীর এবং আসাম ইস্যুতে কোনো প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে চাইছে না।’

অধ্যাপক ড. তানজিম বলেন, ‘আমি প্রথম থেকেই বলেছি, রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান সহজভাবে হবে না। এর আগে রোহিঙ্গারা ফেরত গেছে, তখন বৈশ্বিক প্রেক্ষাপট ভিন্ন ছিল এবং চীনের ভূমিকা বাংলাদেশের পক্ষে ছিল। জিয়াউর রহমানের সঙ্গে চীনের তখন ভালো সম্পর্ক ছিল। এখন চীনের অর্থনৈতিক স্বার্থ ভিন্নভাবে মূল্যায়ন করতে হয়। ভারতেরও ঠিক তাই। বিচ্ছিন্ন রাষ্ট্র থেকে মিয়ানমার এখন অনেকটাই গণতন্ত্রমুখী। এ কারণে বাণিজ্য এবং বিনিয়োগে গুরুত্ব দিতে হচ্ছে। মিয়ানমার এক ধরনের আকর্ষণ তৈরি করে ভারত এবং চীনকে পাশে রাখছে। রোহিঙ্গা ইস্যুকে যতটুকু আন্তর্জাতিকীকরণ করার কথা ছিল, বাংলাদেশ তা সঠিকভাবে করেনি।’

রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশ ব্যর্থ কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে এ বিশ্লেষক বলেন, ‘ব্যর্থ বা সফল তার কোনোটিতেই আমি মত দিচ্ছি না। আমি মনে করি, বাংলাদেশের সক্রিয়তার অভাব আছে। বাংলাদেশ ব্যর্থ কি-না, তা বলার সময় এখনও আসেনি। বর্তমান সরকারের সঙ্গে ভারত এবং চীনের ভালো সম্পর্ক এটি অস্বীকার করার উপায় নেই। কিন্তু বিশ্লেষণ করলে দেখা যাবে, মিয়ানমারে চীন এবং ভারতের স্বার্থ বাংলাদেশের চেয়ে অনেক বেশি। এ কারণেই মিয়ানমারকে সমর্থন দিচ্ছে তারা। রোহিঙ্গা ইস্যু দ্বিপক্ষীয় বিষয় নয়। বহুপক্ষীয় আলোচনায় এর সমাধান টানতে হবে।’

শুধু চাপ নয়, রোহিঙ্গা ইস্যু বাংলাদেশের জন্য হুমকিও বটে এমন আশঙ্কা প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘এ ধরনের জনগোষ্ঠীর জন্য যেমন মানবিক দিক আছে, তেমনি নিজেদের নিরাপত্তার দিকও আছে। রোহিঙ্গারা খুবই বঞ্চিত একটি জনগোষ্ঠী এবং বিপদের মধ্যে থেকেছে দীর্ঘ সময়। তারা নিজেদের স্বার্থে যে কোনো ঝুঁকি নিতে পারে। এ কারণেই বাংলাদেশের জন্য বাড়তি চাপ তৈরি হয়েছে বলে আমি মনে করি। রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে না পারলে, আমাদের জন্য বড় ঝুঁকি তৈরি হবে। তবে মানবিক ইস্যু হিসেবেই এর সমাধান করতে হবে। কারণ আমাদের সামনে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস আছে। আমরা জোর করে তাদের বিপদের মুখে ফেলে দিতে পারি না। এ কারণেই সব পথ খোলা রেখেই সমাধান করতে হবে।’

আরও পড়ুন
সাক্ষাৎকার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • গ্রাহককে জিম্মি করে কোটিপতি ইভ্যালি

  • আতিকুলের ইশতেহার ঘোষণা

  • সুপ্রিম কোর্টে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা শুরু

  • বাণিজ্য মেলায় জমে উঠেছে শেষ মুহূর্তের কেনাকাটা

  • ৪৮ নম্বর ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বহিষ্কার

  • পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি চুক্তি বাস্তবায়নে সরকার আন্তরিক

  • ‘নির্বাচনী প্রচারণায় সংঘর্ষে তদন্ত করে ব্যবস্থা’

  • দুই সিটি নির্বাচনে ১২৯ ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ

  • জমাদিউস সানি শুরু আজ

  • ‘ভারতের এনআরসি ইস্যুতে বাংলাদেশে প্রভাব পড়বে না’

  • একগুচ্ছ উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

  • তাপসের প্রচারণা ক্যাম্পে ইশরাক সমর্থকদের গুলি, আহত ১৭

  • ‘নির্বাচন বানচাল করতেই বিএনপির হামলা’

  • ডিজিটাল ও গ্রিন ভোটিং সফল হোক

  • ‌‘ইভিএমে অনৈতিক কাজ কোনোভাবে সম্ভব নয়’

  • ইভিএমসহ ভোটের পরিস্থিতি চার রাষ্ট্রদূতকে জানালো ইসি

  • সাময়িক স্থগিত হতে পারে বাংলাদেশ-চীন গমনাগমন

  • তৃণমূলের উন্নয়ন ছাড়া দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়: প্রধানমন্ত্রী

  • বিএনপি সাম্প্রদায়িক রাজনীতির পৃষ্ঠপোষক, বললেন কাদের

  • ভোটার তালিকা হালনাগাদে সময় বাড়িয়ে বিল পাস

  • পুকুর খনন করায় জরিমানা

  • ‘প্রবাসে কারিগরি শিক্ষার মূল্যায়ন বেশি’

  • কুমিল্লায় পুকুরে মিলল অবিস্ফোরিত মর্টার শেল

  • পুলিশ হয়রানি করলে ৯৯৯-এ কল দিন, বললেন আইজিপি

  • করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীকে জরিমানা, হতে পারে জেল

  • ৫৫ লাখ টাকাসহ প্রতারক গ্রেফতার

  • রাজধানীতে ১৩ রোহিঙ্গা নারী উদ্ধার, গ্রেফতার ২

  • বৃহস্পতিবার ঢাকাবাসীকে ইভিএমের ব্যবহার শেখাবে ইসি

  • সরকারের ওপর দেশের জনগণের ৮৫ শতাংশই সন্তুষ্ট

  • শেখ হাসিনায় আস্থা ৮৬ শতাংশ জনতার, বিএনপিতে সন্তুষ্ট ৬ শতাংশ

  • ভারত শিক্ষা দিয়েছে, আর পেঁয়াজ আমদানি নয়: বাণিজ্যমন্ত্রী

  • ঈদের নাটকে নোবেল-শখের সাথে উদীয়মান আশিক

  • শেখ হাসিনা মেডিক‌্যাল কলেজ হাসপাতালসহ ৮ প্রকল্প অনুমোদন

  • মওলানা ভাসানীর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ

  • অনুসৃত হোক বঙ্গবন্ধুর আদর্শ

  • ই-পাসপোর্টের জন্য ই-সিগনেচার দিলেন প্রধানমন্ত্রী

  • জেনে নিন ই-পাসপোর্ট সংগ্রহ করতে কত টাকা লাগবে

  • আইসিটি এডুকেশন অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করলেন প্রধানমন্ত্রী

  • বঙ্গবন্ধুর ভাষণের দিন এবারও নিউ ইয়র্কে ‘বাংলাদেশি ইমিগ্র্যান্ট ডে

  • পুরুষের চেয়ে বেশি আয়ে ৬৪ দেশের শীর্ষে বাংলাদেশের নারীরা

  • প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরে ই-পাসপোর্ট যুগে বাংলাদেশ

  • সাকিব-শিশিরের জন্য রান্না করে পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী

  • বঙ্গবন্ধুর সমবায় নির্দেশনায় লাভবান হবে কৃষক: প্রধানমন্ত্রী

  • ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগর’: অপরিকল্পিত শিল্পায়ন নিষিদ্ধ

  • মুজিববর্ষে দরিদ্র পরিবার পাবে পাকা বাড়ি

  • একনেকে ৮টি প্রকল্পটি অনুমোদন

  • প্রার্থীর ওপর হামলা রোধে ইসির ব্যবস্থা নেয়া উচিত, বললেন কাদের

  • আজ গণঅভ্যুত্থান দিবস

  • পদ্মা সেতুর ছবি নিজের ক্যামেরায় ধারণ করলেন প্রধানমন্ত্রী

  • মুজিববর্ষে বাড়ি পাবে ৬৮ হাজার দরিদ্র পরিবার

  • প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগে ইতিবাচক শেয়ারবাজার, বিনিয়োগকারীদের ধন্যবাদ

  • ‘প্রয়োজন হলে শিক্ষকদের বিদেশে পাঠাও’

  • ‘আবদ্ধ ঘর নির্মাণ না করে খোলামেলা ঘর নির্মাণ করতে হবে’

  • ‘বঙ্গবন্ধু পরিষদ’ ওয়েবসাইটের শুভ উদ্বোধন

  • দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন হবে দুর্নীতি মুক্ত: তাপস

  • WZPDCL to ensure 100pc electricity in its area by June

  • চালু হতে যাচ্ছে ই-পাসপোর্ট, বুধবার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

  • রাবেয়া-রোকেয়া ভাল আছে: প্রধানমন্ত্রী

  • মুজিববর্ষের লোগো ব্যবহারের বিশেষ নির্দেশনা

  • পদ্মায় মূল সেতুর ৮৫.৫ ভাগ কাজ সম্পন্ন