শনিবার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

ব্রেকিং:
৫ মাস পর খুললো বিনোদনকেন্দ্র, দর্শনার্থীর উপস্থিতি কম ইউপি তথ্যসেবা কেন্দ্রের মাধ্যমে এনআইডি সেবা দেওয়ার উদ্যোগ বরিশালে পারিবারিক কৃষিতে সফলতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ খালেদার অনুপস্থিতিতেই কারাগারে বিচার চলবে রব ও মান্নার বিয়ে যুক্তফ্রন্টে, পরকীয়া ঐক্যফ্রন্টে: মাহী এটা জোট নয়, ঘোট : তথ্যমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় পেলেন সিনহা আবারও সরকার গঠনে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পদ্মা সেতু প্রকল্পের নামফলক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী
১৯৯

‘একজন দক্ষ সামরিক কর্মকর্তা ছিলেন মেজর (অব.) সিনহা’

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৮ আগস্ট ২০২০  

 

নিউজ ডেস্ক: কক্সবাজার জেলার মেরিন ড্রাইভে পুলিশের গুলিতে নিহত হন মেজর (অব.) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান।  এ ঘটনায় সংবাদ মাধ্যম এবং ইন্টারনেট ভিত্তিক সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম এখন সরগরম। টেকনাফ পুলিশ নিয়ে আলোচনা সমালোচনা থাকলেও সাধারণ মানুষের আগ্রহ মেজর (অব.) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদের ব্যক্তি জীবন ও সামরিক জীবন সম্পর্কে। 

মেজর (অব.) সিনহা রাশেদ ছিলেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে কর্মরত একজন চৌকস সেনা কর্মকর্তা। দীর্ঘদিন নিজের জীবন বাজি রেখে ২০০৯ সাল থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত এসএসএফ-এর সদস্য হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা রক্ষার মতো অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ  দায়িত্ব পালন করেছিলেন মেজর (অব.) সিনহা। তিনি ২০১৫-১৬ সালে ডিফেন্স সার্ভিসেস কম্যান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ থেকে সাফল্যের সঙ্গে সামরিক শিক্ষার ওপর সর্বোচ্চ ডিগ্রি সম্পন্ন করেছিলেন। একটি স্বতন্ত্র ব্রিগেড এর ব্রিগেড মেজর (বিএম) হিসেবে ২০১৬ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত তিনি দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও এই দক্ষ সামরিক কর্মকর্তা জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট এ অবস্থিত বাংলাদেশ সামরিক বাহিনীর বিশেষ প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট SI&T এর প্রশিক্ষক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। তিনি Basic Para Commando (BPC) সম্পন্ন করা একজন সামরিক কর্মকর্তা ছিলেন। দেশের হয়ে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনেও অংশ নিয়েছিলেন সিনহা।  

এর আগে ১৯৯৯ সালে কুর্মিটোলা শাহীন স্কুল এন্ড কলেজ থেকে এসএসসি পাশ করে একাদশ শ্রেণিতে রাজউক কলেজে অধ্যয়ন করেন সাবেক সামরিক এই কর্মকর্তা। লেখাপড়ায়, আচার-আচরণে, শৃঙ্খলায় এবং ব্যক্তিত্বে বিশেষ স্থান দখল করেছিলেন কলেজ জীবন থেকেই। সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান রাজউক কলেজের একজন মেধাবী শিক্ষার্থী ছিলেন। 

সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ লেখাপড়ার মূল কর্তব্য যথার্থভাবেই ঠিক রেখে কলেজের শৃংখলা রক্ষায় দুই বছর নিরবিচ্ছিন্নভাবে গুরুদায়িত্ব পালন করেছিলেন। কলেজ বিএনসিসি কন্টিনজেন্টের কমান্ডার, এ্যাসিসটেন্ট কলেজ ক্যাপ্টেন, কলেজের কালচারাল প্রোগ্রামগুলো অর্গানাইজ করা, খেলার মাঠে দুরন্ত গতির সিনহা ছিলেন এক কথায় বাস্তব জীবনের একজন অলরাউন্ডার।

মেজর (অব.) সিনহা রাশেদ সম্পর্কে রাজউক কলেজের একজন শিক্ষক বলেন, আমাদের বাস্কেটবল গ্রাউন্ডে ছিপছিপে গড়ন আর প্রাণশক্তিতে ভরপুর সিনহাকে আটকানো প্রতিপক্ষের জন্য ছিল প্রায় অসম্ভব। টেবিল টেনিস খেলতো কোন ম্যাজিশিয়ানের ম্যাজিক দেখানের মতো। অসাধারণ এক নেতৃত্বগুণ নিয়ে জন্মেছিল আমাদের সিনহা। কলেজের শৃঙ্খলা রক্ষার কাজে ও কখনোই কোন জুনিয়রের প্রতি কোন নিষ্ঠুর আচরণ করেছে এমনটা শুনিনি। অথচ জুনিয়ররা তাদের সিনহা ভাইকে খুব ভয় পেতো, কিন্তু সে ভয় ছিল নিশ্চিতভাবেই শ্রদ্ধা ও সম্মান থেকে। কারণ যে কারো সমস্যা সে বুদ্ধিদীপ্ত কৌশল দিয়েই সমাধানে ছিল অসামান্য পারদর্শী।

এই শিক্ষকের ভাষ্য, সিনহার প্রাতিষ্ঠানিক পড়ালেখা মূলত রাজউক কলেজেই শেষ হয়। এরপর সে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে যোগ দিয়ে তার পেশাগত জীবনে অনেক কোর্স করেছে বা ডিগ্রি নিয়েছে। শিক্ষক হিসেবে আমার অভিজ্ঞতা থেকে তার কলেজ জীবনের যে বৈশিষ্ট্যগুলোর কথা বললাম এগুলো আসলে অনেক কম বলেছি। ছেলেটি যে আসলে কী ধরনের বিরল স্বভাবের ও গুণের অধিকারি ছিল তা কোন ভাবেই বলে শেষ করা যাবে না। এটা কেবল ওর পরিবার, আমরা যারা ওকে চিনতাম, ওর বন্ধুমহল আর সহকর্মীরাই জানে ওর অসাধারণ মানবীয় গুণাবলী সম্পর্কে।

এদিকে সিনহাকে চিরদিনের জন্য কবরে শায়িত করার পূর্বে শোকে জর্জরিত মা নাসিমা আক্তার তার ছেলের সম্পর্কে কতগুলো তথ্য দিয়েছেন যা এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। মায়ের প্রতি নিখুঁতভাবে দায়িত্বপালন করা, দেশভ্রমণ করা, বই পড়ার প্রচণ্ড নেশা, সাগর সৈকতে বসে বই পড়তে পছন্দ করা, ঘরের সবকিছু গুছিয়ে রাখা ইত্যাদি অসংখ্য ইতিবাচক ও মানবিক গুণের পরিচয় আমরা জানতে পেরেছি। সিনহার বাবা মোঃ রাশেদ খান ছিলেন একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলায় সিনহাদের আদিনিবাস। অর্থ মন্ত্রণালয়ের উপ সচিব হিসেবে কর্মরত সিনহার বাবা ২০০৭ সালে মারা যান।

বাবা মারা যাবার পর মাত্র ২৩ বছর বয়স থেকেই মা মিসেস নাসিমা আক্তার আর দুই বোনকে নিয়ে পরিবারের যাবতীয় দায়িত্ব একজন দক্ষ নাবিকের মতো পালন করেছেন। অর্থাৎ ঘরে এবং বাইরে সর্বত্র মেজর (অবঃ) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান রেখে গেছেন শৃঙ্খলা এবং কর্তব্যপরায়ণতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস উত্তরার টার্কিস হোপ ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের একজন সিনিয়র ফ্যাকাল্টি আর ছোটবোন এক্স রাজুকিয়ান ফারাহ ফেরদৌস অমেরিকায় সপরিবারে স্থায়ী হয়েছেন। 

মেজর (অবঃ) সিনহা সম্পর্কে বড় বোন শারমিন ফেরদৌস শুধু একটি বাক্য ব্যবহার করে বলেন, ‘সিনহা ছিল আমাদের সবার শক্তির উৎস, মোটিভেশনের উৎস।’ শোকাহত ও বিপর্যস্ত মা আর দুইবোনের এখন একটাই চাওয়া এই নিষ্ঠুর হত্যার উপযুক্ত বিচার। 

উল্লেখ্য, শুক্রবার (৩১ জুলাই) রাত সাড়ে ১০টার দিকে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত সাবেক মেজর সিনহা রাশেদ খান। এ ঘটনায় চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ মিজানুর রহমানকে প্রধান করে একটি উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত কমিটি গঠন করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জন ও নিরাপত্তা বিভাগ। একইভাবে তদন্তের স্বার্থে টেকনাফের বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ লিয়াকত আলিসহ ১৬ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়। এরমধ্যে সিনহার বোনের দায়ের করা মামলায় বাহারছড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক লিয়াকতকে প্রধান আসামি ও টেকনাফ থানার প্রত্যাহারকৃত ওসি প্রদীপ কুমার দাসকে দ্বিতীয় আসামি করে আরও ৯ পুলিশ সদস্যকে আসামি করা হয়। যাদের আদালত গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেন। এছাড়াও ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও ইন্সপেক্টর লিয়াকত আলীসহ তিনজনকে সাত দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত। এ মামলায় কারাগারে পাঠানো বাকি চার পুলিশকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য আদেশ দিয়েছেন আদালত।

উক্ত চৌকস সেনা কর্মকর্তাকে নিয়েও সোশ্যাল মিডিয়ায় অপরাজনীতি করছে একটি চক্র। ব্যক্তি চরিত্র হনন থেকে শুরু করে সরকারের সাথে তার কথিত টানাপোড়েন নিয়ে মুখরোচক অনেক গল্পও তৈরি করছে অনেকে। আসুন আমরা একজন নিহত দেশপ্রেমিক সেনা কর্মকর্তার বিপক্ষে কুৎসা বা গজব রটনা না করে সকলেই তার হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে একত্রিত হই।

আরও পড়ুন
জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • নতুন সম্ভাবনা সুন্দরবনে, ২৫ কোটি টাকার প্রকল্প গ্রহণ

  • শুরুর আগেই সরে দাঁড়ালেন ম্যাকমিলান

  • সিনেমায় আসছেন না মেহজাবীন

  • ভারত থেকে এলো আরও ১৯৯ মেট্রিক টন পেঁয়াজ

  • নিজ মাদ্রাসায় চিরনিদ্রায় শায়িত আল্লামা শফী

  • মিয়ানমার থেকে এসেছে ৩০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ

  • ভোমরা বন্দর দিয়ে ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানি শুরু

  • আধা ঘণ্টায় গাজীপুর, বদলে যাবে উত্তর দিগন্ত

  • করোনায় ১১.২ বিলিয়ন আর্থিক সহায়তা দিয়েছে এডিবি

  • ১০ জেলায় মাছের উৎপাদন বাড়বে ৬৩ হাজার টন

  • ২৫ হাজার টন পেঁয়াজ রফতানির অনুমতি দিল ভারত

  • ঘুরে দাঁড়াচ্ছে বাংলাদেশের অর্থনীতি

  • গোপালগঞ্জে বাড়ছে ভাসমান সবজি চাষ

  • শিশু শিক্ষার আধুনিক অ্যাপ তৈরি করলো চুয়েট শিক্ষার্থীরা

  • বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ হবে নারায়ণগঞ্জে

  • মহামারি কাটিয়ে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে বাংলাদেশের অর্থনীতি: ওয়াশিংটন পোস্ট

  • করোনায় একমাত্র আওয়ামী লীগই মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

  • শেখ হাসিনাঃ একজন মানবিক নেতা ও ফেনী নদী চুক্তি

  • আইনের বাইরে এ শহরে কেউ  কিছু করতে পারবেন না : মেয়র আতিকুল

  • তিস্তা প্রকল্পে বদলে যাবে উত্তরাঞ্চলের ৫ জেলার মানুষের ভাগ্য  

  • করোনাকালেও খাদ্য উৎপাদনে রেকর্ড বাংলাদেশের

  • পেঁয়াজ আমদানি প্রক্রিয়া সহজ করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে

  • মাদক চালান রোধে শিগগির শুরু হচ্ছে মেরিন ইউনিটের কার্যক্রম 

  • সরকারি চাকরিতে বয়স ছাড় দিতে মন্ত্রণালয়গুলোকে নির্দেশ

  • ঘুষ-দুর্নীতিমুক্ত প্রশাসনিক ব্যবস্থা গড়তে চাই: প্রধানমন্ত্রী

  • অটিস্টিক শিশুর স্বপ্ন পূরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী

  • শাহজালাল বিমানবন্দরে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচল শুরু

  • ১৪ অক্টোবর থেকে ২২ দিন ইলিশ ধরা বন্ধ

  • ‘পুলিশ সদস্য কোন অন্যায় করে ছাড় পাবে না’

  • বিসিএস ছাড়া সরকারি চাকরিতে বয়স ছাড়ের নির্দেশ

  • চূড়ান্ত ধাপের জন্য প্রস্তুত গ্লোবের ভ্যাকসিন

  • একতলা বাড়ি পাচ্ছেন অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধারা

  • ৫ দেশ থেকে আসছে ১২ হাজার টন পেঁয়াজ

  • ৬টি দেশ থেকে আসছে ৪০ হাজার টন পেঁয়াজ

  • বেড়েছে রপ্তানি, ফিরছে পাটের সোনালি অতীত

  • পর্যটকদের জন্য চালু হচ্ছে ‘হোম স্টে’ সার্ভিস

  • ক্যামব্রিজকে পেছনে ফেলে দ্বিতীয় স্থানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

  • এগিয়ে চলেছে ঢাকা-চট্টগ্রাম ডাবল রেল লাইন নির্মাণের কাজ 

  • ইউএনডিপির নির্বাহী সদস্য হলো বাংলাদেশ

  • লবণাক্ততা সহনশীল ধানের নতুন ৩টি জাত উদ্ভাবন করলো ব্রি

  • ৪ পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় উন্নত বাংলাদেশ বাস্তবায়নের রূপরেখা

  • নোবেল পুরস্কারের জন্য মনোনীত হলেন বাংলাদেশি চিকিৎসক আবিদ

  • মাথা তুলে দাঁড়িয়েছে মেট্রোরেলের উত্তরা দক্ষিণ স্টেশন

  • জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে ফের প্রথম স্থানে বাংলাদেশ

  • উচ্চতর গ্রেড পাচ্ছেন ৭ হাজার শিক্ষক

  • ৮০ টাকা কেজি পেঁয়াজ, ৬ ব্যবসায়ীকে জরিমানা

  • বিশ্বে মোট উৎপাদিত ইলিশের ৮৬ শতাংশই বাংলাদেশের

  • মাল্টায় স্বাবলম্বী পিরোজপুরের ৬শ’ চাষি

  • শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা ঋণ চালুর কথা ভাবছে সরকার

  • বন্ধ পাটকল শ্রমিকদের পাওনা দেওয়া শুরু

  • রাজশাহীতে দৃশ্যমান হচ্ছে বঙ্গবন্ধু নভোথিয়েটার

  • অনলাইনে কর সনদ পাবেন সঞ্চয়পত্রের গ্রাহক

  • আসছে ১৬৫ ট্রাক পেঁয়াজ

  • আজ কলকাতার বাজারে উঠছে পদ্মার ইলিশ

  • চামড়া শিল্পে ন্যূনতম মজুরি ৭১০০ টাকা চূড়ান্ত

  • প্রয়োজনীয় জিনিস কিনতে শিক্ষার্থীদের আমরা এক হাজার করে টাকা দেব

  • অনলাইনেও কেনা যাবে টিসিবির পেঁয়াজ

  • চলতি অর্থবছরে বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি হবে ৬.৮ শতাংশ: এডিবি

  • চলতি মাসে প্রবাসী আয়ে বড় ধরনের উত্থান

  • কাজকর্ম স্বাভাবিক: ঘুরে দাঁড়াচ্ছে দেশের অর্থনীতি