রোববার   ১৯ মে ২০২৪

সর্বশেষ:
জাইকার উপদেষ্টা কমিটির সঙ্গে স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর বৈঠক ‘অজান্তে মোবাইল ব্যালেন্স কেটে নিলে কঠোর ব্যবস্থা’ আওয়ামী লীগের যৌথ সভা শুক্রবার বিএনপির নির্বাচন বর্জনের রাজনীতি আত্মহননমূলক : পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকা পৌঁছেছেন ভারতের পররাষ্ট্র সচিব গণমাধ্যমের তথ্য প্রাপ্তির অধিকার নিশ্চিত করা হবে: প্রতিমন্ত্রী নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি ছিল সন্তোষজনক : ওবায়দুল কাদের রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে যুক্তরাজ্যের সহায়তা চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী
৫৮

কোরবানির চামড়ার ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করবে সরকার

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৩ মে ২০২৪  

এবার কোরবানির পশুর চামড়া সংরক্ষণে সারাদেশের এতিমখানাগুলোতে বিনামূল্যে লবণ দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে। চামড়ার ন্যায্যদাম নিশ্চিত করতে বাসাবাড়ি থেকে সংগ্রহের পরই তা যেন পানির দরে বিক্রি না করে বরং বেশ কিছুদিনের জন্য সংরক্ষণ করা হয়- সেজন্য এই উদ্যোগ নিতে যাচ্ছে সরকার। এতিমখানার পাশাপাশি যেসব প্রতিষ্ঠান সমাজসেবা ও শিক্ষামূলক কাজ সম্প্রসারণে কাজ এগিয়ে নিতে বিনামূল্যের চামড়া সংগ্রহ করে, তাদেরকে এই লবণ দেওয়া হবে। এছাড়া কোরবানির সময় সাধারণত মসজিদ, মাদ্রাসা, দাতব্য প্রতিষ্ঠান ও লিল্লাহ বোর্ডিংগুলোর পক্ষ থেকে চামড়া সংগ্রহ করা হয়। কোরবানি দাতারা বিনামূল্যে এই চামড়া দান করে থাকেন। এ বছর ১ কোটি ২৫ লাখ গবাদিপশু কোরবানির জন্য প্রস্তুত রয়েছে বলে জানিয়েছে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর। আশা করা হচ্ছে, কোরবানি থেকে এবার প্রায় সোয়া কোটি চামড়া সংগ্রহ করা হবে। আগামী সপ্তাহে কাঁচা চামড়ার দাম নির্ধারণ করবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। কোরবানির চামড়া ব্যবস্থাপনায় তদারকির লক্ষ্যে সরকারি উদ্যোগে একটি যৌথ মনিটরিং টিম গঠন করা হবে।

অভিযোগ রয়েছে, কারসাজি করে কোরবানির বিনামূল্যের চামড়া অনেকটা পানির দরেই এতিমখানা, মাদ্রাসা এবং মসজিদ থেকে কিনে থাকেন চামড়া সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা। বিশেষ করে ট্যানারি মালিক, ঢাকার পোস্তা, চট্টগ্রাম এবং নাটোরের আড়তদার ব্যবসায়ী ও স্থানীয় ফড়িয়াদের কারসাজির কারণে চামড়ার ন্যায্যদাম কার্যকর হচ্ছে না। শুধু তাই নয়, মাংস ব্যবসায়ীরা বলছেন, চামড়া সঠিক দাম পাওয়া গেলে গরুর মাংসের দাম কমানো সম্ভব। তাদের অভিযোগ, গত বিশ বছরে বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বে সব ধরনের পণ্যের দাম বাড়লেও শুধু এ দেশে কাঁচা চামড়ার দাম কমেছে। অথচ এই সময়ে চামড়াজাত পণ্যের দাম বেড়েছে ২০ গুণের বেশি। দুই দশক পূর্বে ২০০০-০৪ সালে প্রতিপিস গরুর চামড়া মানভেদে তিন থেকে ছয় হাজার টাকায় বিক্রি হলেও এখন সেই চামড়া বিক্রি হয় মাত্র ৬০০-১২০০ টাকায়। এ প্রসঙ্গে ঢাকার আলোচিত মাংস ব্যবসায়ী খলিলুর রহমান জানান, গরুর মাংসের দাম কমাতে হলে আগে চামড়ার ন্যায্যদাম নিশ্চিত করতে হবে। চামড়ার ভালো দাম না পাওয়ায় গরুর মাংসের দাম বেড়ে গেছে। তিনি বলেন, আশা করছি, এবার কোরবানির সময় সব ধরনের পশুর চামড়ার সঠিক দাম কার্যকর হবে। বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতির মহাসচিব রবিউল আলম বলেন, কোরবানির চামড়ার সঠিক দাম পেতে কঠোর মনিটরিং প্রয়োজন। এ খাতের অসাধু ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট ভেঙে দিতে হবে। অন্যদিকে বাংলাদেশ ট্যানারি অ্যাসোসিয়েশনের (বিটিএ) থেকে দাবি করা হয়েছে, গতবছর দেশে সরকার নির্ধারিত দামে চামড়া বেচাকেনা হয়েছে। এ বছরও নির্ধারিত দামে চামড়া কিনবেন ট্যানারি মালিকরা।

জানা গেছে, আগামী সপ্তাহ নাগাদ কাঁচা চামড়ার দাম নির্ধারণ করা হবে। ইতোমধ্যে চামড়ার দাম নির্ধারণে প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। বাংলাদেশ ট্রেড অ্যান্ড ট্যারিফ কমিশনের (বিটিটিসি) মাধ্যমে আন্তর্জাতিক এবং দেশী মূল্য বিবেচনায় নিয়ে একটি যৌক্তিক দাম নির্ধারণ করতে চায় সরকার। এ প্রসঙ্গে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা বলেন, প্রতিবছরের ধারাবাহিকতায় এ বছর চামড়ার দাম নির্ধারণ করে দেওয়া হবে। এ বিষয়ে কাজ শুরু হয়েছে। চামড়া যাতে পানির দরে ব্যবসায়ীরা কিনতে না পারেন সে বিষয়ে সতর্ক থাকবে সরকার। শুধু তাই নয়, স্থানীয়ভাবে চামড়া সংগ্রহ এবং পর্যাপ্ত লবণ দিয়ে চামড়া সংরক্ষণের জন্য কৌশলগত স্থানে অস্থায়ী সংরক্ষণাগার নির্মাণ করতে জেলা প্রশাসকদের নির্দেশনা দেওয়া হবে। এছাড়া কোরবানির চামড়া সঠিকভাবে ছাড়ানো, মানসম্মত পরিবেশ নিশ্চিত করা, কসাই ও মসজিদের ইমামদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে। দেশের এতিমখানায় যেহেতু সবচেয়ে বেশি চামড়া দান করা হয়, সেজন্য এসব প্রতিষ্ঠানে বিনামূল্যে লবণ দেওয়ার প্রস্তাব করেছে শিল্প মন্ত্রণালয়। শিল্প মন্ত্রণালয় মনে করে, এটি বাস্তবায়ন করা গেলে স্থানীয়ভাবে চামড়া নষ্টের হাত রক্ষা পাবে এবং চামড়ার সঠিক দাম নিশ্চিত হবে। এদিকে, কোরবানির ঈদ সামনে রেখে চামড়া শিল্পখাতের উন্নয়নে সুপারিশ প্রদান ও কর্মপরিকল্পনা প্রণয়নের লক্ষ্যে গঠিত টাস্কফোর্সের ৭ম সভা রবিবার শিল্প মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূনের সভাপতিত্বে ওই সভায় অংশগ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু, চামড়া শিল্পনগরী, পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিরা। কোরবানি ঈদ সামনে রেখে চামড়ার ন্যায্যদাম নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সভায় শিল্প মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বেশকিছু প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এতে বলা হয়, স্থানীয়ভাবে চামড়া সংরক্ষণে জেলা, উপজেলা, ও ইউনিয়ন পর্যায়ে পর্যাপ্ত লবণ সরবরাহ নিশ্চিত করতে হবে। এছাড়া এতিমখানাগুলোতে কোরবানির সময় বিনামূল্যে লবণ সরবরাহ করা যেতে পারে। সভা সূত্র জানিয়েছে, এবার চাহিদা অনুযায়ী লবণের সরবরাহ নিশ্চিত করা, সরকার কর্তৃক নির্ধারিত মূল্যে চামড়া কেনাবেচা, পরিবহন ও সংরক্ষণ প্রভৃতি কার্যক্রম বাস্তবায়নে বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে নিবিড় যোগাযোগ স্থাপনের লক্ষ্যে শিল্প মন্ত্রণালয় এবং জননিরাপত্তা বিভাগের সমন্বয়ে একটি যৌথ মনিটরিং টিম গঠন করা হবে।

এছাড়া পশুর চামড়া যাতে পাচার না হয় সে বিষয়ে করণীয় নির্ধারণ করা হবে। চামড়া সংগ্রহ ও পরিবহন কার্যক্রমে কোনো প্রকার চাঁদাবাজি বিশৃঙ্খলা বা বাধার সৃষ্টি না হয় সে বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হবে। চামড়া শিল্পনগরীর বর্জ্য পরিশোধনে সিইটিপির পরিশোধন ক্ষমতার মধ্যে সীমিত রাখার লক্ষ্যে কোরবানির পরবর্তী এক মাসের মধ্যে ঢাকার বাইরে থেকে যাতে কোরবানির পশুর চামড়া  ঢাকার মধ্যে প্রবেশ করতে না পারে সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কোরবানির সময় সাভার চামড়া শিল্পনগরীতে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করবে সরকার। সভায় শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেন, চামড়া শিল্পখাতের উন্নয়নে স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি করণীয় নির্ধারণ করা হয়েছে। আসন্ন কোরবানির ঈদ উপলক্ষে স্বল্প মেয়াদি ও চামড়া শিল্পখাতের সার্বিক উন্নয়নে দীর্ঘমেয়াদি করণীয় নির্ধারণ করা হয়েছে। বিসিক ও শিল্প মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে নীতিগত সহযোগিতাসহ এসব করণীয় বাস্তবায়নে সব ধরনের সহায়তা প্রদান করা হবে। তিনি বলেন, চামড়া শিল্পখাতে সংরক্ষণ সুবিধা বাড়াতে হবে যাতে চামড়া নষ্ট না হয়। চামড়া ব্যবসায়ী/ পাইকারগণ যাতে পুঁজির সমস্যায় না পড়েন ও সহজ শর্তে ঋণ পান, সে বিষয়েও পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুন
অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • জিয়াউর রহমান বাকশালের সদস্য হয়েছিলেন, দাবি ওবায়দুল কাদেরের

  • মূল্যস্ফীতি হ্রাসই লক্ষ্য

  • আম নিতে চায় রাশিয়া-চীন

  • ফের দুই দিনের হিট অ্যালার্ট জারি

  • উন্নয়ন রূপকল্পের অন্যতম পথিকৃৎ শেখ হাসিনা : ধর্মমন্ত্রী

  • ধর্মান্ধরা সমাজকে পিছিয়ে নিয়ে যাচ্ছে: ভূমিমন্ত্রী

  • অন্য দেশের সঙ্গে প্রদর্শনী বাড়ালে সাংস্কৃতিক সম্পর্ক জোরদার হয়

  • রাজধানীতে ‘কক্সবাজার এক্সপ্রেসের’ বগি বিচ্ছিন্ন

  • নির্বাচনের জন্য ট্যুরিস্ট ভিসাতে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা দিলো ভারত

  • ৩০ ব্যাংকের এমডি যাচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রে

  • নোংরা পরিবেশে তৈরি হচ্ছিলো রাফসানের ব্লু ড্রিংকস

  • জার্মানিতে আবাসিক ভবনে বিস্ফোরণ, নিহত ৩

  • খারকিভে ‘কঠিন লড়াই’ চলছে: জেলেনস্কি

  • সব ধরনের জঙ্গি-সন্ত্রাসবাদ পুলিশের নিয়ন্ত্রণে: আইজিপি

  • জনগণের উন্নয়ন, মির্জা ফখরুলসহ বিএনপির সহ্য হচ্ছে না: আইনমন্ত্রী

  • রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মূর্তিমান আতঙ্ক সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আরসা: র‌্যাব

  • বাংলাদেশের গ্রামের অর্থনীতি পাল্টে গেছে : প্রধানমন্ত্রী

  • ৬ তারিখে বাজেট দেব, বাস্তবায়নও করব : প্রধানমন্ত্রী

  • চৌদ্দগ্রামে যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ৫ জনের মৃত্যু

  • দেশকে এগিয়ে নিতে অর্থনীতিবিদদের সহযোগিতা চান প্রধানমন্ত্রী

  • ১৭ মে বাংলাদেশের মানুষের হৃদয়ে গাঁথা থাকবে : আইনমন্ত্রী

  • শেখ হাসিনা গণতন্ত্রকামী মানুষের নেতা : খাদ্যমন্ত্রী

  • টানা ৫ দিন বেনাপোল দিয়ে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ

  • দুধ দিয়ে গোসল করানো হলো নাবিক সাব্বিরকে

  • রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মূর্তিমান আতঙ্ক সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আরসা : র‌্যাব

  • শনিবার থেকে বৃষ্টি হতে পারে

  • শেখ হাসিনাকে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

  • ইসরায়েলি হামলায় এখন পর্যন্ত ৩৫ হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত

  • বেদনানাশক নিয়ে খেলবেন তাসকিন

  • শাহরুখ-অমিতাভদের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন খারিজ

  • লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি বোরো উৎপাদন

  • অতীত ভুলে সামনে তাকাতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

  • এসএসসিতে গড় পাসের হার ৮৩.০৪ শতাংশ

  • ফেল করেছে বলে গালমন্দ করবেন না : অভিভাবকদের প্রধানমন্ত্রী

  • অবৈধ অভিবাসী প্রত্যাবাসনে বাংলাদেশকে ‘নিরাপদ’ ঘোষণা ইতালির

  • ‘স্বচ্ছতা নিশ্চিতে ইলেকট্রনিক সরকারি ক্রয় চালু’

  • কূটনৈতিক মিশন খুলতে সম্মত বাংলাদেশ-আয়ারল্যান্ড

  • ঘরে বসেই হজযাত্রীরা পাবে প্রাক-নিবন্ধন রিফান্ডের টাকা

  • ডাবের পানির বিকল্প হিসেবে যে পানীয় পান করতে পারেন

  • জিপিএ-৫ ও পাসের হারে এগিয়ে মেয়েরা

  • ডেঙ্গু ঠেকাতে এবার মাস্টারপ্ল্যান

  • সামাজিক নিরাপত্তাবেষ্টনীর আওতা বাড়ছে বাজেটে

  • কিশোর গ্যাংয়ে জড়ানোর কারণ খুঁজতে হবে : শেখ হাসিনা

  • জুন-জুলাইয়ে হতে পারে প্রধানমন্ত্রীর তিন গুরুত্বপূর্ণ সফর

  • ‘ধানের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত করতে কৃষক অ্যাপ চালু করা হয়েছে’

  • নিউ ইয়র্ক বাংলা বইমেলায় দশ হাজার নতুন বই

  • ‘মা দিবসে মাকে দেওয়া আমার শ্রেষ্ঠ উপহার জিপিএ-৫’

  • পায়রা বন্দরে প্রথমবারের মতো ভিড়লো বিদেশি জাহাজ

  • ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন এবার চলবে পদ্মা সেতু দিয়ে

  • ‘ডোনাল্ড লু সম্পর্ক এগিয়ে নিতে বাংলাদেশ সফরে আসছেন’

  • বিশ্বাসের ঘাটতি হটিয়ে সম্পর্ক দৃঢ় করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

  • ইলিশের মণ লাখ টাকা

  • নভেম্বর-ডিসেম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজে সফরে যাবে বাংলাদেশ

  • কোরবানির চামড়ার ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করবে সরকার

  • ‘বিএনপি যে কখন তাবিজ-দোয়ার ওপর ভর করে সেটিই প্রশ্ন’

  • ‘জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় বাংলাদেশের পাশে থাকবে যুক্তরাষ্ট্র’

  • ১৭ মে : জননেত্রীর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন এবং দেশের অগ্রযাত্রা

  • এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের ভাতা বাড়ানোর প্রক্রিয়া শুরু

  • ‘বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক আরও ঘনিষ্ঠ করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র’

  • ‘নারীবান্ধব শিক্ষানীতির কারণে মেয়েরা পাসের হারে এগিয়ে’