সোমবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২০

ব্রেকিং:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ খালেদার অনুপস্থিতিতেই কারাগারে বিচার চলবে রব ও মান্নার বিয়ে যুক্তফ্রন্টে, পরকীয়া ঐক্যফ্রন্টে: মাহী এটা জোট নয়, ঘোট : তথ্যমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় পেলেন সিনহা আবারও সরকার গঠনে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর পদ্মা সেতু প্রকল্পের নামফলক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী
৩১৯

ইতিহাসে ৬ ডিসেম্বর: বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দিয়েছিল ভারত

প্রকাশিত: ৬ ডিসেম্বর ২০১৯  

১৯৭১ সালের ৬ ডিসেম্বর ছিল সোমবার। এ দিনটি ছিল স্বাধীনতাকামী জনতার জন্য খুবই সুখের দিন। কোমল হৃদয়ের বাঙালিরা যে সময়ের প্রয়োজনে পাথর-কঠিনও হতে পারে তা জানিয়ে দিয়েছিল মহান মুক্তিযুদ্ধে। ঢাকা বিমানবন্দর অকেজো হওয়ায় পাকিস্তান বিমানবাহিনীর পাইলটগণ তৃতীয় দেশের সাহায্যে বাংলাদেশ ত্যাগ করে। এদিন দখলমুক্ত হয় যশোর ও কুড়িগ্রামসহ বেশকিছু জনপদ। দেশের প্রথম মুক্ত জেলা শহর হিসেবে নিজেদের নাম ইতিহাসে লিখিয়ে নেন যশোর বীরযোদ্ধারা।

এদিকে ভারত এদিন স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেয় বাংলাদেশকে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী শ্রীমতি ইন্দিরা গান্ধী সংসদে দাঁড়িয়ে ‘স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ’ হিসেবে স্বীকৃতি দেন। এর সূত্র ধরে পাকিস্তান ভারতের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে।

বাংলা একাডেমি প্রকাশিত কবি আসাদ চৌধুরীর ‘বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ’ শীর্ষক গ্রন্থে এদিনের ঘটনা প্রবাহ তুলে ধরা হয়েছে এভাবে- ‘নিয়াজীর নির্দেশে পাকবাহিনী বেসামাল হয়ে পড়ে। এগোনো অসম্ভব, পিছু হটা আরও অসম্ভব। ময়নামতি, জামালপুর, হিলি, চট্টগ্রামে ওরা যেভাবে ছিলো সেভাবেই রয়ে গেল কিন্তু সিলেট এবং যশোরের ঘাঁটি ছেড়ে পালালো। মিত্রবাহিনী একই চেষ্টা করছে যাতে পাকবাহিনী কোথাও জড়ো হতে না পারে। এরই মধ্যে (ভারতের প্রধানমন্ত্রী) শ্রীমতি ইন্দিরা গান্ধী তুমুল করতালির মধ্যে সংসদে বাংলাদেশ সরকারকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি প্রদান করলেন। এর ফলে বাংলাদেশের জনগণ বিপুলভাবে মিত্রবাহিনীর সাহায্যে এগিয়ে এলেন। একজন অধ্যাপক টিনের বহর মাথায় নিয়ে গেছেন তিন মাইল, মহিলারা পর্যন্ত ব্রিজ তৈরিতে সাহায্য করেছেন।’

এদিন ভারত সরকারের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয় বাংলাদেশ সম্পর্কে কূটনৈতিক স্বীকৃতি। বেলা এগারোটার সময় ‘অল ইন্ডিয়া রেডিও’ মারফত ঘোষণা করা হলো, ভারত বাংলাদেশকে সার্বভৌম রাষ্ট্র বলে স্বীকৃতি দিয়েছে। ভারতের পার্লামেন্টের বিশেষ অধিবেশনে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশকে স্বীকৃতি প্রদানের প্রস্তাব উত্থাপন করে প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী বলেন, ‘বাংলাদেশের সব মানুষের ঐক্যবদ্ধ বিদ্রোহ এবং সেই সংগ্রামের সাফল্য এটা ক্রমান্বয়ে স্পষ্ট করে তুলেছে যে তথাকথিত মাতৃরাষ্ট্র পাকিস্তান বাংলাদেশের মানুষকে স্বীয় নিয়ন্ত্রণে ফিরিয়ে আনতে সম্পূর্ণ অসমর্থ। বাংলাদেশ সরকারের বৈধতা সম্পর্কে বলা যায়, গোটা বিশ্ব এখন সচেতন যে তারা জনগণের বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠ অংশের আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটায়, জনগণকে প্রতিনিধিত্বকারী অনেক সরকারই যেমনটা দাবি করতে পারবে না। গভর্নর মরিসের প্রতি জেফারসনের বহু খ্যাত উক্তি অনুসারে বাংলাদেশের সরকার সমর্থিত হচ্ছে ‘পরিপূর্ণভাবে প্রকাশিত জাতির আকাঙ্ক্ষা বা উইল অব দ্য নেশন’ দ্বারা। এই বিচারে পাকিস্তানের সামরিক সরকার, যাদের তোষণ করতে অনেক দেশই বিশেষ উদগ্রীব, এমনকি পশ্চিম পাকিস্তানের জনগণেরও প্রতিনিধিত্ব করে না।’

পাকিস্তান সরকারের আমলা, মুক্তিযুদ্ধকালীন বাংলাদেশ সরকারের সচিব ও বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অন্যতম উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম তার ‘বাংলাদেশ সরকার ১৯৭১’ গ্রন্থে সেদিন ভারত সরকারের তৎপরতার কথা স্মরণ করেন এভাবে, ‘৬ ডিসেম্বর সকালে আমরা কয়েকজন সচিব ও কর্মকর্তা ভারতীয় উচ্চপর্যায়ের সফরকারী দলের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হয়। ভারতীয় দলে ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয়, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, পরিকল্পনা কমিশন, অর্থ এবং ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা। বৈঠক চলার সময়েই লক্ষ্য করলাম চারদিকে একটা চাঞ্চল্য। পাশের ঘরে রেডিও শোনা যাচ্ছে। গভীর আগ্রহের সঙ্গে ভারতীয় কয়েকজন কর্মকর্তা রেডিও শুনছেন। ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী পার্লামেন্টে ভাষণ দিচ্ছেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই মিসেস গান্ধীর দৃঢ় এবং সুস্পষ্ট কণ্ঠ ভেসে এল। ভারত সরকার বাংলাদেশকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ভারতীয় পার্লামেন্টে তুমুল হর্ষধ্বনি আর করতালি দিয়ে সকলে সংবাদটিকে স্বাগত জানালেন। বিকেল ৪টায় অস্থায়ী প্রেসিডেন্টের অফিস কক্ষে মন্ত্রিসভার জরুরি বৈঠক আহ্বান করা হলো কয়েক ঘণ্টার ব্যবস্থায়। এতে বিশেষ কয়েকটি বিষয় সংশ্লিষ্ট ছিল বিধায় সচিবরা নিজেদের মধ্যে কার্যপত্র প্রস্তুতের দায়িত্ব বণ্টন করে নিয়েছিলেন।’

আরও কিছু দালিলিক প্রমাণে পাওয়া যায়, সেদিন ভারতের লোকসভায় দাঁড়িয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী বলেন, সতর্কতার সঙ্গে বিবেচনা করার পর ভারত বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ইন্দিরা গান্ধীর বক্তব্য শেষ না হতেই ভারতের সংসদ সদস্যদের হর্ষধ্বনি আর ‘জয় বাংলাদেশ’ ধ্বনিতে ফেটে পড়ে।

তৎকালীন দৈনিক পাকিস্তান ও আজাদ-এর খবর অনুযায়ী, এদিন ইন্দিরা গান্ধী বাংলাদেশ সরকারকে বৈধ সরকার বলেও ঘোষণা দেন। মুজিবনগর সরকারের অস্থায়ী প্রেসিডেন্ট সৈয়দ নজরুল ইসলামকে দেওয়া এক চিঠিতে ইন্দিরা গান্ধী তার এ সিদ্ধান্তের কথা জানান। তার আগেই ভুটানের রাজা জিগমে ওয়ানচুক বাংলাদেশের বাস্তব অস্তিত্বকে স্বীকার করে নিয়ে বাংলাদেশ সরকারকে বৈধ বলে স্বীকার করে নেন। বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেওয়ায় পাকিস্তান এদিন ভারতের সঙ্গে তার কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে। যুদ্ধের প্রেক্ষিতে পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন পূর্ব পাকিস্তানে অনুষ্ঠেয় উপ-নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করে। এ নির্বাচন ৭ ডিসেম্বর থেকে অনুষ্ঠিত হবার কথা ছিল।

আরও পড়ুন
জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • চীন থেকে বাংলাদেশি নাগরিকদের ফিরিয়ে আনার নিদের্শ প্রধানমন্ত্রীর

  • সব বন্দরে বসছে স্ক্যানার

  • অন্ধজনে আলো ছড়াচ্ছে মৌলভীবাজার বিএনএসবি চক্ষু হাসপাতাল

  • রমজান উপলক্ষে ৫০ হাজার টন তেল মজুত: বাণিজ্যমন্ত্রী

  • চট্টগ্রামের ভাষায় গান গাইলেন ও শুনলেন প্রধানমন্ত্রী(ভিডিও)

  • নির্বাচনে কেন ইভিএম ভালো?

  • গ্রাহককে জিম্মি করে কোটিপতি ইভ্যালি

  • আতিকুলের ইশতেহার ঘোষণা

  • সুপ্রিম কোর্টে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা শুরু

  • বাণিজ্য মেলায় জমে উঠেছে শেষ মুহূর্তের কেনাকাটা

  • ৪৮ নম্বর ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বহিষ্কার

  • পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি চুক্তি বাস্তবায়নে সরকার আন্তরিক

  • ‘নির্বাচনী প্রচারণায় সংঘর্ষে তদন্ত করে ব্যবস্থা’

  • দুই সিটি নির্বাচনে ১২৯ ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ

  • জমাদিউস সানি শুরু আজ

  • ‘ভারতের এনআরসি ইস্যুতে বাংলাদেশে প্রভাব পড়বে না’

  • একগুচ্ছ উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

  • তাপসের প্রচারণা ক্যাম্পে ইশরাক সমর্থকদের গুলি, আহত ১৭

  • ‘নির্বাচন বানচাল করতেই বিএনপির হামলা’

  • ডিজিটাল ও গ্রিন ভোটিং সফল হোক

  • ‌‘ইভিএমে অনৈতিক কাজ কোনোভাবে সম্ভব নয়’

  • ইভিএমসহ ভোটের পরিস্থিতি চার রাষ্ট্রদূতকে জানালো ইসি

  • সাময়িক স্থগিত হতে পারে বাংলাদেশ-চীন গমনাগমন

  • তৃণমূলের উন্নয়ন ছাড়া দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়: প্রধানমন্ত্রী

  • বিএনপি সাম্প্রদায়িক রাজনীতির পৃষ্ঠপোষক, বললেন কাদের

  • ভোটার তালিকা হালনাগাদে সময় বাড়িয়ে বিল পাস

  • পুকুর খনন করায় জরিমানা

  • ‘প্রবাসে কারিগরি শিক্ষার মূল্যায়ন বেশি’

  • কুমিল্লায় পুকুরে মিলল অবিস্ফোরিত মর্টার শেল

  • পুলিশ হয়রানি করলে ৯৯৯-এ কল দিন, বললেন আইজিপি

  • ভারত শিক্ষা দিয়েছে, আর পেঁয়াজ আমদানি নয়: বাণিজ্যমন্ত্রী

  • ঈদের নাটকে নোবেল-শখের সাথে উদীয়মান আশিক

  • শেখ হাসিনা মেডিক‌্যাল কলেজ হাসপাতালসহ ৮ প্রকল্প অনুমোদন

  • মওলানা ভাসানীর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ

  • সাকিব-শিশিরের জন্য রান্না করে পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী

  • ই-পাসপোর্টের জন্য ই-সিগনেচার দিলেন প্রধানমন্ত্রী

  • আইসিটি এডুকেশন অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করলেন প্রধানমন্ত্রী

  • জেনে নিন ই-পাসপোর্ট সংগ্রহ করতে কত টাকা লাগবে

  • বঙ্গবন্ধুর ভাষণের দিন এবারও নিউ ইয়র্কে ‘বাংলাদেশি ইমিগ্র্যান্ট ডে

  • পুরুষের চেয়ে বেশি আয়ে ৬৪ দেশের শীর্ষে বাংলাদেশের নারীরা

  • প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরে ই-পাসপোর্ট যুগে বাংলাদেশ

  • বঙ্গবন্ধুর সমবায় নির্দেশনায় লাভবান হবে কৃষক: প্রধানমন্ত্রী

  • ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগর’: অপরিকল্পিত শিল্পায়ন নিষিদ্ধ

  • মুজিববর্ষে দরিদ্র পরিবার পাবে পাকা বাড়ি

  • একনেকে ৮টি প্রকল্পটি অনুমোদন

  • পদ্মা সেতুর ছবি নিজের ক্যামেরায় ধারণ করলেন প্রধানমন্ত্রী

  • প্রার্থীর ওপর হামলা রোধে ইসির ব্যবস্থা নেয়া উচিত, বললেন কাদের

  • আজ গণঅভ্যুত্থান দিবস

  • মুজিববর্ষে বাড়ি পাবে ৬৮ হাজার দরিদ্র পরিবার

  • প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগে ইতিবাচক শেয়ারবাজার, বিনিয়োগকারীদের ধন্যবাদ

  • ‘প্রয়োজন হলে শিক্ষকদের বিদেশে পাঠাও’

  • ‘আবদ্ধ ঘর নির্মাণ না করে খোলামেলা ঘর নির্মাণ করতে হবে’

  • শেখ হাসিনার প্রতি গাম্বিয়ার আইনমন্ত্রীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

  • ‘বঙ্গবন্ধু পরিষদ’ ওয়েবসাইটের শুভ উদ্বোধন

  • দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন হবে দুর্নীতি মুক্ত: তাপস

  • WZPDCL to ensure 100pc electricity in its area by June

  • রাবেয়া-রোকেয়া ভাল আছে: প্রধানমন্ত্রী

  • মুজিববর্ষের লোগো ব্যবহারের বিশেষ নির্দেশনা

  • ফ্লাইট বিলম্বে সর্বোচ্চ ক্ষতিপূরণ ৫ লাখ টাকা

  • পদ্মায় মূল সেতুর ৮৫.৫ ভাগ কাজ সম্পন্ন