বুধবার   ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

সর্বশেষ:
আরও ১০৮ শহীদ বুদ্ধিজীবীর তালিকা প্রকাশ সরকারি চাকরিতে লাখ লাখ পদ খালি, নিয়োগের উদ্যোগ বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার বৈঠক : সুবিধা পেতে সর্বোচ্চ জোর এলাকার উন্নয়নে প্রত্যেক সংসদ সদস্যরা পাবেন ২০ কোটি টাকা শিগগির চালু হবে বিরল স্থলবন্দর ১২ সিটির বর্জ্য রিসাইকেলের উদ্যোগ বিশ্ব নেতাদের নজর কেড়েছে শেখ হাসিনার ৬ প্রস্তাব
৭১

চালু হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারত নতুন নৌরুট 

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  

নৌ প্রটোকল চুক্তির আওতায় রাজশাহীর পদ্মা তীরবর্তী গোদাগাড়ী উপজেলার সুলতানগঞ্জ নৌবন্দরটি আনুষ্ঠানিকভাবে চালু হচ্ছে ১২ ফেব্রুয়ারি। এ বিষয়ে নৌপরিবহণ মন্ত্রণালয় ও অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহণ কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) সুলতানগঞ্জ নদী-বন্দর আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধনের বিষয়টি চূড়ান্ত করেছেন।

উদ্বোধনের পর রাজশাহীর সুলতানগঞ্জ ঘাটটি নদী বন্দরের মর্যাদা পাবে। উদ্বোধনের পর সুলতানগঞ্জ নদী বন্দরের মাধ্যমে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদবাদ জেলার সাগরদিঘি থানার ময়া ঘাট বা নদী বন্দরের মধ্যে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য শুরু হবে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নৌপরিবহণ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরীর একান্ত সচিব (পিএস) মোহা. আমিনুর রহমান বলেন, রাজশাহীর সুলতানগঞ্জ নদী বন্দর আনুষ্ঠানিকভাবে চালু হবে ১২ ফেব্রুয়ারি। উদ্বোধনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

উদ্বোধনী অনষ্ঠানে নৌপরিবহণ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার মি. প্রণয় ভার্মা, অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহণ কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমোডর আফির আহমেদ মোস্তফাসহ মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকবেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহীর পদ্মার তীরবর্তী সুলতানগঞ্জ নৌবন্দর চালু হলে এই পথে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ জেলার সাগরদিঘি থানার ময়া নৌবন্দরের সঙ্গে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য  শুরু হবে। প্রাথমিক পর্যায়ে এই পথে ভারত থেকে সিমেন্ট তৈরির কাঁচামাল, পাথর, মার্বেল, খনিজ বালু ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের খাদ্য সামগ্রী বাংলাদেশে আসবে। 
অন্যদিকে এই পথে বাংলাদেশ থেকে বস্ত্র, মাছ, পাট ও পাটজাত পণ্য ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের কৃষিপণ্য ভারতে যাবে। এসব পণ্য মূলত বিভিন্ন স্থলবন্দরের মাধ্যমে সড়ক ও রেলপথে বাংলাদেশে আমদানি করা হয়।

সুলতানগঞ্জ নৌবন্দরের মাধ্যমে এসব পণ্য ভারত থেকে আমদানিতে সময় ও খরচ বহুলাংশে কমে যাবে। এতে উপকৃত হবেন বাংলাদেশ-ভারত দুই দেশের ব্যবসায়ীরা। ব্যবসায়ীরা আশা করছেন, বছরে এই নৌপথে দুই দেশের মধ্যে হাজার কোটি টাকার বাণিজ্য হবে।
    
সংশ্লিষ্ট সূত্র আরও জানায়, এর আগে নিয়ে নৌপরিবহণ মন্ত্রণালয়ের সভায় সিদ্ধান্ত হয় বাংলাদেশের রাজশাহীর সুলতানগঞ্জ আর ভারতের পশ্চিমবঙ্গের ধুলিয়ান নৌরুটে বাণিজ্য চালুর। রাজশাহী থেকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদের ধুলিয়ান পর্যন্ত ৭৮ কিলোমিটার একটি নৌপথের অনুমোদন থাকলেও পদ্মার নাব্যতা সংকটের কারণে কার্যকর করা হয়নি। ফলে রুটটি সংক্ষিপ্ত করে রাজশাহীর গোদাগাড়ীর সুলতানগঞ্জ থেকে ভারতের মুর্শিদাবাদের ময়া নৌবন্দর পর্যন্ত আড়াআড়িভাবে ২০ কিলোমিটার পদ্মা নদী পাড়ি দিয়ে পণ্য আনা নেওয়া হবে। শুরুতে এই নৌপথে ভারত থেকে পাথর বালি ও বিভিন্ন ধরণের খাদ্য সামগ্রী আনা হবে।

অন্যদিকে বাংলাদেশের আমদানিকারক ও ব্যবসায়ীরা জানান, বাংলাদেশের অবকাঠামো উন্নয়ন কাজের জন্য প্রতি বছর বিপুল পরিমাণ পাকুড় ব্র্যান্ডের পাথর ও খনিজ বালুর প্রয়োজন হয়। বর্তমানে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র ও যমুনা রেলসেতুর মতো বড় বড় প্রকল্পে ব্যবহার হচ্ছে ঝাড়খণ্ডের পাকুর ব্র্যান্ডের পাথর; যা সড়ক ও রেলপথের মাধ্যমে বাংলাদেশে আসছে। তবে সড়ক পথে এসব পণ্য আমদানিতে সময় যেমন বেশি লাগে তেমনি খরচ বেশি পড়ে। নৌপথে এসব পণ্য আমদানি করা গেলে পরিবহণ খরচ বহুলাংশে কম পড়বে।

উল্লেখ্য, পদ্মা-মহানন্দার মোহনায় অবস্থিত সুলতানগঞ্জ পদ্মায় সারা বছর নৌ চলাচল উপযোগী পানি থাকে। বিপরীতে ভারতের ময়া বন্দরটিতেও সারা বছর পানি থাকে। শুষ্ক মৌসুমে পদ্মার মধ্যখানে কিছু পথে নাব্যতা কমে যায়। তবে তেমন পরিস্থিতির উদ্ভব হবে দুই দেশের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে পদ্মায় ড্রেজিং করে নৌপথটি সারাবছর সচল রাখা হবে। বিশেষ করে বর্ষা মৌসুমে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের ময়া থেকে বাংলাদেশের রাজশাহীর সুলতানগঞ্জ আসতে পণ্যবাহী নৌযান মাত্র এক ঘণ্টায় আসতে পারবে।

অন্যদিকে প্রস্তাবিত সুলতানগঞ্জ নৌবন্দর চালু প্রসঙ্গে বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমোডর আরিফ আহমেদ মোস্তফা বলেন, বাংলাদেশ-ভারত নৌপ্রটোকলের আওতায় নদীপথে দুই দেশের মধ্যে কম খরচে বিপুল পরিমাণ বাণিজ্য বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। রাজশাহীর সুলতানগঞ্জে নৌবন্দরের কার্যক্রম চালু হলে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ জেলার ময়া নৌবন্দরের সঙ্গে নদীপথে বাণিজ্য শুরু হবে। এর ফলে বাংলাদেশ ও ভারত দুই দেশের ব্যবসায়ীরাই উপকৃত হবেন। সুলতানগঞ্জ-ময়া একটি লাভজনক ও চমৎকার নৌরুট হতে পারে। দুই পাড়েই অবকাঠামোগত কিছু সমস্যা এখনো রয়েছে। তবে সুলতানগঞ্জ বন্দর চালু হওয়ার পর পর্যায়ক্রমে সেগুলো ঠিক হয়ে যাবে।

এদিকে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যের সুলতানগঞ্জ-ময়া নৌরুট চালুর বিষয়ে গত কয়েক বছর ধরে চেষ্টা করে আসছেন রাজশাহী সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। তিনি বলেন, সুলতানগঞ্জ-ময়া নৌপথটি খুবই সম্ভাবনাময় একটি বাণিজ্য পথ। এই পথে দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য শুরু হলে বাংলাদেশ ও ভারত উভয় দেশই বিপুলভাবে লাভবান হবেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ভারতের সঙ্গে স্বাক্ষরিত নৌপ্রটোকলের আওতায় ২০২০ সালের অক্টোবরে সুলতানগঞ্জ-ময়া নৌপথটি চালুর কথা ছিল; কিন্তু করোনা মহামারির কারণে নৌপথটি চালুর কাজ পিছিয়ে যায়।

খোঁজ নিয়ে আরও জানা গেছে, সুলতানগঞ্জ থেকে ময়া নৌঘাটের নদীপথে দূরত্ব মাত্র ১৭ কিলোমিটার। সুলতানগঞ্জ নৌঘাটটি রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জ মহাসড়ক থেকে মাত্র এক কিলোমিটার ভেতরে পদ্মা মহানন্দার মোহনায় অবস্থিত। সারা বছর সুলতানগঞ্জ পয়েন্টে পদ্মায় গভীর পানি থাকে। অন্যদিকে পশ্চিমবঙ্গের ময়া নৌঘাটটি মুর্শিদাবাদ জেলার জঙ্গিপুর মহকুমা শহরের কাছে ভারতীয় ৩৪নং জাতীয় সড়কের সঙ্গে যুক্ত। ফলে সুলতানগঞ্জ-ময়া পথে নৌবাণিজ্য শুরু হলে পরিবহণ খরচ অনেকাংশে কমবে।

স্থানীয়রা আরও জানান, ১৯৬৫ সালে ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধের আগপর্যন্ত সুলতানগঞ্জ-ময়া ও গোদাগাড়ী ও ভারতের লালগোলা নৌঘাটের মধ্যে নৌপথে বিপুল বাণিজ্য চালু ছিল। বাংলাদেশ থেকে এই পথে ভারতে বিপুল পরিমাণ পাট রফতানি হতো। বর্তমানে রাজশাহীতে প্রচুর মাছ উৎপাদন হয়। এই মাছ এই নৌপথে ভারতে রফতানি করা সম্ভব হবে। ভারত থেকে কয়লা, সিমেন্ট তৈরির উপকরণ ফ্লাই অ্যাশ, ক্লিংকার আমদানিও সম্ভব এই নৌপথে। কারণ ভারতে ঝাড়খণ্ড রাজ্যের পাকুড় থেকে মুর্শিদাবাদের ময়া বন্দরের দূরত্ব মাত্র ৫৫ কিলোমিটার।

জানা গেছে, ভারতের ময়া নৌঘাট থেকে বর্ষাকালে প্রতিটি নৌযানে ৩০০ টন পর্যন্ত পণ্য পরিবহণ করা যাবে।
 

আরও পড়ুন
দেশের খবর বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • বাংলাদেশের প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম উৎপাদনে অংশীদার হতে আগ্রহী ভারত

  • যে কোনো সংকট মোকাবিলায় ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান আইজিপির

  • বিএনপির জগাখিচুড়ি ঐক্যজোট এখন কোথায় : কাদের

  • বাংলাদেশ ও ঘানা ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়াতে সম্মত

  • প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

  • গৌরবের অমর একুশে আজ

  • যৌন নিপীড়নের ঘটনায় জাবি সহকারী অধ্যাপক বরখাস্ত

  • দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকারের প্রশংসনীয় উদ্যোগ

  • স্বল্পমূল্যে টিসিবির পণ্য ও টিআর কার্ডে খাদ্য সহায়তা করছে সরকার

  • মুর্শিদাবাদ-রাজশাহী নৌপথের নবযাত্রা

  • মুর্শিদাবাদ-রাজশাহী নৌপথের নবযাত্রা

  • বিসিবির নতুন দায়িত্ব পেয়ে যা বললেন হাবিবুল বাশার

  • অভিনেতা ঋতুরাজ সিং মারা গেছেন

  • উপজেলা নির্বাচন বিধিমালা ও আচরণবিধিতে আসছে পরিবর্তন

  • দুই শিশুর মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধানে আইইডিসিআর

  • শূন্য পদে দ্রুত নিয়োগে জনপ্রশাসনের তাগিদ

  • ২১ গুণীজনকে একুশে পদক দিলেন প্রধানমন্ত্রী

  • হুথি আক্রমণে সুয়েজ খালের আয় কমেছে ৫০ শতাংশ: মিশর

  • মানুষের মল দিয়ে জ্বালানি তৈরি কেনিয়ায়

  • নাভালনির সঙ্গে নিজের যে মিল দেখতে পান ট্রাম্প

  • গাজা ইস্যুতে ইউটার্ন, যুদ্ধবিরতি চায় যুক্তরাষ্ট্র

  • ২১ আমাদের শিখিয়েছে মাথানত না করা: প্রধানমন্ত্রী

  • প্রাথমিকের দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষার ফল হতে পারে আজ

  • দাম কমলো সয়াবিন তেলের

  • তিউনিসিয়া উপকূলে নৌযানে অগ্নিকাণ্ড, ৮ বাংলাদেশির মৃত্যু

  • বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন ঘানার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

  • কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে কোনো হুমকি নেই : র‍্যাব ডিজি

  • দেশের বাজারে কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম

  • ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস থেকে বঙ্গবন্ধুকে মুছে ফেলার চেষ্টা হয়েছিল

  • ভাষা আন্দোলন ও আমাদের বঙ্গবন্ধু

  • সংরক্ষিত নারী আসনে আ.লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা

  • পিক আওয়ারে ৮ মিনিট পর পর মিলবে মেট্রোরেল

  • ফাগুন হাওয়ায় রঙিন ভালোবাসা

  • হাইওয়ে পুলিশ সদস্যের থাকবে ‘বডি ওর্ন ক্যামেরা’

  • গঙ্গা নিয়ে আলোচনা শুরু করল বাংলাদেশ ও ভারত

  • সংখ্যা নয় দক্ষ ও অভিজ্ঞ ডাক্তার চাই : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • চার ভাবনায় বাড়ছে মন্ত্রিসভার আকার

  • দেশের মানুষ এখন গণতন্ত্র উপভোগ করছে: প্রধানমন্ত্রী

  • দেড় হাজার রোহিঙ্গা যাচ্ছেন ভাসানচর 

  • বাণিজ্যিকভাবে জ্বালানি তেল উত্তোলনের পথে বাংলাদেশ

  • এআই বিষয়ক আইন করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার: আইনমন্ত্রী

  • নতুন রুটের সন্ধানে বিমান

  • বাগেরহাটে তৈরি ৪০ হাজার ‘কাঠের সাইকেল’ যাচ্ছে ইউরোপে

  • ডলারে আমানত রাখলেই করমুক্তি সুবিধা

  • ‘পাচারের অর্থ উদ্ধারে ১০ দেশের সাথে আইনগত চুক্তির উদ্যোগ’

  • নতুন ব্যক্তি প্রতিষ্ঠানকে কর নেটওয়ার্কে আনার উদ্যোগ

  • স্কোয়াশ চাষে লাভবান কৃষক

  • জিআই হিসেবে অনুমোদন পেল আরো ৩ পণ্য

  • চট্টগ্রাম বন্দরে রপ্তানিমুখী কনটেইনারের জন্য বসলো স্ক্যানার

  • পাইপলাইনের ঋণ দ্রুত ছাড়িয়ে আনার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  • ধানমন্ডি লেকে নজরুল সরোবর করা হবে : তাপস

  • ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস থেকে বঙ্গবন্ধুকে মুছে ফেলার চেষ্টা হয়েছিল

  • সাকিবকে বাদ দিয়ে শান্তকে অধিনায়ক, মুখ খুললেন পাপন

  • গ্রামীণের ৭ প্রতিষ্ঠানের নিয়ন্ত্রণ নেওয়া হয়েছে আইন মেনেই

  • বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রীর সাথে জাপানের রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

  • গাজায় যা হচ্ছে তা গণহত্যা : প্রধানমন্ত্রী

  • কুয়াকাটায় বিমানবন্দর নির্মাণে তোড়জোড়

  • দেশে সবুজ পোশাক কারখানা বেড়ে ২০৭

  • বিবিএসের তথ্য বলছে স্বস্তি ফিরছে খাদ্যপণ্যে

  • মুদ্রা বিনিময়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন পদ্ধতি চালু