শুক্রবার   ০৫ জুন ২০২০

ব্রেকিং:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ খালেদার অনুপস্থিতিতেই কারাগারে বিচার চলবে রব ও মান্নার বিয়ে যুক্তফ্রন্টে, পরকীয়া ঐক্যফ্রন্টে: মাহী এটা জোট নয়, ঘোট : তথ্যমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় পেলেন সিনহা আবারও সরকার গঠনে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পদ্মা সেতু প্রকল্পের নামফলক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী
২৪৫

‘করোনা রোধে ডাক্তারদের অগ্রগণ্য ভূমিকা পালন করতে হবে’

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭ এপ্রিল ২০২০  

করোনাভাইরাস মহামারী প্রাদুর্ভাবে কোভিড-১৯ রোগীর সুনামি ঠেকাতে বহু ডাক্তারকে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে বলে মত দিয়েছেন ভারতের বিখ্যাত কার্ডিয়াক সার্জন ডা. দেবি প্রসাদ শেঠি। এমনকি মেডিকেলের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থীদেরও কোভিড-১৯ রোগীর ওয়ার্ডে পাঠানোর পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস বিষয়ে ভারতের লাইভমিন্ট পত্রিকাকে সাক্ষাৎকার দেন ভারতের খ্যাতনামা বহু বিশেষায়িত চেইন হাসপাতাল ‘নারায়ণ হেলথ ফাউন্ডেশনে’র চেয়ারম্যান ও প্রতিষ্ঠাতা ডা. দেবি প্রসাদ শেঠি।

তার চার দশকের ক্যারিয়ারে বহু গরিবকে বিনামূল্যে অপারেশন করেছেন।

দেবি শেঠি বলেন, মহামারী করোনা মোকাবেলায় ভারত জরুরি স্বাস্থ্য অবস্থার মুখোমুখি। যদি আমরা প্রতিটি স্তর থেকে সব স্বাস্থ্য উপকরণ নিয়ে মাঠে নামতে না পারি তাহলে ইতালির মতো ভয়াবহ পরিস্থিতির মুখোমুখি হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছি। সম্প্রতি ভারতের লাইভমিন্ট পত্রিকাকে দেয়া তার সাক্ষাৎকারটি তুলে ধরা হল।

করোনাভাইরাস এবং ইবোলা, সোয়াইন ফ্লু বা অন্য কোনো মহামারীর মধ্যে পার্থক্য কি, যা ভারত এর আগেও মুখোমুখি হয়েছে?

দেবি শেঠি : পার্থক্য হল এ ভাইরাস চরম সংক্রামক। এটি আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসার কয়েক মিনিটের মধ্যেই ছড়ায়। এটি বায়ুবাহিত না হলেও এর মারাত্মক দিক হল এটি হাঁচি-কাশির ফোঁটা থেকে ছড়ায়।

উদাহরণস্বরূপ, যদি আক্রান্ত কেউ মোবাইল ফোনের ওপর হাঁচি দেয় এবং আপনি সেই মোবাইলটি নিলেন, আপনি ভাইরাসের সংস্পর্শে চলে এলেন। এটি দাবানলের মতো ছড়ায়, যেমনটি পুরো বিশ্বে ঘটছে।


একজন থেকে তিনজনে, এভাবে গুণিতক হারে ছড়াচ্ছে। ইতালি এর সঠিক উদাহরণ। দেশটিতে তিন সপ্তাহের কম সময়ে ৩০০ থেকে দুই হাজার জনে সংক্রমিত হয়েছে। এ ভাইরাস মানুষ মারছে না, বরং বিশ্বের পুরো স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে হত্যা করছে।

মহামারী মোকাবেলায় ভারতের জনস্বাস্থ্য কতটুকু প্রস্তুত?

দেবি শেঠি : যুক্তরাজ্যের শক্তিশালী জাতীয় স্বাস্থ্যসেবা ও যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা এ ভাইরাস মোকাবেলায় সমর্থ হচ্ছে না। ব্যাঙ্গালুরুতে আমাদের মাত্র এক হাজার ভেন্টিলেটর রয়েছে। যদি ভাইরাস ভয়াবহভাবে ছড়ায়, আমাদের ভেন্টিলেটর ঘাটতিতে পড়তে হবে।

আমরা যদি এখনই কার্যকরী পদক্ষেপ না নেই তাহলে ডাক্তারদেরই সিদ্ধান্ত নিতে হবে, কে বাড়ি ফিরে যাবে এবং মারা যাবে আর কাকে হাসপাতালেই মরতে হবে।

এটি কতটা ধ্বংসাত্মক! আর এমনটাই ঘটছে ইতালি এবং যুক্তরাষ্ট্রে। তাহলে আপনিই অনুধাবন করুন, ভারতের পরিস্থিতি কেমন।

সংক্রমণ হ্রাসে সরকার চেষ্টা করছে, কিন্তু আমাদের নাগরিকরা কি যথেষ্ট করছে?

দেবি শেঠি : ভারতের শিক্ষিত শ্রেণিই বেশি হতাশ করছে। আমাদের নিজেদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য সামাজিক দূরত্ব দরকার। এটি বাধ্য করতে সরকার কারফিউ, ১৪৪ ধারা জারিসহ বহু কিছু করেছে। বাধ্যতামূলক লকডাউন ছাড়া সরকারের হাতে বিকল্প কিছু নেই। আমরা এসব উপেক্ষা করছি।

আমাদের ভারতে ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে এখনই স্বাস্থ্য সামগ্রী নিয়ে মাঠে নামতে হবে। আমাদের স্থানীয় কোম্পানির মাধ্যমে এখনই গণহারে ভেন্টিলেটর ও ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম (পিপিই) উৎপাদন শুরু করা দরকার। ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের (ডিআরডিও) মতো সংস্থাকেও এ মিশনে এগিয়ে আসতে হবে।

ডাক্তার ও স্বাস্থ্যকর্মী সংকটের ব্যাপারে কি বলবেন?

দেবি শেঠি : হ্যাঁ, ইতালির সবচেয়ে বড় সমস্যা হল দক্ষ জনশক্তি ও বেডের অভাব। তাহলে তারা কি করেছিল? দেশটির মেডিকেল কাউন্সিল কোর্স শেষ হওয়ার নয় মাস আগেই শিক্ষার্থীদের সার্টিফিকেট প্রদান করতে সব বিশ্ববিদ্যালয়কে নির্দেশনা দিয়েছিল। এই প্রক্রিয়ায় ইতালি তাৎক্ষণিকভাবে জরুরি মুহূর্তে ১০ হাজার ডাক্তার পেয়েছিল। ভারতেও এখনই এই প্রক্রিয়া অনুসরণ করা দরকার।

ভারতে অধিক পরিমাণে আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় এগুলো কতটুকু সম্ভব?

দেবি শেঠি : ডাক্তাররাই আমাদের সম্পদ। আমাদের ৫০ হাজার ডাক্তার, বিশেষজ্ঞ ও মেডিকেল শিক্ষার্থী রয়েছে। আমাদের আরও প্রায় ২০ হাজার শিক্ষার্থী চীন এবং রাশিয়া থেকে মেডিসিনের ওপর স্মাতক করেছেন। পরীক্ষার বিড়ম্বনায় মেডিকেল শিক্ষার্থীদের বন্দি করবেন না। তাদের যোগ্য হিসেবে সার্টিফিকেট দিন এবং এই জরুরি মুহূর্তে স্বাস্থ্যসেবায় নিয়োজিত করুন।

আমরা জানি, কোনো ডাক্তার কোভিড ইউনিটে দৈনিক ৬ ঘণ্টার বেশি কাজ করতে পারেন না। এজন্য আমাদের ডাক্তারদের বিশাল বহর প্রয়োজন। ভারতের রাজ্যগুলোতে বহু মেডিকেল কলেজ ও টিচিং হাসপাতাল রয়েছে। সবগুলো খুলে দিন এবং এসব হাজার হাজার শিক্ষানবিস ডাক্তারকে করোনা আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসায় নিয়োজিত করুন।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো ভারতেও অনলাইন পরামর্শ এবং ই-প্রেসক্রিপশনের বৈধতা দিতে হবে। সংকটকালীন এ সময়ে সব রোগীকে আমরা হাসপাতালে আসতে বলতে পারব না।

সব ধরনের আইনি মারপ্যাঁচ শিথিলতায় মেডিকেল কাউন্সিল অব ইন্ডিয়াকে কঠিন এ সময়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে।

আরও পড়ুন
সাক্ষাৎকার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • চলচ্চিত্র কর্মীদের ৩ কোটি টাকা অনুদান দিচ্ছে তথ্য মন্ত্রণালয়

  • জাতিসংঘ পুরস্কার পেল ভূমি মন্ত্রণালয়

  • ৩ হাজার মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট নিয়োগে অনুমোদন দিলেন প্রধানমন্ত্রী

  • করোনা চিকিৎসায় যে ৬টি বিষয় মনে রাখতে হবে

  • করোনা মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে ২৪ প্রতিষ্ঠানের অনুদান

  • ‘চেষ্টা করে যাচ্ছি দেশের মানুষকে সুরক্ষিত করতে’

  • আইনমন্ত্রীর করোনা নিয়ে গুজব ছড়ানোয় গ্রেফতার ১

  • আইনমন্ত্রীর করোনা আক্রান্তের খবর সত্য নয়, তিনি সুস্থ আছেন

  • জাতিসংঘ পদক পেলেন বাংলাদেশের তিন ক্রীড়াবিদ

  • প্লাজমা দেওয়ার আগে যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখতে হবে

  • রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে যে খাবারগুলো বর্জন করতে হবে

  • করোনার চিকিৎসায় হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইনের অনুমতি দিল ডব্লিউএইচও

  • করোনার ভ্যাকসিনগুলোর সফলতা আশাব্যঞ্জক

  • ‘করোনা পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশের সম্ভাবনা অনেক বেশি’

  • করোনা বিস্তার রোধে ‘করোনা ট্রেসার বিডি’ অ্যাপ চালু 

  • রাজধানীতে আম সরবরাহে আজ থেকে বিশেষ ট্রেন

  • সরকারি কর্মকর্তাদের চিকিৎসা দেবে বিশেষ হাসপাতাল

  • সিলেটে করোনাকালে বিনা পয়সায় চা খাওয়ান এক নারী উদ্যোক্তা

  • ভূমিমন্ত্রীর নির্দেশে আইসোলেশন সেন্টার হচ্ছে আনোয়ারায়

  • ৩ হাজার মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট নিয়োগে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন

  • প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে আইডিএলসির ২ কোটি ৪০ লাখ টাকা অনুদান

  • করোনা সঙ্কটে আঙ্গিনায় সবজি চাষ: পারিবারিক কৃষিতে জোর

  • নৌপথে স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে সতর্ক করলেন নৌ প্রতিমন্ত্রী

  • ওয়াসা কর্মীদের খোঁজ নিতে পানি শোধনাগারে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

  • প্রতিবন্ধীদের মাঝে যুবলীগের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

  • বিশ্ব পরিবেশ দিবস আজ

  • বাড়িতে অফিস করার সুযোগ পেলেন কেন্দ্রীয় ব্যাংক কর্মীরা

  • বাজেট অধিবেশনের ৭২ ঘণ্টা আগে থেকে সংসদ এলাকায় ১৪৪ ধারা 

  • পরিবহন খাতে চাঁদাবাজি বন্ধে ঐক্যমত

  • পদোন্নতি পেলেন ১০৯ চিকিৎসক, প্রজ্ঞাপন জারি

  • ইভারম্যাকটিন, ডক্সিসাইক্লিন ব্যবহারে করোনা মুক্তির হার বেড়েছে

  • প্রত্যেক জেলা হাসপাতালে আইসিইউ নিশ্চিতের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  • আম্ফান-কাল বৈশাখীর ক্ষতিতেও পূরণ হবে বোরোর লক্ষ্যমাত্রা

  • প্রধানমন্ত্রীকে ফোন করে জাতিসংঘ মহাসচিবের শুভেচ্ছা

  • মসলা মিশ্রিত হালকা গরম পানিতে উপকৃত হচ্ছেন করোনা রোগীরা

  • জুন মাসেই প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা পাবে জামা-জুতা কেনার টাকা

  • বিএনপি’র চিন্তাধারা একপেশে: তথ্যমন্ত্রী

  • চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে দুর্যোগ সহনীয় ঘর পেল ১৬ পরিবার

  • স্পটে কাউকে পাওয়া না গেলে ধরে নেবেন তার চাকরি নেই: তাপস

  • যেকোনো সঙ্কটে আত্মবিশ্বাসটাই সবচেয়ে বড়: প্রধানমন্ত্রী

  • বঙ্গবন্ধুর ছবিযুক্ত ডাকটিকিট অবমুক্ত করল জাতিসংঘ

  • শান্তিরক্ষীদের অবদান দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে: প্রধানমন্ত্রী

  • সোনালী ই-সেবা: ২ মিনিটেই খোলা যাবে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট

  • বিশ্ব পরিবেশ দিবস আজ

  • করোনায় বন্ধ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে টিউশন ফি আদায় করলে কঠোর ব্যবস্থা

  • দৃশ্যমান হলো পদ্মাসেতুর সাড়ে ৪ কি.মি.

  • চীন থেকে করোনা মেডিকেল টিম আসছে ৮ জুন

  • প্রথমবারের মতো শান্তিরক্ষীদের বহন করল বাংলাদেশ বিমান

  • ৪ জুন ১৯৫৭:প্রথম বাঙালি হিসাবে চা বোর্ডের চেয়ারম্যান হন বঙ্গবন্ধু

  • গ্রামাঞ্চলেও চালু হচ্ছে এটিএম ও পয়েন্ট অব সেলস মেশিন

  • এবার স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদ্রাসা জাতীয়করণের উদ্যোগ

  • বাইরে চলাচলে মাস্ক না পরলে অনুযায়ী ব্যবস্থা

  • অর্ধেক যাত্রী নিয়ে আগের ভাড়ায়ই চলবে ট্রেন

  • ২০২১ সালের মধ্যে দেশের ৯০ শতাংশ সেবা অনলাইনে দেওয়া হবে

  • করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রচেষ্টায় ৬ দেশের একাত্মতা

  • এবারো কোটি টাকা লিচু বিক্রির আশা

  • রেলওয়ে হাসপাতালে সুরক্ষা সামগ্রী দিলো যুক্তরাষ্ট্র

  • ‘প্রধানমন্ত্রী ইতিহাসের বৃহত্তম ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনা করছেন’

  • করোনা সঙ্কটেও মে মাসে দেশে এসেছে দেড় বিলিয়ন ডলার রেমিটেন্স

  • বাংলাদেশে ৬৪১৭ কোটি বিনিয়োগ করবে এডিবি