শুক্রবার   ১৫ জানুয়ারি ২০২১

সর্বশেষ:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে ইসি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ: নূরুল হুদা বারবার আসতে পারব না, যত খুশি সাজা দিন: খালেদা জিয়া ‘আকাশবীণার’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী ত্রিভুবনে আবারও বিমান দুর্ঘটনা ট্রেন-বাসের সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ২৫ ভুয়া ছবি দিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে মিয়ানমার: প্রধানমন্ত্রী
৫৩০

‘করোনা রোধে ডাক্তারদের অগ্রগণ্য ভূমিকা পালন করতে হবে’

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭ এপ্রিল ২০২০  

করোনাভাইরাস মহামারী প্রাদুর্ভাবে কোভিড-১৯ রোগীর সুনামি ঠেকাতে বহু ডাক্তারকে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে বলে মত দিয়েছেন ভারতের বিখ্যাত কার্ডিয়াক সার্জন ডা. দেবি প্রসাদ শেঠি। এমনকি মেডিকেলের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থীদেরও কোভিড-১৯ রোগীর ওয়ার্ডে পাঠানোর পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস বিষয়ে ভারতের লাইভমিন্ট পত্রিকাকে সাক্ষাৎকার দেন ভারতের খ্যাতনামা বহু বিশেষায়িত চেইন হাসপাতাল ‘নারায়ণ হেলথ ফাউন্ডেশনে’র চেয়ারম্যান ও প্রতিষ্ঠাতা ডা. দেবি প্রসাদ শেঠি।

তার চার দশকের ক্যারিয়ারে বহু গরিবকে বিনামূল্যে অপারেশন করেছেন।

দেবি শেঠি বলেন, মহামারী করোনা মোকাবেলায় ভারত জরুরি স্বাস্থ্য অবস্থার মুখোমুখি। যদি আমরা প্রতিটি স্তর থেকে সব স্বাস্থ্য উপকরণ নিয়ে মাঠে নামতে না পারি তাহলে ইতালির মতো ভয়াবহ পরিস্থিতির মুখোমুখি হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছি। সম্প্রতি ভারতের লাইভমিন্ট পত্রিকাকে দেয়া তার সাক্ষাৎকারটি তুলে ধরা হল।

করোনাভাইরাস এবং ইবোলা, সোয়াইন ফ্লু বা অন্য কোনো মহামারীর মধ্যে পার্থক্য কি, যা ভারত এর আগেও মুখোমুখি হয়েছে?

দেবি শেঠি : পার্থক্য হল এ ভাইরাস চরম সংক্রামক। এটি আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসার কয়েক মিনিটের মধ্যেই ছড়ায়। এটি বায়ুবাহিত না হলেও এর মারাত্মক দিক হল এটি হাঁচি-কাশির ফোঁটা থেকে ছড়ায়।

উদাহরণস্বরূপ, যদি আক্রান্ত কেউ মোবাইল ফোনের ওপর হাঁচি দেয় এবং আপনি সেই মোবাইলটি নিলেন, আপনি ভাইরাসের সংস্পর্শে চলে এলেন। এটি দাবানলের মতো ছড়ায়, যেমনটি পুরো বিশ্বে ঘটছে।


একজন থেকে তিনজনে, এভাবে গুণিতক হারে ছড়াচ্ছে। ইতালি এর সঠিক উদাহরণ। দেশটিতে তিন সপ্তাহের কম সময়ে ৩০০ থেকে দুই হাজার জনে সংক্রমিত হয়েছে। এ ভাইরাস মানুষ মারছে না, বরং বিশ্বের পুরো স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে হত্যা করছে।

মহামারী মোকাবেলায় ভারতের জনস্বাস্থ্য কতটুকু প্রস্তুত?

দেবি শেঠি : যুক্তরাজ্যের শক্তিশালী জাতীয় স্বাস্থ্যসেবা ও যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা এ ভাইরাস মোকাবেলায় সমর্থ হচ্ছে না। ব্যাঙ্গালুরুতে আমাদের মাত্র এক হাজার ভেন্টিলেটর রয়েছে। যদি ভাইরাস ভয়াবহভাবে ছড়ায়, আমাদের ভেন্টিলেটর ঘাটতিতে পড়তে হবে।

আমরা যদি এখনই কার্যকরী পদক্ষেপ না নেই তাহলে ডাক্তারদেরই সিদ্ধান্ত নিতে হবে, কে বাড়ি ফিরে যাবে এবং মারা যাবে আর কাকে হাসপাতালেই মরতে হবে।

এটি কতটা ধ্বংসাত্মক! আর এমনটাই ঘটছে ইতালি এবং যুক্তরাষ্ট্রে। তাহলে আপনিই অনুধাবন করুন, ভারতের পরিস্থিতি কেমন।

সংক্রমণ হ্রাসে সরকার চেষ্টা করছে, কিন্তু আমাদের নাগরিকরা কি যথেষ্ট করছে?

দেবি শেঠি : ভারতের শিক্ষিত শ্রেণিই বেশি হতাশ করছে। আমাদের নিজেদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য সামাজিক দূরত্ব দরকার। এটি বাধ্য করতে সরকার কারফিউ, ১৪৪ ধারা জারিসহ বহু কিছু করেছে। বাধ্যতামূলক লকডাউন ছাড়া সরকারের হাতে বিকল্প কিছু নেই। আমরা এসব উপেক্ষা করছি।

আমাদের ভারতে ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে এখনই স্বাস্থ্য সামগ্রী নিয়ে মাঠে নামতে হবে। আমাদের স্থানীয় কোম্পানির মাধ্যমে এখনই গণহারে ভেন্টিলেটর ও ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম (পিপিই) উৎপাদন শুরু করা দরকার। ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের (ডিআরডিও) মতো সংস্থাকেও এ মিশনে এগিয়ে আসতে হবে।

ডাক্তার ও স্বাস্থ্যকর্মী সংকটের ব্যাপারে কি বলবেন?

দেবি শেঠি : হ্যাঁ, ইতালির সবচেয়ে বড় সমস্যা হল দক্ষ জনশক্তি ও বেডের অভাব। তাহলে তারা কি করেছিল? দেশটির মেডিকেল কাউন্সিল কোর্স শেষ হওয়ার নয় মাস আগেই শিক্ষার্থীদের সার্টিফিকেট প্রদান করতে সব বিশ্ববিদ্যালয়কে নির্দেশনা দিয়েছিল। এই প্রক্রিয়ায় ইতালি তাৎক্ষণিকভাবে জরুরি মুহূর্তে ১০ হাজার ডাক্তার পেয়েছিল। ভারতেও এখনই এই প্রক্রিয়া অনুসরণ করা দরকার।

ভারতে অধিক পরিমাণে আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় এগুলো কতটুকু সম্ভব?

দেবি শেঠি : ডাক্তাররাই আমাদের সম্পদ। আমাদের ৫০ হাজার ডাক্তার, বিশেষজ্ঞ ও মেডিকেল শিক্ষার্থী রয়েছে। আমাদের আরও প্রায় ২০ হাজার শিক্ষার্থী চীন এবং রাশিয়া থেকে মেডিসিনের ওপর স্মাতক করেছেন। পরীক্ষার বিড়ম্বনায় মেডিকেল শিক্ষার্থীদের বন্দি করবেন না। তাদের যোগ্য হিসেবে সার্টিফিকেট দিন এবং এই জরুরি মুহূর্তে স্বাস্থ্যসেবায় নিয়োজিত করুন।

আমরা জানি, কোনো ডাক্তার কোভিড ইউনিটে দৈনিক ৬ ঘণ্টার বেশি কাজ করতে পারেন না। এজন্য আমাদের ডাক্তারদের বিশাল বহর প্রয়োজন। ভারতের রাজ্যগুলোতে বহু মেডিকেল কলেজ ও টিচিং হাসপাতাল রয়েছে। সবগুলো খুলে দিন এবং এসব হাজার হাজার শিক্ষানবিস ডাক্তারকে করোনা আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসায় নিয়োজিত করুন।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো ভারতেও অনলাইন পরামর্শ এবং ই-প্রেসক্রিপশনের বৈধতা দিতে হবে। সংকটকালীন এ সময়ে সব রোগীকে আমরা হাসপাতালে আসতে বলতে পারব না।

সব ধরনের আইনি মারপ্যাঁচ শিথিলতায় মেডিকেল কাউন্সিল অব ইন্ডিয়াকে কঠিন এ সময়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে।

আরও পড়ুন
সাক্ষাৎকার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • জন্মনিবন্ধনে ফিঙ্গার প্রিন্ট বাধ্যতামূলক করতে হাইকোর্টের রুল

  • ধান উৎপাদন দ্বিগুণ করতে আরো উন্নত জাত উদ্ভাবন করতে হবে

  • জঙ্গিদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরানোর ধারা বাংলাদেশই প্রথম চালু করেছে

  • ডিএসই’র বাজার মূলধনে নতুন মাইলফলক

  • ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্পে দেয়া হচ্ছে ১০ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা

  • ২০২৩ সালে ১৩২০ মেগাওয়াট কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের উৎপাদন শুরু

  • ভ্যাকসিন কিনতে দুই দফায় ১৪৫৫ কোটি টাকা বরাদ্দ

  • নয় দিনের মধ্যে করোনার ভ্যাকসিন আসতে পারে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • সরকারের অর্জন, খাদ্যঘাটতি থেকে স্বয়ংসম্পূর্ণতায় বাংলাদেশ

  • উপকারভোগীর মোবাইলে ভাতার টাকা পাঠানোর উদ্যোগ নিয়েছে সরকার

  • চট্টগ্রামে বিনিয়োগে আগ্রহী তুরস্কের ব্যবসায়ীরা

  • ‘আওয়ামী লীগ সরকারের কারণেই উন্নয়নের সুফল পাচ্ছে বাংলাদেশ’

  • সরকারি ভাতা ঠিকমতো পৌঁছানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  • ৯ লাখ গৃহহীনদের ঘর দিচ্ছে সরকার

  • ফেব্রুয়ারিতে উন্নয়নশীল হবে বাংলাদেশ, আশা অর্থমন্ত্রীর

  • করোনাভাইরাসের টিকা কার্যক্রম পরিচালনায় মোবাইল অ্যাপ

  • স্বপ্নের ঠিকানা পাচ্ছে ১১৫ পরিবার

  • লালমনিরহাটে বিমান তৈরি করা হবে : প্রধানমন্ত্রী

  • জঙ্গিদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরানোর কাজ চলছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • নজিরবিহীন রেকর্ড করে ক্ষমতা ছাড়ছেন ট্রাম্প

  • জঙ্গিবাদ ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরলো ওরা ৯ জন

  • ‘পরিবেশের মান উন্নয়নে সবচেয়ে বড় প্রকল্প গ্রহণ করা হচ্ছে’

  • মানিকগঞ্জে গৃহহীন ১১৫ পরিবার পাচ্ছে স্বপ্নের ঠিকানা

  • করোনা তদন্তে চীনে ডব্লিউএইচও`র গবেষক দল 

  • মুজিববর্ষে দেশের কোনো মানুষ গৃহহীন থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী 

  • সরকারি ভাতা সরাসরি পৌঁছাবে উপকারভোগীর হাতে

  • বিমান বহরে যুক্ত হচ্ছে নতুন ২টি উড়োজাহাজ

  • মারা গেছেন ক্রিকেটার সাকিবের দাদি

  • ভ্যালেন্টাইনে অপূর্ব-সাবিলার চমক

  • কৃষিপণ্যের উৎপাদন খরচ বেঁধে দিলো সরকার

  • ঢাকা ইনার রিং রোড প্রকল্প: কমবে যানজট বাড়বে গতি

  • অবৈধ মোবাইল বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু ১ জুলাই

  • করোনার টিকা আসছে ২৫ জানুয়ারির মধ্যে

  • বিদেশে রপ্তানি হচ্ছে যশোরের বাঁধাকপি 

  • বিশ্বের অন্যতম বর্ধনশীল অর্থনীতি বাংলাদেশের

  • বগুড়ার সবজি যাচ্ছে ছয় দেশে

  • কঙ্গোতে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর আরেকটি নতুন সাফল্য

  • যেখানে শেখ হাসিনা বাংলাদেশ একাকার

  • দেশের প্রথম মহাকাশ অবলোকন কেন্দ্র ফরিদপুরে

  • দেশে মাসে ২৫ লাখ মানুষকে টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা সরকারের

  • ‘১২ বছরে দেশ উন্নয়নের সব সূচকে যুগান্তকারী মাইলফলক স্পর্শ করছে’

  • দৃশ্যমান হচ্ছে খুলনা-মোংলা রেলসেতু

  • ৫০ হাজার টন সার আমদানির অনুমোদন

  • ৭৭ উন্নয়ন প্রকল্পে বদলে যাচ্ছে কক্সবাজার

  • ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের জন্য নতুন তহবিল

  • বঙ্গবন্ধুর নামে ৪ দেশে ৫ স্কুল প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ

  • বঙ্গবন্ধুর প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ উপলক্ষে স্মারক ডাকটিকিট

  • মাত্র এক যুগেই দেশকে বদলে দিয়েছে সরকার

  • দেশের লবণশিল্পকে আরও সমৃদ্ধ করতে স্বল্পসুদে ঋণ দিচ্ছে সরকার

  • পরীক্ষার জন্য টিকা উৎপাদনের অনুমতি পেলো গ্লোব বায়োটেক

  • দেশের প্রথম সম্পূর্ণ স্বয়ংক্রিয় দুগ্ধ খামার রংপুরে

  • বাহরাইন দূতাবাসের বঙ্গবন্ধু কর্নার উদ্বোধন

  • বাংলাদেশকে এখন সারাবিশ্ব সম্মান করে: প্রধানমন্ত্রী

  • করোনা প্রতিরোধী নাকের স্প্রে তৈরি করলো বাংলাদেশি বিজ্ঞানীরা

  • ‘ভারতীয় রেলের চেয়ে উন্নত হবে বাংলাদেশের রেলওয়ে’

  • তিনি তো ফিরে আসবেনই

  • বারোমাসী আম বাগান করে স্বাবলম্বী গাইবান্ধার তিন তরুণ

  • একটি সিদ্ধান্তই বাংলাদেশের ভাবমূর্তি পরিবর্তন করে দিয়েছে

  • খাল দৃষ্টিনন্দন করতে হাজার কোটি টাকার প্রকল্প

  • প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ভর্তিতে পরীক্ষা নয়