বৃহস্পতিবার   ২২ অক্টোবর ২০২০

সর্বশেষ:
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন আগামী মার্চে ঢাকা উত্তর সিটির ভোটের ইঙ্গিত সিইসির আস্থা ভোটে টিকে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে ইসি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ: নূরুল হুদা বারবার আসতে পারব না, যত খুশি সাজা দিন: খালেদা জিয়া ‘আকাশবীণার’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী ত্রিভুবনে আবারও বিমান দুর্ঘটনা ট্রেন-বাসের সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ২৫ ভুয়া ছবি দিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে মিয়ানমার: প্রধানমন্ত্রী
৩০

আজারবাইজানের হামলায় আর্মেনিয়ার ১৭ সৈন্য নিহত

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৩ অক্টোবর ২০২০  

যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে নাগোরনো-কারাবাখে আর্মেনিয়া এবং আজারবাইজানের সামরিক বাহিনী হামলা পাল্টা-হামলা অব্যাহত রেখেছে। এতে উভয় পক্ষের সামরিক বাহিনীর বেশ কিছু সদস্য হতাহত হয়েছেন। মঙ্গলবার রুশ সংবাদসংস্থা ইন্টারফ্যাক্স খবরটি নিশ্চিত করেছেন।

নাগোরনো-কারাবাখের জাতিগত আর্মেনীয় কর্মকর্তারা বলেছেন, আড়ারবাইজানের সঙ্গে সংঘর্ষে তাদের আরও ১৭ সৈন্য নিহত হয়েছেন। এ নিয়ে গত ২৭ সেপ্টেম্বর নাগোরনো-কারাবাখে দুই প্রতিবেশির সংঘাত শুরু হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত আর্মেনিয়ার ৫৪২ সৈন্য প্রাণ হারালেন। অন্যদিকে, আজারবাইজানের সামরিক বাহিনীরও বেশ কিছু সদস্য নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে বাকু।

১৯৯০ দশকে দেশ দুটির মাঝে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে ৩০ হাজারের বেশি মানুষের প্রাণহানি ঘটে এবং বাস্ত্যুচুত হন ১০ লাখের বেশি। ১৯৯৪ সালে দুই দেশ অস্ত্রবিরতি চুক্তিতে পৌঁছালেও সময়ে সময়ে সেখানে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। কিন্তু বর্তমানে এই অঞ্চলে যে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে তা একেবারেই ভয়াবহ।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মধ্যস্থতায় যুদ্ধবিরতিতে রাজি হলেও দুদিন পার না হতেই আবারও সংঘর্ষে জড়িয়েছে আর্মেনিয়া এবং আজারবাইজানের সামরিক বাহিনী। তবে যুদ্ধবিরতি চুক্তির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে উভয় দেশের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে রাশিয়া।

আর্মেনীয়-আজারি সংঘাতের অবসানে আজারবাইজানের অন্যতম মিত্র তুরস্ককে আরও জোরাল ভূমিকা রাখতে বার বার আহ্বান জানিয়ে আসছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

নাগোরনো-কারাবাখ ঘিরে চলমান সংঘাতে নজর রাখছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। আজারবাইজানের গ্যাস এবং তেল ক্ষেত্রগুলো সংঘাতস্থলের কাছে হওয়ায় আঞ্চলিক দুই পরাশক্তি তুরস্ক এবং রাশিয়ারও মাথা ব্যথার কারণ হয়ে উঠেছে নাগোরনো-কারাবাখের লড়াই।

নিজেদের প্রভাব কাজে লাগিয়ে আঞ্চলিক এই সংঘাতের অবসানে মস্কো এবং তুরস্কের প্রতিও চাপ বাড়ছে। দুই সপ্তাহের লড়াইয়ে নিহতদের দেহ সরিয়ে নিতে এবং বন্দি বিনিময়ের লক্ষ্যে যুদ্ধবিরতিতে পৌঁছেছে আর্মেনিয়া এবং আজারবাইজান। কিন্তু সংঘাত অব্যাহত থাকায় সেই লক্ষ্য এখনও বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়নি।

নাগোরনো-কারাবাখ একটি বিবাদপূর্ণ ছিটমহল। যেখানে আর্মেনীয় খিস্টান সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগোষ্ঠীর বসবাস। সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের পর মুসলিম অধ্যুষিত আজারবাইজান থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় নাগোরনো-কারাবাখ। আর এতে সমর্থন জানিয়ে আজারবাইজানের বৃহৎ ভূখণ্ড দখলে নিয়ে ছিটমহলটির সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করে আর্মেনিয়া।

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
  • রেমিটেন্স: গত অর্থবছরের ৪৪% এসেছে সাড়ে ৩ মাসেই

  • নারীদের দক্ষতা বাড়ানোর পরামর্শ

  • রাজশাহীতে চালু হচ্ছে নৌবন্দর

  • জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতালে শয্যা বাড়ছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • পেঁয়াজে ভারতনির্ভরতা কমাতে চায় বাংলাদেশ

  • সরকারি হস্তক্ষেপে কমেছে আলুর দাম

  • দুর্ঘটনা রোধে চালকদের ‘ডোপ’ টেস্ট করাতে বললেন প্রধানমন্ত্রী

  • ভাসানচরে প্রস্তুত জাতিসংঘ ভবন, থাকবে পূর্ণাঙ্গ থানা ও ফাঁড়ি

  • বাক্কোর উদ্যোগে ‘বাক্কো অনলাইন প্রফেশনাল ফোরাম’ চালু

  • নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতে সবকিছু করে যাচ্ছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী

  • এসডিজি অর্জনে কৃষির কোনও বিকল্প নেই: কৃষিমন্ত্রী

  • করোনায় নারী উদ্যোক্তারা অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন: স্পিকার

  • পদ্মায় অবৈধভাবে ইলিশ শিকার, ৬২ জেলেকে কারদণ্ড

  • দুর্গাপূজা শুরু, আজ মহাষষ্ঠী

  • কলকাতা ছাড়া পূজা ভাবতেই পারি না : জয়া

  • ইরান-রাশিয়ার কাছে মার্কিন ভোটারদের তথ্য আছে : এফবিআই

  • ডিসেম্বরে আন্তঃদেশীয় রেল যোগাযোগ উদ্বোধন : রেলমন্ত্রী

  • স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুর্গোৎসব পালনের আহ্বান রাষ্ট্রপতির

  • অনন্য এক মহানায়ক

  • প্রথম শ্রেণিতে নিয়োগ পাচ্ছেন ৫৪১ জন নন-ক্যাডার

  • বাংলার অমৃত সূর্যোদয়ের প্রবল সম্ভাবনার প্রতীক শেখ রাসেল

  • বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড পেলো ৮৭ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান

  • জামালপুরে যুক্তরাষ্ট্র শাখা যুবলীগের উদ্যোগে ত্রাণ পেল ৬০৬ পরিবার

  • স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে বিদেশে আখাউড়ার মাছ

  • ‘সমুদ্র অর্থনীতিকে কাজে লাগাতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে’

  • ধর্ষণের ঘটনায় সালিশ বৈঠক কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট

  • আলুর বাজার মনিটরিং জোরদার করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

  • সব শিক্ষার্থীই পরবর্তী ক্লাসে উঠবে: শিক্ষামন্ত্রী

  • ‘নভেম্বরের মধ্যেই বিজেএমসির সব শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ করা হবে’

  • স্বাস্থ্যবিধি মেনে পূজা উদযাপনের আহ্বান আইনমন্ত্রীর

  • বাংলাদেশ থেকেই টেলিস্কোপে মহাকাশ পর্যবেক্ষণ

  • দেশের প্রথম হাইড্রোলিক এলিভেটর ড্যাম আনোয়ারায়

  • বিমানবাহিনীর আধুনিকায়ন: চীন থেকে আনা হলো ৭ প্রশিক্ষণ বিমান

  • বাড়ছে বিক্রি, ঘুরে দাঁড়াচ্ছে সিমেন্ট শিল্প

  • মুক্তিযোদ্ধা ভাতা বাড়িয়ে ২০ হাজার করার প্রস্তাব

  • দেশে মাটি ছাড়াই চাষ হচ্ছে বিদেশি সবজি

  • বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তালিকায় দেশের তৈরি করোনা ভ্যাকসিন

  • মাটির নিচ দিয়ে তার নেওয়া শুরু হবে সোমবার: তাপস

  • পদ্মায় বসলো ৩৩তম স্প্যান, দৃশ্যমান ৫ কিলোমিটার 

  • আগামী বছর থেকে গাড়ি তৈরি করবে বাংলাদেশ

  • জিডিপিতে ১.২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি আনবে পদ্মা সেতু: চীন

  • সামুদ্রিক মাছ ‘বাংলাদেশিয়াস’ বৈশ্বিক তালিকায় অন্তর্ভুক্ত

  • ফ্লাইট নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে ইতালি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • হার্ডওয়্যার-সফটওয়্যার-প্রযুক্তি পণ্য রফতানি বাড়ছে

  • বাংলাদেশকে দিল্লির চোখে দেখে না যুক্তরাষ্ট্র: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • নিউইয়র্কের সর্বোচ্চ সম্মাননা পেলেন বিশ্বের সবচেয়ে খুদে বিজ্ঞানী

  • খাদ্যশস্য উৎপাদনে বিশ্বে উদাহরণ বাংলাদেশ

  • এবারের ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজ পাচ্ছেন ডা. সালমা সুলতানা

  • বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ভারত-পাকিস্তানকে পেছনে ফেলল বাংলাদেশ

  • ফটোগ্রাফার হিমেলের ছবি জিতল আন্তর্জাতিক খেতাব

  • রাজধানীতে ৩ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা

  • টাঙ্গাইলে গণধর্ষণ মামলায় ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড

  • ‘মাধ্যমিকে বার্ষিক পরীক্ষা ছাড়াই ওপরের ক্লাসে উন্নীত করা হবে’

  • পার্বত্য চট্টগ্রামের ২৮টি পাড়াকেন্দ্র ডিজিটাল হচ্ছে

  • দেশের সবচেয়ে বড় সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্রে উৎপাদন শিগগিরই

  • ২২ দিন ইলিশ ধরা বন্ধ, ১১ হাজার ৪৩৮ জেলে পরিবার পাবে ভিজিএফের চাল 

  • বাধা কাটিয়ে এগিয়ে চলছে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে

  • শিশুদের বন্ধু বঙ্গবন্ধু

  • টিসিবি ২৫ টাকায় আলু বিক্রি শুরু করবে বুধবার

  • পুঁজিবাজারে লেনদেনে আজো বেড়েছে সূচক